X
বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ৫ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

গবেষণা সংসদের জরিপ

ঢাবির অনলাইন ক্লাসে অসন্তুষ্ট ৪৬ শতাংশ শিক্ষার্থী

আপডেট : ১৯ জুলাই ২০২১, ১৫:০৫

করোনা পরিস্থিতিতে চালু হওয়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অনলাইন ক্লাস নিয়ে অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে ৪৬ শতাংশ শিক্ষার্থী। সন্তুষ্টি জানিয়েছে মাত্র ২.৭ শতাংশ শিক্ষার্থী। ভালো ইন্টারনেট সংযোগ না থাকা, বিদ্যুতের সমস্যা, প্রয়োজনীয় ডিভাইস না থাকা, ডিভাইস বা ডেটা কেনার অসামর্থ্যসহ নানা বিষয়কে অনলাইনে ক্লাসের অন্তরায় হিসেবে তুলেছেন ধরেন শিক্ষার্থীরা।

‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গবেষণা সংসদের সোশ্যাল সায়েন্স টিমে’র পরিচালিত এক জরিপ প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

চলতি বছরের ৩০ মে থেকে অনলাইনে হওয়া এই জরিপে অংশ নেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় সকল অনুষদ ও ইন্সটিটিউটের অন্তর্ভুক্ত বিভিন্ন বিভাগের সকল বর্ষের ৩ হাজার ৭৩০ জন শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যে ৫৫.৫% ছাত্র এবং ৪৩.৪% ছাত্রী এবং ১.১% শিক্ষার্থী লিঙ্গ প্রকাশে অনিচ্ছুক। 
জরিপে ব্যবসায় শিক্ষা ও কলা অনুষদ থেকে সর্বোচ্চ অংশগ্রহণ লক্ষ্য করা যায়  যথাক্রমে ২৬.৯ ও ২৬ শতাংশ। করোনার সময়ে শিক্ষার্থীদের ৪৪.৫% গ্রাম, ১৫.৭% ছোট শহর, ১৯.৩% শহর ও ২০.৩% মহানগর এলাকায় অবস্থান করছেন।

প্রতিবেদনের ফলাফলে দেখা যায়, জরিপে অংশ নেওয়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে অনলাইনে ফাইনাল পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে ৫২.৭% শিক্ষার্থী ইচ্ছুক, ৪৫% শিক্ষার্থী ইচ্ছুক নন এবং বাকিরা নিশ্চিত নন এখনো। ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৮৭.৪% অ্যাসাইনমেন্টের মাধ্যমে পরীক্ষা দিতে আগ্রহী। এছাড়াও অনেকেই ওপেন বুক (২১.১%), এমসিকিউ (১৯.৭%), সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর (১৯.৪%) বা বড় প্রশ্নোত্তর (৫.৪%) পদ্ধতিতে এবং শুধুমাত্র ৪.২% শিক্ষার্থী লাইভ ভিডিওর মাধ্যমে পরীক্ষা দিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

অনলাইন পরীক্ষায় অনিচ্ছুকের মূল কারণ দুর্বল নেটওয়ার্ক সংযোগ

জরিপে অনলাইনে ফাইনাল পরীক্ষা দিতে অনিচ্ছুক শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন কারণ তুলে ধরেন। ভালো নেটওয়ার্ক সংযোগ না থাকা ৫৭.৪%,  বিদ্যুতের সমস্যা ৩৮.১%, বাড়িতে পরীক্ষা দেওয়ার পরিবেশ না থাকা ৪৫.৮%, প্রয়োজনীয় ডিভাইস না থাকা ২২.২%, ডিভাইস বা ডেটা কেনার সামর্থ্য না থাকা ১৬.৬%, পরীক্ষার মূল্যায়ন পদ্ধতি নিয়ে সন্দিহান থাকা ৫৭.৪%, অনলাইন পরীক্ষার অভিজ্ঞতা না থাকা ৪০.৬% এবং প্রস্তুতি না থাকাকে ২৭.৩% শতাংশ শিক্ষার্থী দায়ি করেছেন।

