X
সোমবার, ০২ আগস্ট ২০২১, ১৭ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

জাপানে ‘পেইড ডেটিং’ কাজে ছাত্রীদের সংখ্যা বাড়ছে

আপডেট : ২৮ ডিসেম্বর ২০১৫, ১৫:১৪

জাপানে ‘পেইড ডেটিং’ কাজে ছাত্রীদের অংশগ্রহণের প্রবণতা বাড়ছে জানিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ। ২০১৪ সালে ছাত্রী নির্যাতনের মামলার সংখ্যা রেকর্ড সংখ্যক বৃদ্ধির পর এ উদ্বেগ জানালো জাতিসংঘ। একই সঙ্গে শিশু  বিশেষ করে দেশটির বিনোদন ক্যাফেগুলোতে কর্মরত তরুণীদের নির্যাতন বন্ধে জাপান সরকারকে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিতে হবে বলে মনে সংস্থাটি। সোমবার কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা খবরে এ কথা জানা গেছে।

গত অক্টোবরে জাতিসংঘের শিশু পতিতাবৃত্তি ও পর্নোগ্রাফিবিষয়ক বিশেষ দূত মাউদ দে বয়ের পেইডি ডেটিংয়ে দেশটির ১৩ শতাংশ স্কুলছাত্রী অংশ নিচ্ছে বলে জাপান সরকারের ক্ষোভের মুখে পড়েন। যদিও পরে তিনি জানান, এ সংখ্যাটি আনুষ্ঠানিক নয় এবং তিনি চূড়ান্ত রিপোর্টে এ তথ্য রাখেননি। তবে আন্দোলনকারীরা বলছেন, এ বিষয়ে যথাযথ তথ্য না থাকা জাপান সরকারের অবহেলাকেই প্রমাণ করেন।

বিভিন্ন দেশে প্রাপ্ত বয়স্কদের বিনোদনে কিশোর-কিশোরীদের কাজে লাগানোর বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা থাকলেও জাপানে এটা ভালো ব্যবসায় পরিণত হয়েছে।

জাপানের রাজধানী টোকিওতে শিশুসুলভ যৌন সংস্কৃতি বাড়ছে। আন্দোলনকারীরা এ প্রবণতা বন্ধে প্রচারণা চালিয়ে আসছে।

টোকিও’র আকিহাবারা জেলায় রয়েছে এমনকটি হোশি কসেই (হাইস্কুল গার্ল ক্যাফে)।  এসব ক্যাফেতে প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষ টাকা দিয়ে কিশোরিদের সঙ্গে বসে কথা বলতে ও গল্প করেন।  এখানে পার্ট টাইম কাজ করেন মাই নামে এক ছাত্রী। মাই বলেন, এসব মানুষদের কয়েকজনের বয়স আমার দাদার সমান। অনেক সময় তাদের সঙ্গে কথা বলার মতো কিছু আমি খোঁজে পাই না।’

এ ক্যাফের মালিক জানান, তারা ১৫-১৮ বছরের মেয়েদেরকেই শুধু কাজে নেন। কইচিরো ফুকুইয়ামা বলেন, মূলত তাদের সুন্দরী হতে হবে। এটা আবশ্যক শর্ত। তাদেরকে স্লিম এবং স্টাইলিশ হতে হবে। এছাড়া তাদের স্মার্টও হতে হবে।

তবে ফুকুইয়ামা দাবি করেন, তার ক্যাফেতে যেসব ছাত্রী কাজ করে তারা পতিতাবৃত্তির সঙ্গে জড়িত না।

নারী অধিকার বিষয়ক সংগঠন লাইটহাউসের মুখপাত্র শাইহোকো ফুজিওয়ারা জানান, এ সংস্কৃতিটি বিব্রতকর। তিনি বলেন, এনজো কসাই (পেইড ডেটিং) প্রবণতা চালু হয়েছে এখানে প্রায় বিশ বছর ধরে। অথচ আমাদের কাছে এ বিষয়ে সরকারি কোনও তথ্য নেই। আমার কাছে বিষয়টি হতাশাজনক।

