X
বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ৪ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

অর্থনৈতিক ভারসাম্য রক্ষায় সঞ্চয়পত্রের মুনাফায় হাত 

আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:০০

ব্যাংক আমানতের সুদের হার এখন সর্বনিম্ন পর্যায়ে নেমেছে। কয়েকদিন আগে অধিকাংশ ব্যাংকের মেয়াদি আমানতে মূল্যস্ফীতির হারের চেয়ে কম হারে সুদ দেওয়া হচ্ছিল। এমন পরিস্থিতিতে ব্যাংক থেকে টাকা তুলে অনেকেই সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ করতে থাকেন। এদিকে সঞ্চয়পত্রের মুনাফা দিতে গিয়ে সরকারের সুদ ব্যয় বেড়ে যাচ্ছিল। অর্থনীতিতে তৈরি হচ্ছিল ভারসাম্যহীনতা। এমন বাস্তবতায় অর্থনৈতিক ভারসাম্য রক্ষায় সরকার সঞ্চয়পত্রের মুনাফায় হাত দিয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

এর আগে এনবিআর চেয়ারম্যান ও আইআরডি সচিব আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম সম্প্রতি একটি সারসংক্ষেপ উপস্থাপন করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের কাছে। এতে বলা হয়েছে, সঞ্চয়পত্রের মুনাফা দিতে গিয়ে সরকারের সুদ ব্যয় বেড়ে যাচ্ছে। এতে অর্থনীতিতে তৈরি হচ্ছে ভারসাম্যহীনতা। সঞ্চয় কর্মসূচিতে অতিমাত্রায় বিনিয়োগ এবং বিনিয়োগের ক্রমবর্ধমান ঊর্ধ্বগতি রোধ করা প্রয়োজন। আরও বলা হয়েছে, পাঁচ বছরে সরকারের সুদ ব্যয় দ্বিগুণ হয়ে গেলেও সঞ্চয় কর্মসূচির বিপরীতে এ ব্যয় হয়ে গেছে তিন গুণ। ভবিষ্যতে তা আরও বাড়বে।

এদিকে বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য বলছে, সঞ্চয়পত্র থেকে বিদায়ী অর্থবছরে (২০২০-২১) সরকার আগের অর্থবছরের চেয়ে তিন গুণ বেশি ঋণ নিয়েছে। বিদায়ী অর্থবছরে সরকার সঞ্চয়পত্র থেকে নিট প্রায় ৪২ হাজার কোটি টাকা ঋণ নিয়েছে, যা আগের অর্থবছরে ছিল ১৪ হাজার ৪২৮ কোটি টাকা।

জাতীয় সঞ্চয় অধিদফতরের তথ্য বলছে, ২০২০-২১ অর্থবছরে ১ লাখ ১২ হাজার কোটি টাকার সঞ্চয়পত্র বিক্রি হয়েছে। এর আগে কোনও বছরে এত বেশি সঞ্চয়পত্র বিক্রি হয়নি। 
অথচ ব্যাংকগুলোতে আমানতের সুদহার তলানিতে নেমেছে। কোনও কোনও ব্যাংক তার গ্রাহকদের মূল্যস্ফীতির হারের চেয়েও কম সুদ দিয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে গত আগস্ট মাসে আমানতের সর্বনিম্ন সুদহার বেঁধে দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। ফলে ব্যাংকের তিন মাস ও তার বেশি মেয়াদি আমানতের সুদ হার কোনোভাবেই মূল্যস্ফীতির চেয়ে কম হবে না। 

অর্থনীতিবিদরা বলছেন, সঞ্চয়পত্র বেশি বিক্রি হওয়ার কারণে সরকারের ওপর দায় বাড়ছে। এজন্য সরকার গত কয়েক বছর ধরেই সঞ্চয়পত্র বিক্রি কমানোর জন্য নানা শর্ত জুড়ে দিয়েছে। 
এ প্রসঙ্গে বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) বিশেষ ফেলো মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ব্যাংক খাতে সুদের হার এখন কম। সেই দৃষ্টিকোণ থেকে সঞ্চয়পত্রের সুদের হার কমানোর সিদ্ধান্ত ঠিক আছে। এছাড়া সঞ্চয়পত্রের বিক্রি যেভাবে বাড়ছিল, তাতে সরকারের ওপর ক্রমান্বয়ে চাপ সৃষ্টি হচ্ছিল।  

