X
মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

সেকশনস

রঙ মাখা মুখে কষ্ট লুকান বাবু গায়েন

আপডেট : ০৭ জুন ২০২১, ১৮:২৭

গায়ে লাল পাঞ্জাবি আর মুখে বাহারি রঙ মেখে প্রতিদিনই বাড়ি থেকে বের হন বাবুল হোসেন ওরফে বাবু গায়েন। জীবিকার তাগিদে ছুটে চলেন জেলার বিভিন্ন পথে প্রান্তরে। গান শুনিয়ে, মানুষকে খুশি করে পাওয়া অর্থেেই চলে তার সংসার। গান শোনানোর সময় বাহারি সাজের এ মানুষটির চোখে-মুখে আনন্দ থাকলেও, বুকের ভেতরে লুকিয়ে আছে এক সাগর কষ্ট।

নওগাঁ সদর উপজেলার ভিমপুর গ্রামের বাসিন্দা বাবুল হোসেন বাবু। পৃথিবীতে আপন বলতে জন্মদাতা মা ও তিন মেয়ে ছাড়া তার আর কেউ নেই। স্ত্রীকে হারিয়েছেন অনেক আগেই। সংসার চলাতে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে ঘুরে গান আর গল্প শোনান তিনি। বাহারি পোশাকের এ মানুষটি হারমোনিয়াম কাঁধে নিয়ে জীবিকার তাগিদে ছুটে বেড়ান পুরো জেলা জুড়ে।

বাবু গায়েন বলেন, অকালে স্ত্রীকে হারানোর বেদনা অন্যদিকে সংসারে অভাব, সবমিলে নিজের বুকে হাজারও কষ্ট চেপে রেখে অন্যদের গান শুনিয়ে আনন্দ দিচ্ছি। এভাবে প্রায় এক যুগ ধরে করে গান গেয়ে মানুষকে খুশি করার কাজ করে যাচ্ছি।

তিনি বলেন, আগে গ্রামে গ্রামে যাত্রাপালায় অভিনয় করতাম। এখন আর যাত্রাপালার দিন নাই। তাই ১২ বছর ধরে বিভিন্ন জায়গায় গান করে বেড়াই। বয়সের কারণে কাজ করতে পারি না। এজন্য কেউ কাজে নেয় না।

বাবু বলেন, ছোটবেলায় বাবাকে হারিয়েছি। স্কুলে যাওয়ার সুযোগ হয়নি। সেই ছোট থেকেই সংসার আমাকে চালাতে হয়েছে। আমার তিনটি মেয়ে আছে। কী কপাল আমার! বড় মেয়ে ৫ বছর, মেঝো মেয়ে ৩ বছর আর ছোট মেয়ের বয়স যখন ৬ মাস তখন আমার স্ত্রী মারা যায়। খুব কষ্টে আমি আর আমার মা মিলে মেয়েদের বড় করেছি। প্রতিদিন গান করে যে টাকা উপার্জন হয় দিন শেষে সেই টাকায় খাবার কিনে বাড়িতে যেতাম। যেদিন টাকা কম উপার্জন হতো সেদিন আর বাজার করতে পারতাম না। গান করে যে টাকা উপার্জন হয় তা থেকে একটু একটু করে কিছু টাকা জমিয়ে বড় দুটি মেয়েকে বিয়ে দিয়েছি। এখন আর একটি
মেয়ে আছে, ১২ বছর বয়স তার।

গান গাওয়ার টাকায় কোনো রকমে সংসার চলে জানিয়ে তিনি আরও বলেন, বগুড়ার সান্তাহার, নওগাঁ, নাটোর, গাইবান্ধা, জয়পুরহাট, রাজশাহী, কুষ্টিয়াসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় ঘুরে ঘুরে গান করি। মানুষ আমার গান শুনে যে টাকা দেয় তাতেই আমার সংসার চলে। প্রতিদিন ৩০০-৪০০ টাকা পর্যন্ত আয় হয়। আবার কোনও দিন ২০০ টাকাও উপার্জন হয়। দুই মেয়েকে বিয়ে দেওয়ার সময় লোন নিয়েছিলাম। এখন প্রতিমাসে তার কিস্তি দিতে হয়। সংসারের অভাবের কারণে আমি পড়ালেখা করতে পারিনি। আমার মেয়েদেরও পড়ালেখা করাতে পারিনি।

