X
রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ৩১ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

ফিলিস্তিনিদের ‘মুক্তি’র নতুন প্রতীক চামচ

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:০৬

ফিলিস্তিনিদের প্রতিরোধ আন্দোলনে পতাকা ও ব্যানারের পাশাপাশি প্রতিরোধের প্রতীক হয়ে উঠেছে নিরীহ চামচ। ইসরায়েলের হাই সিকিউরিটি কারাগার থেকে ফিলিস্তিনি বন্দিরা পালানোর সময় চামচ ব্যবহারের কথা জানানোর পর এমন প্রবণতা দেখা যাচ্ছে।

৬ সেপ্টেম্বর ইসরায়েলের কুখ্যাত গিলবোয়া কারাগার থেকে ছয় ফিলিস্তিন পালিয়ে যায়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত ছবিতে দেখা গেছে, সুড়ঙ্গের মুখে অনেক মাটি রয়েছে। এরপরই ‘মিরাকুলাস স্পুন’ নামে একটি হ্যাশট্যাগ চালু হয়। অবশ্য ফিলিস্তিনিদের জেল পালানোর সময় চামচ দিয়েই মাটি খুঁড়ার কাজ করা হয়েছে কিনা তা স্পষ্ট ছিল না।

পুনরায় ইসরায়েলের হাতে বন্দি হওয়া এক ফিলিস্তিনির আইনজীবী বুধবার দাবি করেছেন, তার মক্কেল মাহমুদ আব্দুল্লাহ আরদাহ চামচ, প্লেট ও কেটলির হাতল দিয়ে কারাগারের সেল থেকে সুড়ঙ্গ খুঁড়েছেন। গত বছর ডিসেম্বরে এই কাজ শুরু করেন আরদাহ।

জেল থেকে পালানো ছয় জনের মধ্যে চারজনকে পুনরায় গ্রেফতার করেছে ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষ। জেল পাঠানোর ঘটনায় বিব্রত ইসরায়েল তদন্ত করছে। ফিলিস্তিনিরা এটিকে ‘বিজয়’ হিসেবে দেখছে।

লেখক সারি ওরাবি লিখেছেন, দৃঢ় প্রতিজ্ঞা, সতর্কতা, চতুরতা এবং একটি চামচ দিয়ে একটি সুড়ঙ্গ খুঁড়া সম্ভব। যা দিয়ে ফিলিস্তিনিরা পালিয়েছে এবং অনেক শত্রু বন্দি হয়েছে।

ফিলিস্তিনি কার্টুনিস্ট মোহাম্মদ সাবানেহ বলেছেন, ঘটনাটি ‘ব্ল্যাক কমেডি’ এবং এতে ইসরায়েলের নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে উপহাসে পরিণত করেছে।

তিনি চামচ নিয়ে কয়েকটি ছবি এঁকেছেন। একটির শিরোনাম, ‘মুক্তির সুড়ঙ্গ’।

ফিলিস্তিনের বাইরেও এই চামচ আলোচনায়। কুয়েতের শিল্পী মাইথাম আবদাল একটি বড় চামচের ভাস্কর্য তৈরি করেছেন। নাম দিয়েছেন ‘মুক্তির চামচ’।

একইভাবে জর্ডানের আম্মানভিত্তিক গ্রাফিক ডিজাইনার রায়েদ আল-কানতানিও ছবি তৈরি করেছেন। যাতে দেখা গেছে, চামচ দিয়ে ছয়টি প্রতীকীভাবে একটি মুক্তির সেতু পার হচ্ছেন। সূত্র: এএফপি

 

