X
রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২
১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
ড. কামালের সঙ্গে বসছে না

জামায়াতের সঙ্গে মতবিনিময় করতে পারে বিএনপি

সালমান তারেক শাকিল
০১ আগস্ট ২০২২, ১৬:৫৬আপডেট : ০১ আগস্ট ২০২২, ১৭:৪৪

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ২০টি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে মতবিনিময় করেছে বিএনপি। এই প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে জোটসঙ্গী জামায়াতে ইসলামীর সঙ্গেও বৈঠক হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন দলটির নীতিনির্ধারকরা। তবে মতবিনিময়ের দিনক্ষণ এখনও নির্ধারণ হয়নি।

গত ২৪ মে মাহমুদুর রহমান মান্নার নাগরিক ঐক্যের সঙ্গে আলোচনার মধ্য দিয়ে সরকারবিরোধী যুগপৎ আন্দোলন গড়ে তোলার লক্ষ্যে মতবিনিময় শুরু করে বিএনপি। পর্যায়ক্রমে রবিবার (৩১ জুলাই) পর্যন্ত ২০টি দলের সঙ্গে আলোচনা সেরেছে দলটি। এরমধ্যে বেশিরভাগ দলই ২০ দলীয় জোট ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরিক।

বিএনপির নীতিনির্ধারকদের সঙ্গে আলাপকালে জানা গেছে, ২০ দলীয় জোটের শরিকদের সঙ্গে আলোচনার প্রেক্ষাপটে জোটসঙ্গী হিসেবে জামায়াতের সঙ্গেও বসতে পারেন বিএনপির নেতারা। এ বিষয়টি দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের তত্ত্বাবধানে রয়েছে। এ বিষয়ে বিএনপি ও জামায়াতের শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা স্পষ্টভাবে কোনও মন্তব্য না করলেও ইতিবাচক ইঙ্গিত দিয়েছেন বাংলা ট্রিবিউনকে।

জানতে চাইলে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সোমবার (১ আগস্ট) দুপুরে এ প্রতিবেদককে বলেন, ‘জামায়াতের সঙ্গে মতবিনিময়ের এখনও তারিখ ঠিক করা হয়নি।’ মতবিনিময় হবে কিনা, এমন প্রশ্নের জবাবে বিএনপি মহাসচিবের মন্তব্য, ‘এটা এখনই বলতে পারছি না।’

বিএনপির একজন স্থায়ী কমিটির সদস্য বলেছেন, জামায়াতের সঙ্গে বৈঠক হতে পারে। 

জামায়াতের কেন্দ্রীয় একজন নেতা বলেন, ‘মতবিনিময়ের দিনক্ষণ ঠিক করা হয়নি। বিএনপির সঙ্গে তো আনঅফিসিয়ালি আলাপ হয় আমাদের, কিন্তু মতবিনিময় নিয়ে স্পষ্ট কিছু বলা যাচ্ছে না।’

এ প্রসঙ্গে জামায়াতের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমির ডা. সৈয়দ আব্দুল্লাহ মুহাম্মদ তাহের বলেন, ‘আমি এ বিষয়ে এখনও কিছু জানি না। তাই মন্তব্য করতে পারছি না।’

বিএনপির দায়িত্বশীল সূত্রগুলো বাংলা ট্রিবিউনকে জানায়, এ বছরের এপ্রিলেই জোটগতভাবে কর্মসূচি দেওয়া হচ্ছে না (জামায়াতকে ‘না’ করে দিয়েছে বিএনপি), এ বিষয়টি বিএনপি মহাসচিবের তরফে জামায়াতকে জানিয়ে দেওয়া হয়। জবাবে জামায়াতও পরিস্থিতির আলোকে সিদ্ধান্ত গ্রহণের বিষয়ে একমত পোষণ করে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির অধিকাংশ সদস্যই (বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্বকে জামায়াত ছাড়ার পরামর্শ স্থায়ী কমিটির অধিকাংশ সদস্যের) জামায়াতকে সঙ্গে রেখে আন্দোলন বা নির্বাচনের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছেন। ইতোমধ্যে কমিটির ভার্চুয়াল বৈঠকে বিষয়টি তাদের বক্তব্যে স্পষ্ট করেছেন। বেশিরভাগ সদস্যদের মাঝে অন্তত চার জন সদস্য মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতাকারী দল হিসেবে জামায়াতকে একেবারেই বিচ্ছিন্ন করে দেওয়ার পক্ষে। যদিও ভোটের হিসাব ও মাঠের আন্দোলনে দলটির শক্তি বিবেচনা করে কোনও কোনও সদস্য ও নেতা জামায়াতকে ঠেলে দেওয়ার বিপক্ষে।

