X
শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর নির্মাণে অনিয়ম, ইউএনও’কে ওএসডি

আপডেট : ০৬ জুলাই ২০২১, ২১:০৫

বরগুনার আমতলীতে হতদরিদ্রদের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর নির্মাণে অনিয়মের দায়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আসাদুজ্জামানকে ওএসডি (বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) করা হয়েছে। মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, ইউএনওর বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাৎ, স্বজনপ্রীতি এবং টাকার বিনিময়ে ধনাঢ্যদের ঘর দেওয়ার অভিযোগে বিভাগীয় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সোমবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব আবুল ফাতেহ মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম বদলির অদেশে জারি করেন। মঙ্গলবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বরগুনার জেলা প্রশাসক হাবিবুর রহমান। এর আগে প্রধানমন্ত্রীর ঘর বিতরণে অনিয়মের অভিযোগে আমতলী উপজেলা প্রশাসনের কর্মচারী এনামুল হক বাদশাকে বদলির পর সাময়িক বরখাস্ত করেন জেলা প্রশাসক।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ণ প্রকল্প-১-এর অধীনে প্রথম ধাপে ১শ’ এবং দ্বিতীয় ধাপের অধীনে আমতলী উপজেলায় হতদরিদ্রদের জন্য ৩শ’ ৫০টিসহ মোট ৪শ’ ৫০টি ঘর বরাদ্দ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ইউনিয়ন অনুযায়ী বরাদ্দ থেকে শুরু করে সব কাজেই লুকোচুরি এবং ঘর নির্মাণে ব্যাপক দুর্নীতি এবং অনিয়মের আশ্রয় নিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আসাদুজ্জামান। নীতিমালা অনুযায়ী ঘর বরাদ্দ থেকে শুরু করে নির্মাণ পর্যন্ত পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি গঠনের কথা। ইউএনও কোনও সভা না করে কাগজে-কলমে একটি কমিটি গঠন দেখিয়ে গোপনে সব কাজ করতেন একা।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির অন্যতম সদস্য প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. মফিজুর রহমান বলেন, ‘কোনও কমিটি হয়নি। ইউএনও পকেট কমিটি করে স্বাক্ষর নিয়ে সব কাজ একাই করেছেন। আমিসহ কমিটির কোনও সদস্য ঘর নির্মাণ সংক্রান্ত বিষয়ে কিছুই জানি না। ঘর বরাদ্দ, মালামাল ক্রয় করাসহ সব কাজ ইউএনও তার কার্যালয়ের কর্মচারী এনামুল হক বাদশার মাধ্যমে করতেন। দফতরে দফতরে গিয়ে  সাদা খাতায় বাদশা সভার রেজুলেশনের জন্য স্বাক্ষর নিতেন। স্বাক্ষর নেওয়ার পর ইউএনও তা সংরক্ষণ করতেন। আমি রেজুলেশনে স্বাক্ষর দিতে না চাইলে ইউএনও আমাকে মারতে উদ্যত হন।’

কমিটির আরেক সদস্য আমতলী উপজেলা এলজিইডির প্রকৌশলী আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, ‘ঘর নির্মাণ সংক্রান্ত বিষয়ে আমি কিছুই জানি না। ইউএনও গোপনে সব একাই করেছেন। আমি ওই কমিটির সদস্য কিনা তাও জানাননি। মাঝে মধ্যে বিভিন্ন সভা আছে বলে লোক পাঠিয়ে সাদা খাতায় স্বাক্ষর নিতেন।’

এর আগে, ঘর নির্মাণে ইউএনওর ব্যাপক দুর্নীতির বিষয়টি নিয়ে একাধিক গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হওয়ার পর তা নজরে আসে জেলা প্রশাসক মো. হাবিবুর রহমানের। তাৎক্ষণিক তিনি তদন্ত কমিটি গঠন করেন। ওই কমিটি ঘরের তালিকা তৈরিতে অনিয়ম, দুর্নীতি ও টাকার বিনিময়ে ধনাঢ্য ব্যক্তিদের ঘর দেওয়ার সত্যতা পায়। জেলা প্রশাসক ওই প্রতিবেদন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়ে দেন। ওই প্রতিবেদনের আলোকে রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে সোমবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব আবুল ফাতেহ মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক আদেশে ইউএনও মো. আসাদুজ্জামানকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে ওএসডি করা হয়। এ ছাড়াও তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