এর আগে, সুদ ব্যয় বেশি হয়ে যাচ্ছে—এমন যুক্তি দিয়ে মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) সঞ্চয়পত্র ও বন্ডের মুনাফা কমিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সরকার। পাঁচটি সঞ্চয় কর্মসূচি ও একটি বন্ডে মুনাফার হার কমিয়ে দিয়েছে সরকার। প্রথমবারের মতো সরকার মুনাফার হারের আলাদা স্তরও করেছে। সঞ্চয় কর্মসূচির স্তর করেছে তিনটি, আর বন্ডের চারটি। সে অনুযায়ী কম টাকা বিনিয়োগকারীর মুনাফার হার বেশি, আর বেশি টাকা বিনিয়োগকারীর মুনাফার হার কম। মুনাফার হার নিয়ে এর আগে প্রজ্ঞাপনটি জারি হয়েছিল ছয় বছর আগে অর্থাৎ ২০১৫ সালের ২৩ মে। 

নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ১৫ লাখ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগের ক্ষেত্রে এক রকম হার, আর ৩০ লাখ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগের ক্ষেত্রে আলাদা রকম হার এবং ৩০ লাখ টাকার বেশি বিনিয়োগের ক্ষেত্রে আরেক রকম হার করা হয়েছে। তবে ১৫ লাখ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগের ক্ষেত্রে মুনাফার হার আগের মতোই আছে।

নতুন সিদ্ধান্তে মধ্যবিত্ত বিশেষ করে অবসরভোগীদের আয় তো কমে গেলেও অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, দেশের সুষ্ঠু অর্থনীতি বজায় রাখার স্বার্থে সিদ্ধান্তটি নেওয়া হয়েছে। সঞ্চয়পত্রের মুনাফার হার কমানো হলেও প্রান্তিক বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ বিবেচনা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।

সুদের হার কমানোর ফলে সরকারের সাশ্রয় কত হবে এমন প্রশ্নে অর্থমন্ত্রী বলেন, আমরা প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর স্বার্থ দেখেছি। মুনাফায় হার বাড়ানো, কমানো একটি চলমান প্রক্রিয়া। এটা কখনো বাড়বে, কখনো কমবে। প্রয়োজনে বাড়তেও পারে আবার কমতেও পারে।

তিনি বলেন, মুনাফার হার কমানো হয়েছে, তবে প্রান্তিক পর্যায়ের বিনিয়োগকারীদের স্বার্থের কথা বিবেচনা করে ১৫ লাখ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগে হাত দেওয়া হয়নি।

/ইউএস/

সম্পর্কিত

ক্ষিপ্রগতিতে ঘুরছে অর্থনীতির চাকা

ক্ষিপ্রগতিতে ঘুরছে অর্থনীতির চাকা

বাংলাদেশ থেকে আরও সোর্সিং করুন: মার্কিন ক্রেতাদের প্রতি বিজিএমইএ সভাপতি

বাংলাদেশ থেকে আরও সোর্সিং করুন: মার্কিন ক্রেতাদের প্রতি বিজিএমইএ সভাপতি

রাজস্ব আদায়ে রেকর্ড, দুই মাসে ১৪.৫৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি

রাজস্ব আদায়ে রেকর্ড, দুই মাসে ১৪.৫৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি

অনিয়মের ঋণকে খেলাপি হিসেবে দেখানোর নির্দেশ

অনিয়মের ঋণকে খেলাপি হিসেবে দেখানোর নির্দেশ

‘ধোঁয়াহীন-দূষণমুক্ত রান্না ব্যবস্থা চালুর প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে’

