X
বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১, ১০ আষাঢ় ১৪২৮

সেকশনস

অর্থের বিনিময়ে নিরপরাধ ব্যক্তির জেলখাটা দুর্ভাগ্যজনক: হাইকোর্ট

আপডেট : ০৬ জুন ২০২১, ১৮:১২

অর্থের বিনিময়ে বা যেকোনও কৌশলে মূল আসামি নিজেকে বাঁচিয়ে নিরপরাধ ব্যক্তিকে জেলে রাখার ঘটনাকে দুর্ভাগ্যজনক বলে মন্তব্য করেছেন হাইকোর্ট।

চট্টগ্রামের একটি হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি কুলসুম আক্তার ওরফে কুলসুমীর পরিবর্তে নিরপরাধ মিনুর জেলখাটার বিষয়ে শুনানিতে রবিবার (৬ জুন) বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন ও বিচারপতি মহিউদ্দিন শামীমের সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ এ মন্তব্য করে।

আদালতে মিনুর পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মো. শিশির মনির। অপরদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ড. মো. বশির উল্লাহ।

শুনানিতে আইনজীবী শিশির মনির আদালতকে বলেন, ‘বিগত দুই বছরে আমাদের দেশে এমন ২৬টি ঘটনা ঘটেছে। একজনের নামে আরেকজন জেলে থাকছে। অথচ আসল আসামি শনাক্তে অনেক পদ্ধতি আছে। আইবলিং পদ্ধতি আছে, এতে শনাক্ত করলে কোনও ভুল হবে না। এ বিষয়ে আমি  লিখিতভাবে আদালতকে আরও  জানাবো। তবে মিনুর ঘটনার পেছনে একটি চক্র কাজ করছে। এ ঘটনায় একটি বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশনা দাবি করছি।’

জবাবে আদালত বলেন, ‘আমরা মনে করি, এভাবে যদি রিয়েল (আসল) কালপ্রিট (দোষী) অর্থের বিনিময়ে হোক অথবা বিভিন্ন কৌশলের মাধ্যমে নিজেকে বাঁচিয়ে অন্য নিরপরাধ ব্যক্তিকে জেলের মধ্যে আটক  রাখে, সেটা দুর্ভাগ্যজনক।’

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ড. বশির উল্লাহ বলেন, ‘আমরাও এটা চাই দোষীদের শাস্তি হোক, নিরপরাধ কেউ যাতে জেলে না থাকে।’

পরে আদালত এ মামলার শুনানি সোমবার (৭ জুন) পর্যন্ত মুলতবি রাখার আদেশ দেন।

প্রসঙ্গত, কারাগারের একটি বালাম বই দেখতে গিয়ে মিনুর সাজা খাটার বিষয়টি উঠে আসে। সেখানে দেখা যায়, একজনের পরিবর্তে যাবজ্জীবন সাজা খাটছেন আরেক নারী। পরবর্তীতে বিষয়টি আদালতের নজরে আনা হলে এ মামলার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র হাইকোর্টে পাঠানোর আদেশ দেন চট্টগ্রামের আদালত।

কোনও কিছুর মিল না থাকায় একজনের স্থলে আরেকজন জেল খাটার বিষয়টি আদালতের নজরে আনেন চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার মো. শফিকুল ইসলাম খান।

মহানগর দায়রা জজ আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) মো. নোমান চৌধুরী বলেন, ‘আদালতে সংরক্ষিত ছবি সংবলিত নথিপত্র দেখে কুলসুম আক্তার কুলসুমী আর মিনু এক নয় বলে নিশ্চিত হন জেল সুপার। যেহেতু ইতোমধ্যে এ মামলার রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করা হয়েছে, তাই মামলার উপ-নথি দ্রুত সময়ের হাইকোর্টে পাঠানো হয়।’

