সেকশনস

করোনাকালে বেড়েছে নারীর প্রতি পারিবারিক সহিংসতা

আপডেট : ২৩ জুন ২০২০, ২৩:৩৫

স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে করোনা মহামারির সময়ে নারীর প্রতি পারিবারিক সহিংসতা বেড়েছে। প্রতিনিয়তই এ ঘটনা বাড়ছে বলে অভিমত দিয়েছেন নারী উন্নয়ন কর্মী ও নেতারা। লকডাউনের এই সময়ে ঘরে বন্দি থাকাবস্থায় প্রতিবন্ধী ও ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর নারীরা নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন। নির্যাতিত নারীদের পাশে দাঁড়ানোর মতো কেউ থাকছেন না বলেও অভিমত দেন তারা। সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়ে সম্মিলিত প্রচেষ্টায় এই সমস্যা কমিয়ে আনা সম্ভব বলে সুপারিশ তুলে ধরেন নারী নেত্রীরা।

মঙ্গলবার (২৩ জুন) মানষের জন্য ফাউন্ডেশন আয়োজিত ‘লকডাউনের সময় পারিবারিক নির্যাতন বৃদ্ধি’ শীর্ষক এক ভার্চুয়াল আলোচনায় এসব তথ্য তুলে ধরেন নারী নেত্রীরা। 

এর আগে গত ১০ জুন ‘মে মাসের জরিপ প্রতিবেদনে’ বলা হয়, এপ্রিল মাসের চেয়ে মে মাসে দেশে নারী নির্যাতন বেড়েছে ৩১ শতাংশ শতাংশ। এর বেশিরভাগই পারিবারিক সহিংসতা বলে ওই প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।

মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক শাহীন আনাম বলেন, ‘আগের সময়ের সহিংসতার চেয়ে বর্তমানে পারিবারিক কলহ বেড়ে গেছে। কোভিডের কারণে অর্থনৈতিক চাপ ও নারীদের প্রতি পরিবারিক সহিংসতা বেড়েছে। আদিবাসী তৃণমূল নারীদের অবস্থা আরও  বেশি শোচনীয়।’

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের নেত্রী মালেকা বানু বলেন, ‘‘সামাজিক-পারিবারিকভাবে পুরুষের আচরণ ও মানসিকতা পরিবর্তন করতে সম্মিলিত ভূমিকা রাখতে হবে।  কোভিডের কারণে স্বাস্থ্যবিধি মানার কথা গুরুত্ব পেলেও পারিবারিক ও সামাজিক আচরণ পরিবর্তনের বিষয়টি গুরুত্ব পাচ্ছে না। সামাজিক আচরণ ও নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে কোভিডের এই সময়ে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থার মাধ্যমে ‘মেসেজ ক্যাম্পেইন’ দরকার।’’

ভার্চুয়াল আলোচনায় নারী নেত্রীরা বলেন, লকডাউনের কারণে গ্রামের নারীরা বাজারে পণ্য বিক্রি করতে যেতে পারছে না। নেই কোনও ত্রাণও। অনেক দুর্গম জায়গার অধিবাসী হওয়ায় সেখানে সরকারি-বেসরকারি কোনও ত্রাণ পৌঁছায় না। এসব কারণে নারীর প্রতি পারিবারিক সহিংসতা বেড়েছে।

বর্তমান সময়ের সামাজিক সহিংসতা, বাল্যবিবাহ, নারীর প্রতি সহিংসতার বিষয়গুলো আলোচনায় উঠে আসে। আলোচকরা বলেছেন, নারীরা ক্ষমতায়ন হয়েছে তা পুরুষরা মানতে পারছেন না, এটা কিছুটা সঠিক। কোভিডের কারণে নারীকে খাদ্য জোগাতে রাস্তায় ঠেলে দেওয়া হচ্ছে। এ সময়ে স্বাস্থ্যবিধি মানার কথা গুরুত্ব পেলেও পারিবারিক ও সামাজিক আচরণ পরিবর্তনের বিষয়টি গুরুত্ব পাচ্ছে না।

তারা বলেন, পারিবারিক আইন প্রয়োগের মাধ্যমেই শুধু যে এই সমস্যার সমাধান হবে তা নয়, সম্মিলিতভাবে সামাজিক ও পারিবারিকভাবে এই সমস্যার সমাধান করা সহজ হবে।

ভার্চুয়াল এই আলোচনায় বেসরকারি বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধি, পুলিশ কর্মকর্তাসহ অন্যান্য পেশার প্রতিনিধিরা যুক্ত ছিলেন।

 

/এসএমএ/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

দুদকের তদন্ত কর্মকর্তার অনৈতিক দাবির বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আসামিরা

দুদকের তদন্ত কর্মকর্তার অনৈতিক দাবির বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আসামিরা

মেডিক্যালের ভর্তি পরীক্ষা পেছানোর দাবিতে মানববন্ধন

মেডিক্যালের ভর্তি পরীক্ষা পেছানোর দাবিতে মানববন্ধন

নিবন্ধন ৪৫ লাখ, টিকা নিয়েছেন সাড়ে ৩৩ লাখ

নিবন্ধন ৪৫ লাখ, টিকা নিয়েছেন সাড়ে ৩৩ লাখ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৭ মার্চ পালনের নির্দেশ, পতাকা উত্তোলন বাধ্যতামূলক