সোমবার বিএনপির একজন প্রভাবশালী দায়িত্বশীল জানান, জামায়াতের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক বৈঠকের বিষয়ে এখনও সিদ্ধান্ত জানা যায়নি। তবে গোপনে দলটির নেতাদের সঙ্গে বৈঠক হতে পারে। তিনি জানান, জামায়াতের প্রতি বিএনপির নেতাদের দুর্বলতা ধীরে ধীরে কমে আসছে। নেতাদের কাছে জামায়াতের উভয় নৌকায় পা দেওয়ার বিষয়টিও স্পষ্ট হচ্ছে। ফলে ধরে রাখার পক্ষের লোক কম হলেও ছেড়ে দেওয়ার বিষয়টি নিয়ে নেতাদের মধ্যে আলোচনা রয়েছে।

প্রভাবশালী এই দায়িত্বশীল মনে করেন, আগামী দিনে দাবি আদায়ের আন্দোলন যেহেতু যুগপৎভাবে হচ্ছে এবং তা ক্ষমতায় যাওয়ার হিসাব-নিকাশের সঙ্গে যুক্ত, সে কারণে জামায়াত ইস্যুটি বোঝাপড়ার মধ্য দিয়ে নিষ্পত্তি হলে রাজনৈতিকভাবে বিএনপির লাভ হবে।

ড. কামালের সঙ্গে বসছে না বিএনপি

বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খান জানিয়েছেন, রবিবার (৩১ জুলাই) পর্যন্ত ২০টি দলের সঙ্গে মতবিনিময় করেছে বিএনপি। সোমবার (১ আগস্ট) মতবিনিময় হবে গণফোরাম (একাংশ) ও মঙ্গলবার (২ আগস্ট) গণ অধিকার পরিষদের সঙ্গে।

গণফোরাম মন্টু-সুব্রত অংশের সঙ্গে সোমবার বিকাল চারটায় রাজধানীর মতিঝিলের ইডেন কমপ্লেক্সে দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে মতবিনিময় হবে। মঙ্গলবার সকাল ১১টায় গণ অধিকার পরিষদের পুরানা পল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বৈঠক করবে বিএনপি। উভয় বৈঠকে বিএনপির মহাসচিব দলের নেতৃত্ব দেবেন।

বিএনপির দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, গণফোরাম একাংশের সঙ্গে বৈঠক করলেও ড. কামাল হোসেন নেতৃত্বাধীন অংশটির সঙ্গে বৈঠক করবে না বিএনপি। সূত্রের ভাষ্য, ‘কামাল হোসেন এখন সবার।’

সূত্র আরও জানায়, চলমান মতবিনিময়ের অংশ হিসেবে ১৪ দলীয় জোট ছেড়ে আসা বাংলাদেশ জাসদ ও ২০ দলীয় জোট ছেড়ে যাওয়া আন্দালিভ রহমান পার্থর নেতৃত্বাধীন বিজেপির সঙ্গে মতবিনিময় নিয়ে আলোচনা চলছে। তবে কবে নাগাদ মতবিনিময় হতে পারে, তা এখনও নির্ধারণ হয়নি।

