behind the news
Vision  ad on bangla Tribune

শিক্ষার্থী মৃত্যুর ঘটনায় মামলা: মঙ্গলবার সারাদেশে প্রাইভেট প্র্যাকটিস বন্ধের ঘোষণা বিএমএ’র

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট১৯:১৯, মে ২০, ২০১৭

বিএমএসেন্ট্রাল হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় রোগী মৃত্যুর অভিযোগে হাসপাতাল ভাঙচুর ও চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবাদে আগামী মঙ্গলবার (২৩ মে) সারাদেশে চিকিৎসকদের প্রাইভেট প্র্যাকটিস বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ)। এছাড়া, সোমবার (২২ মে) থেকে বুধবার (২৪ মে) পর্যন্ত সারাদেশে কর্মস্থল ও প্রাইভেট প্র্যাকটিসে কালো ব্যাজ ধারণ করবেন চিকিৎসকরা। আর রবিবার (২১ মে) ও বৃহস্পতিবার (২৫ মে) দুপুর ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত বাংলাদেশের সব স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হবে। শনিবার (২০ মে) দুপুরে বিএমএ’র জরুরি এক সভায় এসব কর্মসূচির সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএমএ’র কার্যনির্বাহী পরিষদ। বিএমএ মহাসচিব ডা. ইহতেশামুল হক চৌধুরী বাংলা ট্রিবিউনকে নিশ্চিত করেছেন।
ডা. ইহতেশামুল হক চৌধুরী বলেন, ‘হাসপাতালে ভাঙচুর, চিকিৎসকদের ওপর হামলা-মামলার ঘটনায় আজ (শনিবার) বিএমএ কার্যনির্বাহী পরিষদ জরুরি বৈঠক করেছে। দুপুর ৩টা থেকে তোপখানা রোডে বিএমএ ভবনে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে পাঁচ দিনের প্রতিবাদ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএমএ কার্যনির্বাহী পরিষদ।’
প্রতিবাদ কর্মসূচির কথা জানিয়ে ডা. ইহতেশামুল হক বলেন, ‘আগামী মঙ্গলবার আমরা সারাদেশে প্রাইভেট প্র্যাকটিস বন্ধ রাখব। এছাড়া, দুই দিন কর্মস্থল ও প্রাইভেট প্র্যাকটিসে সব চিকিৎসক কালো ব্যাজ ধারণ করবেন। আর দুই দিন এক ঘণ্টা করে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হবে।’ ২৮ মে বিএমএ’র কার্যনির্বাহী পরিষদে পরবর্তী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।
এদিকে, সেন্ট্রাল হাসপাতালের ঘটনায় ক্ষোভ জানিয়েছে স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদও (স্বাচিপ)। স্বাচিপের কেন্দ্রীয় সভাপতি ডা. ইকবাল আর্সলান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘চিকিৎসকদের ওপর হামলা-মামলা ও চিকিৎসক গ্রেফতারে আমরা ক্ষুব্ধ।’
এর আগে, রাজধানীর গ্রিন রোডে অবস্থিত সেন্ট্রাল হাসপাতালে ঢাবি প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী আফিয়া জাহিন চৈতি মৃত্যুর ঘটনায় বৃহস্পতিবার (১৮ মে) সন্ধ্যার দিকে ধানমন্ডি থানায় মামলা দায়ের করেন ঢাবি প্রক্টর আমজাদ আলী। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিক্যাল অনুষদের ডিন ডা. এ বি এম আব্দুল্লাহকে এক নম্বর আসামি করে নয় জনের বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করা হয়। এর পরপরই সেন্ট্রাল হাসপাতালের পরিচালক ডা. এম এ কাশেম ও ডা. সাজিদ হোসেনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এর মধ্যে শুক্রবার শুধু ডা. এম এ কাশেমকে আদালতে হাজির করা হলে আদালত তার জামিন মঞ্জুর করেন
উল্লেখ্য, আফিয়া জাহিন চৈতি ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে বুধবার (১৭ মে) সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভর্তি হলেও তাকে ক্যান্সারের চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ ওঠে। পরদিন বৃহস্পতিবার তার মৃত্যু হয়। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে নিহতের সহপাঠীরা ওই হাসপাতালে এসে ভাঙচুর করেন।

আরও পড়ুন-

ঢাবি ছাত্রীর মৃত্যু পরবর্তী ঘটনা দুঃখজনক: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

‘কলাবাগান-কাঁঠালবাগানে চিকুনগুনিয়ার প্রকোপ বেশি’

/জেএ/টিআর/

Global Brand  ad on Bangla Tribune

লাইভ

টপ