/এএ/

সম্পর্কিত

‘দায়িত্ব নেওয়ায়’ ম্যার্কেলের প্রশংসা করলেন এরদোয়ান

‘দায়িত্ব নেওয়ায়’ ম্যার্কেলের প্রশংসা করলেন এরদোয়ান

লেবাননে অস্থিতিশীলতার জন্য ইসরায়েলকে দোষারোপ ইরানের

লেবাননে অস্থিতিশীলতার জন্য ইসরায়েলকে দোষারোপ ইরানের

ইয়েমেনে সৌদি জোটের হামলায় ১৬০ হুথি বিদ্রোহী নিহত

ইয়েমেনে সৌদি জোটের হামলায় ১৬০ হুথি বিদ্রোহী নিহত

‘দায়িত্ব নেওয়ায়’ ম্যার্কেলের প্রশংসা করলেন এরদোয়ান

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২৩:০৫

সিরিয়া থেকে ইউরোপমুখী অভিবাসন রোধ থেকে শুরু করে দেশটিতে মানবিক সাহায্য পাঠানো পর্যন্ত বিভিন্ন বিষয়ে দায়িত্ব নিয়েছেন বিদায়ী জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল। একজন বিশ্বনেতা হিসেবে এমন দায়িত্ব নেওয়ায় তার প্রশংসা করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

১৬ অক্টোবর শনিবর তুরস্ক সফরে যান ম্যার্কেল। জার্মান চ্যান্সেলর হিসেবেই এটিই তার শেষ তুর্কি সফর। সফরে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ানের সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হন তিনি। পরে ইস্তাম্বুলের ডলমবাহসে প্রাসাদে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন দুই নেতা।

আঙ্গেলা ম্যার্কেল জানান, তার দেশ তুরস্কের সঙ্গে কার্যকর সম্পর্ক অব্যাহত রাখবে। এ সময় বিশেষ করে অভিবাসন এবং অন্যান্য বিষয়ে পারস্পরিক সহযোগিতার ওপর জোর দেন জার্মান চ্যান্সেলর।

মানবাধিকার সমুন্নত রাখার ক্ষেত্রে বার্লিনের কূটনৈতিক প্রচেষ্টার যৌক্তিকতাও তুলে ধরেন ম্যার্কেল।

জার্মান চ্যান্সেলর বলেন, ‘প্রত্যেকেই জানেন যে, আমাদের উভয় দেশের নিরাপত্তা ও স্বাধীনতা পরস্পরের ওপর নির্ভরশীল।’

এরদোয়ান বলেন, তুরস্কের সঙ্গে সম্পর্ক বজায় রাখার ক্ষেত্রে ম্যার্কেলের সদিচ্ছা ও অবদান আঙ্কারা সব সময় মনে রাখবে।

তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, সিরিয়া থেকে অনিয়মিত অভিবাসন রোধ থেকে শুরু করে উত্তর সিরিয়ায় মানবিক সাহায্য পাঠানো, অনেক বিষয়েই মার্কেল উদ্যোগ নিয়েছেন। দায়িত্ব নেওয়া থেকে তিনি নিজেকে বিরত রাখেননি।

১৬ বছর ধরে জার্মানি শাসন করছেন ম্যার্কেল। আর ১৯ বছর ধরে তুরস্কের ক্ষমতায় রয়েছেন এরদোয়ান। এই দুই নেতাকে অঞ্চলটির সবচেয়ে বেশি সময় ধরে ক্ষমতায় থাকা শাসক হিসেবে বিবেচনা করা হয়। দুই নেতার শাসনামলে উভয় দেশের মধ্যে নানা বিষয়ে মতবিরোধ থাকলেও দুই দেশের সম্পর্কে বড় ধরনের কোনও ফাটল ধরেনি। বরং নানা ইস্যুতে উভয় পক্ষ একযোগে কাজ করেছে। তবে ম্যার্কেল পরবর্তী জার্মানির নতুন সরকার তুরস্কের ব্যাপারে অপেক্ষাকৃত অধিক সমালোচক হবে বলে প্রতীয়মান হচ্ছে।

ম্যার্কেলের রাজনৈতিক দক্ষতার তুলনা নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এরদোয়ান বলেন, ১৬ বছর কম সময় নয়। আর আমি ১৯ বছরেরও বেশি সময় ধরে ক্ষমতায় আছি। আমরা অনেক বিশ্বনেতার সঙ্গে কথা বলেছি, কাজ করেছি। চ্যান্সেলর নিজ দেশ পরিচালনায় যথেষ্ট সফল।

