X
বৃহস্পতিবার, ০৫ আগস্ট ২০২১, ২১ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

ভারতে চামড়া পাচার রোধে সীমান্তে সতর্ক বিজিবি-পুলিশ

আপডেট : ০২ আগস্ট ২০২০, ১৯:৩৯

সীমান্তে বেড়েছে বিজিবির টহল দেশের তুলনায় ভারতে দাম ভালো হওয়ায় কোরবানির পশুর চামড়া পাচারের আশঙ্কা করা হচ্ছে। তবে ভারতে চামড়া পাচার রোধে যশোরের শার্শার বিভিন্ন সীমান্তে বিজিবি ও পুলিশের নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। রবিবার (২ আগস্ট) সকালে বেনাপোলের পুটখালি, দৌলতপুর অগ্রভুলটসসহ বিভিন্ন সীমান্তে সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, বিওপি চৌকিগুলিতে দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি পুরো সীমান্ত জুড়ে টহল বাড়ানো হয়েছে এবং সার্বক্ষণিক টহল পরিচালনা করা হচ্ছে।

টহলরত বিজিবি সদস্যরা সার্বক্ষণিক সর্তক থেকে সীমান্ত এলাকা দিয়ে যাতে চামড়া পাচার না হয় সেজন্য কাজ করছেন। তারা সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের তল্লাশি বাড়িয়েছেন। পাশাপাশি পুলিশ সদস্যরাও টহল জোরদার করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, এবারের কোরবানির ঈদে পশুর চামড়ার দাম অন্যান্য বছরের তুলনায় অনেক কম। ভারতে চামড়ার দাম তুলনামূলক বেশি। সেই হিসাবে চামড়া পাচারের সম্ভাবনাও বেশি।

বেনাপোলের সীমান্ত এলাকার বড় আঁচড়াগ্রামের ৯ নম্বর ওয়ার্ড কমিশনার আব্দুল জব্বার জানান, দেশে এবার কোরবানির চামড়ার দাম কম। পাচারকারীরা অধিক মুনাফার জন্য ভারতে চামড়া পাচার করতে পারেন।

চামড়া পাচার রোধে সীমান্তে সতর্ক বিজিবির সদস্যরা চামড়া ব্যবসায়ী সিরাজুল ইসলাম জানান, পানির দামে এবার চামড়া বিক্রি হচ্ছে। এবারের কোরবানির ঈদে ছোট-বড় ২০০ পিস চামড়া ক্রয় করেছি। প্রতিটি ছোট চামড়া ২০০-২৫০ টাকায়। আর ৬ থেকে ১০ মণ গরুর চামড়া কেনা হয়েছে ৪০০-৫০০ টাকায়। আর ছাগলের চামড়া ২০-৩০ টাকা দরে বাজারে বিক্রি হচ্ছে।

বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি মামুন খান জানান, দেশে এবার কোরবানির পশুর চামড়ার দাম কম হওয়ায় তা ভারতে পাচার হতে পারে। এ জন্য সীমান্ত ঘেষা রাস্তাগুলোয় পুলিশি টহল জোরদার করা হয়েছে। যাতে করে দেশের চামড়া ভারতে পাচার হতে না পারে।

যশোর ৪৯ বিজিবি ও খুলনা ২১ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল সেলিম রেজা এবং লে. কর্নেল মঞ্জুর-ই এলাহী জানান, ভারতে চামড়া পাচার রোধে তারা বদ্ধ পরিকর। এ লক্ষ্যে তারা সীমান্তে টহল সদস্য বাড়িয়েছেন। বাড়িয়েছেন গোয়েন্দা তৎপরতাও।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

খুলনায় প্রস্তুত ৩০৭ বুথ, টিকা পাবে ৬১৪০০ জন

খুলনায় প্রস্তুত ৩০৭ বুথ, টিকা পাবে ৬১৪০০ জন

খুলনায় একদিনে আরও ৩৪ জনের মৃত্যু

খুলনায় একদিনে আরও ৩৪ জনের মৃত্যু

করোনাভাইরাস: যশোরে ৭ নারীর মৃত্যু

করোনাভাইরাস: যশোরে ৭ নারীর মৃত্যু

১০ সহকর্মীকে ছাঁটাই করায় বিক্ষোভ তাদের

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২১, ১৬:৫৪

১০ জন সহকর্মীকে চাকরি থেকে ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছেন গাজীপুরের একটি পোশাক কারখানার শ্রমিকরা। বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) ‘ক্রসলাইন নীট ফেব্রিক লিমিটেড’ নামের ওই পোশাক কারখানার শ্রমিকরা বিক্ষোভ করেন। এ সময় ভাদাম-টঙ্গী আঞ্চলিক সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। 