হত্যা মামলায় আদালত যাবজ্জীবনসহ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ড দেন কুলসুম আক্তার কুলসুমীকে। কিন্তু আদালতে আত্মসমর্পণ করে জেল খাটছেন মিনু নামে এক নারী। নামের মিল না থাকার পরও কুলসুম আক্তার কুলসুমীর বদলে মিনু প্রায় ৩ বছরের অধিক সময় ধরে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে রয়েছেন।

পরে গত ২৩ মার্চ মিনুর নথি হাইকোর্টে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত। চট্টগ্রামের অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ শরীফুল আলম ভুঁঞার আদালত এ আদেশ দেন। পরে মামলার নথি হাইকোর্টে এলে এ বিষয়ে শুনানি শুরু হয়।

 

 

/বিআই/এপিএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

নতুন সেনাপ্রধানের দায়িত্বভার গ্রহণ

নতুন সেনাপ্রধানের দায়িত্বভার গ্রহণ

ফ্রিফায়ার-পাবজি-টিকটক বন্ধের পদক্ষেপ চেয়ে আবারও রিট

ফ্রিফায়ার-পাবজি-টিকটক বন্ধের পদক্ষেপ চেয়ে আবারও রিট

চৌর্যবৃত্তি ঠেকাতে বাংলায় টার্নিটিনের মতো সফটওয়্যার তৈরির আহ্বান

চৌর্যবৃত্তি ঠেকাতে বাংলায় টার্নিটিনের মতো সফটওয়্যার তৈরির আহ্বান

ব্যাটারিচালিত রিকশা-ভ্যান নিষিদ্ধ করা অমানবিক: বাংলাদেশ ন্যাপ

ব্যাটারিচালিত রিকশা-ভ্যান নিষিদ্ধ করা অমানবিক: বাংলাদেশ ন্যাপ

নিরাপদ পানি সরবরাহের দাবিতে ওয়াসাকে বিএনপির স্মারকলিপি

নিরাপদ পানি সরবরাহের দাবিতে ওয়াসাকে বিএনপির স্মারকলিপি

জামিন জালিয়াতির ঘটনায় আইনজীবী রাজীব রিমান্ডে

জামিন জালিয়াতির ঘটনায় আইনজীবী রাজীব রিমান্ডে

চামড়া সিন্ডিকেট রোধে নজরদারি করবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

চামড়া সিন্ডিকেট রোধে নজরদারি করবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

হুমায়ুন আজাদ হত্যা মামলায় যুক্তি উপস্থাপন শুনানি ২৩ সেপ্টেম্বর

হুমায়ুন আজাদ হত্যা মামলায় যুক্তি উপস্থাপন শুনানি ২৩ সেপ্টেম্বর

চার বিলে রাষ্ট্রপতির সম্মতি

চার বিলে রাষ্ট্রপতির সম্মতি

সাতক্ষীরায় হাসপাতালে আরও ৯ মৃত্যু, বাড়ছে লকডাউনের মেয়াদ

সাতক্ষীরায় হাসপাতালে আরও ৯ মৃত্যু, বাড়ছে লকডাউনের মেয়াদ

১০ নম্বর শর্ত থেকে মুক্ত হলো রবি

১০ নম্বর শর্ত থেকে মুক্ত হলো রবি

কক্সবাজারে খুলেছে হোটেল-মোটেল

কক্সবাজারে খুলেছে হোটেল-মোটেল

সর্বশেষ

২৯ ঘণ্টায় ১০ তলা!

২৯ ঘণ্টায় ১০ তলা!

নতুন সেনাপ্রধানের দায়িত্বভার গ্রহণ

নতুন সেনাপ্রধানের দায়িত্বভার গ্রহণ

ল্যাবে তৈরি হলো ‘বুকের দুধ’!

ল্যাবে তৈরি হলো ‘বুকের দুধ’!