একই অভিযোগে গত ৫ মে তার কার্যালয়ের সাঁট মুদ্রাক্ষরিক কাম কম্পিউটার অপারেটর মো. এনামুল হক বাদশাকে বরগুনার বেতগী উপজেলায় বদলির পর সাময়িক বরখাস্ত করেছেন জেলা প্রশাসক। 

এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ২০ জুন হতদরিদ্রদের দেওয়া ঘরের উদ্বোধন করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান একযোগে সারাদেশে প্রচারের আয়োজন থাকলেও আমতলীতে কোনও আয়োজন ছিল না। প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন করলেও আমতলীর ঘরের নির্মাণকাজ এখনও শেষ হয়নি। অভিযোগ রয়েছে, নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে নির্মাণকাজ করায় বেশ কয়েকটি ঘরের দেয়াল ধসে পড়েছে।

বরগুনা জেলা প্রশাসক মো. হাবিবুর রহমান বলেন, ‘আমতলীর ইউএনও মো. আসাদুজ্জামানকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে ওএসডি করার আদেশের কপি পেয়েছি। আদেশ মোতাবেক তাকে ইতোমধ্যে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।’

/এমএএ/

সম্পর্কিত

ধাপে ধাপে সব ক্লাসের সংখ্যা বাড়ানো হবে: মাউশি মহাপরিচালক

ধাপে ধাপে সব ক্লাসের সংখ্যা বাড়ানো হবে: মাউশি মহাপরিচালক

বাসচাপায় প্রাণ গেলো তিন বন্ধুর

বাসচাপায় প্রাণ গেলো তিন বন্ধুর

রহিমার ডিম বিক্রির টাকাও আত্মসাৎ করেছে এহসান গ্রুপ

রহিমার ডিম বিক্রির টাকাও আত্মসাৎ করেছে এহসান গ্রুপ

রাগীবের কথার যাদুতে এহসানে জড়িয়ে নিঃস্ব শিক্ষক

রাগীবের কথার যাদুতে এহসানে জড়িয়ে নিঃস্ব শিক্ষক

বিদ্যালয়ের টয়লেট থেকে ১১ ঘণ্টা পর উদ্ধার ছাত্রী

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:১৫

১৯৮০ সালে মুক্তি পায় আজিজুর রহমান পরিচালিত শিশুতোষ চলচ্চিত্র ‘ছুটির ঘণ্টা’। চলচ্চিত্রের গল্পে দেখা যায়, ঈদের ছুটি ঘোষণার দিন ১২ বছরের ছাত্র খোকন বিদ্যালয়ের টয়লেটে আটকা পড়ে। টানা ১১ দিন ভয়াবহ কষ্টে কাটে তার। ক্ষুধার জ্বালায় বই-খাতা, টাকা আর টয়লেটে পড়ে থাকা কাগজও খেয়ে ফেলে। ১১ দিন পর খোকনের লাশ উদ্ধার করা হয়।

চাঁদপুরের শাহরাস্তি উপজেলায় প্রায় এমনই একটি ঘটনা ঘটেছে। উপজেলার টামটা উত্তর ইউনিয়নের হোসেনপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী শারমিন টয়লেটে আটকা পড়ে। সে কথা বলতে পারে না। এ কারণে বিদ্যালয়ের ছুটি শেষে টয়লেটে তালা লাগানোর সময় কেউ টের পায়নি। টানা ১১ ঘণ্টা বাথরুমে থাকার পর বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) রাত ১০টার দিকে তাকে উদ্ধার করে স্থানীয়রা।

এলাকাবাসী ও শারমিনের পরিবার জানায়, পার্শ্ববর্তী কচুয়া উপজেলার আশ্রাফপুর ইউনিয়নের আশ্রাফপুর দক্ষিণ পাড়া হাজী বাড়ির আনোয়ার হোসেনের মেয়ে শারমিন আক্তার। বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বিদ্যালয় ছুটির পর টয়লেটে ঢোকে। কিন্তু বের হওয়ার আগেই বিদ্যালয়ের আয়া শাহানারা আক্তার শানু বাইরে থেকে তালা মেরে দেন। কথা বলতে না পারায় কাউকে ডাকতেও পারেনি শারমিন। এ সময় বারবার কথা বলার চেষ্টা করতে গিয়ে তার গলা ও মুখ দিয়ে রক্ত বের হয়। 