অনলাইন ক্লাসে অসন্তুষ্ট ৪৬.৪ শতাংশ শিক্ষার্থী

জরিপের ফলাফল অনুযায়ী, অনলাইন ক্লাসের ব্যাপারে ২৩.১% শিক্ষার্থী অসন্তুষ্ট ও ২৩.৩% শিক্ষার্থী খুব বেশি অসন্তুষ্ট বলে মত প্রকাশ করেছেন। অন্যদিকে ২৩.৯% শিক্ষার্থী মোটামুটি সন্তুষ্ট এবং মাত্র ২.৭% শিক্ষার্থী অনলাইন ক্লাসের ব্যাপারে সন্তুষ্ট বলে মতামত দিয়েছেন।
অনলাইন ক্লাসের মাধ্যমে সিলেবাস শেষ হয়েছে ৪৬.৩% শিক্ষার্থীর এবং শেষ হয়নি ৫৩.৭% শিক্ষার্থীর।

অনলাইন পরীক্ষায় অংশ নেয়ার দক্ষতা নেই ২১ শতাংশ শিক্ষার্থীর

জরিপে অনলাইন পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য পর্যাপ্ত টেকনিক্যাল দক্ষতা আছে কিনা জানতে চাওয়া হলে ১২.৭% শিক্ষার্থী পর্যাপ্ত দক্ষ, ২৯.৮% মোটামুটি দক্ষ, ২৪% কিছুটা দক্ষ, ১২.৪% দক্ষতার ব্যাপারে সন্দিহান এবং ২১% শিক্ষার্থী কোন দক্ষতা নেই বলে জানান। এর আগে অনলাইনে অনুষ্ঠিত মিড-টার্ম বা সমমান পরীক্ষায় বিভাগ বা ইন্সটিটিউট থেকে ৬২.৮% শিক্ষার্থী সঠিক দিকনির্দেশনা পেয়েছিলেন, ২৩.৮% শিক্ষার্থী কোনও রকম দিকনির্দেশনা পাননি এবং বাকি ১৩.৪% শিক্ষার্থী এ ব্যাপারে কিছু জানেন না বলে মতামত দিয়েছেন।

অ্যাসাইনমেন্টের মাধ্যমে পরীক্ষা দিতে আগ্রহী ৮৭.৪ শতাংশ শিক্ষার্থী

জরিপে দেখা যায়, অনলাইনে ফাইনাল পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৮৭.৪ শতাংশ শিক্ষার্থী অ্যাসাইনমেন্টের মাধ্যমে পরীক্ষা দিতে আগ্রহী। এছাড়াও ওপেন বুক ২১.১%, এমসিকিউ ১৯.৭%, সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর ১৯.৪%, বড় প্রশ্নোত্তর পদ্ধতিতে ৫.৪% এবং শুধু ৪.২% শিক্ষার্থী লাইভ ভিডিওর মাধ্যমে পরীক্ষা দিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অণুজীব বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. মঞ্জুরুল করিম এবং কমিউনেকশন ডিসঅর্ডারস বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও চেয়ারপার্সন তাওহিদা জাহানের সার্বিক দিক-নির্দেশনা ও তত্ত্বাবধায়নে গবেষণাটি পরিচালনা করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গবেষণা সংসদের সোশ্যাল সায়েন্স টিমের মো. তানবীরুল ইসলাম (টিম ম্যানেজার), সুমাইয়া ইমতিয়াজ (কো-অর্ডিনেটর), মো. আতিকুজ্জামান, জাওয়াদ সামস, রাগীব আনজুম, মো. ওমর ফারুক ও সুমাইয়া আহমেদ।
গবেষণা প্রবন্ধটি বিশ্লেষণ ও পুনর্বিন্যাসে সহযোগিতা করেছেন নাসরিন জেবিন, সাইফুল্লাহ সাদেক, শাহরিন ফারাহ খান এবং ইসতিয়াক উদ্দিন।

/এমএস/

সম্পর্কিত

‘সাম্প্রদায়িক হামলা’র প্রতিবাদে শাহবাগে বিক্ষোভ

‘সাম্প্রদায়িক হামলা’র প্রতিবাদে শাহবাগে বিক্ষোভ

২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা আজ

২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা আজ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শোক দিবস আজ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শোক দিবস আজ

পূজামণ্ডপে হামলা ও প্রতিমা ভাঙচুরের বিরুদ্ধে ঢাবিতে মৌন প্রতিবাদ

পূজামণ্ডপে হামলা ও প্রতিমা ভাঙচুরের বিরুদ্ধে ঢাবিতে মৌন প্রতিবাদ

সামিয়া রহমানের গবেষণা জালিয়াতি সংক্রান্ত সব নথি হাইকোর্টে

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ১৪:১১

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক সামিয়া রহমানের গবেষণা জালিয়াতি সংক্রান্ত তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন ও এ সংক্রান্ত সব নথি হাইকোর্টে এসেছে। পূর্ব নির্দেশনা অনুসারে বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চের উদ্দেশে এসব নথি আসে। তবে এ বিষয়ে আগামী ২৪ অক্টোবর শুনানির দিন নির্ধারণ করা হয়েছে।

