বিপিএলে খাবার খেয়ে সাংবাদিকরা অসুস্থ!

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৮:১৭, ডিসেম্বর ১৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:০৩, ডিসেম্বর ১৪, ২০১৯

সেভেনহিল রেস্টুরেন্টের এই খাবার খেয়েই সাংবাদিকরা অসুস্থ হয়ে পড়েছেনবঙ্গবন্ধু বিপিএলের শুরু থেকে সাংবাদিকদের জন্য দুপুর ও সন্ধ্যার খাবার সরবরাহ করছিল সেভেনহিল রেস্টুরেন্ট। কিন্তু তাদের খাবার খেয়ে ১৭ সাংবাদিক সহ ২৫ জন অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) অবশ্য এরই মধ্যে চুক্তি বাতিল করেছে সোনারগাঁও রোডের রেস্টুরেন্টটির সঙ্গে।

সেভেনহিল রেস্টুরেন্টের সকালে তৈরি করা খাবার মিরপুর স্টেডিয়ামে আসতে আসতেই ঠাণ্ডা হয়ে যেতো। ১১ ডিসেম্বর, অর্থাৎ বিপিএল শুরুর দিন থেকেই খাবারের মান নিয়ে আপত্তি জানাচ্ছিলেন সাংবাদিকরা। অবশেষে টনক নড়েছে বিপিএল কর্তৃপক্ষের, ওই রেস্টুরেন্ট থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে তারা।  

মাছরাঙা টেলিভিশনের সিনিয়র সাংবাদিক জাহিদ চৌধুরী জানিয়েছেন, শুক্রবার দুপুরে এই খাবার খাওয়ার পর অসুস্থ হয়ে যান। বাংলা ট্রিবিউনকে তিনি বলেছেন, ‘কাল রাত থেকে আমার ফুড পয়জনিং। সারা রাত খুব কষ্টে কেটেছে। পাতলা পায়খানা আর বমি হচ্ছে। একবার তো বাথরুমে অজ্ঞানও হয়ে যাই। আজ তাই মাঠে যাওয়ার মতো অবস্থা নেই আমার।’

রাইজিংবিডির সাংবাদিক ইয়াসিন হাসান দুই দিন ধরে অসুস্থ। তিনি জানিয়েছেন, ‘গত পরশু (বৃহস্পতিবার) খাবার খেয়ে বাসায় ফেরার পর ভীষণ অসুস্থ হয়ে পড়ি। ফুড পয়জনিংয়ের কারণে দুই দিন মাঠে যেতে পারিনি।’

দৈনিক প্রথম আলোর ক্রীড়া সম্পাদক তারেক মাহমুদও জানিয়েছেন একই কথা। বিপিএল কাভার করার সময় খাবার খেয়ে দুই দিন পেটের সমস্যা ছিল তার।

এমন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনায় বিসিবি কর্তৃপক্ষ দুঃখিত। শনিবার বোর্ড প্রধান নাজমুল হাসান পাপন সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন, ‘সেভেনহিল রেস্টুরেন্ট থেকে নিয়মিত খাবার আসে। জায়গাটা খারাপ নয়। কোনও কারণে নিশ্চয়ই সমস্যা হয়েছে। ওরা ১২টার সময় খাবার পৌঁছে দিতো। এখন কেউ যদি তিনটা বা চারটার সময় খেতে চায়, তাহলে তো সমস্যা হতেই পারে। রেস্টুরেন্ট অবশ্য পাল্টে দেওয়া হচ্ছে। এখন থেকে ঢাকার ম্যাচগুলোতে ঢাকা ক্লাব খাবার সরবরাহ করবো।’

এর আগে প্রেসবক্সে এসে বিসিবির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস বলেছেন, ‘এর আগে কখনও এমন ঘটনা হয়নি। এবার কেন হলো বুঝতে পারছি না। এটা সত্যি দুঃখজনক ঘটনা। কাল থেকেই স্বাস্থ্যকর খাবার আসবে। আমরা ঢাকা ক্লাব থেকে খাবার নিয়ে আসবো।’

বিসিবির মিডিয়া ম্যানেজার রাবিদ ইমামও অনুতপ্ত, ‘এটা অত্যন্ত দুঃখজনক এবং বিব্রতকর ঘটনা। আমি নিজেও এই খাবার খেতাম। সমস্যা ধরা পড়ার পর দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। খাবার সরবরাহ করা রেস্টুরেন্টটির সঙ্গে আমরা চুক্তি বাতিল করেছি। কাল থেকে পরিবেশন করা খাবারের দিকে বাড়তি নজর দেওয়া হবে।’

সেভেনহিল রেস্টুরেন্টের ম্যানেজার শাহাবুদ্দিন আহমেদ জানিয়েছেন, ‘খাবারের মান নিয়ে বিসিবি আমাদের কাছে অভিযোগ করেছে। আমাদের খাদ্য প্রস্তুতকারক কমিটি এ নিয়ে বৈঠক করবে। কেন এমনটা হলো, তা জানার চেষ্টা করবো আমরা।’

/আরআই/এএআর/

লাইভ

টপ