ছুটির পর বাড়ি না ফেরায় তার বাবা ওই বিদ্যালয়ের বেশ কয়েকজন ছাত্রী ও আত্মীয়ের বাড়িতে খুঁজতে থাকেন। রাত ১০টার পর স্থানীয় আল আমিন বিদ্যালয়ের পাশে ঘুরতে আসলে টয়লেটে আওয়াজ শুনে শারমিনের উপস্থিতি টের পায়। খবর পেয়ে এলাকার লোকজন তালা ভেঙে তাকে উদ্ধার করে।

শারমিনের বাবা আনোয়ার হোসেন জানান, রাত সাড়ে ১০টা পর্যন্ত মেয়েকে খুঁজেছি। বিদ্যালয় ছুটির পর শারমিন বাড়ি না ফেরায় সহপাঠী ও স্বজনদের বাড়িতে খোঁজ নিয়েছি। আমার মেয়ে বারবার লোকজন ডাকার চেষ্টা করতে গিয়ে তার গলা ও মুখ রক্তাক্ত হয়ে গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী আল আমিন জানান, রাতে পুলের ওপর ঘুরতে গিয়ে বিদ্যালয়ের টয়লেটে কারও শব্দ শুনতে পাই। মোবাইলের টর্চ জ্বেলে ভেন্টিলেটরের ফাঁকে মানুষের হাত দেখে প্রথমে ভূত ভেবে চমকে উঠি। পরে এলাকার লোকজনকে ডেকে এনে তালা ভেঙে শারমিনকে উদ্ধার করা হয়। এ সময় তার মুখের মাস্ক রক্তে ভেজা ছিল।

বিদ্যালয়ের আয়া শাহানারা আক্তার শানু জানান, বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় নয়, বিকাল ৪টার দিকে টয়লেটের তালা মেরেছিলেন বলে দাবি করেন তিনি। ভেতরে কেউ আছে কিনা না দেখেই দরজা বন্ধ করেন বলে জানান।

হোসেনপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আমীর হোসেন জানান, আমরা সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিদ্যালয়ে ছিলাম। শারমিনের ছুটি হয়েছে দুপুর ১২টায়। এরপর ওই টয়লেটে আমাদের দুই জন ম্যাডামও গিয়েছেন। কিন্তু তারা বলছেন সেখানে কাউকে দেখেননি। এমনকি দীর্ঘক্ষণ মেয়েটিকে না পাওয়ার বিষয়টি অভিভাবকও আমাদের জানাননি। তারা যদি আমাদেরকে জানাতেন তাহলে বিদ্যালয়ে খুঁজে দেখতাম। এ ঘটনায় তদন্ত হচ্ছে। আমরা দায়ীদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেবো।

জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. গিয়াস উদ্দিন বলেন, বিষয়টি শুনেছি। আগামী রবিবার সরেজমিন তদন্তে যাবো। দায়িত্ব পালনে কারও অবহেলা থাকলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শাহরাস্তি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শিরীন আক্তার জানান, বিষয়টি মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আহসান উল্যাহ চৌধুরীকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছি। এ ঘটনায় বিদ্যালয়ের কারও গাফিলতি পেলে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

বিদ্যুৎস্পৃষ্টে একই পরিবারের ৪ জনের মৃত্যু

বিদ্যুৎস্পৃষ্টে একই পরিবারের ৪ জনের মৃত্যু

‘আজান’ নিয়ে সংঘর্ষে একজন নিহত

‘আজান’ নিয়ে সংঘর্ষে একজন নিহত

সমুদ্রে নামতে ১০ নির্দেশনা

সমুদ্রে নামতে ১০ নির্দেশনা

অ্যাসাইনমেন্টের জন্য কোনও ফি নেই: শিক্ষামন্ত্রী

অ্যাসাইনমেন্টের জন্য কোনও ফি নেই: শিক্ষামন্ত্রী

ভোটাররা আমার মনিব, আমি চাকর: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:৩৯

তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান বলেছেন, আমার নির্বাচনি এলাকার সব ভোটার আমার মনিব। আমি তাদের চাকর ও সেবক।

শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার আওনা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় তিনি এ কথা বলেন।

ডা, মুরাদ হাসান বলেন, আমি প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বিশেষজ্ঞ ডিগ্রি অর্জন করেছি জনগণের সেবা করার জন্য। জনগণের সেবা করতে চাই চাকর হিসেবে। এটা আমার দায়িত্ব। এর বাইরে আমার কোনও দায়িত্ব নেই। আমি জীবন দিয়ে প্রমাণ করতে চাই আমি কত ভালো কর্মী। নেতা হতে চাই না। আমি আপনাদের চাকর হয়ে বেঁচে থাকতে চাই। 

