X
শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১, ১০ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

মুক্তাগাছায় পুলিশের বিরুদ্ধে নির্যাতনের অভিযোগ

আপডেট : ১২ জানুয়ারি ২০২১, ১৮:০৪

ময়মনসিংহের মুক্তাগাছায় পুলিশি নির্যাতনের প্রতিবাদে ও বিচার দাবিতে সংবাদ সম্মেলনে অঝোরে কাঁদলেন কুতুবপুর গ্রামের ৭০ বছর বয়সের বৃদ্ধা খোদেজা খাতুন। মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) দুপুরে ময়মনসিংহ প্রেসক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশের বিরুদ্ধে খোদেজা খাতুন তার পরিবারের সদস্যদের নির্যাতনের অভিযোগ এনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন।

লিখিত বক্তব্যে বৃদ্ধা খোদেজা খাতুন বলেন, জমি সংক্রান্ত বিরোধে গত ৩১ ডিসেম্বর মধ্যরাতে পুলিশ তাকেসহ ছেলে আবু বক্কর সিদ্দিক, আব্দুর রাজ্জাক এবং ছেলের স্ত্রী সুলতানা বেগমকে থানায় ধরে নিয়ে যায়। পরে তাদের সাড়ে ৬ শতাংশ জমি প্রতিবেশী মানিক মিয়াকে দলিল করে দিতে চাপ দেয়। এতে রাজি না হওয়ায় তাদের শারীরিক ও মানষিক নির্যাতন করা হয়।

তিনি আরও বলেন, ১ জানুয়ারি বিকালে মানিক মিয়া মারপিট ও চুরির অভিযোগ এনে ৬ জনের নামে মামলা করলে, তাদের আদালতে পাঠায় পুলিশ। সেই সুযোগে মানিক মিয়া জমিটি বেদখল দিয়ে বাউন্ডারি দেয়।

খোদেজা খাতুনের ছেলে আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, জমিতে তার মা ধান আবাদ করে চলতো। আমাকে কারখানা করে কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিবে বলে এলাকার চিকু, সুরুজ, শরীফুল ইসলাম, হীরা, বাবুল এবং শাজাহান জমিটি মানিক মিয়াকে দানপত্র দলিল করে দিতে বলে। পরে ৭০ হাজার টাকার বিনিময়ে জমিটি দানপত্র দলিল করে দেই। কিন্তু এক বছর হয়ে গেলেও জমিতে কোনও কারখানা হয়নি। জমির মূল্য অনুযায়ী টাকা না দিয়ে তারা বেদখল দিয়েছে। জমিটি সাব কবলা করে দিতে আমার মাকে চাপ সৃষ্টি করে। এ নিয়েই তাদের সঙ্গে দ্বন্দ্ব হয়। কিন্তু পুলিশ কোনও কারণ ছাড়াই আমাদের ধরে নিয়ে মারপিট করে মামলা দিয়েছে। পরে তিনদিন জেল খাটার পর জামিনে বের হয়েছি। এখনও তারা নানাভাবে হুমকি দিচ্ছে।

তবে এ বিষয়ে জানতে চাইলে মানিক মিয়া দাবি করেন, সাড়ে ৬ শতাংশ জমি আবু বক্কর সিদ্দিকের কাছ থেকে তিনি ক্রয় করেছেন। পরে জমিটি উদ্ধারে পুলিশের সহযোগিতা চেয়েছেন। এ নিয়ে এলাকায় দরবারও হয়েছে। তাতে কোনও লাভ হয়নি। এখন জমিতে বাউন্ডারি দিয়ে দখলে নিয়েছেন বলে জানান তিনি।

অন্যদিকে নির্যাতনের অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা বলে দাবি করেছেন ক্তাগাছা থানার ওসি বিপ্লব কুমার বিশ্বাস। তিনি বলেন, গত এক বছর আগে খোদেজা খাতুনের ছেলে আবু বক্কর সিদ্দিক জমিটি মানিক মিয়ার কাছে আড়াই লাখ টাকার বিনিময়ে বিক্রি করলেও তা দখলে নিতে পারেনি। মানিক মিয়া মামলা দায়েরের পর আইনগতভাবেই তাদের গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

পানির ট্যাংকের চাপায় শ্বশুর-পুত্রবধূ নিহত

পানির ট্যাংকের চাপায় শ্বশুর-পুত্রবধূ নিহত

ইসলামপুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে দিনমজুরের মৃত্যু

ইসলামপুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে দিনমজুরের মৃত্যু

মদনে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে চার কৃষকের ঘর পুড়ে ছাই

মদনে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে চার কৃষকের ঘর পুড়ে ছাই

সড়ক দুর্ঘটনায় শিশু নিহত

সড়ক দুর্ঘটনায় শিশু নিহত

অবৈধ ড্রেজার মেশিন পুড়িয়ে দিলেন ইউএনও

অবৈধ ড্রেজার মেশিন পুড়িয়ে দিলেন ইউএনও

আ.লীগ নিয়ে কুৎসা: ভিপি নুরের বিরুদ্ধে আরও এক মামলা

আ.লীগ নিয়ে কুৎসা: ভিপি নুরের বিরুদ্ধে আরও এক মামলা

মেডিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্টকে উত্ত্যক্ত ও মারধরের প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ

মেডিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্টকে উত্ত্যক্ত ও মারধরের প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ

