X
বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১০ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

এটা তো পাকিস্তানিদের থেকেও খারাপ: মির্জা ফখরুল

আপডেট : ১৯ আগস্ট ২০২১, ১৮:৫৬

ফেসবুকে পোস্ট দেওয়াকে কেন্দ্র করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আসিফ নজরুলের কক্ষে তালা দেওয়ার ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘আসিফ নজরুল সাহেবকে কীভাবে তালা লাগিয়ে দিয়েছে এবং কীভাবে তাকে  থ্রেট করেছে। এটাকে কি কোনও সভ্য গণতান্ত্রিক দেশ বলবেন? এটা তো পাকিস্তানিদের থেকেও খারাপ।’

বৃহস্পতিবার (১৯ আগস্ট) দুপুরে জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের অনুষ্ঠানে বিএনপি মহাসচিব এ মন্তব্য করেন। জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভুঁইয়া জুয়েলকে নিয়ে বিএনপি মহাসচিব শেরেবাংলা নগরে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং প্রয়াত নেতার আত্মার মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত করেন।

বরিশালে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) বাসভবনে ক্ষমতাসীন দলের কর্মীদের হামলার ঘটনার প্রসঙ্গ টেনে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘সরকার দেশে সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে।  বরিশালের ঘটনা, সারাদেশে এ রকম সন্ত্রাসের রাজত্ব তারা কায়েম করেছে। শুধু বরিশাল কেন? সব খানেই। এখন লেট লুজ। এটা একটা সন্ত্রাসের রাজত্ব, এটা তো একটা রেইন অব টেরর।’

এ সময় বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরফত আলী সপু, স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা গোলাম সারোয়ার, সাইফুল ইসলাম ফিরোজ, ইয়াসীন আলী, সাদরেজ জামান, রফিক হাওলাদার, মনির হোসেন, ফখরুল ইসলাম রবিন, ডা. জাহিদুল কবির, নাজমুল হাসান, সরকার মো. নুরুজ্জামান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

/এসটিএস/এপিএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

রেজা-নূরের দলে নতুন কী?

রেজা-নূরের দলে নতুন কী?

‘করোনাকালীন শিল্প-বাণিজ্য উন্নয়নে শেখ হাসিনার ভূমিকা’ শীর্ষক সভা বুধবার

‘করোনাকালীন শিল্প-বাণিজ্য উন্নয়নে শেখ হাসিনার ভূমিকা’ শীর্ষক সভা বুধবার

‘২০ দলীয় জোটকে বসিয়ে রাখলে বিকল্প পথে সক্রিয় হবে এলডিপি’

‘২০ দলীয় জোটকে বসিয়ে রাখলে বিকল্প পথে সক্রিয় হবে এলডিপি’

আরবি পড়লে কর্মসংস্থান হবে: জাফরুল্লাহ

আরবি পড়লে কর্মসংস্থান হবে: জাফরুল্লাহ

রেজা-নূরের দলে নতুন কী?

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ২২:৪২

অর্থনীতিবিদ ড. রেজা কিবরিয়া ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরের নেতৃত্বে আত্মপ্রকাশ হয়েছে ‘বাংলাদেশ গণ অধিকার পরিষদ’ নামে একটি নতুন দলের। গত সেপ্টেম্বরের শেষ দিকে দলটির আত্মপ্রকাশ হওয়ার কথা থাকলেও দফায়-দফায় তা পিছিয়ে শেষ পর্যন্ত মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) পুরানা পল্টনের প্রিতম-জামান ভবনের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের মধ্য দিয়ে সামনে এসেছে প্রায় দুই বছরের এই উদ্যোগটি।

নতুন এই দলের খসড়া কর্মসূচিতে ২১ দফা যুক্ত করা হয়েছে। যার প্রত্যেকটি প্রায় কোনও না কোনও রাজনৈতিক দলের কর্মসূচির সঙ্গে প্রায় সমধর্মী। খসড়া কর্মসূচিতে ব্যতিক্রম কেবল ৫ নম্বর দফার দ্বিতীয় অংশটি। এই অংশে বলা হয়েছে— ‘রাষ্ট্রপতি কিংবা সরকার প্রধান একইসঙ্গে দলীয় প্রধান হতে পারবেন না; কোনও ব্যক্তি দুই মেয়াদের (১০ বছর) অধিক সরকার প্রধান কিংবা পাঁচ মেয়াদের (১০ বছর) বেশি দলীয় প্রধান বা অন্য কোনও পদ বা একাধিক পদে মিলিতভাবে দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না।’

রাজনৈতিক দলগুলোর সূত্র বলছে, দলীয় প্রধানের পদে থাকার বিষয়ে এ ধরনের কর্মসূচি এই প্রথম কোনও রাজনৈতিক সংগঠন দিয়েছে। এ বিষয়ে গণ অধিকার পরিষদের সদস্য সচিব নুরুল হক নুর বলেন, ‘আমরা এই চর্চা শুরু করেছি। অন্য দলগুলোও যদি গণতান্ত্রিক চর্চার মধ্য দিয়ে যেতে চায়, তারাও এটা ফলো করতে পারে। আমরা গণতান্ত্রিক চর্চার অংশ হিসেবেই এই বিষয়টিকে কর্মসূচি আকারে যুক্ত করেছি।’

ঘোষণাপত্রে গণ অধিকার পরিষদ উল্লেখ করেছে, ‘বাংলাদেশ রাষ্ট্র এক দীর্ঘস্থায়ী বিপদে পড়েছে। জনপ্রশাসন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, বিচার বিভাগ, সশস্ত্র বাহিনীর মতো প্রতিষ্ঠানের দলনিরপেক্ষ বলে যে অবস্থান নেওয়ার কথা ছিল, তা আজ নেই।’