বাবু গায়েনের গান শুনে মুগ্ধ হয় বিভিন্ন গন্তব্যের যাত্রীরা। খুশি হয়ে যে যেমন পারে টাকা দেয়। আর এভাবেই চলছে একজন বাবু গায়েনের জীবন সংগ্রাম।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

বিরোধ দূর করতে মাঠে আওয়ামী লীগ

বিরোধ দূর করতে মাঠে আওয়ামী লীগ

নিরপরাধ আরমানের কারাভোগ: ৭ পুলিশের দায়িত্বে অবহেলা পেয়েছে পিবিআই

নিরপরাধ আরমানের কারাভোগ: ৭ পুলিশের দায়িত্বে অবহেলা পেয়েছে পিবিআই

২৫ বছরে তিন বিয়ে, স্ত্রীর ওড়না গলায় বেঁধে আত্মহত্যা

২৫ বছরে তিন বিয়ে, স্ত্রীর ওড়না গলায় বেঁধে আত্মহত্যা

মাটি খুঁড়তেই বেরিয়ে এলো ৩৭৯টি বুলেট

মাটি খুঁড়তেই বেরিয়ে এলো ৩৭৯টি বুলেট

অটোমোবাইল শিল্প উন্নয়ন নীতিমালাসহ মন্ত্রিসভায় তিন এজেন্ডা অনুমোদন

অটোমোবাইল শিল্প উন্নয়ন নীতিমালাসহ মন্ত্রিসভায় তিন এজেন্ডা অনুমোদন

বোট ক্লাব থেকে নাসিরকে বহিষ্কার, তদন্তে কমিটি

বোট ক্লাব থেকে নাসিরকে বহিষ্কার, তদন্তে কমিটি

রাস্তায় হাঁটু কাদা, ধানের চারা রোপণ করে প্রতিবাদ

রাস্তায় হাঁটু কাদা, ধানের চারা রোপণ করে প্রতিবাদ

নারীপাচার চক্রের সদস্য আমিরুলের স্বীকারোক্তি

নারীপাচার চক্রের সদস্য আমিরুলের স্বীকারোক্তি

এলডিসি গ্র্যাজুয়েশনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় প্রস্তুত হতে হবে: বাণিজ্যমন্ত্রী

এলডিসি গ্র্যাজুয়েশনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় প্রস্তুত হতে হবে: বাণিজ্যমন্ত্রী

কোভিশিল্ডের টিকা মজুত আছে ১ লাখ ২৬ হাজার ডোজ

কোভিশিল্ডের টিকা মজুত আছে ১ লাখ ২৬ হাজার ডোজ

আইএলও’র নির্বাচনে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ ভোট লাভ

আইএলও’র নির্বাচনে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ ভোট লাভ

দোষী সাব্যস্ত হলে নাসির উদ্দিনের বিষয়ে ব্যবস্থা: জিএম কাদের

দোষী সাব্যস্ত হলে নাসির উদ্দিনের বিষয়ে ব্যবস্থা: জিএম কাদের

সর্বশেষ

পরীমণিকে ধর্ষণ-হত্যাচেষ্টা

অবশেষে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ‘তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন’

