লতিফুর রহমানকে মানুষ কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করবে: মির্জা ফখরুল

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:১৮, জুলাই ০১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:২৯, জুলাই ০১, ২০২০

লতিফুর রহমান ও মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসদ্যপ্রয়াত বিশিষ্ট উদ্যোক্তা লতিফুর রহমানের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘দেশের শীর্ষস্থানীয় দুই দৈনিক পত্রিকা প্রথম আলো ও ডেইলি স্টারের প্রতিষ্ঠাতা মরহুম লতিফুর রহমান বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল ছিলেন। দেশ ও দশের জন্য তাঁর অবদান মানুষ কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করবে। তিনি খুব তাড়াতাড়ি চলে গেলেন।’

বুধবার (১ জুলাই) বিকালে দলের কেন্দ্রীয় দফতর থেকে পাঠানো শোক বিবৃতিতে ট্রান্সকম গ্রুপের চেয়ারম্যান এবং ডেইলি স্টার ও প্রথম আলো পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা লতিফুর রহমানকে দেশের একজন খ্যাতিমান উদ্যোক্তা ও সমাজহিতৈষী ব্যক্তি হিসেবে উল্লেখ করেন মির্জা ফখরুল। তিনি মনে করেন, ‘দেশে শিল্প-কলকারখানা স্থাপনের মাধ্যমে কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে অসামান্য অবদান রেখে গেছেন লতিফুর রহমান। কর্মক্ষেত্রে সততা ও নিষ্ঠার জন্য সর্বমহলে তাঁর সুনাম ছিল। কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ পেয়েছেন বিভিন্ন পুরস্কার।’

দেশের বর্তমান ক্রান্তিলগ্নে লতিফুর রহমানের মতো একজন কর্মোদ্দ্যম, বিনয়ী ও সজ্জন মানুষের মৃত্যুতে পরিবার-পরিজনদের মতো গভীরভাবে মর্মাহত মির্জা ফখরুল। তিনি মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকাহত পরিবারবর্গ, গুণগ্রাহী ও শুভাকাঙ্খীদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।
বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে লতিফুর রহমানের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।
বিশিষ্ট শিল্পপতি লতিফুর রহমান বুধবার (১ জুলাই) বেলা ১২টার দিকে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের বাড়িতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তার বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। বেশ কিছুদিন ধরেই বার্ধক্যজনিত কারণে শারীরিক  বিভিন্ন জটিলতায় ভুগছিলেন তিনি। 
আমৃত্যু ট্রান্সকম গ্রুপের চেয়ারম্যান পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন লতিফুর রহমান। ব্যবসা ক্ষেত্রে নৈতিকতা ও সামাজিক দায়বদ্ধতার স্বীকৃতি হিসেবে ২০১২ সালে বিজনেস ফর পিস অ্যাওয়ার্ড পুরস্কার পান তিনি। 

/এসটিএস/জেএইচ/

লাইভ

টপ