গণ অধিকার পরিষদের ২১ দফা খসড়া কর্মসূচি

আত্মপ্রকাশকালে বাংলাদেশ গণ অধিকার পরিষদ ২১ দফা খসড়া কর্মসূচি ঘোষণা করে।  এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য অংশ হচ্ছে— গণতন্ত্র ও ভোটাধিকার। সংগঠনটির খসড়া কর্মসূচিতে এ প্রসঙ্গে উল্লেখ করা হয়েছে— ‘গণতন্ত্র ও ভোটাধিকার পুনরুদ্ধারে সকলের কাছে গ্রহণযোগ্য একটি নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার’ গঠনের মাধ্যমে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের ব্যবস্থা করা।

দলের নতুন আহ্বায়ক ড. রেজা কিবরিয়া বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘যদি নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন না হয়, আমরা সেই নির্বাচনে যাবো না।’

খসড়া কর্মসূচিতে আরও  বাকি যে বিষয়গুলো উল্লেখ করা হয়েছে, সেগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে— ন্যায়বিচার ও সুশাসন, নারী অধিকার, সংখ্যালঘু জাতিসত্ত্বা ও ধর্মাবলম্বী। সংখ্যালঘু জাতিসত্ত্বা ও ধর্মাবলম্বী পর্বে সংগঠনটি উল্লেখ করেছে— সহনশীলতার নীতি ও সংস্কৃতিকে সর্বোচ্চ পৃষ্ঠপোষকতা দেওয়া হবে। খসড়া কর্মসূচিতে রয়েছে— ক্ষমতার ভারসাম্য, দুর্নীতি প্রতিরোধ, গণমাধ্যম ও বাক স্বাধীনতা। 

আত্মপ্রকাশ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন ড. রেজা কিবরিয়া, ছবি: সাদ্দিফ অভি

খসড়ার পররাষ্ট্রনীতি পর্বে বলা হয়েছে, বাংলাদেশবিরোধী ঘৃণা প্রচার ও সীমান্ত হত্যা বন্ধ এবং রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসনে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া।

খসড়া কর্মসূচিতে আরও রয়েছে— জনস্বাস্থ্য সেবা, দখল ও দূষণ প্রতিরোধ, খাদ্য ও পুষ্টি ও জ্বালানি, খনিজ ও প্রাকৃতিক সম্পদের বিষয়গুলো।

বাংলাদেশ গণ অধিকার পরিষদের দায়িত্বশীলসূত্র জানায়, খসড়া কর্মসূচি কাউন্সিলের মধ্য দিয়ে চূড়ান্ত করা হবে। এর আগে আরও সংযোজন ও বিয়োজন হবে। তবে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সূত্রগুলো বলছে, দেশের প্রধান রাজনৈতিক দলগুলোসহ অন্যান্য ডান-বাম ও ধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক সংগঠনগুলোর মতো প্রায় সমধর্মী কর্মসূচি দিয়েছে গণ অধিকার পরিষদ। সেক্ষেত্রে নতুনত্ব বা ভিন্ন প্রায় কম।

রাজনৈতিক বিশ্লেষক সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) সম্পাদক অধ্যাপক বদিউল আলম মজুমদারের ভাষ্য— দেশের বিদ্যমান রাজনৈতিক দলগুলো অনেকটাই দেওলিয়া হয়ে গেছে। এই দলগুলো গণতান্ত্রিক নয়, কাজে স্বচ্ছতা নেই। কারও প্রতি তাদের কোনও দায়বদ্ধতাও নেই। যে কারণে এই দলগুলোর মাধ্যমে দেশে গণতন্ত্র, সুশাসন প্রতিষ্ঠা সম্ভব নয়।’

অধ্যাপক মজুমদার বলেন, ‘সেদিক থেকে নতুন দল— বাংলাদেশ গণ অধিকার পরিষদ যদি গণতান্ত্রিক হয়, দলের ভেতরে স্বচ্ছতা সৃষ্টি করতে পারে, মানুষের কল্যাণে কাজ করতে পারে, আদর্শিক ও সুনির্দিষ্ট কর্মসূচির ভিত্তিতে কর্মকাণ্ড পরিচালনা করতে পারে— তাহলে নিশ্চয়ই স্বাগত জানাবো। আর যদি না হয়— তাহলে আরেকটা রাজনৈতিক দল হবে, তাতে দেশ ও দেশের মানুষের কিছু আসে যাবে না।’

অধ্যাপক বদিউল আলম মজুমদারের মন্তব্য— রাজনৈতিক দল ছাড়া গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা হবে না। সে কারণে আগে দলে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

নতুন দলের ঘোষণাকালে দলটির ২১ দফা খসড়া কর্মসূচি পাঠ করেন যুগ্ম আহ্বায়ক মুহাম্মদ রাশেদ খান। নতুন সংগঠনের চারটি মূলনীতির কথা জানান তিনি। এগুলো হচ্ছে— গণতন্ত্র, ন্যায়বিচার, অধিকার এবং জাতীয় স্বার্থ।

নতুন ঘোষিত দলের নতুনত্ব কী, এ প্রশ্ন ছিল গণ অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক ড. রেজা কিবরিয়ার কাছে। তিনি জানান, নতুন দলের চারটি বিষয়ই নতুন।

রেজা কিবরিয়া বলেন, ‘দেশটাকে গত ৫০ বছর যারা পরিচালনা করেছেন, আমরা সেই পরিচালনা নীতিতে পরিবর্তন আনবো। এই পরিবর্তন আসবে প্রশাসনিক, বৈষম্য বেড়েছে; আমরা বৈষম্য নির্মূল করবো। দেশের স্বার্থকে সামনে রেখে প্রাধান্য দিয়ে রাজনীতি করবো। গত ১২ বছর ধরে মানুষের অধিকারকে নষ্ট করা হয়েছে, আমরা মানুষের অধিকার ফিরিয়ে দেওয়ার রাজনীতি করবো।’

