‘আমার আস্থা ভোটারে আর প্রতিদ্বন্দ্বীর প্রশাসনে’

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৫:১২, মার্চ ০৯, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৩৭, মার্চ ০৯, ২০২০


সাংবাদকিদের সঙ্গে কথা বলছেন শেখ রবিউল আলম রবি ঢাকা-১০ আসনের উপনির্বাচনে বিএনপি প্রার্থী শেখ রবিউল আলম রবি বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগের জনগণের ওপর আস্থা নেই। মানুষ দুর্নীতি-দুঃশাসনে অতিষ্ঠ। জনগণ এই ধরনের স্বৈরাচারীর অবসান চায়। আমার ভোটারদের প্রতি আস্থা রয়েছে। আমার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর আস্থা ক্ষমতাসীন দল, প্রশাসন এবং প্রধানমন্ত্রীর ওপর। তিনি মনে করেন তাদের সুনজর পেলে নির্বাচিত হওয়া সম্ভব। তাদের এমপিরাও সেভাবে সুনজর পেয়ে এমপি নির্বাচিত হয়েছেন।’
সোমবার (৯ মার্চ) রাজধানীর রাইফেল স্কয়ার, স্টার কাবাব, পপুলার হাসপাতাল এলাকায় গণসংযোগের সময় রবি এসব কথা বলেন। এসময় ধানমন্ডি থানা বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি কাবিরুল হায়দার চৌধুরী, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসাইন সৈকত, শ্রমিক দলের সভাপতি আবু কাওছারসহ বিএনপি, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
বরি বলেন, ‘ভোটারদের কেন্দ্রে যেতে ব্যাপক অনীহা। নির্বাচন ব্যবস্থার প্রতি আস্থা নেই। রাষ্ট্র তাদের মালিকানা রয়েছে জনপ্রতিনিধি নির্বাচন করার ক্ষেত্রে। জনপ্রতিনিধিত্ব করতে ভোটারদের ভোট প্রয়োজন। ভোট দিয়ে আমাকে নির্বাচিত করলে আমি যথাযথ ভাবে প্রতিনিধিত্ব করবো। এই এলাকার জনগণ আমাকে সমর্থন জানিয়েছে। তবে তাদের মধ্যে আতঙ্ক রয়েছে ভোট দিতে পারবেন কিনা তা নিয়ে। তাদের আতঙ্ক দূর করার চেষ্টা করছি,সাহস যোগাচ্ছি।’
ধানমন্ডি এলাকার সমস্যা সম্পর্কে তিনি বলেন, ঢাকা-১০ আসন একটি অভিজাত আবাসিক এলাকা। সেটা এখন জরাজীর্ণ বস্তির মতো হতে চলছে। আবাসিক সুবিধা একেবারে নেই বললেই চলে। বাণিজ্যিক এলাকা হয়ে গেছে। এটা ধানমন্ডিবাসীর প্রত্যাশা ছিল না এবং এমন গড়ে ওঠার কথাও না। এটাকে পরিশুদ্ধ করার ব্যবস্থা করতে হবে। মাদক ও স্যুয়ারেজ ব্যবস্থার সমস্যা রয়েছে। জলাবদ্ধতা মারাত্মক সমস্যা। এই এলাকার জনপ্রতিনিধি মেয়র হয়েছে। তিনি অবশ্যই এসবের প্রতি নজর দেবেন। তিনি যেগুলো করতে অক্ষম হবেন আমি রাষ্ট্র ব্যবস্থাপনার মধ্য থেকে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে অধিকার প্রতিষ্ঠায় ভূমিকা রাখবো।’



/এসটিএস/এসটি/

লাইভ

টপ