X
মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ২৮ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

৭ দিনের ‘সর্বাত্মক বিধিনিষেধ’ শুরু: যা করবেন না

আপডেট : ১৪ এপ্রিল ২০২১, ০৭:০০

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ঠেকাতে আরোপ করা ‘সর্বাত্মক বিধিনিষেধ’ আজ থেকে শুরু হয়েছে। ১৪ থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত চলাচলের সুনির্দিষ্ট নিষেধাজ্ঞা, এই কয়দিন কী করা যাবে, বিশেষ ছাড়ে কী কী করা যাবে—এ বিষয়ে সোমবার (১৩ এপ্রিল) প্রজ্ঞাপনে জারি করা হয়। সেখানে বলা আছে, অতি জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কোনোভাবেই বাড়ির বাইরে বের হওয়া যাবে না।

তবে বাইরে যেতে হলে অনলাইনে মুভমেন্ট পাশ নিয়ে তবেই বের হওয়া যাবে। movementpass.police.gov.bd এই লিংকে গিয়ে ওষুধ, চিকিৎসা, কৃষিপণ্য পরিবহন, চাকরিসহ ১৪টি ক্যাটাগরিতে পাস দেওয়া হবে। প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদানের পর শর্তসাপেক্ষে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য অনুমতি দেওয়া হবে।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, ‘করোনা সংক্রমণ যে হারে বাড়ছে তাতে করে মানুষকে ঘরে রাখা জরুরি। সবকিছু খোলা রেখে সেটা যেমন সম্ভব না, সব বন্ধ করলেও জীবন যাপন ব্যাহত হবে। সে কারণেই প্রয়োজন বিষয়টিকে ফোকাস করা হয়েছে। অতিপ্রয়োজন ছাড়া এ সময় কোনোভাবেই ঘর ত্যাগ না করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

যা করা যাবে

করোনার বিস্তার রোধে সাত দিনের বিধিনিষেধের মধ্যে জরুরি পণ্য পরিবহন করা যাবে; উৎপাদন ব্যবস্থা চালু থাকবে; জরুরিসেবা দেওয়া যাবে। শিল্প-কারখানাগুলো স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় চালু রাখতে পারবে। সকাল ৯টা থেকে ৩টা পর্যন্ত উন্মুক্তস্থানে কাঁচাবাজার খোলা থাকবে এবং বাজার করা যাবে।

জরুরি পরিষেবা দেওয়া যাবে। এর মধ্যে রয়েছে কৃষি উপকরণ, খাদ্যশস্য ও খাদ্যদ্রব্য পরিবহন, ত্রাণ বিতরণ, স্বাস্থ্যসেবা, কোভিড-১৯ টিকা প্রদান। বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস/জ্বালানি, ফায়ার সার্ভিস, বন্দরগুলোর (স্থল, নদী ও সমুদ্রবন্দর) কার্যক্রম চলবে। টেলিফোন ও ইন্টারনেট (সরকারি-বেসরকারি) সেবা দেওয়া যাবে। গণমাধ্যম (প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া) কর্মীরা পেশাগতদায়িত্ব পালন করতে পারবেন। ওষুধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়, চিকিৎসাসেবা, মরদেহ দাফন/সৎকার সংশ্লিষ্ট কাজ করা যাবে। টিকা কার্ড দেখিয়ে টিকা নেওয়ার জন্য যাতায়াত করা যাবে।

যা করা যাবে না

সব সরকারি-বেসরকারি অফিস বন্ধ থাকবে। তবে প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিজ নিজ কর্মস্থলে অবস্থান করতে হবে। এ সময়ের মধ্যে জনসাধারণকে অতি জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কোনোভাবেই বাড়ির বাইরে বের হওয়া যাবে না। সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১২টা এবং সন্ধ্যা ৭টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত খাবারের দোকান ও হোটেল-রেস্তোরাঁ খোলা রাখা যাবে না। শপিং মলসহ অন্যান্য দোকান বন্ধ রাখতে হবে।

এর আগে করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় গত ৫ এপ্রিল থেকে ৭ দিনের জন্য গণপরিবহন বন্ধসহ মানুষের চলাচল নিয়ন্ত্রণে কঠোর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল সরকার। দুদিন পরে সে সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসে সকাল-সন্ধ্যা গণপরিবহন চলার অনুমতি দেওয়া হয়। এর একদিন পর খুলে দেওয়া হয় শপিং মলও। তবে এবারের নিষেধাজ্ঞার মধ্যে সেই সুযোগ নেই বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

 

/ইউআই/আইএ/

সম্পর্কিত

বৃদ্ধ দম্পতিকে নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল, হামলাকারী গ্রেফতার

বৃদ্ধ দম্পতিকে নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল, হামলাকারী গ্রেফতার

বাঘ হত্যাকারী ধরিয়ে দিলে ৫০ হাজার টাকা পুরস্কার

বাঘ হত্যাকারী ধরিয়ে দিলে ৫০ হাজার টাকা পুরস্কার

৯৭ শতাংশ অভিভাবক স্কুল খোলার পক্ষে: জরিপ

৯৭ শতাংশ অভিভাবক স্কুল খোলার পক্ষে: জরিপ

ফেসবুক কি শুনতে পায়, কীভাবে নজরদারি করে?

ফেসবুক কি শুনতে পায়, কীভাবে নজরদারি করে?