২০১৪ সাল পর্যন্ত আন্দোলন করে শিশু নির্যাতনের ছবিকে বেআইনী ঘোষণা করা হয়েছে। কিন্তু এ ধরনের নির্যাতনের কার্টুন চিত্র দেশটিতে নিষিদ্ধ নয়।  

/এএ/

সম্পর্কিত

‘এক চীন’ নীতি থেকে সরে এলো জাপান

‘এক চীন’ নীতি থেকে সরে এলো জাপান

বাংলাদেশসহ ১৫ দেশকে এক কোটি ১০ লাখ টিকা দেবে জাপান

বাংলাদেশসহ ১৫ দেশকে এক কোটি ১০ লাখ টিকা দেবে জাপান

জাপানে প্রবল বর্ষণ, লাখ লাখ মানুষকে নিরাপদে থাকার নির্দেশ

জাপানে প্রবল বর্ষণ, লাখ লাখ মানুষকে নিরাপদে থাকার নির্দেশ

জাপানে ভূমিধসে নিখোঁজ বেড়ে ৮০, উদ্ধার তৎপরতায় সেনা

জাপানে ভূমিধসে নিখোঁজ বেড়ে ৮০, উদ্ধার তৎপরতায় সেনা

ট্যাংকারে হামলা নিয়ে ইরান-ইসরায়েল উত্তেজনা

আপডেট : ০২ আগস্ট ২০২১, ০০:৫৪
image

ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেন্নেত দাবি করেছেন, তিনি সুনির্দিষ্টভাবে জানেন ওমান উপকূলে তেলের ট্যাংকারে প্রাণঘাতী হামলার জন্য ইরান দায়ী। তবে এই অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছে তেহরান। ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী হুঁশিয়ার করে বলেছেন ইরানকে কিভাবে বার্তা দিতে হয় তা জানা আছে তাদের। আর ইরান বলছে, নিজেদের স্বার্থ রক্ষায় কোনও দ্বিধায় ভুগবে না তারা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

গত বৃহস্পতিবার ওমান উপকূলে ইসরায়েলি ব্যবসায়ীর পরিচালিত জাহাজ মারসার স্ট্রিটে হামলার ঘটনায় দুই নাবিক প্রাণ হারিয়েছেন। একজন ব্রিটিশ অন্যজন রোমানিয়ার নাগরিক। ওই ব্যবসায়ীর কোম্পানি জোডিয়াক ম্যানেজমেন্টের টুইটার পোস্টে বলা হয়েছে, এটি সন্দেহভাজন ডাকাতির ঘটনা।

ইসরায়েল ও ইরানের পরিচালিত জাহাজে সম্প্রতি বেশ কয়েকটি হামলার ঘটনা ঘটেছে। মার্চ থেকে শুরু হওয়া এসব ঘটনাকে পাল্টাপাল্টি হিসেবে দেখা হয়ে থাকে। বিশ্লেষকরা বলছেন, এই অষ্পষ্ট ছায়া যুদ্ধ আর পাল্টাপাল্টি অস্বীকার- ক্রমেই উত্তপ্ত হয়ে উঠছে। কিন্তু মারসার স্ট্রিট জাহাজে প্রাণঘাতী ঘটনা উত্তেজনা আরও বাড়িয়ে তুলেছে।

ওই হামলার জন্য ড্রোন হামলার দিকে ইঙ্গিত করেছে যুক্তরাষ্ট্র। ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেন্নেত রবিবার মন্ত্রিসভার এক বৈঠকে বলেন, বিদ্যমান গোয়েন্দা তথ্য অনুযায়ী ইরান ওই হামলা চালিয়েছে। তিনি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, স্পষ্ট করতে হবে যে ইরান ভয়াবহ ভুল করেছে।

তবে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সায়িদ খতিবজাদেহ সাংবাদিকদের বলেছেন, ইসরায়েলকে অবশ্যই ভিত্তিহীন অভিযোগ থামাতে হবে। তিনি দাবি করেন এই অভিযোগ ভিত্তিহীন।