শ্রমিকদের বিক্ষোভ থামাতে ও সড়ক থেকে সরে যেতে পুলিশ অনুরোধ জানায়। এক পর্যায়ে শ্রমিক-পুলিশ বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে। এ সময় শ্রমিকরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করলে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করেছে।

আহত দুই পুলিশ সদস্য

প্রত্যক্ষদর্শী ও শ্রমিকরা জানান, গত কয়েকদিন ধরে বিনা কারণে টঙ্গীর ভাদাম এলাকার ‘ক্রসলাইন নীট ফেব্রিক লিমিটেড’ কারখানার ১০ শ্রমিককে ছাঁটাই করে কর্তৃপক্ষ। তাদের কাজে ফিরিয়ে আনার দাবিতে সহকর্মী শ্রমিকরা গত তিন দিন ধরে কারখানা অভ্যন্তরে বিক্ষোভ করে আসছিলেন। বৃহস্পতিবার ওই দাবির প্রেক্ষিতে উৎপাদন বন্ধ রেখে শ্রমিকরা কারখানার সামনে বিক্ষোভ করেন। এতে ভাদাম-টঙ্গী সড়কে যানচলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে।

গাজীপুর শিল্প পুলিশের পুলিশ সুপার (এসপি) সিদ্দিকুর রহমান জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে শিল্প, মেট্রোপলিটন পুলিশ ও আনসার সদস্যরা কমপক্ষে ৬০ রাউন্ড টিয়ারশেল এবং রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। শ্রমিকদের ইটপাটকেলে পুলিশের ছয় এবং আনসার বাহিনীর তিন সদস্য আহত হন। তাদের টঙ্গী আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তবে শ্রমিক আহতের কোনও ঘটনা নেই বলে দাবি করেন তিনি। ঘটনার পর কর্তৃপক্ষ অনির্দিষ্টকালের জন্য কারখানা ছুটি ঘোষণা করেন।

শ্রমিকরা দাবি করেন, পুলিশের টিয়ারশেল ও রাবার বুলেটের আঘাতে কমপক্ষে ৫০ জন শ্রমিক আহত হয়েছেন। তাদেরকে বিভিন্ন ওষুধের দোকানে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে কারখানার প্রশাসনিক কর্মকর্তার মোবাইলফোনে কল করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

/এফআর/

সম্পর্কিত

কারখানায় নামাজ আদায় ও টুপি পরতে মানা, শ্রমিকদের ‘বিক্ষোভ’

কারখানায় নামাজ আদায় ও টুপি পরতে মানা, শ্রমিকদের ‘বিক্ষোভ’

সিঙ্গারের গোডাউনের আগুন নিয়ন্ত্রণে, পুড়ে ছাই টিভি-ফ্রিজ

সিঙ্গারের গোডাউনের আগুন নিয়ন্ত্রণে, পুড়ে ছাই টিভি-ফ্রিজ

বিদায়ের মুহূর্তে সহকর্মীদের ভালোবাসায় সিক্ত পুলিশ সদস্য

বিদায়ের মুহূর্তে সহকর্মীদের ভালোবাসায় সিক্ত পুলিশ সদস্য

বগুড়ায় আরও ১১ মৃত্যু

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২১, ১৬:৪৭

বগুড়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে করোনায় ছয় ও উপসর্গে পাঁচ জন মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) বগুড়ার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মোস্তাফিজুর রহমান তুহিন এ তথ্য জানান।

করোনায় মৃতদের মধ্যে বগুড়ার চার জন। তারা হলেন- সদরের রূপ কুমার সাহা (৫২), শেরপুরের রেহেনা খাতুন (৪৫), শাজাহানপুরে মঞ্জুফা বেগম (৪৫) ও সারিয়াকান্দির তুলি বেগম (৫৫)। বাকিরা অন্য জেলার।

জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় বগুড়ার বিভিন্ন এলাকার ৫৯৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। তাদের মধ্যে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১০৫ জনের। বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে ২৮২টি নমুনা পরীক্ষায় ৪০ জন, জিন এক্সপার্ট মেশিনে সাত জনের নমুনা পরীক্ষায় ছয় জন ও অ্যান্টিজেন পরীক্ষায় ২৭৪টি নমুনায় ৪৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া টিএমএসএস মেডিক্যাল কলেজ ও রফাতুল্লাহ কমিউনিটি হাসপাতালে ৩৫টি নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৬ জনের।

সূত্র আরও জানায়, ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তদের মধ্যে সদরে ৫৯, শাজাহানপুরে নয়, শিবগঞ্জ ও শেরপুরে সাত জন করে, সোনাতলায় ছয়, নন্দীগ্রামে পাঁচ, সারিয়াকান্দিতে চার, আদমদীঘি ও দুপচাঁচিয়ায় তিন জন করে এবং ধুনট ও গাবতলীতে একজন করে রয়েছেন। শনাক্তের হার ১৭ দশমিক ৫৫ শতাংশ।

বগুড়ায় এ পর্যন্ত ১৯ হাজার ৩৯৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। তাদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১৭ হাজার ৪৯৯ জন। মারা গেছেন ৫৯১ জন। বর্তমানে হাসপাতাল ও বাড়িতে এক হাজার ৩০৯ জন চিকিৎসাধীন আছেন।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

খুলনায় প্রস্তুত ৩০৭ বুথ, টিকা পাবে ৬১৪০০ জন

খুলনায় প্রস্তুত ৩০৭ বুথ, টিকা পাবে ৬১৪০০ জন

রাজশাহী মেডিক্যালে আরও ১৭ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালে আরও ১৭ মৃত্যু

রাঙামাটিতে পর্যটন শিল্পে চার মাসে ক্ষতি ২২ কোটি টাকা

রাঙামাটিতে পর্যটন শিল্পে চার মাসে ক্ষতি ২২ কোটি টাকা

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে একদিনে আরও ২১ মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে একদিনে আরও ২১ মৃত্যু

কারখানায় নামাজ আদায় ও টুপি পরতে মানা, শ্রমিকদের ‘বিক্ষোভ’

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২১, ১৬:১৮

গাজীপুরের টঙ্গীর দরাইল এলাকার এস অ্যান্ড পি বাংলা লিমিটেড নামক পোশাক কারখানায় নামাজ আদায় ও পাঞ্জাবি-টুপি পরিধান থেকে বিরত থাকার নোটিশ দেওয়ায় ‘বিক্ষোভ’ করেছেন শ্রমিকরা। বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) সকালে কাজ বন্ধ রেখে বিক্ষোভ করেন তারা।

গাজীপুর শিল্প পুলিশের জ্যৈষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার এস আলম জানান, গত ৩ আগস্ট কর্তৃপক্ষ কারখানার অভ্যন্তরে নামাজ আদায় ও টুপি-পাঞ্জাবি পরিধান থেকে বিরত থাকার জন্য নোটিশ জারি করে। এতে শ্রমিকরা ক্ষিপ্ত হয়ে বৃহস্পতিবার সকালে ওই আদেশ প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে বিক্ষোভ করেন। ওই দাবির প্রেক্ষিতে কর্তৃপক্ষ সেটা প্রত্যাহার করে আরেকটি নোটিশ জারি করে। নতুন নোটিশ জারির পর শ্রমিকরা কাজে যোগ দেন।

গত ৩ আগস্ট কর্তৃপক্ষের জারি করা নোটিশে উল্লেখ করা হয়, কারখানার অভ্যন্তরে নামাজ পরা যাবে না এবং পাঞ্জাবি ও টুপি পরা যাবে না। এই আদেশ মেনে কারখানা অভ্যন্তরে কাজ করার বিশেষভাবে নির্দেশ দেওয়া হলো।

শ্রমিকদের দাবির মুখে আগের নোটিশটি প্রত্যাহার করে নতুন নোটিশ জারি করে কর্তৃপক্ষ। এতে উল্লেখ করে, কারখানা অভ্যন্তরে নামাজ আদায় এবং পাঞ্জাবি ও টুপি পরা থেকে বিরত থাকার বিষয়ে যে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, তা অনিচ্ছাকৃত ভুল সিদ্ধান্ত ছিল। এর জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করছি। কারখানায় পূর্বের ন্যায় ধর্মীয় বিধিবিধান পালন করা যাবে। কারখানার পাঁচতলায় অজু ও নামাজের জন্য স্থান রয়েছে।

