নির্বাচনে জিতেই বিরোধীদের একহাত নিলেন অমিত শাহ

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ০৭:০৯, মে ২৫, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০৮:২২, মে ২৫, ২০১৯

লোকসভা নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয় পাওয়ার পর ভারতের বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোকে একহাত নিয়েছেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ। শুক্রবার দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দেওয়া বিজয় ভাষণে বিরোধীদের ওপর চড়াও হন তিনি। কংগ্রেস, তৃণমূল কংগ্রেস থেকে শুরু করে অন্ধ্র প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী ও তেলেগু দেশম পার্টির নেতা চন্দ্রবাবু নাইডুর-ও কঠোর সমালোচনা করেন বিজেপি সভাপতি। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

অমিত শাহ বলেন, বাংলায় এত অত্যাচার হয়েছে, তবু আমরা ১৮ আসন পেয়েছি। এ থেকে বোঝা যায়, বাংলার সব জায়গায় বিজেপি নিজের শক্তি বাড়াবে। চারটি বিধানসভার উপনির্বাচনেও বিজেপি জিতেছে। এই রায় প্রমাণ করে, বাংলার মানুষ বিজেপিকে চায়। মোদি-র হাত ধরে ঐতিহাসিক জয় এসেছে। এটা দেশের মানুষের জয়। ৫০ বছরের মাথায় পর টানা দুইবার একজন মানুষ একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়ে ক্ষমতায় আসছেন। দেশের ১৭টি রাজ্যে ৫০ শতাংশের বেশি ভোট এসেছে। কংগ্রেস এবং অন্য  দল তোষণের রাজনীতি করে। মোদীজির জনপ্রিয়তা সেই রাজনীতি শেষ করে দিয়েছে। পরিবারতন্ত্রের ভিত্তিতে চলা দলের গুরুত্ব থাকবে না। চন্দ্রবাবু নাইডুকে বলছি, জোট করার জন্য না খেটে ভোট পাওয়ার জন্য পরিশ্রম করলে আপনি কিছু আসন জিততেন।

বিজেপি সভাপতি বলেন, দেশের ১৭ টি রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে কংগ্রেস শূন্য পেয়েছে। কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর দিকে ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, ‘উত্তর প্রদেশের ফল থেকে স্পষ্ট, পরিবারতান্ত্রিক রাজনীতির দিন শেষ হয়ে এসেছে।’

অমিত শাহ বলেন, দিন দুয়েক আগে বুথফেরত জরিপের ফল এসেছিল। তখন সেটা বিরোধীদের কেউ মানতে চায়নি। ওরা ধরে নিয়েছিল ওরাই জিতবে। তাই এ ওর সঙ্গে, সে তার  সঙ্গে  দেখা করছিল। আমি বলতে চাই এ ধরনের পরিবারতান্ত্রিক রাজনীতির দিন শেষ হয়েছে। অন্ধ্র প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডুর নাম নিয়ে তিনি বলেন, আপনি যদি বিজেপি বিরোধী জোট করার জন্য এ প্রান্ত থেকে সে প্রান্ত না ঘুরে রাজ্যে প্রচারে মন দিতেন তাহলে হয়তো কিছু আসনে জিততেন।

/এমপি/

লাইভ

টপ