নতুন দলের কর্মসূচি ঠিক হবে আরও কিছুদিন পর

মঙ্গলবার নতুন দলের ঘোষণার পর রাজনৈতিকসহ বিভিন্ন মহল থেকে অভিনন্দন, শুভেচ্ছাবার্তা পাচ্ছেন নুরুল হক নুর। ২০১৮ সালে কোটাবিরোধী আন্দোলনের মধ্য দিয়ে আলোচনায় আসা এই নেতা দেশের রাজনীতিকদের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছাবার্তা পেয়েছেন বলে জানান। নুর বলেন, ‘নতুন দলের ঘোষণার পর সাড়া পাচ্ছি। অনেকেই ফোন করে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।’

নতুন দলের প্রথম কর্মসূচি কবে আসছে— এমন প্রশ্নের জবাবে নুর বলেন, ‘আমরা কেবল আত্মপ্রকাশ করেছি। কী কর্মসূচির মাধ্যমে আমরা সক্রিয় হবো, এটা নিয়ে কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক কমিটি আলোচনা করে ঠিক করবে।’

প্রসঙ্গত, নতুন দল গঠনের দিনই মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) সন্ধ্যায় সংগঠনের আহ্বায়ক রেজা কিবরিয়ার গুলশানের বাসভবনে সাংগঠনিক জরুরি বৈঠক সেরে নিয়েছেন গণ অধিকার পরিষদের শীর্ষ নেতারা।

 

 

 

 

 

/এসটিএস/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

নুরের গণঅধিকার পরিষদকে নিষিদ্ধের দাবি মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের

নুরের গণঅধিকার পরিষদকে নিষিদ্ধের দাবি মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের

‘করোনাকালীন শিল্প-বাণিজ্য উন্নয়নে শেখ হাসিনার ভূমিকা’ শীর্ষক সভা বুধবার

‘করোনাকালীন শিল্প-বাণিজ্য উন্নয়নে শেখ হাসিনার ভূমিকা’ শীর্ষক সভা বুধবার

‘২০ দলীয় জোটকে বসিয়ে রাখলে বিকল্প পথে সক্রিয় হবে এলডিপি’

‘২০ দলীয় জোটকে বসিয়ে রাখলে বিকল্প পথে সক্রিয় হবে এলডিপি’

কুমিল্লার ঘটনা সরকার ও বিদেশিদের চক্রান্ত: অলি আহমদ

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৫৮

সরকারের সঙ্গে বিদেশি চক্রান্তে কুমিল্লার হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ করেছেন লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এলডিপির সভাপতি ড. কর্নেল অলি আহমদ। তিনি বলেন, ‘কুমিল্লার পূজামণ্ডপে কোরআন শরীফ রাখার ঘটনা পাগল ইকবালের পক্ষে ঘটানো সম্ভব নয়। এটা সরকার ও বিদেশিদের চক্রান্ত।’

মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) সন্ধ্যায় রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে আয়োজিত দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় অলি আহমদ এসব কথা বলেন। এলডিপির ১৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন দলের মহাসচিব রেদোয়ান আহমেদ।

অন্য ধর্মের অনুসারীদের ওপর এই হামলার পেছনে যারা আছে, তাদের অবিলম্বে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান অলি আহমদ। তিনি বলেন, ‘পুলিশের যাদের প্রত্যাহার করেছেন, এতে হবে না। এদের চিরদিনের জন্য বরখাস্ত করুন। আজীবনের জন্য জেলে দিন। মৃত্যুদণ্ড দিন।’

সরকার সুযোগ না দিলে বিদেশি চক্রান্তে এ ধরনের ঘটতো না বলেও বক্তব্যে উল্লেখ করেন অলি।

সরকারের মেগা প্রজেক্টের সমালোচনা করে অলি বলেন, ‘পরনির্ভরশীলতা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। পদ্মা সেতু হচ্ছে, ফ্লাইওভার হচ্ছে, মেট্রো রেল হচ্ছে। এখন মজা লাগছে, আনন্দ লাগছে। কিন্তু যখন এই অর্থের কিস্তি পরিশোধ করতে হবে, তখন কিন্তু গায়ে কাপড় থাকবে না। এই অর্থ পরিশোধের সামর্থ্য সরকারের নেই।’

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে অবৈধভাবে আটকে রাখা হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন অলি। তিনি অভিযোগ করেন, সম্রাটদের কারাগারে জামাই আদরে রাখা হয়েছে। কিন্তু সাবেক প্রধানমন্ত্রী, সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের স্ত্রীকে আটকে রাখা হয়েছে।

সভায় লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি- এলডিপির প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. আওরঙ্গজেব বেলাল, ড. নিয়ামুল বশির, অ্যাডভোকেট মনজুর মোর্শেদ, যুগ্ম মহাসচিব তমিজ উদ্দিন টিটু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

/এসটিএস/এমআর/

সম্পর্কিত

রেজা-নূরের দলে নতুন কী?

রেজা-নূরের দলে নতুন কী?