এস অ্যান্ড পি বাংলা লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক মাহবুব আলম দাবি করেন, ‘কারখানায় কোনও বিক্ষোভ হয়নি। দ্বিতীয় নোটিশে বিষয়টি প্রত্যাহার করা হয়েছে। তবে বিষয়টি জানতে বৃহস্পতিবার গণমাধ্যম ও পুলিশ সদস্যরা এসেছিলেন। শান্তিপূর্ণ সমাধান হয়েছে। কারখানার মোট সাড়ে ৬০০ শ্রমিক পুরোদমে উৎপাদনে নিয়োজিত রয়েছেন।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

সিঙ্গারের গোডাউনের আগুন নিয়ন্ত্রণে, পুড়ে ছাই টিভি-ফ্রিজ

সিঙ্গারের গোডাউনের আগুন নিয়ন্ত্রণে, পুড়ে ছাই টিভি-ফ্রিজ

বিদায়ের মুহূর্তে সহকর্মীদের ভালোবাসায় সিক্ত পুলিশ সদস্য

বিদায়ের মুহূর্তে সহকর্মীদের ভালোবাসায় সিক্ত পুলিশ সদস্য

রূপগঞ্জে লেদার কারখানায় গুদামের আগুন নিয়ন্ত্রণে

রূপগঞ্জে লেদার কারখানায় গুদামের আগুন নিয়ন্ত্রণে

রূপগঞ্জে লেদার কারখানায় আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৫ ইউনিট

রূপগঞ্জে লেদার কারখানায় আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৫ ইউনিট

খুলনায় প্রস্তুত ৩০৭ বুথ, টিকা পাবে ৬১৪০০ জন

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২১, ১৬:০৬

খুলনায় আগামী ৭ আগস্ট সর্বনিম্ন ২৫ বছর বয়সীদের করোনার টিকা দেওয়া হবে। এদিন স্পট রেজিস্ট্রেশন করে টিকা নেওয়া যাবে। খুলনা মহানগর ও জেলায় টিকা প্রদানে ৩০৭টি বুথ প্রস্তুত করা হয়েছে। এসব বুথে একদিনে ৬১ হাজার ৪০০ জনকে টিকা দেওয়া হবে।

খুলনার সিভিল সার্জন ডা. নিয়াজ মোহাম্মদ জানান, আগের ঘোষণায় ৭ আগস্ট থেকে ১৮ বছর পর্যন্ত গণটিকা প্রদানের কথা বলা হয়েছিল। কিন্তু সেটা একটু পরিবর্তন করা হয়েছে। নতুন সিদ্ধান্তে ৭ আগস্ট ২৫ বছর বা তার বেশি বয়সীদের টিকা দেওয়া হবে। যদি কারও রেজিস্ট্রেশন করা থাকে তাহলে ভালো, আর না থাকলে স্পটে রেজিস্ট্রেশন করে টিকা নেওয়ার সুযোগ থাকবে।

ইতোমধ্যে খুলনা সিটি করপোরেশনের (কেসিসি) ৩১টি ওয়ার্ডে ৯৩টি বুথ ও জেলার ৬৮টি ইউনিয়ন পরিষদমে ২০৪টি বুথ প্রস্তুত করা হয়েছে। টিকা প্রদানের কর্মীদেরও প্রশিক্ষণ সম্পন্ন হয়েছে। সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত টিকা প্রদান করা হবে। টিকাদান কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পন্নে বয়োজ্যেষ্ঠ, প্রতিবন্ধী  ও নারীদের প্রাধান্য দেওয়া হবে। 

কেসিসির স্বাস্থ্য বিভাগের কাছে ২৮ হাজার ৩৯ ডোজ মডার্না এবং পাঁচ হাজার ৪৭৮ ডোজ সিনোফার্মার টিকা মজুত রয়েছে। ২৫ বছরের ঊর্ধ্বে যে কোনও নারী-পুরুষ জাতীয় পরিচয়পত্র আনলেই রেজিস্ট্রেশন করে টিকা নিতে পারবেন।

