মৃত্যুর খবরেও হাসনাহেনা হাসে!

Send
বিনোদন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৭:১৫, জুন ২৩, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:১৯, জুন ২৩, ২০১৯

শুটিংয়ে আশনা হাবিব ভাবনাহাসলে মন ভালো থাকে, সঙ্গে পাশের মানুষও। স্বাস্থ্যবিজ্ঞান বলে, হাসি নাকি শরীরের জন্য বেশ উপকারী। আবার প্রচলিত রয়েছে, যে যত বেশি হাসে সেই মানুষটি ততটাই মানসিকভাবে স্বচ্ছ থাকে।
কিন্তু অভিনেত্রী ভাবনার বেলায় এর পুরোটাই উল্টো ঘটলো। তার ঠোঁটেও সারাক্ষণ হাসি লেগে থাকে। অথচ সবাই তাকে বলে, এটা নাকি তার অসুখ! পাড়া-প্রতিবেশী তো বটেই, স্বয়ং তার হাজবেন্ডও একই কথা বলে।
এমনই এক চরিত্রের ভেতর দু’দিন ধরে ডুবে আছেন অভিনেত্রী আশনা হাবিব ভাবনা। তাকে ঘিরে নির্মিত হচ্ছে বিশেষ নাটক ‘হাসনাহেনার হাসতে মানা’।
নারীকেন্দ্রিক এই নাটকের চিত্রনাট্য আর নির্মাণেও রয়েছেন দুজন নারী। এর চিত্রনাট্য লিখেছেন মাতিয়া বানু শুকু আর নির্মাণ করছেন রোকেয়া প্রাচী।
ঢাকার অদূরে উলুখোলা গ্রামে এর শুটিং চলছে ২২ জুন থেকে, চলছে আজও (২৩ জুন)।
ভাবনা বাংলা ট্রিবিউনকে নাটকটির গল্প-ছায়া তুলে ধরলেন এভাবে, হাসনাহেনা খুব ছোটবেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় তার মাকে হারায়। সে-ও ৬ দিন কোমায় থেকে জীবন ফিরে পায়। মূলত এরপর থেকেই তার মুখে সবসময় হাসি লেগে থাকে। এভাবে বড় হয়। এরপর পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। শ্বশুরবাড়ি গিয়েও সেই হাসি লেগে থাকে। প্রথমে এই মিষ্টি হাসিতে সবাই খুশি হলেও পরে সেটি অন্ধকারে মোড় নেয়। কারণ, আত্মীয়ের মৃত্যুর খবর শুনেও হাসনাহেনা হাসে!
সেই সূত্রে, হাসনার হাসিময় জীবনে নেমে আসে কালো মেঘ। বলা হয় ভূতে ধরেছে তাকে। কেউ বলে, এটা হাসি-অসুখ!
শুটিংয়ের ফাঁকে এক ফ্রেমে নাট্যকার, নির্মাতা ও অভিনেত্রীভাবনা বলেন, ‘অসাধারণ একটি প্লট। নিজের অভিনয় প্রতিভা প্রকাশের জন্য এমন ভালো সুযোগ খুব কম শিল্পীই পায়। সে হিসেবে আমি ভাগ্যবান। কাজটি দেখে মুগ্ধ হবেন নিশ্চয়ই। কারণ, হাসনাহেনা যে কাঁদতেও জানে, সেই গল্পটাও রয়েছে এখানে।’
এতে ভাবনার বিপরীতে আছেন রমিজ রাজু। আর নাটকটি প্রচার হবে আসছে ঈদ উৎসবে একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে।

/এমএম/এমওএফ/

লাইভ

টপ