শ্রীলঙ্কাকে হারিয়েই সেমি, প্রতিজ্ঞা রহমত-রানাদের

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২১:০৯, জানুয়ারি ১৬, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:০৯, জানুয়ারি ১৬, ২০২০

বাংলাদেশ দলের অনুশীলনবঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপে ফিলিস্তিনের বিপক্ষে শুরুটা হয়েছে হার দিয়ে। নিজেদের ভুলে গোল দুটি খেতে হয়েছে বাংলাদেশকে। বল দখলে এগিয়ে থেকেও প্রথম ম্যাচে কোনও পয়েন্ট জোটেনি জামাল-সাদদের।

এই হারের পেছনে নিজেদের ব্যর্থতাকে দায়ী করেছেন কোচ জেমি ডে। তার ছাত্ররাও দায়টা মেনে নিয়েছেন। তবে মেনে নিয়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচে ঘুরে দাঁড়ানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

ফিলিস্তিনের বিপক্ষে ‍দুই অর্ধে দুই গোল হজম করতে হয়েছে। এই পরাজয়ে জাতীয় দলের ডিফেন্ডার রহমত মিয়ার উপলব্ধি, ‘আমরা যদি ভালো কোনও দলের বিপক্ষে ভুল করি, তাহলে তারা সেটির সুযোগ নেবে। আমরা দুটি ভুল করেছি, দুটি ভুল থেকে দুটি গোল খেয়েছি। তারপর অ্যাটাকিং থার্ডে ফিনিশিং ভালো করতে পারিনি। দুই বক্সেই আমাদের সমস্যা ছিল। এটাই ম্যাচের পার্থক্য গড়ে দেয়।’

রক্ষণভাগের দুই অভিজ্ঞ ডিফেন্ডার ইয়াসিন খান ও তপু বর্মণও গোলপোস্ট অক্ষত রাখা যায়নি। রায়হান ও রহমতরা মিলে ফিলিস্তিনের ফরোয়ার্ডদের থামাতে পারেননি। নিজেদের রক্ষণভাগের দায়টা মেনে নিয়ে রহমত বলেছেন, ‘বর্তমানে আমাদের যে ডিফেন্সিভ লাইনআপ আছে, সেটা আগের তুলনায় ভালো। কিন্তু কিছু কিছু সময়ে ভুল হয়ে যায়। যত কম ভুল করব, ততই আমরা উন্নতি করতে পারব। আমাদের ভুলগুলো কমাতে হবে।’

ফিলিস্তিনের বিপক্ষে দল স্নায়ুকাতর ছিল না। তবে দলের মধ্যে বেশ উত্তেজনা কাজ করছিল। রহমত যেমনটা বলছিলেন, ‘আমাদের প্লেয়াররা নার্ভাস ছিল না। জয়ের জন্য মরিয়া ছিল, যেহেতু আমাদের দেশে খেলা। যেভাবেই হোক প্রথম গোল খাওয়ার পর খেলোয়াড়রা ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য আরও উত্তেজিত হয়ে পড়ে। আমরা কিন্তু আক্রমণ করেছি। বল পজেশনেও আমরা এগিয়ে ছিলাম। সেট পিসগুলো পেয়েও কাজে লাগাতে পারিনি।তারা আমাদের পরাস্ত করে গোল করতে পারেনি। আমরা নিজেদের ভুলে গোল খেয়েছি।’

এই ম্যাচের পর অভিজ্ঞ স্ট্রাইকার নাবীব নেওয়াজ জীবনের অভাব অনুভব করেছেন রহমত, ‘জীবন ভাই থাকলে ভালো হতো। তাকে মিস করেছি। তিনি বল ভালো হোল্ড করতে পারেন। গতকাল আমাদের অনেক বল ওদের বক্সে গেছে, যদি জীবন ভাই থাকতেন, তিনি হোল্ড করতে পারলে তার বা অন্য কারও গোল করার সুযোগ হতো।’

আগামী রবিবার গ্রুপে শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। সে ম্যাচে জিততে না পারলে সেমিফাইনাল-স্বপ্ন অধরা থেকে যাবে। গোলকিপার আশরাফুল রানা লঙ্কানদের বিপক্ষে জিততে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ, ‘আমরা সবাই মিলে কথা বলেছি। এই ম্যাচে হারের কথা ভুলে গিয়ে নতুনভাবে শুরু করতে চাই। পরের ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জিতেই নকআউট পর্বে যেতে চাই। আমাদের সব চিন্তা-ভাবনায় এখন শ্রীলঙ্কা ম্যাচ।’

/টিএ/পিকে/

লাইভ

টপ