ধোনির চেন্নাইকে উড়িয়ে দিয়ে শীর্ষে ফিরলো মুম্বাই

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ০৩:২৯, অক্টোবর ২৪, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৩:৪১, অক্টোবর ২৪, ২০২০

৩৭ বলে ৬৩ রানের ইনিংস খেলার পথে মুম্বাইয়ের ইশান কিষাণ                          -টুইটার         চারদিন আগে দুবাইতে রাজস্থান রয়্যালসের কাছে বাজেভাবে হারই প্রমাণ করেছিল চেন্নাই সুপার কিংস সাম্রাজ্যের পলেস্তারা খসে পড়ছে। শুক্রবার শারজায় চেন্নাইয়ের ১৩ বছরে গড়া সৌধ ধসিয়ে দিলো মুম্বাই ইন্ডিয়ানস। ধোনির চেন্নাইকে ১০ উইকেটে হারিয়ে নেট রান রেটের ব্যবধানে আবার পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে রোহিত শর্মার দল। আগের ম্যাচে পাওয়া হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে এ ম্যাচে অবশ্য রোহিত খেলেননি, নেতৃত্বে ছিলেন কাইরন পোলার্ড।

নেতৃত্ব বদলালেও পুরোনো হিসেবটা নির্দয়ভাবে বুঝে নিয়েছে মুম্বাই। হিসেবটা খুব পুরোনো নয়। এই তো ১২তম আইপিএল ফাইনালের পুনরাবৃত্তিমূলক প্রতিদ্বন্দ্বিতা ছিল ১৩তম আইপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচে, তাতে চ্যাম্পিয়ন মুম্বাইকে হারিয়ে দেয় রানার্সআপ চেন্নাই। ধন্য ধন্য পড়ে যায় ধোনির নেতৃত্ব ও তার দলের। কিন্তু তারপরই উল্টো পথের যাত্রী চেন্নাই। হারতে হারতে সবার নিচে তিনটি মাত্র জয়ে পাওয়া ধোনির দল। আর এ ম্যাচে তাদের এমনই হারালো যে, ধোনি বলতে বাধ্য হলেন, ‘এমন হারে বড় যন্ত্রণা হয়।’ যন্ত্রণা হওয়ারই কথা, এর আগে যতগুলো আইপিএল খেলেছে চেন্নাই সবগুলোর  প্লে-অফে উঠেছে। এবার প্লে-অফ তো গেছেই। একেক করে লজ্জার হারের রেকর্ড গড়ছে। সর্বশেষ, প্রথমবারের মতো ১০ উইকেটে পরাজয়। ১১ ম্যাচে অষ্টম পরাজয়ে ৬ পয়েন্ট তলানিতে থাকা চেন্নাইয়ের।

টস হেরে প্রথমে ব্যাটিং করা চেন্নাইয়ের পক্ষে ১১৪ রান করতে পারাটাই বিস্ময়কর ‘অর্জন’। কেননা তারা ২১ রানেই হারিয়ে ফেলেছিল ৫ উইকেট, ৩০ রানে ৬ উইকেট। নবম উইকেটে স্যাম কারেন ও ইমরান তাহির শেষ পাঁচ ওভারে ৪৩ রান তুলে ১১৪ রানে নিয়ে যান চেন্নাইকে। বোল্টের বলে বোল্ড হওয়ার আগে ৪৭ বলে ৫২ করেন স্যাম কারেন। বোলিং ভালো হলে এই পুঁজি নিয়েও একটু লড়াই করা যেতো। কিন্তু ব্যাটিংয়ের মতো বোলিংয়েও নখদন্তহীন চেন্নাই, একটি উইকেটও নিতে পারেনি। ১২.২ ওভারেই এই রান তুলে নেয় কুইন্টন ডি কক ও ইশান কিষাণের ওপেনিং জুটি। পাঁচ চার ও ২ ছক্কায় ৩৭ বলে অপরাজিত ৪৬ রান করেছেন ডি কক। চেন্নাইয়ের বোলারদের কচুকাটা করে কিষাণ ৩৭ বলে ৬ চার ও ৫ ছক্কায় ৬৮ করে অপরাজিত থাকেন। ম্যান অব দ্য ম্যাচ অবশ্য ট্রেন্ট বোল্ট। প্রথমবারের মতো আইপিএলে চার উইকেট নিতে কিউই পেসার চার ওভারে মাত্র ১৮ রান দিয়েছেন। এ ছাড়া যশপ্রীত বুমরা ও রাহুল চাহার ২টি করে উইকেট নিয়েছেন, বাকি উইকেটটি নিয়েছেন নাথান কুল্টার-নাইল।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

চেন্নাই: ২০ ওভারে ১১৪/৯ (কারেন ৫২, ধোনি ১৬, তাহির ১৩*, বোল্ট ৪/১৮, চাহার ২/২২, বুমরা ২/২৫) ও মুম্বাই: ১২.২ ওভারে ১১৬/০ (কিষাণ ৬৮*, ডি কক ৪৬*)

/পিকে/

লাইভ

টপ