X
বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ৯ আষাঢ় ১৪২৮

সেকশনস

হত্যার পর পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় বিচারবিভাগীয় তদন্ত দাবি স্বজনদের

আপডেট : ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০০:৩২

লালমনিরহাটের পাটগ্রামে আবু ইউনুস মো. শহীদুন্নবী জুয়েলকে (৫০) পিটিয়ে হত্যার পর পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনার দৃষ্টান্তমূল বিচার দাবি করেছেন তার স্বজন, বন্ধু-বান্ধব ও পরিচিতরা। স্বজনরা এ ঘটনার বিচারবিভাগীয় তদন্ত দাবি করেছেন।

স্বজন ও বন্ধুরা বলছেন, চাকরি হারানোর পর সে মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে। তার চিকিৎসা চলছিল। তাদের দাবি, শহীদুন্নবী পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ মসজিদে আদায় করতেন। সে কোনোদিনও পবিত্র কোরান শরীফের অবমাননা করতে পারে না। তারা অভিযোগ করেন, মিথ্যা অভিযোগ তুলে তাকে গণপিটুনি দিয়ে হত্যা করে আগুনে পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

এদিকে শহীদুন্নবীর রংপুর নগরীর শালবন এলাকার বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। ৯ ভাই-বোনের মধ্যে তিনি ছিলেন ঘষ্ঠ। তার এক ছেলে ও এক মেয়ে। বড় মেয়ে এইচএসসি পাস করেছেন। ছেলে পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী।

নিহত শহীদুন্নবীর বড় বোন হাসনা আখতার লিপি অভিযোগ করেন, মিথ্যা অভিযোগে তার ভাইকে হত্যা করা হয়েছে।

তিনি আক্ষেপ নিয়ে বলেন, ‘আমার ভাইয়ের শরীরের হাড়গুলোও পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে। লাশটা পেলেও একটা সান্ত্বনা ছিল। আমরা মনে করি পরিকল্পিতভাবে তাকে হত্যা করা হয়েছে।’ এ ঘটনার বিচারবিভাগীয় তদন্ত দাবি করেন তিনি।

এদিকে রংপুরবাসীর পক্ষ থেকে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করে শহীদুন্নবী হত্যার বিচার দাবি করা হয়েছে। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তুষারকান্তি মন্ডল, বাসদ রংপুরের সমন্বয়ক আব্দুল কুদ্দুস, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ডা. মফিজুল ইসলাম মান্টু, ডা. সৈয়দ মামুন রহমান, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব জোবায়দুল ইসলাম বুলেট, রংপুর মেট্রোপলিটন চেম্বারের সভাপতি রেজাউল ইসলাম মিলন, রংপুর মহানগর আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক রমজান আলী তুহিন, সংগঠক শহীদুল ইসলাম হীরা, সাংস্কৃতিক কর্মী দেবদাস দেবু, সাবেক ছাত্র নেতা তানভির হোসেন আশরাফি, আহসানুল আরেফিন তিতু, রংপুর ক্যান্টনমেন্ট স্কুল অ্যান্ড কলেজের সাবেক শিক্ষার্থী অর্পন রহমানসহ অন্যরা।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) রাতে লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী ইউনিয়ন পরিষদের সামনে বিক্ষুব্ধ জনতা শহীদুন্নবী জুয়েলকে পিটিয়ে হত্যা করে। পরে তার শরীর আগুনে পুড়িয়ে দেয় উন্মত্ত জনতা।

 

আরও পড়ুন:



লালমনিরহাটে যুবককে হত্যার পর লাশ পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ


 

‘যুবককে হত্যার পর পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় একাধিক মামলা হবে’


পিটিয়ে হত্যার পর পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনার ছায়া তদন্তে র‍্যাব

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

চট্টগ্রামে একদিনের ব্যবধানে বেড়েছে মৃত্যু ও শনাক্ত

চট্টগ্রামে একদিনের ব্যবধানে বেড়েছে মৃত্যু ও শনাক্ত

নোয়াখালীতে শনাক্ত আরও ১১৫, ঢাকাগামী গণপরিবহন চলাচল বন্ধ

নোয়াখালীতে শনাক্ত আরও ১১৫, ঢাকাগামী গণপরিবহন চলাচল বন্ধ

অবশেষে বৈঠকের ব্যাপারে মুখ খুললেন ভুট্টো

অবশেষে বৈঠকের ব্যাপারে মুখ খুললেন ভুট্টো

শেয়ার না কিনলেও মুনাফা পাওয়া যাবে

শেয়ার না কিনলেও মুনাফা পাওয়া যাবে

করোনার টিকাকে বিশ্বব্যাপী জনগণের পণ্য হিসেবে ঘোষণা করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

করোনার টিকাকে বিশ্বব্যাপী জনগণের পণ্য হিসেবে ঘোষণা করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

মানবপাচারের মামলায় তুহিন সিদ্দিকী অমির ৮ সহযোগী রিমান্ডে

মানবপাচারের মামলায় তুহিন সিদ্দিকী অমির ৮ সহযোগী রিমান্ডে

যেভাবে ভারতে পাচারের শিকার হলেন তরুণী

যেভাবে ভারতে পাচারের শিকার হলেন তরুণী

লকডাউনে বন্ধ থাকবে যেসব ট্রেন

লকডাউনে বন্ধ থাকবে যেসব ট্রেন

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর এসকে সুরসহ ৫ জনকে দিনভর জিজ্ঞাসা

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর এসকে সুরসহ ৫ জনকে দিনভর জিজ্ঞাসা

