গণস্বাস্থ্যের কিটে ডা. জাফরুল্লাহ করোনা পজিটিভ

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:৩৩, মে ২৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:৩৪, মে ২৫, ২০২০

জাফরুল্লাহ চৌধুরীগণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের অন্যতম ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর করোনা পরীক্ষার ফলাফল পজিটিভ এসেছে। সোমবার (২৫ মে) রাত সাড়ে আটটার দিকে বাংলা ট্রিবিউনকে তিনি নিজেই এ তথ্য জানান। জাফরুল্লাহ চৌধুরী জানান, গতকাল রবিবার (২৪ মে) সন্ধ্যায় তার শরীরের তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেলে তিনি পরীক্ষা করান। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্ভাবিত কিটেই তার পরীক্ষা করানো হয় বলে জানান তিনি। যার ফলাফল পজিটিভ এসেছে।

প্রসঙ্গত, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের কিটের ‘ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল’ শুরু হওয়ার কথা ছিল মঙ্গলবার (২৬ মে) থেকে। তবে ঔষধ প্রশাসন অধিদফতর আজ এক চিঠিতে পরীক্ষা না করানোর জন্য অনুরোধ জানানোর পর ট্রায়াল কার্যক্রম স্থগিত করে প্রতিষ্ঠানটি। নিজের পরীক্ষার বিষয়ে তিনি বলেন, আমাদের ল্যাবে তো আগেও এ কিটে ইন্টারনালি পরীক্ষা হয়েছে। আমার পরীক্ষাও তার অংশ।

জাফরুল্লাহ চৌধুরী এ প্রসঙ্গে আরও বলেন, ‘রবিবার ইফতারের পর গণস্বাস্থ্যের ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা করার পর রেজাল্ট আসে পজিটিভ। ঘণ্টাখানেকের মধ্যে আমাকে জানিয়ে দেওয়া হলো যে আমি পজিটিভ। আমার বাসায় আমি একাই আক্রান্ত। নিজে থেকে আইসোলেশনে আছি।’
তার নিয়মিত ডায়ালাইসিস করাতে হয় জানিয়ে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘সপ্তাহে একদিন আমাকে ডায়ালাইসিস করাতে হয়। সেক্ষেত্রে বিশেষ ব্যবস্থায় আমি এটা করাবো।’ করোনা পজেটিভ আসার বিষয়ে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন এখন কেবল অ্যান্টিজেন পজিটিভ হয়েছে। দুদিন পর অ্যান্টিবডি পজিটিভ হবে।’

সরকার তো গণস্বাস্থ্যের কিটকে এখনও অনুমোদন দেয়নি সেক্ষেত্রে সরকারি কোনও প্রতিষ্ঠানে আবার পরীক্ষা করাবেন কিনা—এমন প্রশ্নের উত্তরে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমার করোনা পরীক্ষা আমাদের ল্যাবেই হয়েছে। আর সরকার তো আজকে অনুরোধ করেছে কালকে পরীক্ষা না করানোর জন্য। আমাদের ইন্টারনাল টেস্ট আমরা করবো না?’

তিনি বলেন, ‘ইন্টারনাল টেস্ট আমরা অনেক দিন ধরেই করছি।’ নিজেদের উদ্ভাবিত কিটে ‘ইন্টারনালি’ অন্তত কয়েকশ পরীক্ষা গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র করেছে বলে জানান তিনি।

এখন সরকারি কোনও প্রতিষ্ঠানে আপনি করোনা টেস্ট করাবেন কিনা—এমন প্রশ্নে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘কেন করাবো, কোনও দরকার নাই। হাজার-হাজার মানুষ ঘুরে বেড়াচ্ছে পরীক্ষা করাতে না পেরে। আমিও একজন হতাম তাহলে, ঘুইরা বেড়াতাম। এখন যতটা পরিস্থিতি শরীরের, তারচে খারাপ হতো। যে জায়গায় যেতাম, সেখান থেকেই রোগ বাঁধিয়ে আসতাম।’

গণস্বাস্থ্যের কিটে করোনা পজিটিভ আসার পর সোমবার রাত সোয়া নয়টা পর্যন্ত সরকারের পক্ষ থেকে তার সঙ্গে কোনও যোগাযোগ করা হয়নি বলেও জানান ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

/এসটিএস/এমআর/এমওএফ/

লাইভ

টপ