তিনি আরও বলেন, আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শে, বঙ্গবন্ধুর চেতনা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার জন্য জীবন বিলিয়ে দিতে পারবো। এই দেশ রক্ত দিয়ে কেনা বাংলাদেশ। এই দেশ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের। এই দেশ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বাংলাদেশ, ৩০ লাখ বীর বাঙালির রক্ত দিয়ে কেনা। বাংলাদেশ কারও দয়ার দান না। বাংলাদেশ খুনি জিয়াউর রহমানের নয়। বাংলাদেশ একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলার খলনায়ক তারেক রহমানের নয়। এই মাটি বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মাটি। এই মাটিতে দাঁড়িয়ে একটি শপথ করতে চাই, আমি আপনাদের সন্তান, আমি খুনি জিয়ার মরণোত্তর বিচার বাংলার মাটিতেই করবো।

তথ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা উন্নয়নের মহাসড়কে হাঁটছি। আমাদের যেতে হবে সমৃদ্ধির সর্বোচ্চ শিখরে। বঙ্গবন্ধু শুধু বাংলাদেশ নয়, বিশ্বে মুক্তিকামী মানুষের জন্য এক অনন্য ইতিহাস। একটি ছবি যখন অনুপ্রাণিত করে, সেই ছবি আমাদের দৃষ্টিতে থাকা উচিত। কোনও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে নয়, নিজেকে আদর্শবান ও নৈতিকতায় বলীয়ান করে অন্যায়ের প্রতিবাদী হতে সাহস জোগাবে।

এ সময় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছানোয়ার হোসেন বাদশা, সহ-সভাপতি মাহবুবুর রহমান হেলাল ও সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশিদ প্রমুখ।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

টাকা হারানোর ঘটনায় সন্দেহ করায় পালিয়ে যায় ৩ ছাত্রী

টাকা হারানোর ঘটনায় সন্দেহ করায় পালিয়ে যায় ৩ ছাত্রী

সড়ক না খাল? 

সড়ক না খাল? 

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

ধাপে ধাপে সব ক্লাসের সংখ্যা বাড়ানো হবে: মাউশি মহাপরিচালক

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:২৫

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরের (মাউশি) মহাপরিচালক সৈয়দ গোলাম ফারুক বলেছেন, আগামী ২০ সেপ্টেম্বর থেকে অষ্টম ও নবম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা সপ্তাহে দুই দিন ক্লাস করতে পারবে। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ধাপে ধাপে সব ক্লাসের সংখ্যা বাড়ানো হবে। 

শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় বরিশাল সরকারি কলেজের অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত ‘শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পরিচ্ছন্নতা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে শ্রেণি কাযক্রম ‍এবং অ্যাসাইনমেন্ট’ বিষয়ক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

গোলাম ফারুক বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে একাডেমিক সব কার্যক্রম চালাতে হবে। এক্ষেত্রে কোনও শিথিলতা বা গাফিলতি প্রশ্রয় দেওয়া হবে না। জেলা থেকে ইউনিয়ন পর্যন্ত প্রত্যেকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আমাদের কর্মকর্তারা স্বাস্থ্যবিধির বিষয়টি তদারকি করবেন।

তিনি আরও বলেন, করোনাকালে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় অনেক শিক্ষার্থী ঝরে পড়েছে। তাদের ফিরিয়ে আনতে বেশকিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। এতে উল্লেখযোগ্য সফলতা আসবে বলে আশা করছি।
 
অ্যাসাইনমেন্টের বিষয়ে মাউশি মহাপরিচালক বলেন, এটা নিয়ে অনেক অভিযোগ উঠেছে। আমরা শিক্ষদেরকে কঠোরভাবে নির্দেশনা দিয়েছি সঠিকভাবে মূল্যায়ন করার। এ ক্ষেত্রে কারও বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ পাওয়া গেলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

করোনায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের ফি’র বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, নিয়ম অনুযায়ী শিক্ষার্থীদের ধার্যকৃত টাকা বেতন হিসেবে দিতে হবে। তবে কোও শিক্ষার্থীর সমস্যা থাকলে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠান প্রধানের কাছে আবেদন করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। এ বিষয়েও আমাদের নির্দেশনা রয়েছে।