এরদোয়ান বলেন, ‘আমরা আমাদের সম্পর্কের উন্নতি দেখতে পাবো। তবে নিজ দেশে কোয়ালিশন সরকার না হলে তারা আরও ভালো জায়গায় থাকতে পারতো। জোট সরকারের সঙ্গে কাজ করা সহজ নয়।’

উল্লেখ্য, শিগগিরই জার্মানির ক্ষমতাকেন্দ্র থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল। পরবর্তী সরকার গঠিত হওয়া পর্যন্ত প্রথা অনুযায়ী তিনি দায়িত্ব পালন করে যাবেন। তবে এখন থেকেই তার দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনের মূল্যায়ন শুরু হয়ে গেছে। তার আমলেই জার্মানিতে সামরিক বাহিনীতে তরুণদের বাধ্যতামূলক কার্যক্রম শেষ হয়েছে। পরমাণু ও জীবাশ্মভিত্তিক জ্বালানি পুরোপুরি ত্যাগ করে ভবিষ্যতে পরিবেশবান্ধব জ্বালানির পথেও যাত্রা শুরু হয়েছে।

আন্তর্জাতিক আঙিনায় তার দৃঢ় অবস্থান গোটা বিশ্বে সমীহ আদায় করেছে। ইউরোপের সংকট সামলানো ও স্বার্থ রক্ষায় তার উদ্যোগ বার বার নজর কেড়েছে। বিশেষ করে ২০০৮ সালে বিশ্বব্যাপী আর্থিক সংকটের সময়ে তিনি জার্মানির মানুষের সঞ্চয় নিরাপদ হিসেবে ঘোষণা করে যথেষ্ট আস্থা অর্জন করেছিলেন। ঋণ সংকট থেকে ইউরোপীয় ইউনিয়নের অভিন্ন মুদ্রা ইউরোকে রক্ষার ক্ষেত্রেও তিনি বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করেছিলেন।

/এমপি/

সম্পর্কিত

লেবাননে অস্থিতিশীলতার জন্য ইসরায়েলকে দোষারোপ ইরানের

লেবাননে অস্থিতিশীলতার জন্য ইসরায়েলকে দোষারোপ ইরানের

রাষ্ট্রীয় সেন্সরশিপ, চীনে বন্ধ হচ্ছে মাইক্রোসফটের লিঙ্কডইন

রাষ্ট্রীয় সেন্সরশিপ, চীনে বন্ধ হচ্ছে মাইক্রোসফটের লিঙ্কডইন

কাশ্মিরে নিখোঁজ ২ ভারতীয় জওয়ানের মরদেহ উদ্ধার

কাশ্মিরে নিখোঁজ ২ ভারতীয় জওয়ানের মরদেহ উদ্ধার

বিশ্বে টিকা সংকট, অথচ যুক্তরাষ্ট্র নষ্ট হলো দেড় কোটি ডোজ

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২৩:০০

বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলে করোনাভাইরাসের টিকা বিপুল সংকট থাকলেও যুক্তরাষ্ট্র অন্তত দেড় কোটির বেশি ডোজ নষ্ট করেছে। দেশটির সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) একটি পর্যালোচনায় বলা হয়েছে, মার্চ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অন্তত দেড় কোটি ডোজ টিকা ফেলে দেওয়া হয়েছে। পৃথক অনুসন্ধানে উঠে এসেছে, দশটি অঙ্গরাজ্যে ডিসেম্বর থেকে জুলাই মাসে ফেলে দেওয়া টিকার ডোজের সংখ্যা দশ লাখ। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান এখবর জানিয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে অব্যবহৃত ডোজ ফেলে দেওয়া হচ্ছে। লুইজিয়ানাতে ফেলে দেওয়া অব্যবহৃত ডোজের সংখ্যা ২ লাখ ২৪ হাজার। এখানে চতুর্থ ঢেউয়ের ভয়াবহ প্রকোপ থাকলেও জুলাই মাসের শেষের দিকে ফেলে দেওয়া ডোজের সংখ্যা বেড়েছে। কিছু ডোজ নষ্ট হয়েছে ভায়াল খোলা ও সব ডোজ সম্পূর্ণ না হওয়াতে। কিন্তু ২০ হাজারের বেশি ডোজ নষ্ট হয়েছে মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার কারণে।

