আমি দুঃখিত: মেনন

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:৫৪, অক্টোবর ২৩, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:২৪, অক্টোবর ২৩, ২০১৯





রাশেদ খান মেননগত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে দেওয়া নিজের বক্তব্যের ব্যাখ্যায় ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছিলেন, তার বক্তব্য অংশবিশেষ পরিবেশন করায় ভুল বার্তা গেছে। এবার অবস্থান পরিবর্তন করে জানালেন, বরিশালে দলীয় সম্মেলনে দেওয়া তার ‘অনাকাঙ্ক্ষিত অতিশয় উক্তি’তে যে বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছে, তাতে তিনি দুঃখিত।
বুধবার (২৩ অক্টোবর) দোহারে ঢাকা জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সম্মেলনের উদ্বোধনীতে প্রধান অতিথির দেওয়া বক্তব্যে তিনি দুঃখ প্রকাশ করেন। ওয়ার্কার্স পার্টির দফতর থেকে কামরুল আহসান এ কথা জানান।
গত শনিবার (১৯ অক্টোবর) বরিশাল নগরীর টাউন হলে দলীয় সম্মেলনে মেনন বলেন, ‘গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমিও নির্বাচিত হয়েছি। তারপরও আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি, ওই নির্বাচনে জনগণ ভোট দিতে পারেনি। এমনকি পরবর্তীতে উপজেলা এবং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনেও ভোট দিতে পারেনি দেশের মানুষ।’
কামরুল আহসান জানান, বরিশালে দেওয়া বক্তব্যকে ‘অনাকাঙ্ক্ষিত অতিশয় উক্তি’ আখ্যা দিয়ে রাশেদ খান মেনন বলেন, ‘ওয়ার্কার্স পাটি ১৪ দলে ছিল এবং আছে। আজকে মৌলবাদ ও সাম্প্রদায়িকতাবিরোধী লড়াই করতে দলীয় ঐক্যের কোনও বিকল্প নেই। আমার নির্বাচন সম্পর্কিত অনাকাঙ্ক্ষিত অতিশয় উক্তিকে কেন্দ্র করে যে বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছে সে জন্য আমি দুঃখিত। আমি বলতে চাই, নির্বাচনে মানুষের আস্থা সৃষ্টি করতে হবে। এ জন্যই নির্বাচনকে যথাযোগ্য রাজনৈতিক মর্যাদায় ফিরিয়ে আনতে হবে।’

আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি, গত নির্বাচনে জনগণ ভোট দিতে পারেনি: মেনন (ভিডিও)


‘নিজের বক্তব্যে বিশ্বাস করলে মেননের উচিত পদত্যাগ করা’ 

 


পরদিন বিবৃতিতে মেনন বলেন, ‘আমার বক্তব্য সম্পর্কে জাতীয় রাজনীতি ও ১৪ দলের রাজনীতিতে একটা ভুল বার্তা গেছে। আমার বক্তব্য সম্পূর্ণ পরিবেশন না করে অংশবিশেষ পরিবেশন করায় এই বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছে।’


দোহারে সমাবেশে মেনন আরও বলেন, ‘বাংলাদেশ উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছে এবং সামনে দিকে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করবে।’ তবে উন্নয়নকে স্থায়ী করতে হলে বৈষম্য ও দুর্নীতি দূর করতে হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।
ঢাকা জেলা সভাপতি কমরেড আব্দুল বারেকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে আরও বক্তব্য রাখেন পলিটব্যুরোর সদস্য নুরুল হাসান, মাহমুদুল হাসান মানিক ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য করম আলী।

/এসটিএস/এইচআই/এমওএফ/

লাইভ

টপ