কানসৈকত থেকে ভেসে আসা শেষ ঘোষণা

Send
বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত : ২০:৩৭, মে ১০, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:৪৬, মে ১১, ২০১৯

‘র‌্যাম্বো ফাইভ-লাস্ট ব্লাড’ ছবিতে সিলভেস্টার স্ট্যালোনকান চলচ্চিত্র উৎসব শুরুর আগের কয়েকদিন আয়োজকরা বেশ কয়েকটি ই-মেইল করে। সেগুলোতে থাকে নতুন নতুন খবর।
৭২তম আসরের অফিসিয়াল সিলেকশন নিয়ে শেষ ঘোষণায় তারা জানালেন, কানসৈকতে আসছেন সিলভেস্টার স্ট্যালোন। ‘র‌্যাম্বো ফাইভ-লাস্ট ব্লাড’ ছবির প্রচারণায় হাজির হবেন তিনি। এতে আবারও জন র‌্যাম্বো চরিত্রে বড় পর্দায় দেখা যাবে তাকে। এর শুটিং হয়েছে কয়েক মাস আগে।
চলচ্চিত্র দুনিয়ার বিখ্যাত চরিত্রগুলোর মধ্যে জন র‌্যাম্বো অন্যতম। বিশ্বের কোটি কোটি দর্শককে সিনেমা হলে নিয়ে আসার পাশাপাশি লেখকদের অনুপ্রেরণা জুগিয়েছে সে। তার স্রষ্টা আমেরিকান-কানাডিয়ান ঔপন্যাসিক ডেভিড মোরেল।
অ্যাড্রিয়ান গ্রানবার্গ পরিচালিত ‘র‌্যাম্বো ফাইভ-লাস্ট ব্লাড’ নিয়ে  ভক্তদের ব্যাপক কৌতূহল। কারণ এর মাধ্যমে স্ট্যালোনের র‌্যাম্বো অধ্যায় শেষ হচ্ছে। মিলেনিয়াম ফিল্মসের প্রযোজনায় এতে আরও অভিনয় করেছেন পাজ ভেগা ও অস্কার জায়েনাডা।
সিলভেস্টার স্ট্যালোন অভিনীত ‘র‌্যাম্বো-ফার্স্ট ব্লাড’ মুক্তি পায় ১৯৮২ সালে। এটি পরিচালনা করেন কানাডিয়ান নির্মাতা টেড কোচেফ। কানের এবারের আসরে গ্র্যান্ড থিয়েটার লুমিয়েরে থাকছে এর পুনরুদ্ধার করা প্রিন্টের ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার। মূল ক্যামেরার নেগেটিভ থেকে ‘র‌্যাম্বো’র প্রথম তিনটি পর্ব পুনরুদ্ধার করা হয়েছে।
আগামী ২৪ মে রাত সাড়ে ১০টায় (বাংলাদেশ সময় রাত আড়াইটা) পালে দে ফেস্তিভালে ‘র‌্যাম্বো-ফার্স্ট ব্লাড’-এর স্পেশাল স্ক্রিনিং হবে। প্রদর্শনী শুরুর আগে মঞ্চে উপস্থিত হয়ে ‘র‌্যাম্বো’র পঞ্চম কিস্তির বিশেষ কিছু স্থিরচিত্র দেখাবেন স্ট্যালোন। ছবিটি যুক্তরাষ্ট্রে মুক্তি পাবে এ বছরের ২০ সেপ্টেম্বর।
অলিভিয়ে নাকাশ ও এরিক তোলেদানো (বামে), ‘দ্য স্পেশালস’ ছবির পোস্টার (ডানে)লাস্ট স্ক্রিনিং
