সবার আগে মাঠের অনুশীলনে মুশফিক!

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৫:৩১, জুলাই ০৭, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৫৯, জুলাই ০৭, ২০২০

 উত্তরার একটি মাঠে অনুশীলন করছেন মুশফিক। করোনার কারণে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড ক্রিকেটারদের মাঠে ফেরানোর ব্যাপারে এখনও সিদ্ধান্তহীন। তাই বলে থেমে নেই মুশফিকুর রহিমের ব্যক্তিগত অনুশীলন। চার মাস ধরে ঘরবন্দি থেকে নিজেকে সচল রেখেছেন ফিটনেস অনুশীলনের মাধ্যমে। তবে মাঠের অনুশীলন খুব মিস করছিলেন। তাই গৃহবন্দিত্ব ছেড়ে মাঠেই নেমে পড়লেন ব্যাট-প্যাড নিয়ে।

অবশ্য এর কারণও আছে। দীর্ঘ এই কয়েকমাস ঘরকে জিম বানিয়ে ফেলা মুশফিক ফিটনেস নিয়ে কাজ করলেও স্কিল অনুশীলন করার সুযোগ পাচ্ছিলেন না। তাই মঙ্গলবার ঘর ছেড়ে সবার আগেই স্কিল অনুশীলনে নেমে পড়েন।
বাড্ডার বেরাইদ এলাকায় ৪০ একর জায়গার ওপর দাঁড়িয়ে ফোর্টিস স্পোর্টস গ্রাউন্ড। দুদিন আগে স্ত্রী ও বাচ্চা নিয়ে মাঠটি ঘুরে এসেছিলেন জাতীয় দলের ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম। মনের মতো মাঠ পেয়ে মঙ্গলবার সেখানেই শুরু করলেন অনুশীলন। শুধু ফিটনেস ট্রেনিংই নয়, ব্যাট-বল দিয়েই অনুশীলন শুরু করে দিয়েছেন জাতীয় দলের এই ক্রিকেটার। এক পায়ে প্যাড পরে বেশ কিছুক্ষণ নকিং করতে দেখা গেছে তাকে। খেলেছেন সব ধরনের শটই।

এ নিয়ে তিন মিনিট ৪০ সেকেন্ডের একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন নিজের ফেসবুক পেজে। সেখানে সবধরনের ফিটনেস ড্রিলও করতে দেখা গেছে। যার শুরুটা করেন রানিং দিয়ে। মাঠের দুই প্রান্তে বেশ কিছুক্ষণ রানিং করে, হালকা ওয়ার্মআপ সেরেছেন। এর পরই নতুন ব্যাট নিয়ে ২২ গজে নামেন। হালকা মানের বোলিংয়ের বিপক্ষে খেলেছেন সব ধরনের শট।

এক পায়ে প্যাড পরে বেশ কিছুক্ষণ নকিং করতে দেখা গেছে মুশফিককে। নিজের ফেসবুক পেজে লম্বা এই ভিডিও আপলোড করে তিনি অবশ্য সৃষ্টিকর্তার নিকট শুকরিয়া আদায় করেছেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ।’ 

ঘণ্টাপ্রতি ৭ হাজার টাকায় যে কেউই ভাড়া নিতে পারেন মাঠটি। মুশফিক আগে থেকেই মাঠটি সম্পর্কে জানতেন। দেশের স্টেডিয়ামগুলিতে যখন অনুশীলনের অনুমতি নেই, তখন ব্যক্তিগত উদ্যোগেই কাজ সারছেন তিনি। মুশফিকের আগ্রহে সাড়া দিয়ে মাঠে আলাদা পিচ বসিয়েছে কর্তৃপক্ষ। আপাতত ম্যাটের উইকেটে চলবে অনুশীলন। ফোর্টিস গ্রুপ শিগগিরই মাঠের একপ্রান্তে পাকাপাকিভাবে উইকেট প্রস্তুত করার কথা জানিয়েছে।
গ্রাউন্ডের ইনচার্জ মোহাম্মদ সম্রাট বলেছেন, ‘ক্রিকেট খেলার ব্যবস্থা এখানে পাকাপাকিভাবে হয়নি। মুশফিকুর রহিমের জন্য এখানে আলাদা ম্যাট বসানো হয়েছে। আমাদের পরিকল্পনা আছে এখানেই উইকেট প্রস্তুত করবো। সেজন্য কাজও শুরু হয়েছে।’ তিনি আরও জানান, ‘ক্রিকেটারদের জন্য এ মাঠ কর্তৃপক্ষ উন্মুক্ত করেছেন। চাইলে যে কেউ যোগাযোগ করে মাঠে অনুশীলন করতে পারবেন।’

মাঠের অনুশীলন যে মুশফিক মিস করছেন, তা বোঝা যাচ্ছিল অনেক আগে থেকেই। গত মাসে বিসিবির কাছে ব্যক্তিগত অনুশীলনের অনুমতি চাইলেও তা পাননি। তাই এক মাস অপেক্ষার পর নিজেই ব্যাটিং অনুশীলনের ব্যবস্থা করেছেন। উত্তরার সেই একাডেমিতে তিনি অনুশীলন করেছেন ঘণ্টাখানেকের মতো। তার আগের দিন মিরপুরে হোম অব ক্রিকেটে গিয়ে সেখানেও কিছুক্ষণ সময় কাটিয়েছেন।

কিছুদিন আগে সতীর্থ তামিম ইকবালের সঙ্গে অনলাইন আড্ডাতেও মুশফিক বলেছিলেন, তার ছোঁয়া না পেয়ে ব্যাটগুলো কান্না করছে! আরও বলেছিলেন, লকডাউনের পর প্রথম দিনেই ১৫ ঘণ্টা পড়ে থাকবেন মাঠে।

/আরআই/এফআইআর/

লাইভ

টপ