২০১৬ সালের ডিসেম্বরে সামিয়া রহমান ও মারজানের যৌথভাবে লেখা ‘এ নিউ ডাইমেনশন অব কলোনিয়ালিজম অ্যান্ড পপ কালচার: এ কেস স্ট্যাডি অব দ্য কালচারাল ইমপেরিয়ালিজম’ শিরোনামের আট পৃষ্ঠার একটি গবেষণা প্রবন্ধ বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘সোশ্যাল সায়েন্স রিভিউ’ জার্নালে প্রকাশিত হয়।

এটি ১৯৮২ সালের শিকাগো ইউনিভার্সিটির জার্নাল ‘ক্রিটিক্যাল ইনকোয়ারি’তে প্রকাশিত ফরাসি দার্শনিক মিশেল ফুকোর ‘দ্য সাবজেক্ট অ্যান্ড পাওয়ার’ নামের একটি নিবন্ধ থেকে প্রায় পাঁচ পৃষ্ঠা হুবহু নকল বলে অভিযোগ ওঠে।

২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে এক লিখিত অভিযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে এই চুরির কথা জানিয়েছিল ইউনিভার্সিটি অব শিকাগো প্রেস।

শুধু মিশেল ফুকোই নন, সমাজ  বিজ্ঞানী অ্যাডওয়ার্ড সাঈদের ‘কালচার অ্যান্ড ইমপেরিয়ালিজম’ গ্রন্থের পাতার পর পাতাও সামিয়া ও মারজান হুবহু নকল করেন বলে অভিযোগ ওঠে। তার পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৭ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তৎকালীন উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক নাসরিন আহমেদকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেট। দীর্ঘদিন তদন্ত শেষে গত বছর ওই কমিটি প্রতিবেদন জমা দেয়। ওই প্রতিবেদনে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় গত ২৯ অক্টোবর তাদের একাডেমিক অপরাধের শাস্তির সুপারিশ করতে আইন অনুষদের ভারপ্রাপ্ত ডিন ও সিন্ডিকেট সদস্য অধ্যাপক মো. রহমত উল্লাহকে আহ্বায়ক করে একটি ট্রাইব্যুনাল গঠন করা হয়। ট্রাইব্যুনাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে শাস্তির বিষয়ে সুপারিশ জমা দিলে সিন্ডিকেটের সভায় চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

পরে গত ২৮ জানুয়ারি গবেষণায় জালিয়াতির শাস্তি হিসেবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সামিয়া রহমানের পদাবনমন ঘটে। গত ৩১ আগস্ট সামিয়া রহমানকে সহযোগী অধ্যাপক থেকে এক ধাপ নামিয়ে সহকারী অধ্যাপক করে দেয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট।

এছাড়াও পিএইচডি থিসিসে জালিয়াতির আরেক ঘটনায় ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের শিক্ষক ওমর ফারুককে সহকারী অধ্যাপক থেকে প্রভাষক পদে অবনমন ঘটানো হয়। তার ডিগ্রিও বাতিল করা হয়।বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেট সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। দুটি ঘটনায় অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এই তিন শিক্ষকের শাস্তি নির্ধারণে দুটি ট্রাইব্যুনাল গঠন করেছিল বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেট।

উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান  বলেন, ‘গঠিত দুটি ট্রাইব্যুনালের সুপারিশের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত নিয়েছে সিন্ডিকেট।’ 

পরে পদাবনতি দিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন সামিয়া রহমান।

সে রিটের শুনানি নিয়ে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক সামিয়া রহমানকে পদাবনতি দিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছিলেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে সামিয়া রহমানের গবেষণা জালিয়াতি সংক্রান্ত তদন্ত কমিটির রিপোর্ট, গঠিত ট্রাইব্যুনালের নথিসহ সব কাগজপত্র ৩ সপ্তাহের মধ্যে আদালতে দাখিল করতে বলা হয়েছিল।

গত ৫ সেপ্টেম্বর বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদেশে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসিসহ সংশ্লিষ্টদের রুলের জবাব দিতে বলা হয়।

আদালতে সামিয়া রহমানের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার হাসান এম এস আজিম। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার।

 