ময়মনসিংহের মামলায় রফিকুল মাদানীর একদিনের রিমান্ড

ময়মনসিংহের মামলায় রফিকুল মাদানীর একদিনের রিমান্ড

গ্রামীণ জনপদে শহরের ছোঁয়া

গ্রামীণ জনপদে শহরের ছোঁয়া

উপ-সহকারী প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে যত অভিযোগ

নেত্রকোনা গণপূর্ত বিভাগউপ-সহকারী প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে যত অভিযোগ

র‌্যাবের অভিযানে মানব পাচারকারী চক্রের সদস্য গ্রেফতার

র‌্যাবের অভিযানে মানব পাচারকারী চক্রের সদস্য গ্রেফতার

কালবৈশাখী ঝড়ে বিদ্যুৎ সরবরাহ লণ্ডভণ্ড

কালবৈশাখী ঝড়ে বিদ্যুৎ সরবরাহ লণ্ডভণ্ড

সর্বশেষ

করোনায় মারা গেলেন ডুয়েটের ডেপুটি রেজিস্ট্রার

করোনায় মারা গেলেন ডুয়েটের ডেপুটি রেজিস্ট্রার

ফাইজারের সঙ্গে বিশ্বের বৃহত্তম ভ্যাকসিন চুক্তি করবে ইইউ

ফাইজারের সঙ্গে বিশ্বের বৃহত্তম ভ্যাকসিন চুক্তি করবে ইইউ

শ্রীলঙ্কা-বাংলাদেশ টেস্টের মাঝেই করোনায় আক্রান্ত একজন

শ্রীলঙ্কা-বাংলাদেশ টেস্টের মাঝেই করোনায় আক্রান্ত একজন

স্ত্রী-শ্যালিকাকে হত্যার পর নিজেই করলেন আত্মহত্যা!

স্ত্রী-শ্যালিকাকে হত্যার পর নিজেই করলেন আত্মহত্যা!

তাণ্ডবের ঘটনায় বিচার চেয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজত নেতার পদত্যাগ

তাণ্ডবের ঘটনায় বিচার চেয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজত নেতার পদত্যাগ

উজবেকিস্তানে নিজেদের অবস্থান দেখলো বাংলাদেশ

উজবেকিস্তানে নিজেদের অবস্থান দেখলো বাংলাদেশ

মুসা ম্যানশনে আগুন: ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পিবিআই

মুসা ম্যানশনে আগুন: ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পিবিআই

 ‘বই পড়ায় শিক্ষার্থীদের আগ্রহ সৃষ্টিতে শিক্ষকদের ভূমিকা নিতে হবে’

 ‘বই পড়ায় শিক্ষার্থীদের আগ্রহ সৃষ্টিতে শিক্ষকদের ভূমিকা নিতে হবে’

ইন্দোনেশিয়ার নিখোঁজ সাবমেরিনের ক্রুদের উদ্ধারের সময় ফুরিয়ে যাচ্ছে

ইন্দোনেশিয়ার নিখোঁজ সাবমেরিনের ক্রুদের উদ্ধারের সময় ফুরিয়ে যাচ্ছে

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় যুব অধিকার পরিষদের কেন্দ্রীয় নেতার বাড়িতে হামলার অভিযোগ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় যুব অধিকার পরিষদের কেন্দ্রীয় নেতার বাড়িতে হামলার অভিযোগ

ভেঙে পড়েছে হেফাজতের শীর্ষ কমান্ড

আরও দুইশ’ নেতার তালিকা, গ্রেফতারে অভিযানভেঙে পড়েছে হেফাজতের শীর্ষ কমান্ড

রাজধানীতে আজ গাড়ির চাপ কম, বের হওয়াদের পুলিশের জেরা

রাজধানীতে আজ গাড়ির চাপ কম, বের হওয়াদের পুলিশের জেরা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

পানির ট্যাংকের চাপায় শ্বশুর-পুত্রবধূ নিহত

পানির ট্যাংকের চাপায় শ্বশুর-পুত্রবধূ নিহত

ইসলামপুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে দিনমজুরের মৃত্যু

ইসলামপুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে দিনমজুরের মৃত্যু

মদনে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে চার কৃষকের ঘর পুড়ে ছাই

মদনে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে চার কৃষকের ঘর পুড়ে ছাই

সড়ক দুর্ঘটনায় শিশু নিহত

সড়ক দুর্ঘটনায় শিশু নিহত

অবৈধ ড্রেজার মেশিন পুড়িয়ে দিলেন ইউএনও

অবৈধ ড্রেজার মেশিন পুড়িয়ে দিলেন ইউএনও

আ.লীগ নিয়ে কুৎসা: ভিপি নুরের বিরুদ্ধে আরও এক মামলা

আ.লীগ নিয়ে কুৎসা: ভিপি নুরের বিরুদ্ধে আরও এক মামলা

মেডিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্টকে উত্ত্যক্ত ও মারধরের প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ

মেডিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্টকে উত্ত্যক্ত ও মারধরের প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ

ময়মনসিংহের মামলায় রফিকুল মাদানীর একদিনের রিমান্ড

ময়মনসিংহের মামলায় রফিকুল মাদানীর একদিনের রিমান্ড

গ্রামীণ জনপদে শহরের ছোঁয়া

গ্রামীণ জনপদে শহরের ছোঁয়া

উপ-সহকারী প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে যত অভিযোগ

নেত্রকোনা গণপূর্ত বিভাগউপ-সহকারী প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে যত অভিযোগ

Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.
© 2021 Bangla Tribune