কমিটির সুপারিশ উপেক্ষা অসংখ্য প্রাণ বলিদানের নামান্তর: রব

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০০:১৫, মে ৩১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:২৭, মে ৩১, ২০২০

আ স ম আবদুর রবকরোনার চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় গঠিত জাতীয় টেকনিক্যাল পরামর্শক কমিটির সুপারিশ উপেক্ষা করে লকডাউন প্রশ্নে সরকারের সিদ্ধান্ত অসংখ্য প্রাণ বলিদানের নামান্তর হবে বলে মনে করেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট ছানোয়ার হোসেন তালুকদার। শনিবার (৩০ মে) সন্ধ্যায় গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তারা এসব কথা বলেন।

দলের দফতর সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মো. আবুল মোবারক স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ কথা জানানো হয়। বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘পৃথিবীর অন্যান্য দেশের অভিজ্ঞতা হলো রোগ সংক্রমণের হার সুনির্দিষ্টভাবে কমার আগে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা চালু করলে রোগের হার বাড়ার আশঙ্কা থাকে। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের জন্য প্রযোজ্য বিধি–বিধানগুলো সঠিক পদ্ধতিতে প্রয়োগ না করে শিথিল করা হলে রোগীর সংখ্যা ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়ে স্বাস্থ্য ব্যবস্থার ওপর প্রচণ্ড চাপ সৃষ্টি করতে পারে।’

‘পরামর্শক কমিটির এই পরামর্শ সম্পূর্ণ অগ্রাহ্য করে সরকার লকডাউন প্রশ্নে যে পদক্ষেপ নিয়েছে তা অসংখ্য প্রাণ বলিদানের নামান্তর’ বলে উল্লেখ করা হয় বিবৃতিতে।

জেএসডি নেতারা বলেন, ‘আমাদের দেশে সরকার গঠিত তদন্ত কমিটি, পরামর্শক কমিটিসহ সব কমিটি সুপারিশ দেওয়ার আগে সরকারের মুখের দিকে চেয়ে থাকে। সম্প্রতি সরকার প্রধানের সঙ্গে জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সভাগুলোতে সরকারি কর্মকর্তাদের সরকারের মনোভাব ও আগ্রহ বুঝে সরকারকে সন্তুষ্ট করার অন্তহীন প্রতিযোগিতায় লিপ্ত থাকার দৃশ্য দেশবাসী প্রত্যক্ষ করেছে। তবে পরামর্শক কমিটি সরকারের ইচ্ছাকে প্রাধান্য না দিয়ে জাতীয় স্বার্থকে প্রাধান্য দিয়ে ঐতিহাসিক দায় পূরণ করেছে। এটা ইতিহাসে একটি মাইলফলক হয়ে থাকবে। এটি অভিনন্দনযোগ্য।’

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘এবারের করোনা মহামারিতে দেশবাসীর জীবন সুরক্ষায় চিকিৎসকদের ভূমিকা রাষ্ট্রীয় রাজনীতিতে এক নতুন দিগন্তের উন্মেষ ঘটিয়েছে।’
জেএসডি নেতাদের দাবি, ‘কোভিড-১৯-এর টেকনিক্যাল পরামর্শক কমিটির সুপারিশ উপেক্ষা করায় রাষ্ট্র পরিচালনার ক্ষেত্রে মারাত্মক সীমাবদ্ধতা প্রকাশ পেয়েছে। চিকিৎসার ক্ষেত্র ছাড়াও জ্ঞান-বিজ্ঞান, প্রযুক্তি এবং অর্থনীতির অন্যান্য ক্ষেত্রেও পেশাজীবীদের ভূমিকা অনিবার্য হয়ে উঠেছে। তাই এখন পেশাজীবীদের অংশগ্রহণমূলক রাষ্ট্রীয় শাসন কাঠামো প্রবর্তন করা জাতীয় কর্তব্যে পরিণত হয়েছে।’ এ বিষয়ে জরুরি উদ্যোগ নেওয়ার আহ্বান জানান জেএসডি নেতারা।

/এসটিএস/টিটি/এমওএফ/

লাইভ

টপ