বোলিং অ্যাকশন পাল্টেছেন তাইজুল

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৮:৫৫, আগস্ট ১১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:১৪, আগস্ট ১১, ২০২০

বোলিং অনুশীলনে তাইজুল ইসলামটেস্ট ক্রিকেটে ‘অটোমেটিক চয়েজ’ হলেও সীমিত ওভারের ক্রিকেটে খুব একটা সুযোগ পান না তাইজুল ইসলাম। চেষ্টার অবশ্য কোনও কমতি রাখেননি বাঁহাতি এই স্পিনার। এবার তো সব ফরম্যাটে সুযোগ পেতে নিজের বোলিং অ্যাকশনই পাল্টে ফেলেছেন তিনি!

ঈদের পর দ্বিতীয় দফায় ব্যক্তিগত অনুশীলন শুরু হওয়ার দিন থেকেই মাঠে আছেন তাইজুল। গত দুই দিন টানা বোলিং করেছেন মিরপুরের একাডেমিতে। আজও (মঙ্গলবার) প্রায় এক ঘণ্টার মতো বোলিং করেছেন বাঁহাতি এই স্পিনার। তাইজুলের বোলিংয়ের সময় সঙ্গে ছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) অপারেশন ম্যানেজার সাব্বির খান।

তার নির্দেশনায় দারুণ এক বোলিং সেশন পার করেছেন এই বাঁহাতি স্পিনার। তাইজুলের বলের ফ্লাইট, লেন্থ ও টার্ন দেখে বোঝার উপায় নেই পাঁচ মাস পর তিনি বোলিং করতে নেমেছেন। বোলিং অ্যাকশন পরিবর্তন করার পাশাপাশি নির্দিষ্ট একটি ডেলিভারিও রপ্ত করছেন তিনি। উদ্দেশ্য তার পরিষ্কার, সব ফরম্যাটে সাফল্য চাই।

বোলিং অ্যাকশন পাল্টানো প্রসঙ্গে বাংলা ট্রিবিউনকে তাইজুল বলেছেন, ‘সব ফরম্যাট খেলতে চাই বলেই নিজেকে বদলে ফেলার চেষ্টা করছি। বোলিংয়ে কিছু পরিবর্তন এনেছি। অ্যাকশনের পাশাপাশি আমি নির্দিষ্ট একটি ডেলিভারি রপ্ত করার চেষ্টা করছি। আশা করি খুব বেশি সময় লাগবে না। তবে এই মুহূর্তে বিষয়টি গোপনই থাকুক। যখন পুরোপুরি রপ্ত করতে পারবো, তখন জানাবো ডেলিভারিটি কী।’

কারও পরামর্শে নয়, এমনকি স্পিন বোলিং কোচ ড্যানিয়েল ভেট্টরিও অ্যাকশন পরিবর্তনের পরামর্শ দেননি তাইজুলকে। তাহলে কেন এই পরিবর্তন? তাইজুল বললেন, ‘আসলে নিজেই চেষ্টা করছিলাম, বোলিং অ্যাকশন পরিবর্তন এনে কিছু করা যায় কিনা। দেখলাম, বল ভালোই হচ্ছে। এরপর কোচের (ভেট্টরি) সঙ্গে বোলিং অ্যাকশনের ভিডিও নিয়ে আলাপ হয়। উনি ইতিবাচক মন্তব্য করার কারণেই এটি নিয়ে কাজ করছি।’

হুট করে কেন এমন সিদ্ধান্ত সেটিও পরিষ্কার করলেন ২৯ টেস্ট খেলা এই স্পিনার, ‘আমাদের মূলত সব কন্ডিশনেই খেলতে হয়। দেশের কন্ডিশন একরকম থাকলেও বাইরের কন্ডিশন থাকে আলাদা। আমি বোলিং অ্যাকশন পরিবর্তনের কারণে বলে প্রচুর ভেরিয়েশন পাচ্ছি। আর ভেরিয়েশন থাকলে সব কন্ডিশনেই ভালো করা সম্ভব। সবকিছু মিলিয়েই আসলে সিদ্ধান্ত নেওয়া। সত্যি কথা বলতে সব ফরম্যাটে, সব কন্ডিশনে যেন সাফল্য পাই, এই ভাবনাগুলো কাজ করেছে।’

দুই দিন বোলিংয়ের পর তাইজুলের উপলব্দি, ‘লম্বা বিরতির পর কয়েকটা দিন তো সমস্যা হবেই। তারপরও বোলিংটা ভালোই হচ্ছে। বোলিং অ্যাকশন পরিবর্তন করে অনেক ভেরিয়েশেন পাচ্ছি। আমার কাছে তাই অনেক অপশন তৈরি হচ্ছে।’

মিরপুরে ব্যক্তিগত অনুশীলনের মাঝে তাইজুলের ভাবনায় শ্রীলঙ্কা সিরিজ। তিনি মনে করেন, এই মুহূর্তে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট খেলা কঠিন হবে, ‘টানা খেলাহীন থাকার পর টেস্ট খেলা এমনিতেই কঠিন। এর মধ্যে করোনার কারণে নানা রকম সমস্যা তো আছেই। এগুলো মেনে নিয়েই আমাদের নিখুঁতভাবে প্রস্তুতি নিতে হবে। আমাদের জন্য কঠিন হলেও শ্রীলঙ্কার জন্যও সমান কঠিন হবে সিরিজটি।’

/আরআই/কেআর/

লাইভ

টপ