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ২২:১৪

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, প্রকৃতি ও পরিবেশের সঙ্গে সমন্বয় করে বাংলাদেশে ধোঁয়াবিহীন  দূষণমুক্ত রান্না ব্যবস্থা প্রচলনের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। তিনি বলেন, ‘৮০ লাখ উন্নতমানের চুলা প্রচলিত চুলার স্থলে সংযোজন করা হয়েছে। গ্রাম অঞ্চলেও  রান্নায় এলপিজি ব্যবহৃত হচ্ছে। রান্নার কাজে বায়ু গ্যাস ও বৈদ্যুতিক সমাধান নিয়েও কাজ করা হচ্ছে।’

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) অনলাইনে ‘ক্লিন কুকিং সপ্তাহ’ উপলক্ষে ক্লিন কুকিং অ্যালায়েন্স (সিসিএ) আয়োজিত আলোচনা অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। মন্ত্রণালয়ের পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘২০৩০ সালের মধ্যে সবার জন্য পরিষ্কার রান্নাকে লক্ষ্য করে ২০১৩ সালে বিদ্যুৎ বিভাগ ক্লিন কুকস্টোভের জন্য কান্ট্রি অ্যাকশন প্ল্যান গ্রহণ করে। স্রেডা বাংলাদেশে গৃহস্থালী জ্বালানি প্ল্যাটফর্ম প্রোগ্রাম পরিচালনা করছে, যার মাধ্যমে উন্নত রান্না ব্যবস্থার সমন্বয় করা হয়। নির্ধারিত সময়সীমার আগেই লক্ষ্য অর্জনের উদ্দেশ্যে পরিষ্কার রান্নায় শতভাগ প্রবেশাধিকার নিশ্চিত করার জন্য একটি সামগ্রিক ও সমন্বিত পন্থা গ্রহণ করে  বাংলাদেশ কাজ করছে।’

ওয়েবিনারে পরিষ্কার রান্না, পরিচ্ছন্ন রান্না পদ্ধতি কৌশলের বিবর্তন, পরবর্তী পদক্ষেপ এবং পরিচ্ছন্ন রান্নার কর্মসূচিতে নেতৃত্বদানকারী নারীদের সঙ্গে আলোচনা করা হয়। পরিষ্কার রান্না ও মাল্টি-স্টেকহোল্ডার এনার্জি কম্প্যাক্টের ওপরে একটি পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপনা করেন ক্লিন কুকিং অ্যালায়েন্স (সিসিএ)-এর   চিফ অব স্টাফ অ্যান্ড এক্সটার্নাল অ্যাফেয়ার্স জিলিন কনর্স বেলোপলস্কি।

সিসিএ’র চিফ সায়েন্স অ্যান্ড লার্নিং অফিসার ডনি আলেকজান্ডারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে সিয়েরা লিওনের জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী ড. এলড্রেড টুন্ড টেলর, কেনিয়ার জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের নবায়নযোগ্য জ্বালানির সিনিয়র উপ-পরিচালক  ড. ফেদ ওয়ান্ডেরা-ওডোঙ্গো সংযুক্ত থেকে বক্তব্য রাখেন।

 

/এসএনএস/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

পুঁজিবাজারে আরও বড় দরপতন, আতঙ্কে বিনিয়োগকারীরা

পুঁজিবাজারে আরও বড় দরপতন, আতঙ্কে বিনিয়োগকারীরা

জনতা ব্যাংকের যুক্তরাষ্ট্র ও ইতালির একচেঞ্জ হাউজ বন্ধের সুপারিশ

জনতা ব্যাংকের যুক্তরাষ্ট্র ও ইতালির একচেঞ্জ হাউজ বন্ধের সুপারিশ

ই-কমার্সকে সামনে নিয়ে যেতে চায় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়

ই-কমার্সকে সামনে নিয়ে যেতে চায় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়