নুরের গণঅধিকার পরিষদকে নিষিদ্ধের দাবি মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের

নুরের গণঅধিকার পরিষদকে নিষিদ্ধের দাবি মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের

চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগে ইউপিতে নৌকা পেলেন যারা

চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগে ইউপিতে নৌকা পেলেন যারা

‘করোনাকালীন শিল্প-বাণিজ্য উন্নয়নে শেখ হাসিনার ভূমিকা’ শীর্ষক সভা বুধবার

‘করোনাকালীন শিল্প-বাণিজ্য উন্নয়নে শেখ হাসিনার ভূমিকা’ শীর্ষক সভা বুধবার

নুরের গণঅধিকার পরিষদকে নিষিদ্ধের দাবি মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ২১:০২

চট্টগ্রাম জে এম সেন হলের পূজামণ্ডপসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় সাম্প্রদায়িক হামলায় জড়িত থাকার অভিযোগ এনে এবং  জঙ্গি ও সন্ত্রাসী সংগঠন আখ্যা দিয়ে নুরুল হক নুর ও রেজা কিবরিয়ার ছাত্র, যুব ও গণঅধিকার পরিষদকে নিষিদ্ধের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ।

মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) সকাল ১১টায় শাহবাগ জাতীয় জাদুঘরের সামনে গণঅধিকার পরিষদকে নিষিদ্ধের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল শুরু করে সংগঠনটি। এরপর বিক্ষোভকারীরা শাহবাগ অবরোধ ও সমাবেশ করে।

সমাবেশে সংগঠনের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল বলেন, সম্প্রতি চট্টগ্রামের জে এম সেন হলের পূজামণ্ডপসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ। এসব সাম্প্রদায়িক হামলায় নেতৃত্ব দেওয়ার অপরাধে জঙ্গি ও সন্ত্রাসী সংগঠন ছাত্র, যুব ও গণঅধিকার পরিষদকে নিষিদ্ধসহ হামলার মদতদাতা রেজা কিবরিয়া ও নুরুল হক নুর গংকে দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছে বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ।

বিক্ষোভ মিছিল পরবর্তী সমাবেশে বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ দুই দফা দাবি জানায়। তাদের দাবিগুলো হলো, চট্টগ্রামের জে এম সেন হলের পূজামণ্ডপসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় সাম্প্রদায়িক হামলার মদতদাতা রেজা কিবরিয়া ও নুরুল হক নুর গংদের দ্রুত গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া এবং জঙ্গি, সাম্প্রদায়িক ও সন্ত্রাসী সংগঠন গণঅধিকার পরিষদসহ ছাত্র ও যুব অধিকার পরিষদকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা।

সমাবেশে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আল মামুনের সঞ্চালনায় আরও বক্তব্য রাখেন স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক ডা. উত্তম কুমার বড়ুয়া, সংগঠনের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সনেট মাহমুদ প্রমুখ।

/এমআর/এমওএফ/

সম্পর্কিত

রেজা-নূরের দলে নতুন কী?

রেজা-নূরের দলে নতুন কী?

‘২০ দলীয় জোটকে বসিয়ে রাখলে বিকল্প পথে সক্রিয় হবে এলডিপি’

‘২০ দলীয় জোটকে বসিয়ে রাখলে বিকল্প পথে সক্রিয় হবে এলডিপি’

আরবি পড়লে কর্মসংস্থান হবে: জাফরুল্লাহ

আরবি পড়লে কর্মসংস্থান হবে: জাফরুল্লাহ

রাজনৈতিক কর্মসূচির জন্য কারও অনুমতি নেবেন না নুর

রাজনৈতিক কর্মসূচির জন্য কারও অনুমতি নেবেন না নুর

চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগে ইউপিতে নৌকা পেলেন যারা

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ২২:০৩

আগামী ২৮ নভেম্বর তৃতীয় ধাপে দেশের এক হাজার সাতটি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করেছে আওয়ামী লীগ। গতকাল সোমবার (২৫ অক্টোবর) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারি বাসভবন গণভবনে দলটির স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের মুলতবি সভায় তা চূড়ান্ত করা হয়।

মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) দলটির দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সভায় সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভাপতি শেখ হাসিনা।

সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তৃতীয় ধাপের চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীরা হলেন:

সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার রঙ্গারচর ইউপিতে আব্দুল মজিদ, সুরমাতে আব্দুস ছাত্তার, জাহাঙ্গীরনগরে মোকছুদ আলী, মোল্লাপাড়ায় মনির উদ্দিন, কাঠইরে বুরহান উদ্দিন, মোহনপুরে সীতেশ রঞ্জন দাস তালুকদার, গৌরারংয়ে ছালমা আক্তার চৌধুরী, লক্ষণশ্রীতে মিজানুর রহমান, কুরবাননগরে শামস উদ্দিন। দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার জয়কলসে মাসুদ মিয়া, শিমুলবাকে মিজানুর রহমান জিতু, পাথারিয়াতে সামছুল ইসলাম রাজা, দরগাপাশাতে মোহাম্মদ মনির উদ্দিন, পূর্বপাগলাতে রাসিকুল ইসলাম, পশ্চিমপাগলাতে জগলুল হায়দার, পূর্ববীরগাওতে রিয়াজুল ইসলাম, পশ্চিমবীরগাঁওতে দেবাংশু শেখর দাস আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন।

সিলেট জেলার গোয়াইনঘাট উপজেলার রুস্তমপুরে হেলাল উদ্দিন, লেংগুড়াতে মুজিবুর রহমান, ফতেপুরে মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন, নন্দিরগাঁওতে এস কামরুল হাসান (আমিরুল), তোয়াকুলে লোকমান, ডৌবাড়ীতে সুবাস দাস। জৈন্তাপুর উপজেলার জৈন্তাপুর ইউপিতে আব্দুর রাজাক, চারিকাটাতে সিরাজুল ইসলাম, দরবস্তে মোহাম্মদ কুতুব উদ্দিন, ফতেপুরে রফিক আহমদ, চিকনাগুলে কামরুজ্জামান চৌধুরী। দক্ষিণ সুরমা উপজেলার সিলাম ইউপিতে শাহ ওলিদুর রহমান, লালাবাজারে তোয়াজিদুল হক, জালালপুরে ওয়েস আহমদ, মাগলাবাজারে ছদরুল ইসলাম, দাউদপুরে আতিকুল হক নৌকার প্রতীক পেয়েছেন।

মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা উপজেলার বর্ণি ইউপিতে জোবায়ের হোসেন, দাসেরবাজারে জিয়াউর রহমান, নিজবাহাদুরপুরে ময়নুল হক, দক্ষিণশাহবাজপুরে নাহিদ আহমদ, বড়লেখাতে ছালেহ আহমদ, তালিমপুরে বিদ্যুৎ কান্ত দাস, দক্ষিণভাগে (উত্তর) এনাম উদ্দিন, সুজানগরে সাহেদুল মজিদ, দক্ষিণভাগে (দক্ষিণ) সুব্রত কুমার দাস, উত্তর শাহবাজপুরে রফিক উদ্দিন আহমদ মনোনয়ন পেয়েছেন। কুলাউড়া উপজেলার বরমচালে আবুল হোসেন খসরু, ভুকশিমইলে মইনুল ইসলাম, ভাটেরাতে জুবায়ের সিদ্দিকী, জয়চন্ডীতে আব্দুর রব মাহাবুব, ব্রাহ্মণবাজারে মমদুদ হোসেন, কাদিপুরে ছালিক আহমদ, কুলাউড়াতে মোছাদ্দিক আহমদ নোমান, রাউৎগাঁওতে আকবর আলী, টিলাগাঁওতে আব্দুল মালিক, হাজীপুরে ওয়াদুদ বক্স, শরীফপুরে মোহাম্মদ চিনু মিয়া, পৃথিমপাশাতে আব্দুল মন্নাফ, কর্মধাতে আতিকুর রহমানকে আওয়ামী লীগ মনোনয়ন দিয়েছে।

হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার বড়ভাকৈরে (পশ্চিম) ইউপিতে সমর চন্দ্র দাশ, বড়ভাকৈর পূর্বে আক্তার মিয়া, ইনাতগঞ্জে আছাবুর রহমান, দীঘলবাকে আবু সাঈদ, আউশকান্দিতে দিলাওর হোসেন, কুর্শি ইউপিতে আলী আহমেদ, করগাঁওতে বজলুর রহমান, নবীগঞ্জ সদরে হাবীবুর রহমান, বাউশাতে আবু সিদ্দিক, দেবপাড়াতে আব্দুল মোহিত চৌধুরী, গজনাইপুরে সাবের আহমেদ চৌধুরী, কালিয়ারভাংগাতে ফরহাদ আহমেদ, পানিউমদাতে ইজাজুর রহমান মনোনয়ন পেয়েছেন।

হবিগঞ্জ সদর উপজেলার লোকড়াতে আহাম্মদ আলি, রিচিতে আব্দুর রহিম, তেঘরিয়াতে এম এ মোতালিব, পৈলতে সাহেব আলী, গোপায়াতে নুরুজ্জামান চৌধুরী, রাজিউড়াতে বদরুল করিম দুলাল, নিজামপুরে আব্দুল আউয়াল তালুকদার, লস্করপুরে মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান হিরো নৌকা প্রতীক পেয়েছেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সরাইল উপজেলার সরাইল ইউপিতে সেলিম খন্দকার, শাহজাদাপুরে আছমা আক্তার, শাহবাজপুরে খায়রুল হুদা চৌধুরী, পানিশ্বরে (উত্তর) দ্বীন ইসলাম, চুন্টাতে শেখ মো. হাবিবুর রহমান, পাকশিমুলে সাইফুল ইসলাম, অরুয়াইলে শফিকুল ইসলাম, কালিকচ্ছে রোকেয়া আক্তার, নোয়াগাঁওতে শফিকুল ইসলাম মনোনয়ন পেয়েছেন। বাঞ্ছারামপুর উপজেলার তেজখালীতে এ কে এম শহিদুল হক, পাহাড়িয়াকান্দিতে গাজীউর রহমান, সোনারামপুরে মো. শাহীন, দরিকান্দিতে মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম, ছয়ফুল্লাকান্দিতে (পশ্চিম) মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম, বাঞ্ছারামপুর সদরে (উত্তর) আবদুর রহিম, ফরদাবাদে রাশিদুল ইসলাম, রূপসদীতে আব্দুল হাকিম, ছলিমাবাদে আবদুল মতিন, উজানচরে (পূর্ব) কাজী জাদিদ-আল-রহমান, মানিকপুরে ফরিদ উদ্দিন আহমেদ মনোনয়ন পেয়েছেন। নবীনগর উপজেলার বীরগাঁওতে আনোয়ার, নবীনগরে (পূর্ব) আব্দুল্লাহ আল মামুন, নবীনগরে (পশ্চিম) ফিরুজ মিয়া, শ্রীরামপুরে সৈয়দুজ্জামান, ইব্রাহিমপুরে আবু মুছা, লাউরফতেহপুরে মজিবুর রহমান, জিনদপুরে আবদুর রউফ, সাতমোড়াতে জসিম উদ্দিন আহমেদ, রছুল্লাবাদে আলী আকবর, শ্যামগ্রামে শামছুজ্জামান খান, বড়কান্দিতে লুৎফর রহমান, ছলিমগঞ্জে মাইনুল হক সিকদার, রতনপুরে সৈয়দ জাহিদ হোসেন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন।