/বিআই/আইএ/

সম্পর্কিত

বদরুন্নেসার সহকারী অধ্যাপকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

বদরুন্নেসার সহকারী অধ্যাপকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

মুগদা হাসপাতালের আগুন নিয়ন্ত্রণে

মুগদা হাসপাতালের আগুন নিয়ন্ত্রণে

ই-জুডিশিয়ারি ও ই-কোর্ট রুম স্থাপনের অগ্রগতি ফের জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট

ই-জুডিশিয়ারি ও ই-কোর্ট রুম স্থাপনের অগ্রগতি ফের জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট

বদরুন্নেসার সহকারী অধ্যাপকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ১৩:৫৯

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘ভুয়া’ ভিডিও ছড়িয়ে সাম্প্রদায়িক উসকানির অভিযোগে বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজের সহকারী অধ্যাপক রুমা সরকারের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেছে র‌্যাব। বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) সকালে রাজধানীর রমনা থানায় মামলাটি দায়ের করা হয়।

এর আগে বুধবার (২০ অক্টোবর) রুমা সরকারকে আটক করে র‌্যাব। এই মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

দুর্গাপূজার সময় নোয়াখালীতে সাম্প্রদায়িক হামলা-সহিংসতার মধ্যে যতন সাহা নামে এক ব্যক্তির মৃত্যুকে নিয়ে ফেসবুকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে তার বিরুদ্ধে এ মামলা করেছে র‌্যাব।

অভিযোগে বলা হয়, কয়েক মাস আগে রাজধানীর পল্লবীর সাহিনুদ্দীন হত্যাকাণ্ডের একটি ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়। ওই ভিডিওটি নতুন করে নোয়াখালীর ‘যতন সাহা হত্যাকাণ্ড’র বলে গুজব ছড়ান রুমা সরকার।

 

/এআরআর/আইএ/

সম্পর্কিত

সামিয়া রহমানের গবেষণা জালিয়াতি সংক্রান্ত সব নথি হাইকোর্টে

সামিয়া রহমানের গবেষণা জালিয়াতি সংক্রান্ত সব নথি হাইকোর্টে

মুগদা হাসপাতালের আগুন নিয়ন্ত্রণে

মুগদা হাসপাতালের আগুন নিয়ন্ত্রণে

ই-জুডিশিয়ারি ও ই-কোর্ট রুম স্থাপনের অগ্রগতি ফের জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট

ই-জুডিশিয়ারি ও ই-কোর্ট রুম স্থাপনের অগ্রগতি ফের জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট

মুগদা হাসপাতালের আগুন নিয়ন্ত্রণে

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ১৪:০৩

রাজধানীর মুগদা মেডিক্যাল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালের ষষ্ঠ তলায় আগুন লেগেছে। বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) দুপুরে এই ঘটনার সূত্রপাত হয়। তবে আগুন নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে বলে বাংলা ট্রিবিউনকে নিশ্চিত করেছেন ফায়ার সার্ভিসের মিডিয়া সেলের কর্মকর্তা শাহজাহান শিকদার। প্রাথমিকভাবে কোনও হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

ফায়ার সার্ভিসের মিডিয়া সেল থেকে জানানো হয়, মুগদা হাসপাতালে আগুনের খবর পেয়ে তাদের সাতটি ইউনিট ঘটনাস্থলে যায়। দুপুর ১২টা ৫৮ মিনিটে তারা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছেন। 

মুগদা হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের প্রধান অধ্যাপক রুবিনা ইয়াসমিন বাংলা ট্রিবিউনকে জানিয়েছেন, তাদের আইসিইউ ইউনিটে আগুন লেগেছে। তবে তখন সেখানে কোনও রোগী ছিলেন না।

ধারণা করা হচ্ছে, এসি বিস্ফোরিত হওয়ার কারণেই এই অগ্নিকাণ্ড।

মুগদা হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের প্রধান অধ্যাপকের দাবি, এখানকার অনেক কর্মচারী কাচের টুকরো ভেঙে আঘাত পেয়েছেন। আহত সবাইকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে নেওয়া হয়েছে। ষষ্ঠ তলা থেকে রোগীদের নিচে নামিয়ে এনেছে কর্তৃপক্ষ। 

/এআরআর/জেএ/জেএইচ/

সম্পর্কিত

বদরুন্নেসার সহকারী অধ্যাপকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

বদরুন্নেসার সহকারী অধ্যাপকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলায় ১২ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলায় ১২ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