কৃষিপণ্য প্রক্রিয়াজাতকরণে স্পেনের প্রযুক্তি-অভিজ্ঞতা কাজে লাগানোর আহ্বান

কৃষিপণ্য প্রক্রিয়াজাতকরণে স্পেনের প্রযুক্তি-অভিজ্ঞতা কাজে লাগানোর আহ্বান

বুধবার ব্যাংক ও শেয়ার বাজার বন্ধ থাকবে

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ২১:১৪

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে আগামীকাল বুধবার (২০ অক্টোবর) দেশের সব ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পক্ষ থে‌কে এ তথ্য জানা‌নো হ‌য়ে‌ছে। এদিকে ব্যাংক বন্ধ থাকার কারণে এদিন শেয়ার বাজারও বন্ধ থাকবে।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) বাংলাদেশ ব্যাংকের ডিপার্টমেন্ট অব অফ-সাইট সুপারভিশন থেকে এ সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করা হয়।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সার্কুলারে বলা হয়, পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে ১৯ অক্টোবর ছুটি ঘোষণা করা হয়েছিল। তবে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সিদ্ধান্তক্রমে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে ঘোষিত ছুটি ১৯ অক্টোবরের পরিবর্তে ২০ অক্টোবর পুনর্নির্ধারণ করা হলো।

 

/জিএম/এপিএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

জনতা ব্যাংকের যুক্তরাষ্ট্র ও ইতালির একচেঞ্জ হাউজ বন্ধের সুপারিশ

জনতা ব্যাংকের যুক্তরাষ্ট্র ও ইতালির একচেঞ্জ হাউজ বন্ধের সুপারিশ

সেবা খাতের আয় দেশে আনার পদ্ধতি আরও সহজ হলো

সেবা খাতের আয় দেশে আনার পদ্ধতি আরও সহজ হলো

২০ অক্টোবর আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ

২০ অক্টোবর আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ

এহসান গ্রুপ ও কিউকমসহ ১০ প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাব স্থগিত

এহসান গ্রুপ ও কিউকমসহ ১০ প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাব স্থগিত

পুঁজিবাজারে আরও বড় দরপতন, আতঙ্কে বিনিয়োগকারীরা

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৭:২৯

দেশের পুঁজিবাজারে আজ (১৯ অক্টোবর) সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবসের শুরুতে বড় উত্থান দেখা দিলেও শেষ পর্যন্ত ধস দিয়ে লেনদেন শেষ হয়েছে। এর মাধ্যমে চলতি সপ্তাহের তিন কার্যদিবসেই বড় দরপতন হলো শেয়ার বাজারে। একইসঙ্গে পতনের মধ্যে থাকলো টানা সাত কার্যদিবস। টানা বড় দরপতনের কারণে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। 

মঙ্গলবার লেনদেন হওয়া ৩৭৬টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের মধ্যে দাম কমেছে ২৫৪টির, বেড়েছে মাত্র ৮৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দর। এতে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) প্রধান সূচক কমেছে ৭৬ পয়েন্ট।‌ আর চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সূচক কমেছে ১৯৬ পয়েন্ট। সূচকের পাশাপাশি বিমা প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ছাড়া বাকি সব খাতের শেয়ারের দাম কমেছে। ফলে টানা সাত কার্যদিবস পুঁজিবাজারে দরপতন হয়েছে।

বাজার পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, লেনদেনের প্রথম আড়াই ঘণ্টা বড় উত্থানের প্রবণতা অব্যাহত থাকে। একপর্যায়ে ডিএসই’র প্রধান মূল্য সূচক ৮৮ পয়েন্ট পর্যন্ত বেড়ে যায়। কিন্তু দুপুর সাড়ে ১২টার পর থেকে পরিস্থিতি বদলে যেতে থাকে। পতনের তালিকায় নাম লেখাতে থাকে লেনদেনে অংশ নেওয়া একের পর এক প্রতিষ্ঠান। ফলে বড় উত্থান থেকে দেখতে দেখতে ধসে রূপ নেয় শেয়ার বাজার।