উইসকনসিনে প্রতিদিন হাজারো ডোজ অপচয় হয়েছে। আলাবামাতে ৬৫ হাজারের বেশি এবং টেনেসিতে প্রায় ২ লাখ ডোজ ফেলে দেওয়া হয়েছে।

অবশ্য ফেলে দেওয়া ডোজের সংখ্যা টিকা দেওয়ার তুলনায় অনেক কম। যেমন- লুইজিয়ানাতে ৪৪ লাখ ডোজ সফলভাবে দেওয়া হয়েছে।

 কিন্তু এমন সময় এই ফেলে দেওয়ার খবর সামনে এলো যখন বিশ্বের অনেক স্থানে মানুষ প্রথম ডোজ পাওয়ার অপেক্ষাতে রয়েছেন। জুলাই পর্যন্ত নিম্ন আয়ের দেশগুলোর মাত্র ১ শতাংশ মানুষ প্রথম ডোজ টিকা পেয়েছেন। তুলনায় উচ্চ আয়ের অনেক দেশে অর্ধেকের বেশি মানুষ প্রথম ডোজ পেয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রে ফেলে দেওয়া ডোজগুলোর বেশিরভাগ এসেছে ফার্মেসি থেকে। মে মাসে দুটি ফার্মেসি চেইন অঙ্গরাজ্য ও অঞ্চল ও কেন্দ্রীয় সংস্থার তুলনায় বেশি ডোজ নষ্ট করেছে। ওই মাসের মোট নষ্ট হওয়া ডোজের তিন-চতুর্থাংশ এই দুটি ফার্মেসি চেইন নষ্ট করেছে। এখন পর্যন্ত চারটি গুরুত্বপূর্ণ ফার্মেসি চেইন, ওয়ালগ্রিন্স, সিভিএস, ওয়ালমার্ট ও রাইট এইড নষ্ট করেছে অন্তত ৭৬ লাখ ডোজ।

টিকার ডোজ নষ্ট হওয়ার অনেকগুলো কারণ রয়েছে। অনেক সময় ভায়াল ভেঙে যায় অথবা নির্ধারিত ডোজ থাকে না; অনেক সময় সিরিঞ্জের সুঁই ঠিকমতো কাজ করে না; ফ্রিজ নষ্ট হয়ে পড়ে বা বিদ্যুৎ চলে যায়। আবার অনেক সময় নির্ধারিত সময়ে মানুষ টিকা নিতে হাজির হন না ফলে সেই ভায়ালটি অব্যবহৃত হিসেবে পড়ে থাকে।

এনবিসি নিউজ জানিয়েছে, জুনের আগে ২০ লাখের বেশি ডোজ নষ্ট হয়েছিল। কিন্তু গ্রীষ্মে ভাইরাসের প্রকোপ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে নষ্ট ডোজের সংখ্যাও বেড়েছে। এসময় টিকার মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়া ছিল নষ্ট হওয়ার অন্যতম কারণ।

প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসন যুক্তরাষ্ট্রে বুস্টার ডোজের জন্য মজুত করে রাখা টিকা ব্যবহারে চাপ দিচ্ছেন। একই সঙ্গে কর্মকর্তারা উৎপাদনকারী কোম্পানিগুলোর সঙ্গে আলোচনা করছেন ভায়ালে ডোজের সংখ্যা কমিয়ে আনার জন্য।  

বৈশ্বিক বৈষম্যের মধ্যে বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে অব্যবহৃত টিকার ডোজগুলো দান করে নষ্ট হওয়া এড়ানো সহজ না। অঙ্গরাজ্যগুলোকে বিতরণ করা টিকা পুনরায় আন্তর্জাতিকভাবে ব্যবহারের জন্য ফিরিয়ে আনা সম্ভব হয় আমলান্ত্রিক ও নিরাপত্তা উদ্বেগের কারণে সম্ভব না।