/জেজে/

সম্পর্কিত

ফের হামাস প্রধান নির্বাচিত হলেন ইসমাইল হানিয়া

ফের হামাস প্রধান নির্বাচিত হলেন ইসমাইল হানিয়া

ইরানের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্টের শপথগ্রহণ ৫ আগস্ট

ইরানের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্টের শপথগ্রহণ ৫ আগস্ট

তিউনিসিয়ায় অস্থিরতার জন্য আমিরাতকে দুষলেন এন্নাহদা প্রধান

তিউনিসিয়ায় অস্থিরতার জন্য আমিরাতকে দুষলেন এন্নাহদা প্রধান

ফের হামাস প্রধান নির্বাচিত হলেন ইসমাইল হানিয়া

আপডেট : ০২ আগস্ট ২০২১, ০০:১১

ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের প্রধান হিসেবে পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন দলটির বর্তমান নেতা ইসমাইল হানিয়া (৫৮)। এর ফলে আগামী সেশনে অর্থাৎ, পরবর্তী চার বছরও দলটির প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন তিনি। হামাসের এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

২০১৭ সাল থেকে হামাস প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন ইসমাইল হানিয়া। এ নিয়ে টানা দ্বিতীয় বারের মতো নির্বাচিত হলেন তিনি।

গত দুই বছর ধরে মিত্র দেশ তুরস্ক ও কাতারে অবস্থান করে ফিলিস্তিনি আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন তিনি। এর মধ্যেই ২০২১ সালের মে মাসে হামাস নিয়ন্ত্রিত ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় আগ্রাসন চালায় দখলদার ইসরায়েলি বাহিনী। হত্যা করা হয় দুই শতাধিক ফিলিস্তিনিকে। ১১ দিনের ভয়াবহ হত্যাযজ্ঞের পর অবশেষে হামাসের সঙ্গে যুদ্ধবিরতিতে পৌঁছায় দখলদার বাহিনী। এই যুদ্ধবিরতিকে নিজেদের বিজয় হিসেবে দাবি করে হামাস। ফিলিস্তিনের পতাকা নিয়ে রাজপথে নেমে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে গাজার বাসিন্দারা।

হামাসের প্রতিষ্ঠাতা আহমেদ ইয়াসিনের ডান হাত হিসেবে পরিচিত ছিলেন ইসমাইল হানিয়া। ২০০৪ সালে বিমান হামলা চালিয়ে হুইল চেয়ারে চলাচলকারী শেখ আহমেদ ইয়াসিনকে হত্যা করে দখলদার বাহিনী। ২০০৬ সালে তিনি ফিলিস্তিনের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন। তবে ইসরায়েল ও পশ্চিমা দেশগুলো হামাসকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে বিবেচনা করায় সৃষ্ট জটিলতার ফলে নির্বাচিত হলেও দায়িত্ব নিতে ব্যর্থ হন তিনি।

/এমপি/

সম্পর্কিত

ট্যাংকারে হামলা নিয়ে ইরান-ইসরায়েল উত্তেজনা

ট্যাংকারে হামলা নিয়ে ইরান-ইসরায়েল উত্তেজনা

সংঘাত এড়াতে সিকিম সীমান্তে চীন-ভারতের হটলাইন

সংঘাত এড়াতে সিকিম সীমান্তে চীন-ভারতের হটলাইন

নিরাপত্তা পরিষদের অধিবেশনে সভাপতিত্ব করবেন মোদি!

নিরাপত্তা পরিষদের অধিবেশনে সভাপতিত্ব করবেন মোদি!