বিএনপির মিডিয়া সেলের সদস্য শায়রুল কবির খান জানান, ইতোমধ্যে ২০টি দলের সঙ্গে আলোচনা করেছে বিএনপি। গত ২৪ মে মাহমুদুর রহমান মান্নার নেতৃত্বাধীন নাগরিক ঐক্যের সঙ্গে মতবিনিময়ের মধ্য দিয়ে বিএনপির মতবিনিময় শুরু হয়। এরপর ২৭ মে লেবার পার্টির সঙ্গে আলোচনা করেন নেতারা। ৩১ মে গণসংহতি আন্দোলন ও ১ জুন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি, ২ জুন কল্যাণ পার্টি, ৭ জুন বাংলাদেশ মুসলিম লীগের সঙ্গে বৈঠক করেছে বিএনপি। ৮ জুন জোটের শরিক জাতীয় পার্টি (কাজী জাফর), ৯ জুন জাগপা, ১২ জুন ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-ন্যাপ ভাসানীর সঙ্গে বৈঠক করে দলটি। ১৬ জুন অলি আহমদের এলডিপি ও ১৯ জুন জমিয়ত (একাংশ)-এর সঙ্গে বৈঠক করে বিএনপি। ২১ জুলাই রাতে ২০ দলীয় জোটের শরিক সাম্যবাদী দল ও ডেমোক্রেটিক দল, ২৪ জুলাই জেএসডি ও ২৬ জুলাই ইসলামী ঐক্যজোট (একাংশ), ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি ও ইসলামিক পার্টির সঙ্গে মতবিনিময় করেছে বিএনপি।

সর্বশেষ রবিবার (৩১ জুলাই) বিএনপি জোটের শরিক বাংলাদেশ পিপলস লীগ ও জাতীয় দলের সঙ্গে কথা বলেছেন বিএনপির নেতারা। এছাড়া বাংলাদেশ ন্যাপ একাংশের শাওন সাদেকীর সঙ্গে দায়িত্বশীলদের টেলিফোনে কথা হয়েছে বলে জানান শায়রুল কবির খান।

আরও পড়ুন:

পরিবর্তনের প্রতিশ্রুতি বিএনপির, লক্ষ্য যৌথ সরকার ব্যবস্থা

বিএনপি নেতাদের কপালে জামায়াত নেতার চুম্বন

ঐক্য হচ্ছে, জামায়াতও থাকছে!

/এপিএইচ/এমওএফ/
শীতের রূপচর্চায় রাখা চাই যেসব উপাদান
শীতের রূপচর্চায় রাখা চাই যেসব উপাদান
সিআরবিতে হাসপাতাল হবে না: রেলমন্ত্রী
সিআরবিতে হাসপাতাল হবে না: রেলমন্ত্রী
১৩-১৫ সালের নাটকের পুনরাবৃত্তি হচ্ছে: মির্জা ফখরুল
১৩-১৫ সালের নাটকের পুনরাবৃত্তি হচ্ছে: মির্জা ফখরুল
বস্ত্র খাতে বিশেষ অবদানে পুরস্কার পাচ্ছে ১০ সংগঠন ও প্রতিষ্ঠান
বস্ত্র খাতে বিশেষ অবদানে পুরস্কার পাচ্ছে ১০ সংগঠন ও প্রতিষ্ঠান
সর্বাধিক পঠিত
১১ মাসে নাগরিকত্ব ছাড়লেন ৪০১ বাংলাদেশি
১১ মাসে নাগরিকত্ব ছাড়লেন ৪০১ বাংলাদেশি
মেসি-আলভারেজের গোলে কোয়ার্টার ফাইনালে আর্জেন্টিনা
মেসি-আলভারেজের গোলে কোয়ার্টার ফাইনালে আর্জেন্টিনা
‘পুলিশ প্রটোকলে’ বিদায় নিলেন রাঙ্গাবালীর ইউএনও
‘পুলিশ প্রটোকলে’ বিদায় নিলেন রাঙ্গাবালীর ইউএনও
হাসপাতালে কী হয়েছিল মাইশার সঙ্গে?
আঙুলের অপারেশন করতে গিয়ে মৃত্যুহাসপাতালে কী হয়েছিল মাইশার সঙ্গে?
‘ঘটনার পেছনের ঘটনা’ জেনে ফারিণের দুঃখপ্রকাশ
‘ঘটনার পেছনের ঘটনা’ জেনে ফারিণের দুঃখপ্রকাশ