জো বাইডেন আগামী বছর বিশ্বের ৭০ শতাংশ মানুষকে টিকাদানের অঙ্গীকার করেছেন। বিভিন্ন দেশকে লাখ লাখ ডোজ টিকা দানের আশ্বাসও দিয়েছেন। কিন্তু এখনই বিভিন্ন দেশ তাদের ঝুঁকিপূর্ণ ও মহামারিতে ফ্রন্টলাইনে থাকা কর্মীদের টিকা দিতে হিমশিম খাচ্ছে। যেখানে মার্কিনিরা টিকা নিতে অনীহা প্রকাশ করছেন।

বুধবার বাইডেন প্রশাসনের কোভিড-১৯ মোকাবিলায় প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ডেভিড কেসলার বলেছেন, টিকা উৎপাদনকারীদের উচিত বৈশ্বিক সংকট মেটাতে উৎপাদন বাড়ানো উচিত। যেমন- টিকা উৎপাদনের কথা যখন আসে তখন মডার্নাকে একটি কোম্পানি হিসেবে ভূমিকা রাখা উচিত।

 

/এএ/

সম্পর্কিত

কাবুলে ড্রোন হামলায় নিহতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণের প্রস্তাব ওয়াশিংটনের

কাবুলে ড্রোন হামলায় নিহতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণের প্রস্তাব ওয়াশিংটনের

যুক্তরাষ্ট্রে মাঠে খেলা চলাকালীন গুলি, আহত একাধিক

যুক্তরাষ্ট্রে মাঠে খেলা চলাকালীন গুলি, আহত একাধিক

মার্কিন ডেস্ট্রয়ারকে তাড়িয়ে দেওয়ার দাবি রাশিয়ার

মার্কিন ডেস্ট্রয়ারকে তাড়িয়ে দেওয়ার দাবি রাশিয়ার

ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা তুলে নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা তুলে নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

লেবাননে অস্থিতিশীলতার জন্য ইসরায়েলকে দোষারোপ ইরানের

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২২:০৭

লেবাননের বৈরুতে হিজবুল্লাহ’র বিক্ষোভ কর্মসূচিতে শিয়া প্রতিবাদকারী নিহতের নিন্দা জানিয়েছে ইরান। তবে একই সঙ্গে তারা দাবি করেছে, বিক্ষোভে যারা গুলি চালিয়েছে তারা দেশদ্রোহী এবং জায়নবাদী ইসরায়েলের সমর্থনপুষ্ট। শুক্রবার ইসলামিক রিপাবলিক নিউজ এজেন্সি (ইরনা) এখবর জানিয়েছে।

গত বছর বৈরুত বন্দরে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনার তদন্ত থেকে বিচারক তারেক বিতারকে অপসারণের দাবিতে হিজবুল্লাহ ও আমাল মুভমেন্ট এ বিক্ষোভের ডাক দেয়। ওই বিচারকের তৎপরতাকে পক্ষপাতদুষ্ট হিসেবে আখ্যায়িত করেছে এই দুই সংগঠন। বিক্ষোভকারীরা তাকে মার্কিন দাস হিসেবে অভিযুক্ত করেছে। বিক্ষোভে একদল অস্ত্রধারী গুলি চালায়। এতে সাত জন নিহত ও ৬০ জন আহত হয়। 

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাঈদ খতিবজাদেহ বলেন, ইরান বিশ্বাস করে লেবাননের জনগণ, সরকার, সেনাবাহিনী ও প্রতিরোধ বাহিনী জায়নবাদী দেশের সমর্থনে বিদ্রোহকে সফলভাবে মোকাবিলা করবে।

মধ্যপ্রাচ্যবিষয়ক সংবাদমাধ্যম মিডল ইস্ট মনিটর-এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিক্ষোভে গুলি চালিয়েছে উগ্রপন্থী খ্রিস্টিয়ান লেবানিজ ফোর্সেস পার্টির সদস্যরা। এর নেতৃত্বে রয়েছে সামির গায়েগিয়া।