ফ্রিফায়ার-পাবজি-টিকটক বন্ধের পদক্ষেপ চেয়ে আবারও রিট

ফ্রিফায়ার-পাবজি-টিকটক বন্ধের পদক্ষেপ চেয়ে আবারও রিট

টানা দুদিন পর বড় উত্থান পুঁজিবাজারে

টানা দুদিন পর বড় উত্থান পুঁজিবাজারে

থানায় সালিশ ডেকে আদালতে ক্ষমা চাইলেন ওসি

থানায় সালিশ ডেকে আদালতে ক্ষমা চাইলেন ওসি

করোনার ভুয়া টিকা গ্রহণ, দুশ্চিন্তায় মিমি চক্রবর্তী

করোনার ভুয়া টিকা গ্রহণ, দুশ্চিন্তায় মিমি চক্রবর্তী

বসুন্ধরার প্রতিপক্ষ মাঠেই আসেনি!

বসুন্ধরার প্রতিপক্ষ মাঠেই আসেনি!

ময়মনসিংহ নগরীর কয়েকটি এলাকায় লকডাউন ঘোষণা

ময়মনসিংহ নগরীর কয়েকটি এলাকায় লকডাউন ঘোষণা

চৌর্যবৃত্তি ঠেকাতে বাংলায় টার্নিটিনের মতো সফটওয়্যার তৈরির আহ্বান

চৌর্যবৃত্তি ঠেকাতে বাংলায় টার্নিটিনের মতো সফটওয়্যার তৈরির আহ্বান

জলাবদ্ধতায় বেহাল কবি নজরুল কলেজ

জলাবদ্ধতায় বেহাল কবি নজরুল কলেজ

ব্যাটারিচালিত রিকশা-ভ্যান নিষিদ্ধ করা অমানবিক: বাংলাদেশ ন্যাপ

ব্যাটারিচালিত রিকশা-ভ্যান নিষিদ্ধ করা অমানবিক: বাংলাদেশ ন্যাপ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফ্রিফায়ার-পাবজি-টিকটক বন্ধের পদক্ষেপ চেয়ে আবারও রিট

ফ্রিফায়ার-পাবজি-টিকটক বন্ধের পদক্ষেপ চেয়ে আবারও রিট

চৌর্যবৃত্তি ঠেকাতে বাংলায় টার্নিটিনের মতো সফটওয়্যার তৈরির আহ্বান

চৌর্যবৃত্তি ঠেকাতে বাংলায় টার্নিটিনের মতো সফটওয়্যার তৈরির আহ্বান

জামিন জালিয়াতির ঘটনায় আইনজীবী রাজীব রিমান্ডে

জামিন জালিয়াতির ঘটনায় আইনজীবী রাজীব রিমান্ডে

হুমায়ুন আজাদ হত্যা মামলায় যুক্তি উপস্থাপন শুনানি ২৩ সেপ্টেম্বর

হুমায়ুন আজাদ হত্যা মামলায় যুক্তি উপস্থাপন শুনানি ২৩ সেপ্টেম্বর

১০ নম্বর শর্ত থেকে মুক্ত হলো রবি

১০ নম্বর শর্ত থেকে মুক্ত হলো রবি

মেজর অব. মান্নান দম্পতিকে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তদন্ত কমিটির জিজ্ঞাসাবাদ

মেজর অব. মান্নান দম্পতিকে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তদন্ত কমিটির জিজ্ঞাসাবাদ

দোহার ও নবাবগঞ্জের সঙ্গে সব যোগাযোগ বন্ধ থাকবে

দোহার ও নবাবগঞ্জের সঙ্গে সব যোগাযোগ বন্ধ থাকবে

বান্ধবীকে ভিডিও কল দিয়ে তরুণীর ‘আত্মহত্যা’

বান্ধবীকে ভিডিও কল দিয়ে তরুণীর ‘আত্মহত্যা’

জামিন জালিয়াতির ঘটনায় আইনজীবী রাজীব গ্রেফতার

জামিন জালিয়াতির ঘটনায় আইনজীবী রাজীব গ্রেফতার

নাসির-অমির রিমান্ড শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা

নাসির-অমির রিমান্ড শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা

© 2021 Bangla Tribune