X
সোমবার, ১০ মে ২০২১, ২৬ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণের দাবি

আপডেট : ১১ জুন ২০১৯, ১৬:৪৭





শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণ করাসহ ১৭ দফা দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি (বাকবিশিস)। মঙ্গলবার (১১ জুন) রাজধানীতে জাতীয় প্রেসক্লাবের মাওলানা মোহাম্মদ আকরাম খাঁ হলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব দাবি জানানো হয়।
বাকবিশিস সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মো. গোলাম ফারুক বলেন, বাকবিশিস এমপিওভুক্ত কলেজ শিক্ষকদের চাকরির ক্ষেত্রে বিরাজমান বৈষম্য দূর করতে এবং শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণের লক্ষ্যে নানা কর্মসূচি পালন করে আসছে। এছাড়া শিক্ষকদের পেশাগত সমস্যা দূর করার ক্ষেত্রে বাকবিশিস সবসময় পাশে আছে।
বাজেট অধিবেশনকে সামনে রেখে সংগঠনের পক্ষে তিনি ১৭টি দাবি তুলে ধরেন। এর মধ্যে শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণ, বেসরকারি শিক্ষকদের কল্যাণ ট্রাস্ট ও অবসর সুবিধা বোর্ডের অতিরিক্ত ৪ শতাংশ চাঁদা কর্তন বাতিল, শিক্ষকদের পর্যাপ্ত প্রশিক্ষণ প্রদান ও পেশাগত দায়িত্ব পালনে জবাবদিহি নিশ্চিত করা, শিক্ষকদের যোগ্যতা ও মেধানুসারে পদোন্নতি দেওয়া এবং অনুপাত প্রথা বাতিল করা, অনার্স-মাস্টার্স কোর্সের জন্য নিয়োগ শিক্ষকদের এমপিও প্রদান, কলেজ শিক্ষকদের চাকরির বয়সসীমা ৬৫ বছর করা, শিক্ষানীতি-২০১০-এর পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়ন করা এবং শিক্ষাব্যবস্থাকে পূর্ণাঙ্গ ভিজিটাইলেজেশন করা উল্লেখযোগ্য।
সংগঠনটির সভাপতি অধ্যাপক মো. আব্দুর রশীদ বলেন, বর্তমানে সারাদেশের বিভিন্ন কলেজে সাড়ে ৬ লাখ শিক্ষক রয়েছেন। আর এসব শিক্ষকের এমপিওভুক্তির জন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ একান্ত জরুরি।
সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ কাজী মিজানুর রহমান, অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ অশোক তরু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

/এইচএন/এইচআই/

সর্বশেষ

সেভিয়ার সঙ্গে শেষ মুহূর্তে হার এড়ালো রিয়াল মাদ্রিদ

সেভিয়ার সঙ্গে শেষ মুহূর্তে হার এড়ালো রিয়াল মাদ্রিদ

বান্ধবীসহ ডেকে নিয়ে বন্ধুকে খুন

বান্ধবীসহ ডেকে নিয়ে বন্ধুকে খুন

দারাজে এক পণ্যের অর্ডারে আরেক পণ্য, ক্ষুব্ধ ক্রেতারা

দারাজে এক পণ্যের অর্ডারে আরেক পণ্য, ক্ষুব্ধ ক্রেতারা

মহিমান্বিত রাতে প্রার্থনারত মুসল্লিরা

মহিমান্বিত রাতে প্রার্থনারত মুসল্লিরা

ধর্ষণ-নির্যাতনের ঘটনায় মহিলা আইনজীবী সমিতির ৫ সুপারিশ

ধর্ষণ-নির্যাতনের ঘটনায় মহিলা আইনজীবী সমিতির ৫ সুপারিশ

কর্নেল শহীদের পদোন্নতিসহ অবসর সুবিধা বাতিল

কর্নেল শহীদের পদোন্নতিসহ অবসর সুবিধা বাতিল

গাছের নিচে আশ্রয় নিয়ে বজ্রপাতে নিহত

গাছের নিচে আশ্রয় নিয়ে বজ্রপাতে নিহত

কলেজ শিক্ষার্থীর মৃত্যু নিয়ে রহস্য

কলেজ শিক্ষার্থীর মৃত্যু নিয়ে রহস্য

বাসচাপায়  দুই মোটরবাইক আরোহী নিহত

বাসচাপায় দুই মোটরবাইক আরোহী নিহত

সন্ধ্যায় বন্ধ ঘোষণা করে রাতে ফেরি চালু

সন্ধ্যায় বন্ধ ঘোষণা করে রাতে ফেরি চালু

করোনায় মৃতের সৎকার, বললেই হাজির তাবলিগ জামাত

করোনায় মৃতের সৎকার, বললেই হাজির তাবলিগ জামাত

ভাইরাল হওয়ার আশায় গাঁজা সেবনের ভিডিও ফেসবুকে, যুবক কারাগারে

ভাইরাল হওয়ার আশায় গাঁজা সেবনের ভিডিও ফেসবুকে, যুবক কারাগারে

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

বান্ধবীসহ ডেকে নিয়ে বন্ধুকে খুন

বান্ধবীসহ ডেকে নিয়ে বন্ধুকে খুন

দারাজে এক পণ্যের অর্ডারে আরেক পণ্য, ক্ষুব্ধ ক্রেতারা

দারাজে এক পণ্যের অর্ডারে আরেক পণ্য, ক্ষুব্ধ ক্রেতারা

ধর্ষণ-নির্যাতনের ঘটনায় মহিলা আইনজীবী সমিতির ৫ সুপারিশ

ধর্ষণ-নির্যাতনের ঘটনায় মহিলা আইনজীবী সমিতির ৫ সুপারিশ

কর্নেল শহীদের পদোন্নতিসহ অবসর সুবিধা বাতিল

কর্নেল শহীদের পদোন্নতিসহ অবসর সুবিধা বাতিল

আজও ২৮শ’ মানুষের মাঝে মেয়র আতিকের ইফতার বিতরণ

আজও ২৮শ’ মানুষের মাঝে মেয়র আতিকের ইফতার বিতরণ

নতুন আতঙ্কের নাম ব্ল্যাক ফাঙ্গাস

নতুন আতঙ্কের নাম ব্ল্যাক ফাঙ্গাস

হয়রানি বন্ধে হটলাইন চালুর প্রস্তাব প্রাথমিক শিক্ষকদের

হয়রানি বন্ধে হটলাইন চালুর প্রস্তাব প্রাথমিক শিক্ষকদের

ঈদযাত্রা যেন শবযাত্রা না হয়: শিক্ষামন্ত্রী

ঈদযাত্রা যেন শবযাত্রা না হয়: শিক্ষামন্ত্রী

অধিক লাভের জন্য স্পিডবোটে দেড়গুণ বেশি যাত্রী নিতো চান্দু

পদ্মায় ২৬ লাশঅধিক লাভের জন্য স্পিডবোটে দেড়গুণ বেশি যাত্রী নিতো চান্দু

‘পার্ক-উদ্যানের উন্নয়নে কংক্রিটের পরিমাণ উদ্বেগজনকভাবে বেড়েছে’

‘পার্ক-উদ্যানের উন্নয়নে কংক্রিটের পরিমাণ উদ্বেগজনকভাবে বেড়েছে’

© 2021 Bangla Tribune