বৃহস্পতিবারের সহিংসতায় নিহতদের স্মরণে শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) জাতীয়ভাবে শোক দিবস পালন করেছে লেবানন। দেশে শান্তি বজায় রাখার জন্য জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন লেবানিজ প্রধানমন্ত্রী। লেবাননকে সহিংসতার দিকে টেনে নেওয়ার অপচেষ্টার বিরুদ্ধে তিনি সতর্ক থাকতে বলেছেন।

/এএ/

সম্পর্কিত

‘দায়িত্ব নেওয়ায়’ ম্যার্কেলের প্রশংসা করলেন এরদোয়ান

‘দায়িত্ব নেওয়ায়’ ম্যার্কেলের প্রশংসা করলেন এরদোয়ান

রাষ্ট্রীয় সেন্সরশিপ, চীনে বন্ধ হচ্ছে মাইক্রোসফটের লিঙ্কডইন

রাষ্ট্রীয় সেন্সরশিপ, চীনে বন্ধ হচ্ছে মাইক্রোসফটের লিঙ্কডইন

কাশ্মিরে নিখোঁজ ২ ভারতীয় জওয়ানের মরদেহ উদ্ধার

কাশ্মিরে নিখোঁজ ২ ভারতীয় জওয়ানের মরদেহ উদ্ধার

রাষ্ট্রীয় সেন্সরশিপ, চীনে বন্ধ হচ্ছে মাইক্রোসফটের লিঙ্কডইন

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২২:০৫

চীনে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে ব্যবহৃত লিঙ্কডইনের পরিষেবা বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে বিশ্বখ্যাত প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফট। বৃহস্পতিবার এক ব্লগ পোস্টে প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, নতুন এই সিদ্ধান্ত এই বছরের শেষ দিক থেকে কার্যকর হবে। মূলত চীন সরকারের নানা সেন্সরশিপের ফলে টিকে থাকতে ব্যর্থ হওয়ায় এই পদক্ষেপ নিয়েছে মাইক্রোসফট।

প্রতিষ্ঠানটি বলছে, চীনে উল্লেখযোগ্যভাবে আরও চ্যালেঞ্জিং কর্ম পরিবেশ এবং নিয়মাবলী পালনের প্রয়োজনীয়তা বৃদ্ধির ফলে তাদের এই সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে।

ব্লগ পোস্টে বলা হয়েছে, ‘আমরা দেখলাম যে চীনে লিঙ্কডইনের স্থানীয় সংস্করণ চালানোর অর্থ ইন্টারনেট প্ল্যাটফর্মে বেইজিং-এর নিয়মকানুন মেনে চলা। যদিও আমরা দৃঢ়ভাবে মত প্রকাশের স্বাধীনতাকে সমর্থন করি, কিন্তু আমরা চীন এবং বিশ্বজুড়ে আমাদের সদস্যদের জন্য একটি মান রক্ষা করার জন্য এই পদ্ধতি গ্রহণ করেছি।’

দৃশ্যত চীন সরকারের সেন্সরশিপ বা রাষ্ট্রীয় নিয়ন্ত্রণের বোঝা লিঙ্কডইনের জন্য অনেক বেশি হয়ে গিয়েছিল।

দ্য ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রতিষ্ঠানটিকে বছরের শুরুর দিকে আরও সচেতন হতে বলে বেইজিং। পরে সংস্থাটি চীনের নিয়ন্ত্রকদের দ্বারা নিষিদ্ধ কিছু বিষয়বস্তু ও প্রোফাইল ব্লক করা শুরু করে, যার মধ্যে সাংবাদিকদের প্রোফাইলও রয়েছে।

সংস্থাটি বলছে, ‘আমরা চীনের সদস্যদের চাকরি ও অর্থনৈতিক পন্থা খুঁজে পেতে সাহায্য করার ক্ষেত্রে সাফল্য পেয়েছি। তবে তথ্য ভাগাভাগি ও তথ্য জানার ক্ষেত্রে সামাজিক দিকগুলোতে সেই একই ধরণের সাফল্য পাইনি।’