ডিএসই’র তথ্য মতে, আজ তাদের এখানে ৩৭৬টি প্রতিষ্ঠানের ৩৫ কোটি ৭১ লাখ ৩২৪ হাজার ৯০৯টি শেয়ার হাতবদল হয়েছে। এর মধ্যে ৮৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম বেড়েছে, কমেছে ২৫৪টির ও অপরিবর্তিত আছে ৩৫টির। প্রায় সব প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম কমে যাওয়ায় ডিএসই’র প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের চেয়ে ৭৬ পয়েন্ট কমে ৭ হাজার ২০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

প্রধান সূচকের পাশাপাশি ডিএসই’র অন্য সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ২০ দশমিক ২৫ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৫০৪ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ২২ পয়েন্ট কমে ২ হাজার ৬৫৬ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

আজ ডিএসইতে আগের দিনের চেয়ে লেনদেন কিছুটা বেড়েছে। মঙ্গলবার মোট লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৬৮২ কোটি ৮৫ লাখ ১০ হাজার টাকার শেয়ার। সোমবার লেনদেন হয়েছিল ১ হাজার ৩৯৩ কোটি ৮৩ লাখ ৩৬ হাজার টাকার শেয়ার।

এদিকে পুঁজিবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল- ইসলামের পদত্যাগের গুজব ছড়িয়ে পড়ার কারণেও বিনিয়োগকারীরা এখন আতঙ্কিত। যদিও এ প্রসঙ্গে বিএসইসি’র মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ রেজাউল করিম বলেন, ‘মার্কেটে চেয়ারম্যান স্যারের নামে গুজব ছড়ানো হয়েছে, যাতে শেয়ার বাজারের খলনায়করা ধরা না পড়ে।’

/জিএম/জেএইচ/

সম্পর্কিত

‘ধোঁয়াহীন-দূষণমুক্ত রান্না ব্যবস্থা চালুর প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে’

‘ধোঁয়াহীন-দূষণমুক্ত রান্না ব্যবস্থা চালুর প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে’

জনতা ব্যাংকের যুক্তরাষ্ট্র ও ইতালির একচেঞ্জ হাউজ বন্ধের সুপারিশ

জনতা ব্যাংকের যুক্তরাষ্ট্র ও ইতালির একচেঞ্জ হাউজ বন্ধের সুপারিশ

ই-কমার্সকে সামনে নিয়ে যেতে চায় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়

ই-কমার্সকে সামনে নিয়ে যেতে চায় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়

কৃষিপণ্য প্রক্রিয়াজাতকরণে স্পেনের প্রযুক্তি-অভিজ্ঞতা কাজে লাগানোর আহ্বান

কৃষিপণ্য প্রক্রিয়াজাতকরণে স্পেনের প্রযুক্তি-অভিজ্ঞতা কাজে লাগানোর আহ্বান

আবারও বেড়েছে সয়াবিন তেলের দাম

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৪৬

আরেক দফা বাড়ানো হলো সয়াবিন তেলের দাম। মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) নতুন দর সংক্রান্ত সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে বাংলাদেশ ভেজিটেবল অয়েল রিফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন। এর আগে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে একাধিকবার বৈঠক করে সয়াবিন তেলের নতুন দাম নির্ধারণ করে ভোজ্যতেল পরিশোধনকারী মিল মালিকদের অ্যাসোসিয়েশন। 

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বাংলাদেশ ভেজিটেবল অয়েল রিফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে, নির্ধারিত দর অনুযায়ী এখন থেকে প্রতিলিটার বোতলজাত সয়াবিন তেলের দাম ১৬০ টাকা, খোলা সয়াবিন তেলের দাম হয়েছে ১৩৬ টাকা। আগামীকাল ২০ অক্টোবর বুধবার থেকেই নতুন দর বাজারে কার্যকর হবে বলেও জানিয়েছে সংস্থাটি।