বরিশাল মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের উদ্যোগে আয়োজিত সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বরিশাল শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর মোহাম্মদ ‍ইউনুস, বরিশাল সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ আব্বাস উদ্দিন খান, সরকারি সৈয়দ হাতেম আলী কলেজের অধ্যক্ষ মোস্তফা কামাল, সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ আসাদুজ্জামান, বরিশাল সরকারি মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ এহেতেশামুল হক প্রমুখ।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

বাসচাপায় প্রাণ গেলো তিন বন্ধুর

বাসচাপায় প্রাণ গেলো তিন বন্ধুর

রহিমার ডিম বিক্রির টাকাও আত্মসাৎ করেছে এহসান গ্রুপ

রহিমার ডিম বিক্রির টাকাও আত্মসাৎ করেছে এহসান গ্রুপ

রাগীবের কথার যাদুতে এহসানে জড়িয়ে নিঃস্ব শিক্ষক

রাগীবের কথার যাদুতে এহসানে জড়িয়ে নিঃস্ব শিক্ষক

জমি দিয়েছিলেন দাদা, বিদ্যালয়ের কক্ষ দখল করে বসবাস

জমি দিয়েছিলেন দাদা, বিদ্যালয়ের কক্ষ দখল করে বসবাস

ভাসানচর থেকে পালানোর সময় ২৬ রোহিঙ্গা আটক

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:৩৬

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার ভাসানচর থেকে পালানোর সময় তিন দালাল ও ২৬ জন রোহিঙ্গাকে আটক করেছে কোস্টগার্ড। বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ১০টায় জাহাইজ্জারচর (স্বর্ণদ্বীপের দক্ষিণ পাশ) এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করা হয়। শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে তাদেরকে ভাসানচর থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।
 
আজ বিকালে জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শহীদুল ইসলামের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার রাত ৮টায় ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের রোহিঙ্গা বাজরে পেছন দিয়ে তিন দালালের সহায়তায় একটি নৌকায় পালানোর চেষ্টা করে ২৬ রোহিঙ্গা। রাত সাড়ে ১০টার দিকে জাহাইজ্জারচরে নৌকাটি আটকে যায়। জেলেরা কোস্টগার্ডকে বিষয়টি জানালে তাদেরকে সেখান থেকে নিয়ে আসা হয়।

রাত ১টার দিকে ভাসানচর বিআইডব্লিউটি পল্টুনে নৌকাসহ দালাল ও রোহিঙ্গাদের নিয়ে আসে কোস্টগার্ডের সদস্যরা। পরবর্তীতে আজ দুপুর ১টা ৪০ মিনিটে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণে ২৬ জন রোহিঙ্গা ও তিন দালালকে ভাসানচর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। আটক তিন দালালের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের প্রস্তুতি চলছে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

বিদ্যুৎস্পৃষ্টে একই পরিবারের ৪ জনের মৃত্যু

বিদ্যুৎস্পৃষ্টে একই পরিবারের ৪ জনের মৃত্যু

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

১০ টাকা বেশি চাওয়ায় রিকশাচালককে কুপিয়ে হত্যা

১০ টাকা বেশি চাওয়ায় রিকশাচালককে কুপিয়ে হত্যা

মাদক ব্যবসা নিয়ে বিরোধের জেরে গোলাগুলি, আহত ১

মাদক ব্যবসা নিয়ে বিরোধের জেরে গোলাগুলি, আহত ১

বাসচাপায় প্রাণ গেলো তিন বন্ধুর

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:০৫

বরিশালের দপদপিয়া সেতুর ওপর যাত্রীবাহী বাসের চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) রাত ৮টায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন—বাকেরগঞ্জ উপজেলার বোয়ালিয়ার চয়ন (১৯) ও রাব্বি (১৭) এবং বাকেরগঞ্জ পৌর শহরের জয়দেব দাসের ছেলে সিয়াম (১৯)। তারা বাকেরগঞ্জের জেএস মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র।

বরিশাল মেট্রোপলিটন বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসাদুজ্জামান বলেন, ৬-৭টি মোটরসাইকেলের বহর নিয়ে বাকেরগঞ্জ থেকে বরিশাল নগরীর উদ্দেশ্যে যাচ্ছিল কয়েকজন তরুণ। দপদপিয়া সেতুর ওপর একটি টেম্পোকে অতিক্রম করতে গিয়ে বহরের পিছনে থাকা চয়নের মোটরসাইকেল চাপা দেয় রাতুল রোহান পরিবহনের বাস। এতে ঘটনাস্থলেই তাদের দুই বন্ধুর মৃত্যু হয়। গুরুতর আহত সিয়ামকে শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে রাত সাড়ে ৯টায় চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ সময় অপর একটি মোটসাইকেলের আরোহী চয়ন গুরুতর আহত হন। ঘাতক বাস দ্রুত পালিয়ে যাওয়ায় আটক করা যায়নি। বাসচালককে আটকের চেষ্টা চলছে। 

