X
রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ১০ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

ব্যয় বাড়লেও মানুষ সঞ্চয় করছে বেশি

আপডেট : ১৫ জানুয়ারি ২০২১, ১৮:৩৭

সরকারি-বেসরকারি বেশ কয়েকটি গবেষণা প্রতিষ্ঠানের পর্যবেক্ষণ হচ্ছে—করোনাকালে মানুষের ব্যয় বেড়েছে। তবে বাংলাদেশ ব্যাংকের হিসাবে ব্যয় বাড়লেও মানুষ আগের চেয়ে সঞ্চয় করছে বেশি। দেখা যাচ্ছে, ব্যাংক আমানতে সুদ কমে গেলেও মানুষ সঞ্চয়ের ক্ষেত্রে ব্যাংককেই পছন্দের তালিকায় প্রথমে রাখছে। টাকা রাখার ক্ষেত্রে দ্বিতীয় তালিকায় রয়েছে জাতীয় সঞ্চয়পত্র। এছাড়া শেয়ার বাজারেও মানুষ এখন বিনিয়োগ শুরু করেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য বলছে, বিদায়ী ২০২০ সালের প্রথম ৯ মাসে ব্যাংকগুলোতে আমানত বেড়েছে ৯৮ হাজার কোটি টাকা। অপরদিকে ২০২০-২১ অর্থবছরের প্রথম পাঁচ মাসেই (জুলাই থেকে নভেম্বর) মানুষ ১৯ হাজার ৪৪ কোটি ৯২ লাখ টাকার সঞ্চয়পত্র কিনেছেন। আর গত ছয় মাসে শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ হয়েছে প্রায় দেড় লাখ কোটি টাকা। গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসের লেনদেন শেষে প্রধান শেয়ার বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ১ হাজার ৭০৯ কোটি টাকা। যদিও ছয় মাস আগে, অর্থাৎ জুলাই মাসের শুরুতে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ১১ হাজার ৭৭৫ কোটি টাকা। শুধু তা-ই নয়, এই ছয় মাসে শেয়ার বাজারে বিনিয়োগের মাধ্যমে কালো টাকা সাদা করেছেন ২০৫ জন। তাদের কাছ থেকে সরকার কর পেয়েছে ২২ কোটি ৮৪ লাখ টাকা।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ১ এপ্রিল থেকে ঋণের সুরের হার ৯ শতাংশ বাস্তবায়ন করার পরিপ্রেক্ষিতে ব্যাংক আমানতের সুদ ৬ শতাংশের নিচে নামিয়ে এনেছে। অপরদিকে কিছু কিছু ব্যাংকে আমানতের সুদ ২ শতাংশ পর্যন্ত নেমেছে। তবু প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে ব্যাংকে প্রচুর পরিমাণ আমানত আসছে। তবে এখনও সঞ্চয়পত্রের সুদ ১২ শতাংশ হওয়ার কারণে ১০ শতাংশ ট্যাক্স দেওয়ার পরেও মানুষ সঞ্চয়পত্রের দিকেও ঝুঁকছে।

এ প্রসঙ্গে ব্যাংকগুলোর ব্যবস্থাপনা পরিচালকদের (এমডি) সংগঠন এবিবি’র সাবেক চেয়ারম্যান ও  মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সৈয়দ মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘করোনায় বিনিয়োগ পরিস্থিতি ভালো নেই। যে কারণে ব্যাংক থেকে টাকা নেওয়ার আগ্রহ তো নেই-ই, উল্টো ব্যাংকে টাকা রাখছেন অনেকে। আবার করোনায় খরচও কমেছে অনেকের। এ কারণে মানুষ এখন সঞ্চয়ের প্রতি মনোযোগী। যার ফলে ব্যাংকে আমানত বাড়ছে। একই কারণে সঞ্চয়পত্রের বিক্রি ও শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ বাড়ছে।’