এর আগে বোতলজাত সয়াবিন তেলের দাম ছিল ১৫৩ টাকা। আর খোলা সয়াবিন প্রতিলিটারের দাম ছিল ১২৯ টাকা। 

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) বাংলাদেশ ভেজিটেবল অয়েল রিফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশনের সচিব নুরুল ইসলাম মোল্লা স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়েছে, আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত সয়াবিন তেল ও পাম ওয়েলের দামে ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা বিবেচনায় বাংলাদেশ ট্রেড অ্যান্ড ট্যারিফ কমিশন ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে নতুন এই দাম নির্ধারণ করা হয়েছে।

নতুন দামে প্রতি লিটার খোলা সয়াবিন তেল মিলগেটে দাম ১৩৪ টাকা, পরিবেশক মূল্য ১৩৫ টাকা এবং খুচরা পর্যায়ে ১৩৬ টাকা। বোতলজাত প্রতি লিটার সয়াবিন তেল মিলগেটে ১৫০ টাকা, পরিবেশক মূল্য ১৫৪ টাকা ও খুচরা পর্যায়ে ১৬০ টাকায় বিক্রি হবে। ৫ লিটারের বোতলজাত সয়াবিন তেল মিলগেটে ৭২০ টাকা, পরিবেশক মূল্য ৭৪০ টাকা ও খুচরা পর্যায়ে ৭৬০ টাকা। আর পাম তেল প্রতি লিটার মিলগেটে ১১৬ টাকা, পরিবেশক মূল্য ১১৭ ও খুচরা পর্যায়ে ১১৮ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে এ দাম পরিবেশক ও খুচরা পর্যায়ে পুরনো মজুতকৃত তেলের ওপর কার্যকর হবে না।

এর আগে গত রবিবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের আমদানি ও অভ্যন্তরীণ বাণিজ্য (আইআইটি) অনুবিভাগের অতিরিক্ত সচিব এ এইচ এম সফিকুজ্জামানের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত নিত্যপণ্যের মজুত পরিস্থিতি, আমদানি ও দাম নির্ধারণ নিয়ে বৈঠকে তেলের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়।

/এসআই/এমআর/এমওএফ/

সম্পর্কিত

বাজারে ভোজ্যতেলের কৃত্রিম সংকট

বাজারে ভোজ্যতেলের কৃত্রিম সংকট

সয়াবিন তেলের ভবিষ্যৎ কী?

সয়াবিন তেলের ভবিষ্যৎ কী?

নিজেরাই  দাম পাঁচ টাকা বাড়িয়ে দিলো

নিজেরাই দাম পাঁচ টাকা বাড়িয়ে দিলো

সয়াবিন তেলের দাম কমানোর সিদ্ধান্ত

সয়াবিন তেলের দাম কমানোর সিদ্ধান্ত

নবায়নযোগ্য জ্বালানির মধ্যে সৌর বিদ্যুতের সম্ভাবনাই বেশি: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

আপডেট : ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১৯:৫৯

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, নবায়নযোগ্য জ্বালানির প্রসারকে বাংলাদেশ সর্বাত্মকভাবে সমর্থন করে পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। বাংলাদেশে নবায়নযোগ্য জ্বালানির মধ্যে সৌর শক্তির বা সৌর বিদ্যুতের সম্ভাবনাই বেশি। বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ ও বায়ু থেকে বিদ্যুৎ নিয়েও কাজ করা হচ্ছে।

আজ সোমবার (১৮ অক্টোবর) ন্যাশনাল এনার্জি এডমিনিস্ট্রেশন অব দ্য পিপলস রিপাবলিক অব চায়না (এনইএ) আয়োজিত সেকেন্ড বেল্ট অ্যান্ড রোড এনার্জি মিনিস্ট্রিয়াল কনফারেন্সের ‘প্রযুক্তি উদ্ভাবনে সহযোগিতার মাধ্যমে জ্বালানির রূপান্তরকে ত্বরান্বিত করা’ শীর্ষক সেশনে ভিডিও বার্তায় বক্তব্যকালে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রণালয়ের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