যৌন হয়রানি প্রতিরোধে কমিটি গঠন না হওয়ায় ৪০ সচিবকে বিবাদী করে রিট

যৌন হয়রানি প্রতিরোধে কমিটি গঠন না হওয়ায় ৪০ সচিবকে বিবাদী করে রিট

সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলার রায় আবারও পেছালো 

সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলার রায় আবারও পেছালো 

ই-জুডিশিয়ারি ও ই-কোর্ট রুম স্থাপনের অগ্রগতি ফের জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ১২:৫০

দেশের আদালতসমূহে ই-জুডিশিয়ারি ও ই-কোর্ট রুম দ্রুততম সময়ের মধ্যে স্থাপনের বিষয়ে জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট। আগামী ৩০ নভেম্বরের মধ্যে পুনরায় আইন মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ সংশ্লিষ্টদের এ বিষয়ে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলেছেন আদালত। পাশাপাশি এ মামলার পরবর্তী শুনানির জন্য ৩০ নভেম্বর দিন নির্ধারণ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাডভোকেট ফরহাদ উদ্দিন আহমেদ ভূঁইয়া।

২০১৯ সালের ১১ ডিসস্বর ই-জুডিশিয়ারি স্থাপনের নির্দেশনা চেয়ে আইনজীবী ফরহাদ উদ্দিন আহমেদ ভূঁইয়া হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন।

বিচারকার্য দ্রুত সম্পাদন ও বিচার প্রার্থীদের ভোগান্তি দূর করাসহ সংবিধানের ৩১, ৩২ ও ৩৫ এর (৩) অনুচ্ছেদের চেতনার সঙ্গে বিদ্যমান বিচারব্যবস্থা সাংর্ঘষিক উল্লেখ করে এ রিট দায়ের করা হয়।

সে রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে ২০২০ সালের ১৯ জানুয়ারি দেশের আদালতসমূহে ই-জুডিশিয়ারি ও ই-কোর্ট রুম দ্রুতসময়ের মধ্যে স্থাপনের কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন হাইকোর্ট। আইন সচিবসহ মোট ৯ জন বিবাদীকে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছিল।

পরে আরেকটি আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে দেশের আদালতসমূহে ই-জুডিশিয়ারি ও ই-কোর্ট রুম দ্রুততম সময়ের মধ্যে স্থাপনের বিষয়ে জানতে চেয়েছিলেন হাইকোর্ট। ২০ অক্টোবরের মধ্যে এ বিষয়ে অগ্রগতি প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছিল। তবে সে প্রতিবেদন দাখিল না হওয়ায় পুনরায় সময় বেঁধে দিলেন হাইকোর্ট।

 

 

 

/বিআই/আইএ/

সম্পর্কিত

বদরুন্নেসার সহকারী অধ্যাপকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

বদরুন্নেসার সহকারী অধ্যাপকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

শিশু আরাফাত হত্যা মামলায় আসামি জাহাঙ্গীরের মৃত্যুদণ্ডাদেশ বহাল

শিশু আরাফাত হত্যা মামলায় আসামি জাহাঙ্গীরের মৃত্যুদণ্ডাদেশ বহাল

মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলায় ১২ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলায় ১২ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

যৌন হয়রানি প্রতিরোধে কমিটি গঠন না হওয়ায় ৪০ সচিবকে বিবাদী করে রিট

যৌন হয়রানি প্রতিরোধে কমিটি গঠন না হওয়ায় ৪০ সচিবকে বিবাদী করে রিট

পীরগঞ্জে হামলার প্রতিবাদ ক্ষুদ্র মৎস্যজীবী জেলে সমিতির

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ১২:৩৩

রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার করিমপুর গ্রামে হিন্দু জেলে সম্প্রদায়ের বাড়িঘরে হামলা, আগুন, লুটপাটের প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ ক্ষুদ্র মৎস্যজীবী জেলে সমিতি। বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন সিকদার বলেন, ‘এ দেশের জেলে সম্প্রদায় বরাবরই নির্যাতিত-নিপীড়িত। সাম্প্রদায়িকতা নামে, আইন প্রয়োগের নামে বা মিথ্যা বানোয়াট অভিযোগে জেলে সম্প্রদায়ের ওপর বিভিন্ন সময় হামলা-মামলা-নির্যাতন-নিপীড়ন চালানো হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় রংপুরে এই ন্যাক্কারজনক হামলা চালানো হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘সরকারের কাছে আমরা আহ্বান জানাবো, অবিলম্বে রংপুরের পীরগঞ্জসহ সারাদেশে জেলেদের ওপর নির্যাতন-নিপীড়ন বন্ধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করুন। পীরগঞ্জে হামলার ঘটনার যারা জড়িত তাদের দ্রুততম সময়ের মধ্যে আইনের আওতায় আনতে হবে। পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর ক্ষতিপূরণ দিয়ে পুনবার্সনের ব্যবস্থা করতে হবে।’

মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ক্ষুদ্র মৎস্যজীবী জেলে সমিতির সহ-সভাপতি ওমর ফারুক, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম খান প্রমুখ।

 

/জেডএ/আইএ/

সম্পর্কিত

সামিয়া রহমানের গবেষণা জালিয়াতি সংক্রান্ত সব নথি হাইকোর্টে

সামিয়া রহমানের গবেষণা জালিয়াতি সংক্রান্ত সব নথি হাইকোর্টে

ইউপি সচিবদের বেতন দশম গ্রেডে উন্নীত করতে চায় স্থানীয় সরকার বিভাগ

ইউপি সচিবদের বেতন দশম গ্রেডে উন্নীত করতে চায় স্থানীয় সরকার বিভাগ

মহামারিতে প্রথম মৃত্যুহীন দিন ঢাকা বিভাগের

মহামারিতে প্রথম মৃত্যুহীন দিন ঢাকা বিভাগের

ফেসবুকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে কলেজ শিক্ষক আটক

ফেসবুকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে কলেজ শিক্ষক আটক

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

‘সাম্প্রদায়িক হামলা’র প্রতিবাদে শাহবাগে বিক্ষোভ

‘সাম্প্রদায়িক হামলা’র প্রতিবাদে শাহবাগে বিক্ষোভ

২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা আজ

২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা আজ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শোক দিবস আজ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শোক দিবস আজ

পূজামণ্ডপে হামলা ও প্রতিমা ভাঙচুরের বিরুদ্ধে ঢাবিতে মৌন প্রতিবাদ

পূজামণ্ডপে হামলা ও প্রতিমা ভাঙচুরের বিরুদ্ধে ঢাবিতে মৌন প্রতিবাদ

সড়ক দুর্ঘটনায় বশেমুরবিপ্রবি’র শিক্ষকের মৃত্যু

সড়ক দুর্ঘটনায় বশেমুরবিপ্রবি’র শিক্ষকের মৃত্যু

ভর্তি ও নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নফাঁস: শুরু হচ্ছে ১২৫ জনের বিচার

ভর্তি ও নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নফাঁস: শুরু হচ্ছে ১২৫ জনের বিচার

ঢাবি’র শতবর্ষপূর্তি ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উৎসবের সূচি পরিবর্তন

ঢাবি’র শতবর্ষপূর্তি ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উৎসবের সূচি পরিবর্তন

ঢাবি সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থীদের গবেষণায় বৃত্তি দিতে ফান্ড গঠন

ঢাবি সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থীদের গবেষণায় বৃত্তি দিতে ফান্ড গঠন

শিক্ষার্থীরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে হলে ওঠায় ঢাবি উপাচার্যের সন্তোষ প্রকাশ

শিক্ষার্থীরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে হলে ওঠায় ঢাবি উপাচার্যের সন্তোষ প্রকাশ

বিজ্ঞান গবেষণায় অধ্যাপক হারুন ছিলেন নিবেদিত প্রাণ: প্রধানমন্ত্রী

বিজ্ঞান গবেষণায় অধ্যাপক হারুন ছিলেন নিবেদিত প্রাণ: প্রধানমন্ত্রী

সর্বশেষ

২৯ বছর আগে পিএনজির বিপক্ষে হেরেছিল বাংলাদেশ

২৯ বছর আগে পিএনজির বিপক্ষে হেরেছিল বাংলাদেশ

সামিয়া রহমানের গবেষণা জালিয়াতি সংক্রান্ত সব নথি হাইকোর্টে

সামিয়া রহমানের গবেষণা জালিয়াতি সংক্রান্ত সব নথি হাইকোর্টে

ভ্যানভর্তি সরকারি চাল রেখে ইউপি সদস্যের দৌড়

ভ্যানভর্তি সরকারি চাল রেখে ইউপি সদস্যের দৌড়

বদরুন্নেসার সহকারী অধ্যাপকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

বদরুন্নেসার সহকারী অধ্যাপকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

শাহরুখ খানের বাসায় চলছে তল্লাশি

শাহরুখ খানের বাসায় চলছে তল্লাশি

© 2021 Bangla Tribune