রয়টার্স জানিয়েছে, লিঙ্কডইন চীনের বাজার পুরোপুরিভাবে ছাড়ছে না। তারা এখন ইনজবস নামে একটি চাকরির সংস্করণ চালু করবে। এতে সোশ্যাল ফিড এবং কোনও ধরনের আর্টিকেল পোস্ট করা বা শেয়ারের অপশন থাকবে না।

লিঙ্কডইন ছিল একমাত্র যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সামাজিক নেটওয়ার্কিং সাইট যা এখন পর্যন্ত চীনের মানুষ ব্যবহার করতে পারে।

মাইক্রোসফট ২০১৬ সালে কোম্পানিটি কিনে নেয় এবং সাইটটি ৭৭ কোটি ৪০ লাখ মানুষ ব্যবহার করছে। সূত্র: ভিওএ, রয়টার্স।

/এমপি/

সম্পর্কিত

‘দায়িত্ব নেওয়ায়’ ম্যার্কেলের প্রশংসা করলেন এরদোয়ান

‘দায়িত্ব নেওয়ায়’ ম্যার্কেলের প্রশংসা করলেন এরদোয়ান

লেবাননে অস্থিতিশীলতার জন্য ইসরায়েলকে দোষারোপ ইরানের

লেবাননে অস্থিতিশীলতার জন্য ইসরায়েলকে দোষারোপ ইরানের

কাশ্মিরে নিখোঁজ ২ ভারতীয় জওয়ানের মরদেহ উদ্ধার

কাশ্মিরে নিখোঁজ ২ ভারতীয় জওয়ানের মরদেহ উদ্ধার

মিয়ানমারে বিদ্রোহীদের কাছে জান্তা সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠীর আত্মসমর্পণ

মিয়ানমারে বিদ্রোহীদের কাছে জান্তা সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠীর আত্মসমর্পণ

কাশ্মিরে নিখোঁজ ২ ভারতীয় জওয়ানের মরদেহ উদ্ধার

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২১:৩৮

অধিকৃত কাশ্মিরের পুঞ্চ জেলায় বৃহস্পতিবার অভিযানে গিয়ে নিখোঁজ হওয়া দুই ভারতীয় জওয়ানের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজের ৪৮ মধ্যে শনিবার তাদের মরদেহ উদ্ধার করতে সমর্থ হয় সেনাসদস্যরা। এ নিয়ে সোমবার থেকে শুরু হওয়া এই বিশেষ অভিযানে ৯ ভারতীয় জওয়ান নিহত হয়েছে। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

বৃহস্পতিবার ভারতীয় বাহিনীর তরফে জানানো হয়, জঙ্গলের মধ্যে কাশ্মিরের স্বাধীনতার দাবিতে লড়াইরত বিদ্রোহীদের সঙ্গে গোলাগুলির সময় দুই জওয়ান আহত হয়েছে। তবে মেন্ধার সাব ডিভিশন এলাকার জঙ্গলে বিদ্রোহীরা লুকিয়ে থাকার আশঙ্কায় সেখান থেকে নিখোঁজদের উদ্ধার তৎপরতায় বেগ পেতে হয় সেনাদের। শেষ পর্যন্ত ওই জঙ্গল থেকেই নিখোঁজ দুই সেনার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

কাশ্মিরে প্রায় সপ্তাহব্যাপী চলমান এই অভিযানে দিল্লির তরফে এখনও পর্যন্ত কোনও বিদ্রোহীর মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি। তবে ভারতের বিরুদ্ধে গত সপ্তাহে কাশ্মিরে অন্তত ১০ জন নিরীহ মানুষকে হত্যা এবং সহস্রাধিক মানুষকে আটকের অভিযোগ করেছে ইসলামাবাদ।

পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আছিম ইফতিখার আহমেদ দাবি করেন, নিহতদের মরদেহ এমনকি পরিবারের সদস্যদের কাছেও হস্তান্তর করা হয়নি। কাশ্মিরের মানুষের মানবাধিকার রক্ষায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

