X
শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
২০ মাঘ ১৪২৯

নেইমারকে ছাড়াও জিততে জানে ব্রাজিল

তানজীম আহমেদ, দোহা (কাতার থেকে)
২৯ নভেম্বর ২০২২, ০১:১৮আপডেট : ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১৭:০৭

মিডিয়া বক্স লাগায়ো গ্যালারিতে হলুদ জার্সিধারিদের আধিপত্য। দুই শিশু সন্তান নিয়ে ম্যাচের অধিকাংশ সময়জুড়ে অন্যদের সঙ্গে হই হুল্লোড় করে গেলো একটি ব্রাজিলিয়ান পরিবার। কিন্তু ম্যাচের শেষ দিকে এসে কী মনে করে চেয়ার ছেড়ে উঠে গেলো তারা। এর অন্যতম কারণ হতে পারে হয়তো দল গোল পাচ্ছিলো না তাই। তবে তখনও যে সব আকর্ষণ শেষ হয়ে যায়নি। নেইমার নেই। রিচার্লিসন-ভিনিসিয়ুসরা কিছুতেই সুইজারল্যান্ডের গোলখরা কাটাতে পারছিলেন না। শেষ পর্যন্ত ত্রাতা হয়ে দলকে বাঁচালেন মিডফিল্ডার ক্যাসিমিরো।

তারই একমাত্র লক্ষ্যভেদে ব্রাজিল টানা দ্বিতীয় জয়ে বিশ্বকাপে নক আউট পর্ব নিশ্চিত করেছে।

কাতারে ৯৭৪টি কন্টেইনার দিয়ে তৈরি স্টেডিয়াম দেন হলুদ জার্সিতে আবৃত। তবে কিছুটা সংশয় তো ছিলই। চোটের কারণে নেইমার নেই। নেই দেনিলোও। তাদের জায়গায় একাদশে কে নামেন তা ছিল দেখার। অনেক আলোচনা থাকলেও রদ্রিগোকে একাদশে রাখেননি তিতে। আর মিলিতাও নিয়েছেন দেনিলোর জায়গা। আগের মতো ৪-৩-৩ ছকে খেলে ব্রাজিল পারছিল না খুব বেশি নিশ্চিত সুযোগ তৈরি করতে। নেইমারের অভাব অনুভূত হচ্ছিল বেশ। 

নেইমার থাকলে অন্তত প্রতিপক্ষের  দৃষ্টি রাখতেন নিজের দিকে একটু বেশি। গোল করার পাশাপাশি করানোর দিকে মনোযোগ থাকতো। তার অনুপস্থিতিতে  বিশেষ করে ফ্রেড ও রিচার্লিসনের রসায়নটা ঠিকমতো জমেনি। তাই দুয়েকটি সুযোগ থেকে ব্যর্থ চেষ্টা  ছাড়া টটেনহ্যামের স্ট্রাইকারকে শুধুই দৌড়ঝাঁপ করতে হয়েছে।

তাই তো বিরতির পর রিচার্লিসন ও রাফিনাকে বদলে দেন কোচ তিতে। জেসুস ও অ্যান্তনি এনে আক্রমণে শক্তি বৃদ্ধি করেন। আক্রমণ থেকে ক্যাসিমিরো দারুণ ভলি শটে লক্ষ্যভেদ করে দলের মান বাঁচান। সুইসরা এই যাত্রায় আর রক্ষণ অটুট রাখতে পারেনি।

এছাড়া ভিনিসিয়ুস দ্বিতীয়ার্ধে সুযোগ পেয়ে নিজের মতো করে চেষ্টা করে গেছেন। একটি শট তো জালে জড়ালেও ভিএআরের কারণে গোল হয়নি। অন্যটি গোলকিপার গোল হতে দেননি। এদিকে গ্রেট রোনালদো স্টেডিয়ামে বসে খেলা দেখছেন। টিভি তে কয়েক বার দেখা গেল তাকে। তারও হয়তো টেনশন কাজ করছিল। তবে ৮৩ মিনিটে ক্যাসিমিরোর গোলই ছিল বড় ভরসা। টানা দুই ম্যাচ জিতে নক আউট পর্বে জায়গা করে নেওয়ায় রোনালদোসহ সমর্থকরা নিশ্চয় বেজায় খুশি।

স্টেডিয়াম ছাড়তে ছাড়তে দুই নারী সমর্থক তো দলের প্রশংসা করে গেছেন। তাদের কথা অনুবাদ করলে দাঁড়ায়, নেইমার ছাড়াও দল জিততে পেরেছে এতেই খুশি। এছাড়া সুইসদের বিপক্ষে বিশ্বকাপে প্রথম জয় তাই আনন্দটা কম নয়।

গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচটিও জেতার লক্ষ্য সামনে রেখে ব্রাজিলের জন্য শুভকামনা জানাতেও ভুল হলো না তাদের। সেলেসাওদের সাফল্যই যে তাদের একমাত্র অনুপ্রেরণা, আনন্দ-উচ্ছাসের অন্যতম শক্তি।

/এফএস/
সর্বশেষ খবর
সড়কে লাশ হলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী
সড়কে লাশ হলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী
ব্রাহ্মণবাড়িয়া সীমান্ত থেকে আহত অবস্থায় এক যুবককে উদ্ধার
ব্রাহ্মণবাড়িয়া সীমান্ত থেকে আহত অবস্থায় এক যুবককে উদ্ধার
রংপুরে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশের মঞ্চ ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ
রংপুরে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশের মঞ্চ ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ
নিজের বিয়েতে নাচতে হবে কিয়ারাকে, এটাই রীতি!
নিজের বিয়েতে নাচতে হবে কিয়ারাকে, এটাই রীতি!
সর্বাধিক পঠিত
যা থাকছে ভূমি অপরাধ প্রতিরোধ ও প্রতিকার আইনে
যা থাকছে ভূমি অপরাধ প্রতিরোধ ও প্রতিকার আইনে
‘বারবার বলেছি আর মারিস না’
‘বারবার বলেছি আর মারিস না’
যুক্তরাষ্ট্রে উড়ছে চীনের গোয়েন্দা বেলুন, প্রস্তুত এফ-২২ যুদ্ধবিমান
যুক্তরাষ্ট্রে উড়ছে চীনের গোয়েন্দা বেলুন, প্রস্তুত এফ-২২ যুদ্ধবিমান
৫০০ ছাত্রীর মধ্যে নিজেকে একা দেখে জ্ঞান হারালো ছাত্র
৫০০ ছাত্রীর মধ্যে নিজেকে একা দেখে জ্ঞান হারালো ছাত্র
৩০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি, ৮ ঘণ্টা পর মিললো লাশ
৩০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি, ৮ ঘণ্টা পর মিললো লাশ