কুমিল্লা জেলার হোমনা উপজেলার মাথাভাঙ্গাতে নাজিরুল হক ভূইয়া, ঘাগুটিয়াতে ইকবাল হোসেন রনি, দুলালপুরে জসিম উদ্দিন সওদাগর, চান্দেরচরে মোজাম্মেল হক, আছাদপুরে ছিদ্দিকুর রহমান, নিলখীতে জালাল উদ্দিন, ভাষানিয়াতে আব্দুল আউয়াল, ঘারমোড়াতে এ কে এম মনিরুজ্জামান, জয়পুরে তাইজুল ইসলাম মনোনয়ন পেয়েছেন। দাউদকান্দি উপজেলার দাউদকান্দি (উত্তর) ইউপিতে মোহাম্মদ কামরুজ্জামান, সুন্দলপুরে মোহাম্মদ রাশেদুল ইসলাম সরকার, গৌরীপুরে মোহাম্মদ নোমান মিয়া, জিংলাতলীতে ওমর ফারুক মিয়াজী, ইলিয়টগঞ্জে (উ:) জসিম উদ্দিন প্রধান, মালীগাঁওতে নুরুল ইসলাম, মোহাম্মদপুরে (পশ্চিম) দুলাল আহম্মদ, মারুকাতে খলিলুর রহমান তালুকদার, বিটেশ্বরে হুমায়ুন কবির ভূইয়া, পাঁচগাছিয়াতে (পশ্চিম) জামাল উদ্দিন চৌধুরী, গোয়ালমারীতে মান্নান প্রধান, পদুয়াতে মিনু বেগম মনোনয়ন পেয়েছেন। বরুড়া উপজেলার আগানগরে ওমর ফারুক ভূঞাঁ, ভবানীপুরে খলিলুর রহমান, খোশবাসে (উত্তর) নাজমুল হাছান, ঝলমে খায়রুল আনাম এয়াকুব, চিতড্ডাতে জাকারিয়া, আড্ডা তে জাকির হোসেন, আদ্রাতে আ. করিম, লক্ষীপুরে আবুল হাশেম. পয়ালগাছাতে সৈয়দ মহিউদ্দিন নৌকা প্রতীক পেয়েছেন।

চাঁদপুর জেলার মতলব উত্তর উপজেলার ষাটনল ইউপিতে একেএম শরীফ উল্যহ সরকার, বাগানবাড়িতে নান্নু মিয়া, সাদুল্যাপুরে লোকমান আহমেদ, দূর্গাপুরে মোকাররম হোসেন খান, কলাকান্দাতে গোলাম কাদির, মোহনপুরে সামছুল হক চৌধুরী, এখলাছপুরে মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন, জহিরাবাদে মনোয়ারুল ইসলাম, ফতেপুরে (পূর্ব) আজমল হোসেন চৌধুরী, ফতেপুরে (পশ্চিম) নূর মোহাম্মদ, ফরাজীকান্দিতে মোহাম্মদ রেজাউল করিম, ইসলামাবাদে সাখাওয়াত হোসেন (মুকুল), সুলতানাবাদে হাবিবা ইসলাম সিফাত, গজরাতে শহীদ উল্লা মনোনয়ন পেয়েছেন। মতলব দক্ষিণ উপজেলার নায়েরগাঁও উত্তরে মিজানুর রহমান, নায়েরগাঁও দক্ষিণে আব্দুস ছালাম মৃধা, উপাদী উত্তরে শহিদ উল্যাহ, উপাদী দক্ষিণে গোলাম মোস্তফাকে মনোনয়ন দিয়েছে আওয়ামী লীগ।

ফেনী জেলার পরশুরাম উপজেলার মির্জানগরে নূরুজ্জমান, বক্সমাহমুদে আবদুল গফুর, চিথলিয়াতে জসিম উদ্দিন মনোনয়ন পেয়েছেন। ছাগলনাইয়া উপজেলার ঘোপালে মোহাম্মদ সেলিম, পাঠাননগরে রফিকুল হায়দার চৌধুরী, রাধানগরে মোশারাফ হোসেন, শুভপুরে আজিজুর রহমান, মহামায়াতে শাহজাহান মিনু আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন।

নোয়াখালী জেলার সেনবাগ উপজেলার ছাতার পাইয়া ইউপিতে সোহরাব সুমন, ডমুরুয়াতে শওকত হোসেন কানন, কাদরাতে মোহাম্মদ কামরুজ্জামান, কাবিলপুরে আজাদ হোসেন, বীজবাগে আনোয়ার হোসেন, নবীপুরে খাজা খায়ের সুজনকে মনোনয়ন দিয়েছে আওয়ামী লীগ।

লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জ উপজেলার কাঞ্চনপুরে নাছির উদ্দিন খান, নোয়াগাঁওতে সোহেল পাটোয়ারী, ভাদুরে মোহাম্মদ জবেদ, ইছাপুরে শাহনাজ আক্তার, চন্ডীপুরে কামাল হোসেন ভূঁঞা, লামচরে মাহেনারা পারভীন, দরবেশপুরে মিজানুর রহমান, করপাড়াতে মজিবুল হক (মজিব), ভোলাকোট ভাটরাতে জামান পাটওয়ারী দুলাল, ভাটরাতে মোহাম্মদ আবুল হোসেন মনোনয়ন পেয়েছেন। রায়পুর উপজেলার উত্তর চরআবাবিলে শহিদ উল্লাহ, উত্তর চরবংশীতে আবুল হোসেন, চরমোহনাতে শফিক, সোনাপুরে বি এম ইউছুফ জালাল অ্যাডভোকেট, চরপাতাতে সুলতান মামুন রশিদ, কেরোয়াতে শাহিনুর বেগম রেখা, বামনীতে তাফাজ্জল হোসেন, দক্ষিণ চরবংশীতে আবু জাফর মো. সালেহ, দক্ষিণ চরআবাবিলে হাওলাদার নুরে আলম জিকু, রায়পুরে সফিউল আজম নৌকা প্রতীক পেয়েছেন।