অর্থনীতিবিদরা বলছেন, করোনায় ভবিষ্যৎ অনিশ্চয়তার চিন্তায় মানুষ টাকা জমানোর প্রতি গুরুত্ব দিয়েছে। করোনার কারণে অনেকেরই বাহুল্য খরচ কমেছে। এ কারণে টাকা জমানোর পরিমাণ বেড়েছে। এছাড়া এজেন্ট ব্যাংকিং, মোবাইল ব্যাংকিং তথা ডিজিটাল পদ্ধতিতে টাকা জমা দেওয়ার সুযোগ চালু হওয়ায় এর বড় প্রভাব পড়েছে।

এ প্রসঙ্গে বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের (পিআরআই) নির্বাহী পরিচালক আহসান এইচ মনসুর বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘করোনায় বিলাসিতা করার সুযোগ ছিল না। ফলে অনিশ্চয়তার চিন্তায় মানুষ টাকা জমানোর প্রতি গুরুত্ব দিয়েছে। তবে মানুষের সঞ্চয় বাড়ার প্রধান কারণ প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স। করোনাকালে গত কয়েক মাসে প্রবাসীদের রেমিট্যান্স প্রবাহ বেড়ে যাওয়ায় অতিরিক্ত অর্থ নিরাপদ বিনিয়োগ হিসেবে প্রবাসীরা ব্যাংক, সঞ্চয়পত্র ও শেয়ার বাজারকে বেছে নিয়েছেন। এছাড়া বিনিয়োগ না থাকাও এর অন্যতম কারণ।’ তিনি বলেন, ‘অনেকেই সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ করতে পারেন না, যার ফলে ব্যাংকের আমানত বেড়েছে। আবার অন্য যেকোনও সময়ের চেয়ে সঞ্চয়পত্রও বেশি বিক্রি হয়েছে। কারণ, এখানে লাভ বেশি, আবার ঝুঁকি কম। আবার নতুন নতুন বড় বড় প্রতিষ্ঠান আসার কারণে মানুষ শেয়ার বাজারেও টাকা রাখছে।’

বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিসংখ্যান মতে, ব্যাংকে ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অর্থাৎ ৯ মাসে সঞ্চয়ী ও স্থায়ী আমানত বেড়েছে ৬৩ হাজার ৫৬৯ কোটি টাকা।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্যে দেখা যায়, ২০২০ সালের জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৯ মাসে সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো ব্যাংক থেকে আমানত তুলে নিলেও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তির আমানত রাখা বেড়েছে।

পরিসংখ্যান বলছে, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরের শেষে ব্যাংকগুলোতে মোট আমানতের পরিমাণ ছিল ১২ লাখ ১৪ হাজার ৪৫৫ কোটি টাকা, ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩ লাখ ১২ হাজার ৬২৯ কোটি টাকা। অর্থাৎ জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৯ মাসে আমানত বেড়েছে ৯৮ হাজার ১৭৪ কোটি টাকা।

তবে একই সময়ে ব্যাংকগুলোতে  সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর আমানত ১ লাখ ৬০ হাজার ৮৫৯ কোটি টাকা থেকে কমে হয়েছে ১ লাখ ৫৫ হাজার ৫৩১ কোটি টাকা। ব্যাংক থেকে সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো আমানত তুলে নিয়ে সরকারি তহবিলে জমা দেওয়ার কারণে তাদের আমানত কিছুটা কমেছে।

এদিকে করোনোভাইরাস সংক্রমণের শুরুর দিকে বেসরকারি আমানতে কিছুটা ধাক্কা লাগলেও পরে তা দ্রুত বাড়তে থাকে। বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তি আমানত ২০১৯ সালের ডিসেম্বর মাসের শেষে ছিল ৯ লাখ ৭৬ হাজার ৫৩৫ কোটি টাকা, যা গত বছরের সেপ্টেম্বরে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০ লাখ ৭৬ হাজার ৮২৫ কোটি টাকায়।