পানিতে ডুবে শিশুমৃত্যু ঠেকাতে সমন্বিত উদ্যোগের আহ্বান সরকারের

পানিতে ডুবে শিশুমৃত্যু ঠেকাতে সমন্বিত উদ্যোগের আহ্বান সরকারের

অনুসন্ধানী সাংবাদিকতায় অভ্যন্তরীণ ও বহিরাগত চাপ বেড়েছে: টিআইবি

অনুসন্ধানী সাংবাদিকতায় অভ্যন্তরীণ ও বহিরাগত চাপ বেড়েছে: টিআইবি

কোভিশিল্ডের টিকা ১ কোটি ৯৬ হাজার ডোজ শেষ

কোভিশিল্ডের টিকা ১ কোটি ৯৬ হাজার ডোজ শেষ

সর্বশেষ

জাভি-ইনিয়েস্তাদের দেশে প্রথমবার হতে যাচ্ছে ওয়ানডে ক্রিকেট

জাভি-ইনিয়েস্তাদের দেশে প্রথমবার হতে যাচ্ছে ওয়ানডে ক্রিকেট

ঠিকাদার কাটতে চান শতবর্ষী গাছ, রক্ষার দাবি এলাকাবাসীর

ঠিকাদার কাটতে চান শতবর্ষী গাছ, রক্ষার দাবি এলাকাবাসীর

আজও নারায়ণগঞ্জ থেকে ঢাকায় ঢুকছে গণপরিবহন

আজও নারায়ণগঞ্জ থেকে ঢাকায় ঢুকছে গণপরিবহন

চট্টগ্রামে একদিনের ব্যবধানে বেড়েছে মৃত্যু ও শনাক্ত

চট্টগ্রামে একদিনের ব্যবধানে বেড়েছে মৃত্যু ও শনাক্ত

টিভিতে আজ

টিভিতে আজ

ইঁদুরের উৎপাত: বন্দি সরাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া

ইঁদুরের উৎপাত: বন্দি সরাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া

মায়ের বিরুদ্ধে মেয়ের পর্নোগ্রাফি আইনে মামলা

মায়ের বিরুদ্ধে মেয়ের পর্নোগ্রাফি আইনে মামলা

লকডাউনে আটকেপড়া চাকরিজীবীদের কী হবে?

লকডাউনে আটকেপড়া চাকরিজীবীদের কী হবে?

নোয়াখালীতে শনাক্ত আরও ১১৫, ঢাকাগামী গণপরিবহন চলাচল বন্ধ

নোয়াখালীতে শনাক্ত আরও ১১৫, ঢাকাগামী গণপরিবহন চলাচল বন্ধ

প্রবাসী মু‌ক্তিযোদ্ধার ‘অসম্পূর্ণ’ তালিকায় ব্রিটিশ-বাংলা‌দেশিদের হতাশা

প্রবাসী মু‌ক্তিযোদ্ধার ‘অসম্পূর্ণ’ তালিকায় ব্রিটিশ-বাংলা‌দেশিদের হতাশা

যে পাঁচ অভ্যাস আপনাকে বুড়িয়ে দেবে

যে পাঁচ অভ্যাস আপনাকে বুড়িয়ে দেবে

অবশেষে বৈঠকের ব্যাপারে মুখ খুললেন ভুট্টো

অবশেষে বৈঠকের ব্যাপারে মুখ খুললেন ভুট্টো

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

চট্টগ্রামে একদিনের ব্যবধানে বেড়েছে মৃত্যু ও শনাক্ত

চট্টগ্রামে একদিনের ব্যবধানে বেড়েছে মৃত্যু ও শনাক্ত

নোয়াখালীতে শনাক্ত আরও ১১৫, ঢাকাগামী গণপরিবহন চলাচল বন্ধ

নোয়াখালীতে শনাক্ত আরও ১১৫, ঢাকাগামী গণপরিবহন চলাচল বন্ধ

সাতক্ষীরা মেডিক্যালে জায়গা নেই, একদিনে ৯ মৃত্যু

সাতক্ষীরা মেডিক্যালে জায়গা নেই, একদিনে ৯ মৃত্যু

খুলনার ৩ হাসপাতালে আরও ১১ মৃত্যু

খুলনার ৩ হাসপাতালে আরও ১১ মৃত্যু

রামেক হাসপাতালে ১৩ মৃত্যু, ১২ জনই রাজশাহীর

রামেক হাসপাতালে ১৩ মৃত্যু, ১২ জনই রাজশাহীর

বিপৎসীমার ওপরে তিস্তার পানি, গঙ্গাচড়ায় ২ হাজার পরিবার পানিবন্দি

বিপৎসীমার ওপরে তিস্তার পানি, গঙ্গাচড়ায় ২ হাজার পরিবার পানিবন্দি

ছেলের প্রেমে বাবার মৃত্যুর ১৮ দিন পর লাশ উত্তোলন

ছেলের প্রেমে বাবার মৃত্যুর ১৮ দিন পর লাশ উত্তোলন

হিলিতে আরও এক সপ্তাহের কঠোর বিধিনিষেধ

হিলিতে আরও এক সপ্তাহের কঠোর বিধিনিষেধ

হাসপাতালে নেননি স্বজনরা, করোনায় মারা গেলেন শিক্ষিকা

হাসপাতালে নেননি স্বজনরা, করোনায় মারা গেলেন শিক্ষিকা

লঞ্চে যাত্রী ঠাসাঠাসি, ভাড়া কেন ৬০ শতাংশ বেশি?

লঞ্চে যাত্রী ঠাসাঠাসি, ভাড়া কেন ৬০ শতাংশ বেশি?

© 2021 Bangla Tribune