ইয়াবা-স্বর্ণ ও টাকাসহ তিন রোহিঙ্গা গ্রেফতার

ইয়াবা-স্বর্ণ ও টাকাসহ তিন রোহিঙ্গা গ্রেফতার

বায়ু শক্তিকে উদযাপনের দিন আজ

অপার সম্ভাবনায় গুরুত্ব কমবায়ু শক্তিকে উদযাপনের দিন আজ

স্পর্শকাতর সিদ্ধান্তের মুখে ইসরায়েলের নতুন সরকার

স্পর্শকাতর সিদ্ধান্তের মুখে ইসরায়েলের নতুন সরকার

৩২ লাখ টাকা সহায়তা পেলেন মোংলা বন্দরের শ্রমিক-কর্মচারীরা

৩২ লাখ টাকা সহায়তা পেলেন মোংলা বন্দরের শ্রমিক-কর্মচারীরা

ইউরোর ৬১ বছরের ইতিহাস পাল্টে দিলেন পোলিশ গোলকিপার

ইউরোর ৬১ বছরের ইতিহাস পাল্টে দিলেন পোলিশ গোলকিপার

মতিঝিলে ছিনতাই চক্রের দুই সদস্য গ্রেফতার

মতিঝিলে ছিনতাই চক্রের দুই সদস্য গ্রেফতার

সম্মুখ সারির যোদ্ধাদের কাজী এন্টারপ্রাইজ’র সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ

করোনা মোকাবিলাসম্মুখ সারির যোদ্ধাদের কাজী এন্টারপ্রাইজ’র সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ

একসঙ্গে চার মেয়ে সন্তানের জন্ম

একসঙ্গে চার মেয়ে সন্তানের জন্ম

মাস্ক না পরায় ২০ ব্যক্তিকে জরিমানা

মাস্ক না পরায় ২০ ব্যক্তিকে জরিমানা

বিরোধ দূর করতে মাঠে আওয়ামী লীগ

বিরোধ দূর করতে মাঠে আওয়ামী লীগ

এসডিজি বাস্তবায়নে অগ্রগতির শীর্ষ তিনে বাংলাদেশ

এসডিজি বাস্তবায়নে অগ্রগতির শীর্ষ তিনে বাংলাদেশ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

২৫ বছরে তিন বিয়ে, স্ত্রীর ওড়না গলায় বেঁধে আত্মহত্যা

২৫ বছরে তিন বিয়ে, স্ত্রীর ওড়না গলায় বেঁধে আত্মহত্যা

মাটি খুঁড়তেই বেরিয়ে এলো ৩৭৯টি বুলেট

মাটি খুঁড়তেই বেরিয়ে এলো ৩৭৯টি বুলেট

রাস্তায় হাঁটু কাদা, ধানের চারা রোপণ করে প্রতিবাদ

রাস্তায় হাঁটু কাদা, ধানের চারা রোপণ করে প্রতিবাদ

শেষ দিনেও ক্যাম্পাসে যাননি ভিসি কলিমউল্লাহ, শিক্ষার্থীদের মিষ্টি বিতরণ 

শেষ দিনেও ক্যাম্পাসে যাননি ভিসি কলিমউল্লাহ, শিক্ষার্থীদের মিষ্টি বিতরণ 

২৫ টাকায় নামলো পেঁয়াজের কেজি

২৫ টাকায় নামলো পেঁয়াজের কেজি

করোনাকালে স্বজনরা ত্যাগ করলেও পাশে দাঁড়িয়েছে পুলিশ: আইজিপি

করোনাকালে স্বজনরা ত্যাগ করলেও পাশে দাঁড়িয়েছে পুলিশ: আইজিপি

নাসির মাহমুদসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে পরীমণির মামলা

নাসির মাহমুদসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে পরীমণির মামলা

পাহাড় থেকে ঝুঁকিপূর্ণ বসতি সরাতে অভিযান শুরু

পাহাড় থেকে ঝুঁকিপূর্ণ বসতি সরাতে অভিযান শুরু

রাত ১২ টার মধ্যে কাদের মির্জাকে গ্রেফতারে দাবি মঞ্জুর

রাত ১২ টার মধ্যে কাদের মির্জাকে গ্রেফতারে দাবি মঞ্জুর

© 2021 Bangla Tribune