২০২০ সালের প্রথম ৯ মাসে মানুষ সঞ্চয়ী ও স্থায়ী আমানত রাখাও বাড়িয়েছে। অনেকে করোনার কারণে খরচ কমিয়ে নতুন করে সঞ্চয় শুরু করেছেন। এ সময়ে সঞ্চয়ী আমানত ২ লাখ ৪২ হাজার ৩৪৮ কোটি টাকা থেকে বেড়ে ২ লাখ ৭৯ হাজার ৬১২ কোটি টাকায় উঠেছে। স্থায়ী আমানত ৫ লাখ ৭৭ হাজার ১০৩ কোটি টাকা থেকে বেড়ে হয়েছে ৬ লাখ ৩ হাজার ৪০৮ কোটা টাকা। এ সময়ে প্রবাসীদের বিদেশি মুদ্রায় জমার পরিমাণ ১৬ হাজার ৩৩০ কোটি টাকা থেকে বেড়ে দাঁড়ায় ১৭ হাজার ২৫৫ কোটি টাকা।

/এপিএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

আজ থেকে নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠান দুইটা পর্যন্ত  খোলা

আজ থেকে নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠান দুইটা পর্যন্ত খোলা

বিমা অফিসও খোলা

বিমা অফিসও খোলা

ব্যাংক খোলা, লেনদেন দেড়টা পর্যন্ত

ব্যাংক খোলা, লেনদেন দেড়টা পর্যন্ত

পাঁচদিন পর খুলেছে পুঁজিবাজার, লেনদেন ১টা পর্যন্ত

পাঁচদিন পর খুলেছে পুঁজিবাজার, লেনদেন ১টা পর্যন্ত

আজ থেকে নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠান দুইটা পর্যন্ত খোলা

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১১:০৮

আজ রবিবার (২৫ জুলাই) থেকে ব্যাংক ও শেয়ারবাজারের মতো নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠানও খোলা রয়েছে। এগুলো বেলা দুইটা পর্যন্ত খোলা থাকবে।

এর আগে ১৪ জুলাই বাংলাদেশ ব্যাংকের আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বাজার বিভাগ এ সংক্রান্ত সার্কুলার জারি করে।

আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী ও ব্যবস্থাপনা পরিচালকদের পাঠানো নির্দেশনায় বলা হয়েছে, ২৫ জুলাই থেকে ৫ আগস্ট পর্যন্ত (সাপ্তাহিক ছুটির দিন ব্যতীত) সকাল ১০টা থেকে দুপুর দুইটা পর্যন্ত সীমিত পরিসরে আর্থিক প্রতিষ্ঠান খোলা রাখা যাবে।

বিধিনিষেধ চলাকালে গ্রাহকের হিসাবে মেয়াদপূর্তিতে স্থায়ী আমানত নগদায়ন, ঋণের কিস্তি জমা গ্রহণসহ জরুরি কাজ সম্পাদন করা যাবে। তবে অফিস খোলা রাখার ক্ষেত্রে মাস্ক পরিধানসহ স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে অনুসরণ করে সীমিত সংখ্যক লোকবলের মাধ্যমে সেবা প্রদানের বিষয়টি নিশ্চিত করতে বলেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর সর্বোচ্চ দুটি শাখা (একটি ঢাকায় ও অপরটি ঢাকার বাইরে) ও প্রধান কার্যালয়ের সংশ্লিষ্ট বিভাগ খোলা রাখা যাবে। বিধিনিষেধ চলাকালে কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের চলাচলের সময় স্ব স্ব প্রতিষ্ঠানের পরিচয়পত্র বহন করতে হবে।

প্রসঙ্গত, দেশে বর্তমানে ৩৩টি নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠান কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