কান উৎসবের সমাপনী সন্ধ্যায় প্রদর্শনের জন্য বেছে নেওয়া হয় বিশেষ ছবি। সেই ধারাবাহিকতায় এবারের আসরের অফিসিয়াল সিলেকশনে থাকছে অলিভিয়ে নাকাশ ও এরিক তোলেদানো পরিচালিত ‘দ্য স্পেশালস’। সমাপনী চলচ্চিত্র নয়, ‘লাস্ট স্ক্রিনিং’ হিসেবে আগামী ২৫ মে গ্র্যান্ড থিয়েটার লুমিয়েরে সমাপনী অনুষ্ঠানের পর দেখানো হবে এটি।
সোশ্যাল-কমেডি ধাঁচের ‘দ্য স্পেশালস’ ছবিতে অভিনয় করেছেন ভানসেন্ত ক্যাসেল ও রেদা কাতেব। তাদের দেখা যাবে ব্রুনো ও মালিক চরিত্রে। কুড়ি বছর ধরে অটিস্টিক শিশু-কিশোরদের সঙ্গে অন্য এক জগতে থাকে তারা। দুটি অলাভজনক সংগঠনের পক্ষে সুবিধাবঞ্চিত এলাকায় প্রশিক্ষণ দেয় ব্রুনো ও মালিক। এছাড়া আছেন অপেশাদার অভিনয়শিল্পী ও অটিস্টিক কিশোর-কিশোরীরা। ছবিটিতে মানবিকতা, দলবদ্ধ জীবনযাপন ও হিউমারকে মানবিক সম্পর্কের চূড়ান্ত উপকরণ হিসেবে তুলে ধরেছেন দুই পরিচালক।
কান উৎসবের পরিচালক থিয়েরি ফ্রেমো জানান, ‘দ্য স্পেশালস’ শেষ মুহূর্তে নির্বাচক কমিটির কাছে জমা পড়ে। তারা এটি দেখে মুগ্ধ হয়ে লাস্ট স্ক্রিনিংয়ের জন্য বেছে নিয়েছেন। অলিভিয়ে নাকাশ ও এরিক তোলেদানো ২০১১ সালে ‘দ্য ইনটাচেবলস’ ছবির মাধ্যমে সারা দুনিয়ায় সাড়া ফেলে দেন।
গত বছর থেকে কান উৎসব রবিবারের পরিবর্তে শনিবার শেষ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কারণ পার্টি ও উদযাপনের রঙ বড় পরিসরে চান আয়োজকরা। ১১ দিন আগে অফিসিয়াল সিলেকশনের ছবির প্রদর্শনী শুরুর একটি সুন্দর সমাপ্তি টানার কথা ভেবেছেন আয়োজকরা। এজন্যই সমাপনী ছবি বিভাগটির নাম বদলে রাখা হয়েছে ‘লাস্ট স্ক্রিনিং’। কানের ইতিহাসে শেষ ছবি হিসেবে দেখানো হয়েছে স্টিভেন স্পিলবার্গের ‘ই.টি. দ্য এক্সট্রা-টেরেস্ট্রিয়াল’ (১৯৮২), রিডলি স্কটের ‘থেলমা অ্যান্ড লুইস’ (১৯৯১) এবং টেরি গিলিয়ামের ‘দ্য ম্যান হু কিল্ড ডন কিহোটে’ (২০১৮)।
আগামী ১৪ মে শুরু হবে কান উৎসব। আমেরিকান নির্মাতা জিম জারমাশের ‘দ্য ডেড ডোন্ট ডাই’ ছবির প্রদর্শনীর মধ্য দিয়ে এর পর্দা উঠবে। এবারের প্রতিযোগিতা বিভাগের প্রধান বিচারক আলেহান্দ্রো গঞ্জালেক ইনারিতু। আগামী ২৫ মে তার নেতৃত্বে ঘোষণা করা হবে স্বর্ণ পাম জয়ী ছবির নাম।
রীতি পানক্যামেরা দ’র জুরি