/এমপি/

সম্পর্কিত

‘দায়িত্ব নেওয়ায়’ ম্যার্কেলের প্রশংসা করলেন এরদোয়ান

‘দায়িত্ব নেওয়ায়’ ম্যার্কেলের প্রশংসা করলেন এরদোয়ান

লেবাননে অস্থিতিশীলতার জন্য ইসরায়েলকে দোষারোপ ইরানের

লেবাননে অস্থিতিশীলতার জন্য ইসরায়েলকে দোষারোপ ইরানের

রাষ্ট্রীয় সেন্সরশিপ, চীনে বন্ধ হচ্ছে মাইক্রোসফটের লিঙ্কডইন

রাষ্ট্রীয় সেন্সরশিপ, চীনে বন্ধ হচ্ছে মাইক্রোসফটের লিঙ্কডইন

মিয়ানমারে বিদ্রোহীদের কাছে জান্তা সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠীর আত্মসমর্পণ

মিয়ানমারে বিদ্রোহীদের কাছে জান্তা সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠীর আত্মসমর্পণ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

‘দায়িত্ব নেওয়ায়’ ম্যার্কেলের প্রশংসা করলেন এরদোয়ান

‘দায়িত্ব নেওয়ায়’ ম্যার্কেলের প্রশংসা করলেন এরদোয়ান

লেবাননে অস্থিতিশীলতার জন্য ইসরায়েলকে দোষারোপ ইরানের

লেবাননে অস্থিতিশীলতার জন্য ইসরায়েলকে দোষারোপ ইরানের

ইয়েমেনে সৌদি জোটের হামলায় ১৬০ হুথি বিদ্রোহী নিহত

ইয়েমেনে সৌদি জোটের হামলায় ১৬০ হুথি বিদ্রোহী নিহত

বৈরুতের সহিংসতার ঘটনায় ক্ষমা চাইলেন লেবানিজ প্রধানমন্ত্রী

বৈরুতের সহিংসতার ঘটনায় ক্ষমা চাইলেন লেবানিজ প্রধানমন্ত্রী

শুক্রবার শোক দিবস পালন করবে লেবানন

শুক্রবার শোক দিবস পালন করবে লেবানন

মধ্যপ্রাচ্যে বাড়ছে ভারতবিরোধী মনোভাব, পণ্য বর্জনের আহ্বান

মধ্যপ্রাচ্যে বাড়ছে ভারতবিরোধী মনোভাব, পণ্য বর্জনের আহ্বান

ইসরায়েলের হামলার ষড়যন্ত্র নস্যাতের দাবি আলজেরিয়ার

ইসরায়েলের হামলার ষড়যন্ত্র নস্যাতের দাবি আলজেরিয়ার

ধৈর্য হারিয়েছে তুরস্ক, সিরিয়ায় নতুন অভিযান শুরু হবে: এরদোয়ান

ধৈর্য হারিয়েছে তুরস্ক, সিরিয়ায় নতুন অভিযান শুরু হবে: এরদোয়ান

সিরিয়ায় কুর্দিদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় সব পদক্ষেপ নেবে তুরস্ক

সিরিয়ায় কুর্দিদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় সব পদক্ষেপ নেবে তুরস্ক

সর্বশেষ

ফেনীতে ত্রিমুখী সংঘর্ষ, আহত ৩০

ফেনীতে ত্রিমুখী সংঘর্ষ, আহত ৩০

ফরিদা মজিদের কথা

ফরিদা মজিদের কথা

রাজধানীর নিকুঞ্জ থেকে চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার

রাজধানীর নিকুঞ্জ থেকে চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার

দিনে মনোনয়নপত্র জমা, রাতে গুলিতে আ.লীগ প্রার্থীর মৃত্যু

দিনে মনোনয়নপত্র জমা, রাতে গুলিতে আ.লীগ প্রার্থীর মৃত্যু

বাণিজ্য, নিরাপত্তা ও জলবায়ু ইস্যু গুরুত্ব পাবে

প্যারিসে হাসিনা-ম্যাখোঁর বৈঠকবাণিজ্য, নিরাপত্তা ও জলবায়ু ইস্যু গুরুত্ব পাবে

© 2021 Bangla Tribune