ইরানের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্টের শপথগ্রহণ ৫ আগস্ট

ইরানের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্টের শপথগ্রহণ ৫ আগস্ট

সংঘাত এড়াতে সিকিম সীমান্তে চীন-ভারতের হটলাইন

আপডেট : ০১ আগস্ট ২০২১, ২৩:১৩

সীমান্তের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় স্থিতাবস্থা ফেরাতে আরও উদ্যোগী হয়েছে চীন ও ভারত। দুই দেশের সেনাদের মধ্যে বিশ্বাস ও সৌহার্দ্য বজায় রাখতে সীমান্তে হটলাইন স্থাপন করা হয়েছে।

উভয় দেশের মধ্যে সামরিক বাহিনী পর্যায়ে বৈঠকের পর স্থির হয়, উত্তর সিকিমের কোংরা লায় ভারতীর বাহিনীর ঘাঁটির সঙ্গে তিব্বতের খাম্বা জংয়ে চিনা গণফৌজের ঘাঁটি নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ রক্ষা করবে।

সীমান্ত সংক্রান্ত সমঝোতা নিয়ে শনিবার প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখার কাছে চীনের এলাকা মল্ডোতে সামরিক পর্যায়ের বৈঠকে বসেন উভয় দেশের কর্মকর্তারা। পরে ভারতীয় বাহিনীর বিবৃতিতে বলা হয়, ‘কমান্ডার পর্যায়ে যোগাযোগ বাড়াতে আরও উদ্যোগী হয়েছে দুই দেশের সেনারা। উভয় পক্ষের তরফে সীমান্তে শান্তি ও স্থিতাবস্থা বজায় রাখতে হটলাইন স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

গত বছর পূর্ব লাদাখে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে জড়িয়েছিল চীনা ও ভারতীয় সেনারা। পরে স্থিতাবস্থা ফেরাতে বিরোধপূর্ণ অঞ্চল থেকে সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা জানায় উভয় দেশ। তবে হটস্প্রিং এবং গোগরা ঘাঁটি এলাকায় এখনও বিপুল সেনা মোতায়েন করে রেখেছে দুই দেশ। সেই বিষয়টি নিয়েই আলোচনা চালাতে গিয়েই হটলাইন স্থাপনে রাজি হন উভয় দেশের কর্মকর্তারা। সূত্র: আনন্দবাজার।

/এমপি/

সম্পর্কিত

ফের হামাস প্রধান নির্বাচিত হলেন ইসমাইল হানিয়া

ফের হামাস প্রধান নির্বাচিত হলেন ইসমাইল হানিয়া

নিরাপত্তা পরিষদের অধিবেশনে সভাপতিত্ব করবেন মোদি!

নিরাপত্তা পরিষদের অধিবেশনে সভাপতিত্ব করবেন মোদি!

ইরানের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্টের শপথগ্রহণ ৫ আগস্ট

ইরানের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্টের শপথগ্রহণ ৫ আগস্ট

নিরাপত্তা পরিষদের অধিবেশনে সভাপতিত্ব করবেন মোদি!

আপডেট : ০২ আগস্ট ২০২১, ০১:০২

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের পরবর্তী বৈঠক ৯ আগস্ট। এবারের বৈঠক হবে ভার্চুয়ালি। আর এটি হতে পারে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সভাপতিত্বে। জাতিসংঘে ভারতের সাবেক দূত সৈয়দ আকবরউদ্দিন টুইটারে দেওয়া এক পোস্টে এই তথ্য জানিয়েছেন।

সৈয়দ আকবরউদ্দিন জানান, এবারের বৈঠক হবে ভার্চুয়ালি। এ মাসেই ফ্রান্স থেকে জাতিসংঘের বৈঠকে সভাপতিত্বের দায়িত্ব এসেছে ভারতের হাতে। আর সেই কারণেই আশা করা হচ্ছে, আগস্টে নিরাপত্তা পরিষদের সভা পরিচালনার দায়িত্ব নিতে পারেন নরেন্দ্র মোদি। এছাড়াও জাতিসংঘের একাধিক জরুরি বিভাগের বৈঠকে সভাপতিত্ব করার কথা রয়েছে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর এবং পররাষ্ট্র সচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলার।