/জিএম/এমএস/

সম্পর্কিত

বিমা অফিসও খোলা

বিমা অফিসও খোলা

ব্যাংক খোলা, লেনদেন দেড়টা পর্যন্ত

ব্যাংক খোলা, লেনদেন দেড়টা পর্যন্ত

পাঁচদিন পর খুলেছে পুঁজিবাজার, লেনদেন ১টা পর্যন্ত

পাঁচদিন পর খুলেছে পুঁজিবাজার, লেনদেন ১টা পর্যন্ত

এলপিজির মূল্য নিয়ন্ত্রণে সরকারি ‍উদ্যোগ থামাতে চায় লোয়াব, বিইআরসির না

এলপিজির মূল্য নিয়ন্ত্রণে সরকারি ‍উদ্যোগ থামাতে চায় লোয়াব, বিইআরসির না

বিমা অফিসও খোলা

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১১:০৭

ব্যাংক ও পুঁজিবাজারের পাশাপাশি আজ রবিবার (২৫ জুলাই) থেকে বিমা কোম্পানির অফিসও খোলা থাকছে। চলমান বিধিনিষেধের মধ্যে আগামী ৫ আগস্ট পর্যন্ত বিমা কোম্পানির প্রধান কার্যালয়সহ কিছু গুরুত্বপূর্ণ শাখা সকাল ১০ থেকে দুপুর ৩টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। 

এ ব্যাপারে অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ ২৩ জুলাই থেকে ৫ আগস্ট বিমা প্রতিষ্ঠানের সেবা নিশ্চিত করার প্রয়োজনীয় নির্দেশনা জারি করার জন্য বিমা খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষকে (আইডিআরএ) নির্দেশ দেয়। 

সংস্থাটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, এ সময় বিমা কোম্পানির প্রধান কার্যালয় ও গুরুত্বপূর্ণ শাখা অফিস সকাল ১০টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত খোলা থাকবে।

/জিএম/ইউএস/

সম্পর্কিত

বিমা খাতের গ্রাহকদের জন্য সরকারের টার্গেট নির্ধারণ

বিমা খাতের গ্রাহকদের জন্য সরকারের টার্গেট নির্ধারণ

এমডি নিয়োগ না দেওয়ায় মার্কেন্টাইল লাইফ ইন্স্যুরেন্সকে শোকজ

এমডি নিয়োগ না দেওয়ায় মার্কেন্টাইল লাইফ ইন্স্যুরেন্সকে শোকজ

বিমা অফিস ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান আড়াইটা পর্যন্ত খোলা

বিমা অফিস ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান আড়াইটা পর্যন্ত খোলা

বিমা অফিসও খুলে দেওয়া হচ্ছে

বিমা অফিসও খুলে দেওয়া হচ্ছে

ব্যাংক খোলা, লেনদেন দেড়টা পর্যন্ত

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১০:২৫

আজ রবিবার (২৫ জুলাই) থেকে যথারীতি খোলা রয়েছে ব্যাংক। সকাল ১০টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত ব্যাংকে লেনদেন হবে। লেনদেনের পর আনুষঙ্গিক কাজ শেষ করার জন্য বিকেল ৩টা পর্যন্ত ব্যাংক খোলা থাকবে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনা অনুযায়ী, করোনা সংক্রমণের পরিস্থিতি বিবেচনায় ২৫ জুলাই থেকে ৫ আগস্ট পর্যন্ত (সাপ্তাহিক ছুটির দিন ব্যতীত) বিধিনিষেধ চলাকালে সীমিত পরিসরে খোলা থাকবে ব্যাংক। রবিবার থেকে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত ব্যাংকে লেনদেন হবে। লেনদেন পরবর্তী আনুষঙ্গিক কার্যক্রম শেষ করার জন্য বিকেল ৩টা পর্যন্ত ব্যাংক খোলা থাকবে।

বাংলাদেশ ব্যাংক বলছে,  মাস্ক পরিধানসহ স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে পরিপালন করে সীমিত সংখ্যক লোকবলের মাধ্যমে ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ের অত্যাবশ্যকীয় বিভাগসহ ব্যাংক স্বীয় বিবেচনায় প্রয়োজনীয় সংখ্যক শাখা খোলা রাখতে পারবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সার্কুলারে বলা হয়, কঠোর লকডাউন চলাকালে প্রতিটি ব্যাংকের প্রধান শাখা, সব বৈদেশিক বাণিজ্য শাখা এবং জেলা ও উপজেলা সদরে একটি করে শাখা খোলা রাখতে হবে।