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৭ মার্চ পালনের নির্দেশ, পতাকা উত্তোলন বাধ্যতামূলক

জরুরি ভিত্তিতে প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের তথ্য চেয়েছে সরকার

জরুরি ভিত্তিতে প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের তথ্য চেয়েছে সরকার

বেসরকারি শিক্ষকদের তথ্য চেয়েছে সরকার

বেসরকারি শিক্ষকদের তথ্য চেয়েছে সরকার

২৬ মার্চ থেকে ঢাকা-জলপাইগুড়ি চলবে ট্রেন

২৬ মার্চ থেকে ঢাকা-জলপাইগুড়ি চলবে ট্রেন

স্পিকারের সঙ্গে নরওয়ের রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ

স্পিকারের সঙ্গে নরওয়ের রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ

চিম্বুক পাহাড়ে হোটেল নির্মাণের প্রতিবাদে ম্রোদের সংহতি সমাবেশ

চিম্বুক পাহাড়ে হোটেল নির্মাণের প্রতিবাদে ম্রোদের সংহতি সমাবেশ

সর্বশেষ

রংপুর বিভাগে ৩ লাখ ছাড়িয়েছে টিকা গ্রহণকারীর সংখ্যা

রংপুর বিভাগে ৩ লাখ ছাড়িয়েছে টিকা গ্রহণকারীর সংখ্যা

ঝুট ব্যবসা নিয়ে আ.লীগ-যুবলীগ সংঘর্ষ, আহত ১০

ঝুট ব্যবসা নিয়ে আ.লীগ-যুবলীগ সংঘর্ষ, আহত ১০

দুদকের তদন্ত কর্মকর্তার অনৈতিক দাবির বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আসামিরা

দুদকের তদন্ত কর্মকর্তার অনৈতিক দাবির বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আসামিরা

ভ্যাকসিন নিয়ে ভুল তথ্য দিলে অ্যাকাউন্ট বন্ধ করছে টুইটার

ভ্যাকসিন নিয়ে ভুল তথ্য দিলে অ্যাকাউন্ট বন্ধ করছে টুইটার

যে কারণে ভারতে ১৫০ দিন কারাবন্দি এক মুসলিম সাংবাদিক

যে কারণে ভারতে ১৫০ দিন কারাবন্দি এক মুসলিম সাংবাদিক

তারুণ্যের দক্ষতা ঘিরে ‘রাইট টু পিস’ এর উদ্যোগ

তারুণ্যের দক্ষতা ঘিরে ‘রাইট টু পিস’ এর উদ্যোগ

নথি নিখোঁজ: দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের পেশকারসহ দুই জন রিমান্ডে

নথি নিখোঁজ: দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের পেশকারসহ দুই জন রিমান্ডে

মেয়েদের খেলা কবে, কোথায়

মেয়েদের খেলা কবে, কোথায়

মেডিক্যালের ভর্তি পরীক্ষা পেছানোর দাবিতে মানববন্ধন

মেডিক্যালের ভর্তি পরীক্ষা পেছানোর দাবিতে মানববন্ধন

চীনের শীর্ষ ধনীর খেতাব হারালেন জ্যাক মা

চীনের শীর্ষ ধনীর খেতাব হারালেন জ্যাক মা

নিবন্ধন ৪৫ লাখ, টিকা নিয়েছেন সাড়ে ৩৩ লাখ

নিবন্ধন ৪৫ লাখ, টিকা নিয়েছেন সাড়ে ৩৩ লাখ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৭ মার্চ পালনের নির্দেশ, পতাকা উত্তোলন বাধ্যতামূলক

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৭ মার্চ পালনের নির্দেশ, পতাকা উত্তোলন বাধ্যতামূলক

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

দুদকের তদন্ত কর্মকর্তার অনৈতিক দাবির বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আসামিরা

দুদকের তদন্ত কর্মকর্তার অনৈতিক দাবির বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আসামিরা

মেডিক্যালের ভর্তি পরীক্ষা পেছানোর দাবিতে মানববন্ধন

মেডিক্যালের ভর্তি পরীক্ষা পেছানোর দাবিতে মানববন্ধন

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৭ মার্চ পালনের নির্দেশ, পতাকা উত্তোলন বাধ্যতামূলক

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৭ মার্চ পালনের নির্দেশ, পতাকা উত্তোলন বাধ্যতামূলক

জরুরি ভিত্তিতে প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের তথ্য চেয়েছে সরকার

জরুরি ভিত্তিতে প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের তথ্য চেয়েছে সরকার

বেসরকারি শিক্ষকদের তথ্য চেয়েছে সরকার

বেসরকারি শিক্ষকদের তথ্য চেয়েছে সরকার

স্পিকারের সঙ্গে নরওয়ের রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ

স্পিকারের সঙ্গে নরওয়ের রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ

চিম্বুক পাহাড়ে হোটেল নির্মাণের প্রতিবাদে ম্রোদের সংহতি সমাবেশ

চিম্বুক পাহাড়ে হোটেল নির্মাণের প্রতিবাদে ম্রোদের সংহতি সমাবেশ


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.