এর আগে ১৯৯২ সালে নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে অংশ নিয়েছিলেন ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী পিভি নরসিংহ রাও। আর বৈঠকের সভাপতি হিসেবে এই প্রথম কোনও ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী উপস্থিত থাকবেন।

আকবরউদ্দিন টুইটে আরও জানিয়েছেন, নিরাপত্তা পরিষদের ৭৫ বছরের ইতিহাসে এই প্রথমবার ভারতের প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বৈঠক হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। এর আগে একাধিক বার দেশটি জাতিসংঘের বিভিন্ন বৈঠক পরিচালনার দায়িত্ব পেলেও ভারতের কোনও প্রধানমন্ত্রী কখনও সেগুলোতে সভাপতিত্ব করেননি। সূত্র: আনন্দবাজার, জি নিউজ।

/এমপি/

সম্পর্কিত

ফের হামাস প্রধান নির্বাচিত হলেন ইসমাইল হানিয়া

ফের হামাস প্রধান নির্বাচিত হলেন ইসমাইল হানিয়া

সংঘাত এড়াতে সিকিম সীমান্তে চীন-ভারতের হটলাইন

সংঘাত এড়াতে সিকিম সীমান্তে চীন-ভারতের হটলাইন

ইরানের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্টের শপথগ্রহণ ৫ আগস্ট

ইরানের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্টের শপথগ্রহণ ৫ আগস্ট

ইরানের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্টের শপথগ্রহণ ৫ আগস্ট

আপডেট : ০১ আগস্ট ২০২১, ২১:৪৯

ইরানের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রায়িসি আগামী ৫ আগস্ট আনুষ্ঠানিকভাবে শপথগ্রহণ করবেন। পার্লামেন্ট ভবনে অনুষ্ঠিতব্য এ আয়োজনে অংশ নেবেন দেশটির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

এর আগে ৩ মে এক অনুষ্ঠানে তাকে দেশের ১৩তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালনের অনুমতি দেবেন সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ খামেনি। সর্বোচ্চ নেতা ছাড়াও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত থাকবেন।

৩ আগস্টের অনুষ্ঠানে ইরানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রথমে গত ১৮ জুন অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সার্বিক প্রতিবেদন প্রকাশ করবেন। এরপর তিনি ইব্রাহিম রায়িসির প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার বিষয়ে সর্বোচ্চ নেতার ডিক্রি পড়ে শোনাবেন। অনুষ্ঠানে আয়াতুল্লাহ খামেনি এবং ইব্রাহিম রায়িসি উভয়েই ভাষণ দেবেন।

গত ১৮ জুন ইরানে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে ইব্রাহিম রায়িসি ৬২ শতাংশ ভোট পেয়ে ভূমিধস বিজয় লাভ করেন। তিনি প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির স্থলাভিষিক্ত হবেন এবং ইরানের অষ্টম প্রেসিডেন্ট হিসেবে আগামী চার বছরের জন্য দায়িত্ব পালন করবেন। সূত্র: পার্স টুডে।