/জিএম/এমএস/

সম্পর্কিত

ব্যাংক লেনদেন ফিরল স্বাভাবিক সময়ে

ব্যাংক লেনদেন ফিরল স্বাভাবিক সময়ে

ঈদে ৩০ হাজার কোটি টাকার নতুন নোট

ঈদে ৩০ হাজার কোটি টাকার নতুন নোট

পাঁচদিন পর খুলেছে পুঁজিবাজার, লেনদেন ১টা পর্যন্ত

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১০:২০

ঈদুল আজহা ও সাপ্তাহিক ছুটি উপলক্ষ্যে টানা পাঁচদিনের ছুটি শেষে আজ রবিবার (২৫ জুলাই) দেশের পুঁজিবাজারে লেনদেন শুরু হয়েছে। করোনাভাইরাসের প্রকোপ রোধে সরকার ঘোষিত কঠোর বিধিনিষেধের এই দিন সকাল ১০টায় লেনদেন শুরু হয়েছে, চলবে দুপুর ১টা পর্যন্ত। 

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাথে সমন্বয় রেখে পুঁজিবাজারের লেনদেন সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত খোলা রাখা হবে। তার সঙ্গে প্রথম ও শেষের ১৫ মিনিট প্রি ও পোস্ট ক্লোজিং সেশন থাকবে।

এর আগে গত ১৯ জুলাই সর্বশেষ পুঁজিবাজারে লেনদেন অনুষ্ঠিত হয়। সেই দিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত লেনদেন অনুষ্ঠিত হয়। এরপর ঈদুল আজহা উপলক্ষে ২০ জুলাই থেকে ২২ জুলাই পর্যন্ত মোট তিনদিন এর সঙ্গে শুক্র ও শনিবার দুদিন সাপ্তাহিক ছুটির কারণেও লেনদেন বন্ধ ছিল।

/জিএম/ইউএস/

সম্পর্কিত

আজ থেকে নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠান দুইটা পর্যন্ত  খোলা

আজ থেকে নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠান দুইটা পর্যন্ত খোলা

বিমা অফিসও খোলা

বিমা অফিসও খোলা

ব্যাংক খোলা, লেনদেন দেড়টা পর্যন্ত

ব্যাংক খোলা, লেনদেন দেড়টা পর্যন্ত

এলপিজির মূল্য নিয়ন্ত্রণে সরকারি ‍উদ্যোগ থামাতে চায় লোয়াব, বিইআরসির না

এলপিজির মূল্য নিয়ন্ত্রণে সরকারি ‍উদ্যোগ থামাতে চায় লোয়াব, বিইআরসির না

এলপিজির মূল্য নিয়ন্ত্রণে সরকারি ‍উদ্যোগ থামাতে চায় লোয়াব, বিইআরসির না

আপডেট : ২৪ জুলাই ২০২১, ২১:২০

তরলীকৃত পেট্রোলিয়াম গ্যাস বা এলপিজির মূল্য নিয়ন্ত্রণে সরকারি ‍উদ্যোগকে থামিয়ে দিতে তৎপরতা চালাচ্ছে এলপিজি অপারেটরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ-লোয়াব। সম্প্রতি বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি) নির্ধারিত দামের চেয়ে অতিরিক্ত দরে অটোগ্যাস বিক্রি করায় জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর জরিমানা করতে শুরু করেছে। আর এ ধরনের অভিযান ঠেকাতে বিইআরসির হস্তক্ষেপ চেয়ে চিঠি দিয়েছে লোয়াব। তবে কমিশন পাল্টা এক চিঠিতে জানিয়ে দিয়েছে, এ ধরনের অভিযান তারা বন্ধ করবেন না। উল্টো তাদের ঘোষিত দরে এলপিজি বিক্রি না করলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করারও হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে।

চলতিবছর এপ্রিলে প্রথমবার দেশে সরকারিভাবে এলপিজির দর নির্ধারণের ঘোষণা আসে বিইআরসির পক্ষ থেকে। ২০২০ সালের ২০ আগস্ট উচ্চ আদালতের দেওয়া এক আদেশ বাস্তবায়ন করতে বিইআরসি এই ঘোষণা দেয়। এপ্রিলের পর জুন পর্যন্ত আরও তিনবার এলপিজির দাম পুনর্নির্ধারণ করা হয়। আন্তর্জাতিক রীতি অনুযায়ী সৌদি সিপি অনুসারে এই দাম নির্ধারণ করা হয়। তবে শুরু থেকেই দাম নির্ধারণের বিষয়টি মেনে নেয়নি বেসরকারি এলপিজি বিক্রেতারা। বাজারে দাম কমানোতো দূরের কথা কোনও ক্রমেই দাম কমানো হবে না বলেও সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়।