খুলনা সিভিল সার্জনের কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, কোভিশিল্ডের প্রথম ডোজ নিয়েছেন এক লাখ ৭৫ হাজার ৯৫৭ জন। এর মধ্যে পুরুষ এক লাখ চার হাজার ১৩৬ ও নারী ৭১ হাজার ৮২১ জন। ওই টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন এক লাখ ২৮ হাজার ২৫ জন। কোভিশিল্ডের দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন ৭৮ হাজার ৩০১ পুরুষ ও ৪৯ হাজার ৭২৪ জন নারী। প্রায় ৪৮ হাজার মানুষ কোভিশিল্ডের দ্বিতীয় ডোজ পাওয়ার অপেক্ষায় রয়েছেন। 

খুলনায় সিনোফার্মের টিকার প্রথম ডোজ পেয়েছেন ৫৬ হাজার ৩০৮ জন। তিন হাজার ৫০৪ জন দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন। খুলনা সিটি করপোরেশন এলাকায় মডার্নার টিকার প্রথম ডোজ পেয়েছেন ৪৫ হাজার ৫৭৯ জন।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

খুলনায় একদিনে আরও ৩৪ জনের মৃত্যু

খুলনায় একদিনে আরও ৩৪ জনের মৃত্যু

করোনাভাইরাস: যশোরে ৭ নারীর মৃত্যু

করোনাভাইরাস: যশোরে ৭ নারীর মৃত্যু

রাঙামাটিতে পর্যটন শিল্পে চার মাসে ক্ষতি ২২ কোটি টাকা

রাঙামাটিতে পর্যটন শিল্পে চার মাসে ক্ষতি ২২ কোটি টাকা

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে একদিনে আরও ২১ মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে একদিনে আরও ২১ মৃত্যু

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ১০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে যানজট

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২১, ১৪:৫৪

কুমিল্লার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দাউদকান্দির গাজীপুর এলাকায় চেকপোস্ট বসিয়ে পরিবহন তল্লাশি করেছে র‌্যাব। এতে গাজীপুর থেকে দাউদকান্দির আমিরাবাদ পর্যন্ত অন্তত ১০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে যানবাহনের দীর্ঘ জট সৃষ্টি হয়। এই যানজটে আটকে প্রচণ্ড গরমে দুর্ভোগে পড়েছেন চালক ও ঢাকাগামী যাত্রীরা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মাদক পাচারকারীরা বিপুল পরিমাণ মাদক নিয়ে ঢাকায় নিয়ে যাচ্ছেন, এমন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৩ এর সদস্যরা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে কুমিল্লার দাউদকান্দির গাজীপুর এলাকায় চেকপোস্ট বসায়। বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) সকাল সাড়ে ৬টা থেকে সকাল ৮টা পর্যন্ত টানা দেড় ঘণ্টা যানবাহন তল্লাশি চালায় তারা।

ঢাকাগামী কাভার্ডভ্যানচালক ফাহিম মিয়া বলেন, ‘শহীদনগর এসে হঠাৎ যানজটে আটকে গেলাম। একে তো প্রচণ্ড গরম, এর মধ্যে দেড় ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে আটকে আছি।’

কক্সবাজার থেকে ঢাকাগামী বিশেষ বাসের যাত্রী মাজেদুল আলম জানান, টিকা নিতে ঢাকায় যাচ্ছেন তিনি। কিন্তু এই যানজটে আটকে পড়ায় সময়মতো টিকাকেন্দ্রে পৌঁছাতে পারবেন কি-না, সেটি নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছেন।

দাউদকান্দি হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জহুরুল হক জানান, র‌্যাব-৩ এর সদস্যরা একটি গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চেকপোস্ট বসিয়ে পরিবহনে তল্লাশি চালায়। এ কারণে কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যেই হঠাৎ কিছু সময়ের জন্য মহাসড়কের ঢাকার পথে পরিবহনের জটের সৃষ্টি হয়েছে। কিন্তু বর্তমানে মহাসড়ক একেবারে স্বাভাবিক রয়েছে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

চট্টগ্রাম নগরীর চেয়ে উপজেলাগুলোতে বেশি মৃত্যু

চট্টগ্রাম নগরীর চেয়ে উপজেলাগুলোতে বেশি মৃত্যু

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ভিমরুলের কামড়ে শিশুর মৃত্যু, হাসপাতালে ২