/এমপি/

সম্পর্কিত

ট্যাংকারে হামলা নিয়ে ইরান-ইসরায়েল উত্তেজনা

ট্যাংকারে হামলা নিয়ে ইরান-ইসরায়েল উত্তেজনা

ফের হামাস প্রধান নির্বাচিত হলেন ইসমাইল হানিয়া

ফের হামাস প্রধান নির্বাচিত হলেন ইসমাইল হানিয়া

সর্বশেষ

খুলনায় জুনের চেয়ে জুলাইয়ে তিন গুণ বেশি মৃত্যু

খুলনায় জুনের চেয়ে জুলাইয়ে তিন গুণ বেশি মৃত্যু

ট্যাংকারে হামলা নিয়ে ইরান-ইসরায়েল উত্তেজনা

ট্যাংকারে হামলা নিয়ে ইরান-ইসরায়েল উত্তেজনা

পর্নোগ্রাফিতে রাজি না হওয়ায় স্ত্রীকে নির্যাতন, স্বামীর কারাদণ্ড

পর্নোগ্রাফিতে রাজি না হওয়ায় স্ত্রীকে নির্যাতন, স্বামীর কারাদণ্ড

মাইকে ঘোষণা দিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত অর্ধশতাধিক

মাইকে ঘোষণা দিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত অর্ধশতাধিক

সিআরবিতে নলকূপ স্থাপন বন্ধে ওয়াসার এমডির কাছে অভিযোগ

সিআরবিতে নলকূপ স্থাপন বন্ধে ওয়াসার এমডির কাছে অভিযোগ

মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় মা-মেয়ে নিহত, গুরুতর আহত ১

মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় মা-মেয়ে নিহত, গুরুতর আহত ১

ফের হামাস প্রধান নির্বাচিত হলেন ইসমাইল হানিয়া

ফের হামাস প্রধান নির্বাচিত হলেন ইসমাইল হানিয়া

ডিএনসিসি করোনা হাসপাতালের ৫০০ বেডে যুক্ত হচ্ছে সেন্ট্রাল অক্সিজেন

ডিএনসিসি করোনা হাসপাতালের ৫০০ বেডে যুক্ত হচ্ছে সেন্ট্রাল অক্সিজেন

ছেলের হাতে বাবা খুন, ২২ ঘণ্টায় আদালতে অভিযোগপত্র

ছেলের হাতে বাবা খুন, ২২ ঘণ্টায় আদালতে অভিযোগপত্র

ভোলার ঢাকাগামী নৌযানে অতিরিক্ত যাত্রী

ভোলার ঢাকাগামী নৌযানে অতিরিক্ত যাত্রী

সেই পিয়াসা আটক 

সেই পিয়াসা আটক 

মানবপাচারবিরোধী ক্যাম্পেইনে মোশাররফ-তিশা

মানবপাচারবিরোধী ক্যাম্পেইনে মোশাররফ-তিশা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

‘এক চীন’ নীতি থেকে সরে এলো জাপান

‘এক চীন’ নীতি থেকে সরে এলো জাপান

বাংলাদেশসহ ১৫ দেশকে এক কোটি ১০ লাখ টিকা দেবে জাপান

বাংলাদেশসহ ১৫ দেশকে এক কোটি ১০ লাখ টিকা দেবে জাপান

জাপানে প্রবল বর্ষণ, লাখ লাখ মানুষকে নিরাপদে থাকার নির্দেশ

জাপানে প্রবল বর্ষণ, লাখ লাখ মানুষকে নিরাপদে থাকার নির্দেশ

জাপানে ভূমিধসে নিখোঁজ বেড়ে ৮০, উদ্ধার তৎপরতায় সেনা

জাপানে ভূমিধসে নিখোঁজ বেড়ে ৮০, উদ্ধার তৎপরতায় সেনা

জাপান দূতাবাসের কর্মকর্তার বাসায় হানা মিয়ানমারের সরকারি বাহিনীর

জাপান দূতাবাসের কর্মকর্তার বাসায় হানা মিয়ানমারের সরকারি বাহিনীর

জাপানে ভারী বর্ষণের পর ভূমিধস, নিখোঁজ ২০

জাপানে ভারী বর্ষণের পর ভূমিধস, নিখোঁজ ২০

আইসোলেশনে ১০ বছর!

আইসোলেশনে ১০ বছর!

টুনা মাছ ধরার কোটা বৃদ্ধির প্রস্তাব জাপানের

টুনা মাছ ধরার কোটা বৃদ্ধির প্রস্তাব জাপানের

জাপানের চিড়িয়াখানায় জায়ান্ট পান্ডার যমজ শাবকের জন্ম

জাপানের চিড়িয়াখানায় জায়ান্ট পান্ডার যমজ শাবকের জন্ম

জাপানের পানিসীমায় চীনা কোস্টগার্ডের জাহাজ

জাপানের পানিসীমায় চীনা কোস্টগার্ডের জাহাজ

© 2021 Bangla Tribune