কান উৎসবে অফিসিয়াল সিলেকশনের বিভাগগুলো, ডিরেক্টরস ফোর্টনাইট ও সুমে দ্যু লা ক্রিতিকে এবার ২২ জন নির্মাতার প্রথম ছবি দেখানো হবে। তাদের মধ্যে একজন পাবেন সেরা নবীন পরিচালকের পুরস্কার ক্যামেরা দ’র। এতে বিচারকদের প্রধান থাকছেন কম্বোডিয়ার রীতি পান। ১৯৯৪ সালে তার প্রথম ছবি ‘দ্য রাইস পিপল’ ছিল প্রতিযোগিতা বিভাগে। ওইবার সোনার ক্যামেরা জেতেন তিনি। কানের আউট অব কম্পিটিশনে ২০০৩ সালে তার পরিচালিত ‘এস টোয়েন্টি ওয়ান দ্য খেমার রুজ কিলিং মেশিন’ ও ২০০৫ সালে ‘দ বার্নট থিয়েটার’ দেখানো হয়। ২০১৩ সালে আঁ সার্তে রিগার বিভাগে জয়ী হয় রীতি পানের ‘দ্য মিসিং পিকচার’। অস্কারের বিদেশি ভাষার ছবির বিভাগে কম্বোডিয়ার প্রথম ছবি হিসেবে অংশ নেয় এটি।
ক্যামেরা দ’র বিভাগে রীতি পানের নেতৃত্বে বিচারক হিসেবে কাজ করবেন ফরাসি কৃষ্ণাঙ্গ নারী পরিচালক অ্যালিস দিওপ, ফরাসি নারী পরিচালক সন্দ্রিন মার্ক, চিত্রগ্রাহক বেনো দ্যুলাম, পলিসনের প্রেসিডেন্ট ডিরেক্টর নিকোলা নেজেল। আগামী ২৫ মে সমাপনী অনুষ্ঠানে সোনার ক্যামেরা বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হবে। গতবার এটি জিতেছিলেন আঁ সার্তে রিগারে নির্বাচিত ‘গার্ল’ ছবির পরিচালক লুকাস দোন্ত।
রেডিও ফেস্টিভ্যাল
কানে উৎসবে তৃতীয়বারের মতো থাকছে রেডিও ফেস্টিভ্যাল। এটি হলো অফিসিয়াল অনলাইন রেডিও সম্প্রচার কার্যক্রম। আগামী ১৪ থেকে ২৫ মে পালে দে ফেস্তিভাল ভবনের মেডিটারেনিয়ান হলে অবস্থিত এই স্টেশনে প্রচার হবে কানসৈকতের আড্ডা, সাক্ষাৎকার, বিনোদন ও লাইভ পারফর্ম্যান্স। কানে নির্বাচিত পুরনো ও দুর্লভ ছবির গান বাজানো হয় রেডিও ফেস্টিভ্যালে। উৎসবের ওয়েবসাইট ও মোবাইল অ্যাপের পাশাপাশি স্পটিফাই, আইটিউন্স, ডিজারসহ বিভিন্ন পোডকাস্টে এগুলো শোনা যাবে।
গত বছর কান লালগালিচায় ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনবলিউড সুন্দরীদের শিডিউল
প্রতি বছরের মতো বলিউড তারকারা কান উৎসবকে ঘিরে প্রস্তুতি শুরু করেছেন। তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন, সোনম কে আহুজা, দীপিকা পাড়ুকোন, ক্যাটরিনা কাইফ ও হুমা কুরেশি। এবারও তারা লালগালিচায় পা মাড়াবেন। দক্ষিণ ফরাসি উপকূলের শহরে কে কোনদিন হাঁটবেন সেই সূচি চূড়ান্ত হয়েছে।
আগামী ১৬ মে রূপের পসরা নিয়ে হাজির হবেন দীপিকা। কানের লালগালিচায় সোনম দ্যুতি ছড়াবেন ২০ ও ২১ মে। আগামী ১৯ মে’র পর কানে দেখা দেবেন অ্যাশ। ১৯ ও ২০ মে কানসৈকতে পায়চারি করবেন হুমা।

/জেএইচ/এমএম/

লাইভ

টপ