ফলে ভোক্তার স্বার্থ রক্ষায় সরকারের এ ধরনের ‘ভালো উদ্যোগটি’ প্রশ্নের মুখে পড়ে। তীব্র সমালোচনার মধ্যেই জ্বালানি বিভাগ সরকারের তরফ থেকে মাঠে নামার সিদ্ধান্ত নেয়। গত ১২ জুলাই জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর এক অভিযানে এ এইচ সি এলপিজি অটোগ্যাস ফিলিং স্টেশনকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করে। ওই জরিমানার কাগজে দেখা যায়, অভিযোগ নম্বর দেওয়া হয়েছে ০০৪৪৯২২, আর অভিযোগকারীর নাম লেখা রয়েছে ‘রাষ্ট্র’। এ এইচ সি ফিলিং স্টেশনকে জরিমানাই বাড়তি দরে এলপিজি বিক্রি রুখতে প্রথম কোনও অভিযান, যা গণমাধ্যমের খবরে এসেছে।

একই দিন ই-মেইলের মাধ্যমে বিইআরসিকে একটি চিঠি পাঠায় লোয়াব। চিঠিতে বলা হয়, গত ১২ এপ্রিল ঘোষিত মূল্য সংশোধনের জন্য এলপি গ্যাস অপারেটরদের ১৮টি আবেদন শুনানির অপেক্ষায় রয়েছে। তাই বিষয়টির নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত ১২ এপ্রিলের মূল্যকে ভিত্তি ধরে অনুষ্ঠিতব্য যে কোনও মাসিক সভায় অংশগ্রহণ করা থেকেও লোয়াব বিরত রয়েছে।

চিঠিতে লোয়াব বলে, ‘আমরা ১২ এপ্রিলের এমআরপি (সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য) বিষয়ে পেশকৃত আবেদন দ্রুততম সময়ের মধ্যে যৌক্তিকভাবে বিবেচনা করার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি এবং বিষয়টির সন্তোষজনক নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত ভোক্তা অধিকারের অভিযান বন্ধ রাখার ব্যবস্থা নেবেন আশা করি। এ বিষয়ে লোয়াবের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বিইআরসির চেয়ারম্যানের আলোচনা অনুযায়ী ধারণা করা হয়েছিল যে, ডিসপিউটেড এমআরপির বিষয়টি নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত ভোক্তা অধিকার অধিদফতর কোনও প্রকার অভিযান পরিচালনা করবে না। কিন্তু এখনও অভিযান চলছে। আজকের অভিযানে যে জরিমানা করা হয়েছে তার একটি রশিদ সংযুক্ত করা হলো।

লোয়াব বলছে, লকডাউনের কারণে বিইআরসি শুনানির তারিখ বাতিল করেছে এবং কখন শুনানি হবে তা অনির্দিষ্ট রয়ে গেছে। সেজন্য অন্তর্বর্তী সময়ে কোনও অভিযান না চালানোর ব্যবস্থা করবে বলে আশা করছে লোয়াব।

এই চিঠির জবাবে বিইআরসির সচিব রুবিনা ফেরদৌস স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে বলা হয়েছে, ২০২০ সালের ২০ আগস্টে উচ্চ আদালতের দেওয়া আদেশে গণশুনানি করে এলপিজির দাম নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রথমবার ১২ এপ্রিল, পরে ২৯ এপ্রিল, ৩১ মে এবং ৩০ জুন আরও তিন দফা দর সমন্বয় করা হয়েছে। এখন বিইআরসির কাছে ১৮টি প্রতিষ্ঠানের আবেদন রয়েছে। যে আবেদনগুলোর শুনানির জন্য ৭-৮ জুলাই গণশুনানির তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছিল। কিন্তু অতিমারি পরিস্থিতির কারণে গনশুনানির করা সম্ভব হয়নি। ভবিষ্যতে শুনানি হলে সেখানে সকলের মতামত দেওয়ার সুযোগ রয়েছে। ফলে এখন যে দাম ঘোষণা করা হয়েছে ওই দামে এলপিজি বিক্রি করতে হবে। অন্যথায় কমিশন আইনগত ব্যবস্থা নেবে।

