সভ্যভাবে ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়ান, প্রধানমন্ত্রীকে ড. কামাল

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:৪৬, অক্টোবর ১৩, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৫৬, অক্টোবর ১৩, ২০১৯

ড.-কামালঅবিলম্বে অবাধ-নিরপেক্ষ একটি নির্বাচন আয়োজনের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন। তিনি বলেন, ‘আপনি সভ্যভাবে ক্ষমতা থেকে দ্রুত সরে দাঁড়ান। নতুন নির্বাচন দিন।’ রবিবার (১৩ অক্টোবর) বিকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক শোকসভায় তিনি এ আহ্বান জানান।

‘বুয়েটের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার বিচার চাই: জমায়েত ও নাগরিক শোক র‌্যালি’র আগে এই সভার আয়োজন করে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।

ড. কামাল বলেন, ‘আমাদের ক্ষমতা ফিরিয়ে দিতে বলছি না। জনগণকে ফিরিয়ে দিন। এখন যে কুকর্ম হচ্ছে, তা থেকে দেশ মুক্ত হবে। কুশাসন থেকে মানুষ মুক্ত হবে। সুশাসন নিশ্চিত করা হবে। সংবিধান অনুযায়ী দেশ পরিচালিত হবে।’

শেখ হাসিনার উদ্দেশে ড. কামাল বলেন, ‘একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মাধ্যমে তিনি যে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় এসেছেন, তা কে দিয়েছে? ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচন ২৯ তারিখ রাতে হয়েছে।’

শোকসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কঠোর সমালোচনা করে ড. কামাল বলেন, ‘‘আমরা দেখেছি ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচন ২৯ তারিখ রাতে হয়েছে। পরে ৩০ তারিখ সকালেই আপনি বলেছেন, ‘আমি হয়ে গেছি। আরও ৫ বছরের জন্য হয়ে গেছি, আপনাদের ধন্যবাদ দিচ্ছি।’ কাকে ধন্যবাদ দিচ্ছেন? আমরা কেউ সেই প্রতারণার ধন্যবাদ নেবো না। আমরা এই নাটক দেখেছি। আপনি তো নাট্যকার, কোনও নেত্রী নন।’

ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক অভিযোগ করেন, ‘আপনি স্বঘোষিতভাবে ক্ষমতায় আছেন। যারা মিথ্যাচার করে, তাদের ভয়াবহ পরিণতি হয়। এটাই ইতিহাসের শিক্ষা। এই মিথ্যা দিয়ে আর কতদিন ভুল পথে চলবেন? তৃতীয়বার আপনাকে কেউ নির্বাচিত করেনি। এর আগেরবার নির্বাচিত করেছে কিনা, সেই বিতর্ যাচ্ছি না। তৃতীয়বার আমি সাক্ষ্য দেবো—আপনাকে কেউ নির্বাচিত করেনি। ৩০ ডিসেম্বর সকালে আপনি স্বঘোষিত নির্বাচিত হয়েছেন।’

ড. কামাল বলেন, ‘যারা জনগণের মৌলিক অধিকারে বাধা দিচ্ছেন, তারা আইনের চোখে অপরাধী। তাদের নাম-ঠিকানা, বাবার নাম আমাদের লিপিবদ্ধ করে রাখতে হবে। আমরা তালিকা করা শুরু করবো। তারা দেশদ্রোহী, শাস্তি তো হবেই, কঠিন শাস্তি হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘জনগণের হাতে ক্ষমতা আসতে বাধ্য। একবার জনগণ ঐক্যবদ্ধ হলে কেউ ঠেকাতে পারবে না।’

আবরার হত্যাকাণ্ড প্রসঙ্গে ড. কামাল বলেন, ‘এর চেয়ে গুরুতর অপরাধ আর হয় না। এই অপরাধ তারা নিয়মিত করে যাচ্ছে। সময় থাকতে মাথা ঠান্ডা করুন। মনে করবেন না পুলিশকে দিয়ে লাখো শহীদের রক্তের বিনিময়ে মুক্তিযুদ্ধ করে যে অধিকার অর্জন করেছি, তা থেকে বঞ্চিত করতে পারবেন। সময় থাকতে দেশকে আপনার প্রশাসন থেকে মুক্ত করুন।’

প্রসঙ্গত, সরকারবিরোধী জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের এক বছর পূর্ণ হলো রবিবার (১৩ অক্টোবর)। গত বছরের এই দিনে জাতীয় প্রেসক্লাবে বিএনপিসহ ৪ দলের সমন্বয়ে ঐক্যফ্রন্ট গঠিত হয়।

/এএইচআর/এমএনএইচ/এমওএফ/

লাইভ

টপ
X