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ভিমরুলের কামড়ে শিশুর মৃত্যু, হাসপাতালে ২

রাঙামাটিতে পর্যটন শিল্পে চার মাসে ক্ষতি ২২ কোটি টাকা

রাঙামাটিতে পর্যটন শিল্পে চার মাসে ক্ষতি ২২ কোটি টাকা

লক্ষ্মীপুরে আ.লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

লক্ষ্মীপুরে আ.লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

সর্বশেষ

রাজধানীতে প্রতারক চক্রের চার সদস্য গ্রেফতার

রাজধানীতে প্রতারক চক্রের চার সদস্য গ্রেফতার

১০ সহকর্মীকে ছাঁটাই করায় বিক্ষোভ তাদের

১০ সহকর্মীকে ছাঁটাই করায় বিক্ষোভ তাদের

লেবাননে বিমান হামলা শুরু করেছে ইসরায়েল

লেবাননে বিমান হামলা শুরু করেছে ইসরায়েল

বগুড়ায় আরও ১১ মৃত্যু

বগুড়ায় আরও ১১ মৃত্যু

মতিঝিল আইডিয়ালের আতিককে গ্রেফতারের দাবি

মতিঝিল আইডিয়ালের আতিককে গ্রেফতারের দাবি

নির্মাণশৈলীতে ভিন্নতা আনতে 'ভাস্কর্যে বিকৃতি'

নির্মাণশৈলীতে ভিন্নতা আনতে 'ভাস্কর্যে বিকৃতি'

রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে শত্রু ভাবা ঠিক নয়: প্রাণিসম্পদমন্ত্রী

রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে শত্রু ভাবা ঠিক নয়: প্রাণিসম্পদমন্ত্রী

বুস্টার ডোজ নিয়ে ডব্লিউএইচও’র আহ্বান উপেক্ষা ফ্রান্স ও জার্মানির

বুস্টার ডোজ নিয়ে ডব্লিউএইচও’র আহ্বান উপেক্ষা ফ্রান্স ও জার্মানির

রেসিপি : আলুর পাকোড়া

রেসিপি : আলুর পাকোড়া

সামাজিক আন্দোলনের মাধ্যমে ডেঙ্গু প্রতিরোধ করতে হবে: মেয়র আতিক

সামাজিক আন্দোলনের মাধ্যমে ডেঙ্গু প্রতিরোধ করতে হবে: মেয়র আতিক

কোনও অত্যাচারের পরিণতি ভালো হয় না: নওশাবা

কোনও অত্যাচারের পরিণতি ভালো হয় না: নওশাবা

বিসিবি অ্যাওয়ার্ড নাইট চালু প্রসঙ্গে যা বললেন পাপন

বিসিবি অ্যাওয়ার্ড নাইট চালু প্রসঙ্গে যা বললেন পাপন

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

খুলনায় প্রস্তুত ৩০৭ বুথ, টিকা পাবে ৬১৪০০ জন

খুলনায় প্রস্তুত ৩০৭ বুথ, টিকা পাবে ৬১৪০০ জন

খুলনায় একদিনে আরও ৩৪ জনের মৃত্যু

খুলনায় একদিনে আরও ৩৪ জনের মৃত্যু

করোনাভাইরাস: যশোরে ৭ নারীর মৃত্যু

করোনাভাইরাস: যশোরে ৭ নারীর মৃত্যু

খুলনায় আরও ৩৫ জনের মৃত্যু

খুলনায় আরও ৩৫ জনের মৃত্যু

যশোর জেনারেল হাসপাতালে আরও ৭ জনের মৃত্যু

যশোর জেনারেল হাসপাতালে আরও ৭ জনের মৃত্যু

খুলনার ৩ হাসপাতালে আরও ৯ জনের মৃত্যু

খুলনার ৩ হাসপাতালে আরও ৯ জনের মৃত্যু

বৃদ্ধ বাবা-মাকে আশ্রয়হীন করায় ৩ ছেলেকে পুলিশে দিলেন ইউএনও

বৃদ্ধ বাবা-মাকে আশ্রয়হীন করায় ৩ ছেলেকে পুলিশে দিলেন ইউএনও

যশোরে করোনা ও উপসর্গে আরও ৮ মৃত্যু

যশোরে করোনা ও উপসর্গে আরও ৮ মৃত্যু

© 2021 Bangla Tribune