ওসি আরও জানান, নিহতদের নাম ও স্থান জানা গেলেও তাদের সম্পূর্ণ পরিচয় পাওয়া যায়নি। লাশ উদ্ধার করে শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। 

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

ধাপে ধাপে সব ক্লাসের সংখ্যা বাড়ানো হবে: মাউশি মহাপরিচালক

ধাপে ধাপে সব ক্লাসের সংখ্যা বাড়ানো হবে: মাউশি মহাপরিচালক

রহিমার ডিম বিক্রির টাকাও আত্মসাৎ করেছে এহসান গ্রুপ

রহিমার ডিম বিক্রির টাকাও আত্মসাৎ করেছে এহসান গ্রুপ

আত্মীয়ের বাড়ি যাওয়া হলো না তাদের

আত্মীয়ের বাড়ি যাওয়া হলো না তাদের

সড়ক না খাল? 

সড়ক না খাল? 

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ধাপে ধাপে সব ক্লাসের সংখ্যা বাড়ানো হবে: মাউশি মহাপরিচালক

ধাপে ধাপে সব ক্লাসের সংখ্যা বাড়ানো হবে: মাউশি মহাপরিচালক

বাসচাপায় প্রাণ গেলো তিন বন্ধুর

বাসচাপায় প্রাণ গেলো তিন বন্ধুর

রহিমার ডিম বিক্রির টাকাও আত্মসাৎ করেছে এহসান গ্রুপ

রহিমার ডিম বিক্রির টাকাও আত্মসাৎ করেছে এহসান গ্রুপ

রাগীবের কথার যাদুতে এহসানে জড়িয়ে নিঃস্ব শিক্ষক

রাগীবের কথার যাদুতে এহসানে জড়িয়ে নিঃস্ব শিক্ষক

জমি দিয়েছিলেন দাদা, বিদ্যালয়ের কক্ষ দখল করে বসবাস

জমি দিয়েছিলেন দাদা, বিদ্যালয়ের কক্ষ দখল করে বসবাস

যুবলীগের ২ নেতাকে পদ থেকে অব্যাহতি

যুবলীগের ২ নেতাকে পদ থেকে অব্যাহতি

নুরুলের ৪৬০ কোটি টাকার সম্পদের কথা শুনে হতবাক গ্রামবাসী

নুরুলের ৪৬০ কোটি টাকার সম্পদের কথা শুনে হতবাক গ্রামবাসী

এভাবে চললে দেশের ভবিষ্যৎ ভয়াবহ: জোনায়েদ সাকি

এভাবে চললে দেশের ভবিষ্যৎ ভয়াবহ: জোনায়েদ সাকি

সুদের টাকা না পেয়ে জমি দখল, বাধা দিলে পিটিয়ে হত্যা

সুদের টাকা না পেয়ে জমি দখল, বাধা দিলে পিটিয়ে হত্যা

এহসান গ্রুপের রাগীবসহ চার ভাইয়ের বিরুদ্ধে আরও ৪ মামলা

এহসান গ্রুপের রাগীবসহ চার ভাইয়ের বিরুদ্ধে আরও ৪ মামলা

সর্বশেষ

আবারও আইসিইউতে পেলে

আবারও আইসিইউতে পেলে

হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে আবারও থানায় ইভ্যালির রাসেল

হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে আবারও থানায় ইভ্যালির রাসেল

অভিনেত্রী রিমি করিমের কণ্ঠ পুরুষের মতো!

অভিনেত্রী রিমি করিমের কণ্ঠ পুরুষের মতো!

ফ্রান্সের ২৪টি পুরাতন বিমান কিনতে যাচ্ছে ভারত

ফ্রান্সের ২৪টি পুরাতন বিমান কিনতে যাচ্ছে ভারত

বাংলাদেশ থেকে যুক্তরাজ্য ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা শিথিল

বাংলাদেশ থেকে যুক্তরাজ্য ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা শিথিল

© 2021 Bangla Tribune