প্রসঙ্গত, রান্নার এলপিজি ছাড়াও পরিবহনের জন্য অটোগ্যাসের দামও নির্ধারণ করে দেয় কমিশন। কিন্তু আগে থেকেই বেশি দামে বিক্রি হওয়া এসব পেট্রোলিয়াম গ্যাসের দাম কমায়নি বিক্রেতা প্রতিষ্ঠানগুলো। সঙ্গত, কারণে এখন মাঠে নেমেছে সরকারি প্রতিষ্ঠান।

/ইউএস/

সম্পর্কিত

বিধি ছাড়াই নিধিরাম সর্দার কমিশন!

বিধি ছাড়াই নিধিরাম সর্দার কমিশন!

এলপিজির দাম পুনর্নির্ধারণে অনুষ্ঠেয় গণশুনানি স্থগিত

এলপিজির দাম পুনর্নির্ধারণে অনুষ্ঠেয় গণশুনানি স্থগিত

এলপিজির দাম নির্ধারণে ৭ জুলাই আবার গণশুনানি

এলপিজির দাম নির্ধারণে ৭ জুলাই আবার গণশুনানি

আরও কমলো এলপিজির দাম, কমেছে অটোগ্যাসের দামও

আরও কমলো এলপিজির দাম, কমেছে অটোগ্যাসের দামও

সর্বশেষ

অস্ট্রেলিয়াকে গুঁড়িয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সমতা

অস্ট্রেলিয়াকে গুঁড়িয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সমতা

দুধ যেন উপচে না পড়ে

দুধ যেন উপচে না পড়ে

ময়মনসিংহ মেডিক্যালের করোনা ইউনিটে বাড়লো ২৪ শয্যা

ময়মনসিংহ মেডিক্যালের করোনা ইউনিটে বাড়লো ২৪ শয্যা

বিধিনিষেধ না মেনে যাত্রী পরিবহন, মাইক্রোবাস বাজেয়াপ্ত

বিধিনিষেধ না মেনে যাত্রী পরিবহন, মাইক্রোবাস বাজেয়াপ্ত

আজ থেকে নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠান দুইটা পর্যন্ত  খোলা

আজ থেকে নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠান দুইটা পর্যন্ত খোলা

বিচ্ছেদের পর যে কারণে আবারও ভাইরাল আমির-কিরণ

বিচ্ছেদের পর যে কারণে আবারও ভাইরাল আমির-কিরণ

বিমা অফিসও খোলা

বিমা অফিসও খোলা

সৌদি থেকে ফিরে কৃষিকাজ করে মাসে আয় ৩ লাখ

সৌদি থেকে ফিরে কৃষিকাজ করে মাসে আয় ৩ লাখ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

আজ থেকে নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠান দুইটা পর্যন্ত  খোলা

আজ থেকে নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠান দুইটা পর্যন্ত খোলা

বিমা অফিসও খোলা

বিমা অফিসও খোলা

ব্যাংক খোলা, লেনদেন দেড়টা পর্যন্ত

ব্যাংক খোলা, লেনদেন দেড়টা পর্যন্ত

পাঁচদিন পর খুলেছে পুঁজিবাজার, লেনদেন ১টা পর্যন্ত

পাঁচদিন পর খুলেছে পুঁজিবাজার, লেনদেন ১টা পর্যন্ত

এলপিজির মূল্য নিয়ন্ত্রণে সরকারি ‍উদ্যোগ থামাতে চায় লোয়াব, বিইআরসির না

এলপিজির মূল্য নিয়ন্ত্রণে সরকারি ‍উদ্যোগ থামাতে চায় লোয়াব, বিইআরসির না

© 2021 Bangla Tribune