ভ্রাম্যমাণ ছিনতাইকারীদের ‘গাড়ি গ্রুপ’

ভ্রাম্যমাণ ছিনতাইকারীদের ‘গাড়ি গ্রুপ’

কোথাও নেই যেন স্বাস্থ্যবিধি! (ফটোস্টোরি)

কোথাও নেই যেন স্বাস্থ্যবিধি! (ফটোস্টোরি)

প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর বিক্রি: ভূমি অফিসের দুই কর্মকর্তাকে বদলি

প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর বিক্রি: ভূমি অফিসের দুই কর্মকর্তাকে বদলি

সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে তিন পরামর্শ

সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে তিন পরামর্শ

নীলক্ষেতে জাল সনদসহ গ্রেফতার ২

নীলক্ষেতে জাল সনদসহ গ্রেফতার ২

চীনা রাষ্ট্রদূতের মন্তব্যে বিস্মিত কূটনীতিকরা

চীনা রাষ্ট্রদূতের মন্তব্যে বিস্মিত কূটনীতিকরা

গা ঘেঁষে চলছে শপিং

গা ঘেঁষে চলছে শপিং

বেতন-বোনাসে শ্রমিকরা খুশি, ছুটি নিয়েই যতো ঝামেলা

বেতন-বোনাসে শ্রমিকরা খুশি, ছুটি নিয়েই যতো ঝামেলা

সর্বশেষ

আহত গার্মেন্টস শ্রমিককে হাসপাতালে দেখতে গেলেন শ্রম প্রতিমন্ত্রী

আহত গার্মেন্টস শ্রমিককে হাসপাতালে দেখতে গেলেন শ্রম প্রতিমন্ত্রী

ভ্যাকসিন ছাড়া সৌদি আরব গেলে নিজ খরচে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন

ভ্যাকসিন ছাড়া সৌদি আরব গেলে নিজ খরচে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন

নিজের স্বপ্নপুরুষের সঙ্গে কয়েক জন্মের তফাতে জুলেখার মিলন

নিজের স্বপ্নপুরুষের সঙ্গে কয়েক জন্মের তফাতে জুলেখার মিলন

অবিশ্বাস্য গল্প বলেছি বিশ্বাসযোগ্য ভঙ্গিতে : রাশিদা সুলতানা

অবিশ্বাস্য গল্প বলেছি বিশ্বাসযোগ্য ভঙ্গিতে : রাশিদা সুলতানা

উপকূলের আঁধার কাটালো সৌরবাতি

ডিজিটাল উপকূল- ১উপকূলের আঁধার কাটালো সৌরবাতি

মালয়েশিয়ায় পাচারের সময় ৬ রোহিঙ্গা নারী-শিশু উদ্ধার, আটক ১

মালয়েশিয়ায় পাচারের সময় ৬ রোহিঙ্গা নারী-শিশু উদ্ধার, আটক ১

বার্সা-রিয়াল জোটে থাকলে বাদ রোনালদোরা

বার্সা-রিয়াল জোটে থাকলে বাদ রোনালদোরা

এআইইউবি-তে ৫জি প্রযুক্তি বিষয়ে ওয়েবিনার 

এআইইউবি-তে ৫জি প্রযুক্তি বিষয়ে ওয়েবিনার 

স্বাস্থ্যবিধি না মানায় বিপণিবিতান ও সড়কে জরিমানা

স্বাস্থ্যবিধি না মানায় বিপণিবিতান ও সড়কে জরিমানা

বরিশাল সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে নির্মিত হচ্ছে ‘ইমাম ভবন’

বরিশাল সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে নির্মিত হচ্ছে ‘ইমাম ভবন’

নিঃসঙ্গ জীবনের গল্প

নিঃসঙ্গ জীবনের গল্প

লকডাউন
সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

চীনা রাষ্ট্রদূতের মন্তব্যে বিস্মিত কূটনীতিকরা

চীনা রাষ্ট্রদূতের মন্তব্যে বিস্মিত কূটনীতিকরা

ঈদের পর ভারত ও নেপালের মতো ভয়াবহ অবস্থার আশঙ্কা স্বাস্থ্যমন্ত্রীর

ঈদের পর ভারত ও নেপালের মতো ভয়াবহ অবস্থার আশঙ্কা স্বাস্থ্যমন্ত্রীর

সীমান্ত এলাকায় ব্যাপকহারে করোনা টেস্টের নির্দেশ

সীমান্ত এলাকায় ব্যাপকহারে করোনা টেস্টের নির্দেশ

গাছ কাটার বিষয়ে জানাতে জরুরি সংবাদ সম্মেলন!

গাছ কাটার বিষয়ে জানাতে জরুরি সংবাদ সম্মেলন!

'যুক্তরাষ্ট্র-ভারতের কোয়াডে থাকলে ঢাকা-বেইজিং সম্পর্ক খারাপ হবে'

'যুক্তরাষ্ট্র-ভারতের কোয়াডে থাকলে ঢাকা-বেইজিং সম্পর্ক খারাপ হবে'

দুর্যোগের কবলে দেশ, বঙ্গবন্ধুর জরুরি নির্দেশ

দুর্যোগের কবলে দেশ, বঙ্গবন্ধুর জরুরি নির্দেশ

মহিমান্বিত রাতে প্রার্থনারত মুসল্লিরা

মহিমান্বিত রাতে প্রার্থনারত মুসল্লিরা

৯৩ লাখ টিকা দেওয়া শেষ

৯৩ লাখ টিকা দেওয়া শেষ

করোনার টিকা তৈরির সক্ষমতা রয়েছে বাংলাদেশের: ডব্লিউটিও  

করোনার টিকা তৈরির সক্ষমতা রয়েছে বাংলাদেশের: ডব্লিউটিও  

দ্বিতীয় দফায় ৭ হাজার বীর মুক্তিযোদ্ধার চূড়ান্ত তালিকা

দ্বিতীয় দফায় ৭ হাজার বীর মুক্তিযোদ্ধার চূড়ান্ত তালিকা

© 2021 Bangla Tribune