চট্টগ্রাম জেলার রাউজান উপজেলার হলদিয়া ইউপিতে শফিকুল ইসলাম, ডাবুয়াতে আবদুর রহমান চৌধুরী, চিকদাইরে প্রিয়তোষ চৌধুরী, গহিরাতে নুরুল আবছার, বিনাজুরীতে রবীন্দ্র লাল চৌধুরী, রাউজানে বি এম জসিম উদ্দীন, পাহাড়তলীতে রোকন উদ্দীন, পূর্ব গুজরাতে আব্বাস উদ্দীন আহমেদ, পশ্চিম গুজরাতে সাহাবুদ্দিন আরিফ, উরকিরচরে সৈয়দ আবদুল জব্বার সোহেল, নোয়াপাড়াতে মোহাম্মদ বাবুল মিয়া, বাগোয়ানে ভূপেশ বড়ুয়া, নোয়াজিষপুরে মোহাং সরোয়ার্দী মনোনয়ন পেয়েছেন। রাঙ্গুনিয়া উপজেলার রাজানগরে সামশুল আলম তালুকদার, হোছনাবাদে দানু মিয়া, পারুয়াতে একতেহার হোসেন, পোমরাতে জহির আহমদ চৌধুরী, বেতাগীতে মোহাম্মদ নুর কুতুবুল আলম, সরফভাটাতে শেখ ফরিদ উদ্দীন চৌধুরী, শিলকে মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম তালুকদার, পদুয়াতে মুহাম্মদ আবু জাফর, চন্দ্রঘোনাতে মোহাম্মদ ইদ্রিচ আজগর, কোদালাতে আবদুল কাইয়ুম, ইসলামপুরে সিরাজ উদ্দিন চৌ, দক্ষিণ রাজানগরে আহামদ ছৈয়দ তালুকদার, লালানগরে মীর তৌহিদুল ইসলাম মনোনয়ন পেয়েছেন।

হাটহাজারী উপজেলার ধলইতে মোহাম্মদ আলমগীর, মির্জাপুরে আকতার হোসেন খান, গুমান মর্দ্দনে মজিবুর রহমান, নাঙ্গলমোড়াতে হুমায়ুন কবির, ছিপাতলীতে মোহাম্মদ নুরুল আবেদীন, মেখলে মোহাম্মদ সালাউদ্দীন, গড়দুয়ারাতে মুহাম্মদ সরওয়ার মোর্শেদ তালুকদার, উত্তর মাদার্শাতে মোহাম্মদ শাহেদুল আলম, ফতেপুরে জায়নুল আবেদীন, চিকনদন্ডীতে হাসান জামান বাচ্চু, দক্ষিণ মাদার্শাতে মোহাম্মদ সরওয়ার, শিকারপুরে মোহাম্মদ আবু বক্কর সিদ্দিকী, বুড়িশ্চরে এম বেলাল উদ্দীন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন।

কক্সবাজার জেলার চকরিয়া উপজেলার বদরখালীতে নুরে হোছাইন আরিফ, ভেওলা-মানিকচরে শহিদুল ইসলাম, পূর্ব বড়ভেওলাতে ফারহানা আফরিন মুন্না, কৈয়ারবিলে জন্নাতুল বকেয়া, সাহারবিলে মহসিন বাবুল, পশ্চিম বড়ভেওলাতে সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, ঢেমুশিয়াতে এস এম মঈন উদ্দীন আহমদ চৌধুরী, কোনাখালীতে জাফর আলম সিদ্দীকি, লক্ষ্যাচরে মহিউদ্দিন মো. আওরঙ্গজেব, কাঁখারাতে শওকত ওসমান মনোনয়ন পেয়েছেন। পেকুয়া উপজেলার বারবাকিয়াতে আবুল কাশেম, উজানটিয়াতে এম শহীদুল ইসলাম চৌধুরী, মগনামাতে নাজেম উদ্দীন, পেকুয়া সদরে জহিরুল ইসলাম, রাজাখালীতে নজরুল ইসলাম, শিলখালীতে কাজিউল ইনসানকে মনোনয়ন দিয়েছে আওয়ামী লীগ।

খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালা উপজেলার মেরুং ইউপিতে মাহমুদা বেগম, বোয়ালখালীতে মোস্তফা, কবাখালীতে আবদুল বারেক মনোনয়ন পেয়েছেন। মহালছড়ি উপজেলার মহালছড়িতে রতন কুমার শীল, মুবাছড়িতে কংজরী মারমা, মাইসছড়িতে গিয়াস উদ্দিন, ক্যায়াংঘাটে রুপেন্দু দেওয়ানকে নৌকা প্রতীক দিয়েছে আওয়ামী লীগ।

রাঙ্গামাটি জেলার রাজস্থলী উপজেলার ঘিলাছড়িতে রবার্ট ত্রিপুরা, গাইন্দ্যাতে পুচিংমং মারমা, বাঙ্গালহালিয়াতে আদোমং মারমা মনোনয়ন পেয়েছেন। কাউখালী উপজেলার বেতবুনিয়াতে অংক্যজ চৌধুরী, ফটিকছড়িতে লা থোয়াই মারমা, ঘাগড়াতে নাজিম উদ্দিন, কলমপতিতে ক্যজাই মারমাকে মনোনয়ন দিয়েছে আওয়ামী লীগ।

বান্দরবান জেলার আলীকদম উপজেলার আলীকদম সদর ইউপিতে মোহাম্মদ নাছির উদ্দীন, চৈক্ষ্যংয়ে ফেরদৌস রহমান, নয়াপাড়াতে ফোগ্য মার্মা, কুরুপপাতাতে ক্রাতপুং ম্রো মনোনয়ন পেয়েছেন। রুমা উপজেলার রুমা সদরে শৈমং মার্মা, পাইন্দুতে সাপ তলং বম, গ্যালেংগ্যাতে মেনরত ম্রো, রেমাক্রী প্রাংসাতে জিরা বমকে আওয়ামী লীগ মনোনয়ন দিয়েছে।

/পিএইচসি/এমআর/এমওএফ/

সম্পর্কিত

ঢাকা ও ময়মনসিংহ বিভাগের ইউপিতে নৌকার টিকিট পেলেন যারা

ঢাকা ও ময়মনসিংহ বিভাগের ইউপিতে নৌকার টিকিট পেলেন যারা

তৃতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে আ.লীগের মনোনয়ন ফরম বিতরণ শনিবার শুরু

তৃতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে আ.লীগের মনোনয়ন ফরম বিতরণ শনিবার শুরু

ঢাকা ও সিলেট বিভাগের ইউপি প্রার্থী চূড়ান্ত করলো আ.লীগ

ঢাকা ও সিলেট বিভাগের ইউপি প্রার্থী চূড়ান্ত করলো আ.লীগ

খুলনা ও বরিশাল বিভাগসহ ঢাকার ৫ জেলার আ.লীগের ইউপি প্রার্থী চূড়ান্ত

খুলনা ও বরিশাল বিভাগসহ ঢাকার ৫ জেলার আ.লীগের ইউপি প্রার্থী চূড়ান্ত

‘করোনাকালীন শিল্প-বাণিজ্য উন্নয়নে শেখ হাসিনার ভূমিকা’ শীর্ষক সভা বুধবার

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৭:২৪

আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক উপ-কমিটির উদ্যোগে ‘করোনাকালীন শিল্প ও বাণিজ্য উন্নয়নে শেখ হাসিনার ভূমিকা’ শীর্ষক আলোচনা সভা আগামীকাল বুধবার (২৭ অক্টোবর) সকাল ১১টায় রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলের বলরুমে অনুষ্ঠিত হবে।

মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) দলের পক্ষ থেকে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

বিশেষ অতিথি থাকবেন শিল্পমন্ত্রী অ্যাডভোকেট নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন, বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি এবং প্রধানমন্ত্রীর শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান।

অতিথি হিসেবে থাকবেন এফবিসিসিআই’র সভাপতি মো. জসীম উদ্দিন এবং ডি ৮ সিসিআই’র সভাপতি ও এফবিসিসিআই’র সাবেক সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম। 

সভায় সভাপতিত্ব করবেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য এবং শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক উপ-কমিটির চেয়ারম্যান কাজী আকরাম উদ্দীন আহমদ। খবর: বাসস

 

/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

রেজা-নূরের দলে নতুন কী?

রেজা-নূরের দলে নতুন কী?

‘২০ দলীয় জোটকে বসিয়ে রাখলে বিকল্প পথে সক্রিয় হবে এলডিপি’

‘২০ দলীয় জোটকে বসিয়ে রাখলে বিকল্প পথে সক্রিয় হবে এলডিপি’

আরবি পড়লে কর্মসংস্থান হবে: জাফরুল্লাহ

আরবি পড়লে কর্মসংস্থান হবে: জাফরুল্লাহ

রাজনৈতিক কর্মসূচির জন্য কারও অনুমতি নেবেন না নুর

রাজনৈতিক কর্মসূচির জন্য কারও অনুমতি নেবেন না নুর

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

রেজা-নূরের দলে নতুন কী?

রেজা-নূরের দলে নতুন কী?

‘করোনাকালীন শিল্প-বাণিজ্য উন্নয়নে শেখ হাসিনার ভূমিকা’ শীর্ষক সভা বুধবার

‘করোনাকালীন শিল্প-বাণিজ্য উন্নয়নে শেখ হাসিনার ভূমিকা’ শীর্ষক সভা বুধবার

‘২০ দলীয় জোটকে বসিয়ে রাখলে বিকল্প পথে সক্রিয় হবে এলডিপি’

‘২০ দলীয় জোটকে বসিয়ে রাখলে বিকল্প পথে সক্রিয় হবে এলডিপি’

আরবি পড়লে কর্মসংস্থান হবে: জাফরুল্লাহ

আরবি পড়লে কর্মসংস্থান হবে: জাফরুল্লাহ

রাজনৈতিক কর্মসূচির জন্য কারও অনুমতি নেবেন না নুর

রাজনৈতিক কর্মসূচির জন্য কারও অনুমতি নেবেন না নুর

খালেদা জিয়া আবারও প্রধানমন্ত্রী হবেন: ইকবাল হাসান মাহমুদ

খালেদা জিয়া আবারও প্রধানমন্ত্রী হবেন: ইকবাল হাসান মাহমুদ

রেজা কিবরিয়া ও নুরের নেতৃত্বে গণঅধিকার পরিষদের আত্মপ্রকাশ

রেজা কিবরিয়া ও নুরের নেতৃত্বে গণঅধিকার পরিষদের আত্মপ্রকাশ

নয়া পল্টনে বিএনপি নেতাকর্মীদের সাথে পুলিশের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া

নয়া পল্টনে বিএনপি নেতাকর্মীদের সাথে পুলিশের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া

‘সম্প্রীতির স্বার্থে’ বিক্ষোভ মিছিল করেনি বিএনপি

‘সম্প্রীতির স্বার্থে’ বিক্ষোভ মিছিল করেনি বিএনপি

খালেদা জিয়া সুস্থ আছেন: মির্জা ফখরুল

খালেদা জিয়া সুস্থ আছেন: মির্জা ফখরুল

সর্বশেষ

রাঙামাটিতে নির্বাচনী সহিংসতায় প্রাণ গেলো ইউপি সদস্যের

রাঙামাটিতে নির্বাচনী সহিংসতায় প্রাণ গেলো ইউপি সদস্যের

সাতক্ষীরায় ১০ সাংবাদিক পেলেন মিডিয়া ফেলোশিপ

সাতক্ষীরায় ১০ সাংবাদিক পেলেন মিডিয়া ফেলোশিপ

বুয়েটে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার

বুয়েটে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার

বিশ্বকাপ শেষ সাইফউদ্দিনের, মূল দলে রুবেল

বিশ্বকাপ শেষ সাইফউদ্দিনের, মূল দলে রুবেল

আর কত সুযোগ পাবেন লিটন?

আর কত সুযোগ পাবেন লিটন?

© 2021 Bangla Tribune