আইইএফ’র সাবেক মহাসচিব সান জিয়ানশেং’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মাঝে সৌদি আরবের জ্বালানি মন্ত্রী প্রিন্স আব্দুল আজিজ বিন সালমান, কঙ্গো প্রজাতন্ত্রের জ্বালানি মন্ত্রী হনরি সায়ি, পাপুয়া নিউগিনির পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী কেরেঙ্গা কুয়া ও আন্তর্জাতিক শক্তি ফোরামের মহাসচিব জোসেফ ম্যাকমনিগল বক্তব্য রাখেন।

নসরুল হামিদ বলেন, বাংলাদেশ প্যারিস জলবায়ু চুক্তি এবং জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়নের এজেন্ডার স্বাক্ষরকারী হিসাবে পরিচ্ছন্ন জ্বালানির রূপান্তরের জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করছে। বাংলাদেশের বার্ষিক মাথাপিছু কার্বন নিঃসরণ ০.৪ মেট্রিক টন, যেখানে বিশ্বের গড় ৪,৫ মেট্রিক টন। একটি কার্বন নিরপেক্ষ জাতি হতে প্রতিশ্রুতির অংশ হিসেবে ইতোমধ্যে ৮৪৫১ মেগাওয়াট ক্ষমতার ১০টি কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বায়ুর ম্যাপিং ৯টি সাইটে করা হয়েছে এবং খুব শীঘ্রই অফ-শোরে বাতাসের সম্ভাবনা নিয়ে একটি গবেষণা করা হবে।

তিনি বলেন, সৌর বিদ্যুৎ কেন্দ্র বাস্তবায়নে জমির অভাব একটি বড় চ্যালেঞ্জ। জনশক্তি উন্নয়ন এবং প্রযুক্তি রূপান্তরেও আমরা পিছিয়ে রয়েছি। টাইডাল ওয়েভ হতে বিদ্যুৎ, বায়ু বিদ্যুৎ, আধুনিক প্রযুক্তি ইত্যাদি ক্ষেত্রে আমরা একসাথে কাজ করতে পারি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ ও চীনের মধ্যে বিদ্যমান দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার আওতায় দীর্ঘস্থায়ী বাণিজ্য ও বিনিয়োগের পথ ধরে তেল, গ্যাস এবং কয়লা খাতে উন্নয়নের জন্য উভয় দেশের সহযোগিতা বাড়ানো যেতে পারে। তেল ও গ্যাস খাত সংক্রান্ত দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার সম্ভাব্য ক্ষেত্র হতে পারে ‑ উপকূলীয় এবং তীরবর্তী অঞ্চলে (পাহাড়ি অঞ্চল) তেল ও গ্যাস অনুসন্ধানে সহযোগিতা ও চীনা কোম্পানিগুলোর আসন্ন পিএসসি বিডিং রাউন্ডে অংশগ্রহণ।

সেশনটিতে প্রযুক্তি উদ্ভাবন গ্রিন এনার্জির খরচ কমায়, কার্বন নিঃসরণ ও জ্বালানি নিরাপত্তার উপাদানগুলোকে আরও ভালভাবে সামঞ্জস্য করে এমন নতুন সমাধানগুলো অন্বেষণ করা, সবুজ শক্তির সাধারণ প্রযুক্তির ওপর যৌথ গবেষণায় প্রচেষ্টা বাড়াতে সহযোগিতা করা, জ্বালানি প্রযুক্তির উদ্ভাবন নেটওয়ার্ক বৃদ্ধি ইত্যাদি বিষয়ে আলোকপাত করা হয়েছে।

/এসএনএস/এমএস/

সম্পর্কিত

শেখ রাসেল বেঁচে থাকলে অনুকরণীয় নেতা পেতাম: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

শেখ রাসেল বেঁচে থাকলে অনুকরণীয় নেতা পেতাম: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

টেকসই উন্নয়নে জ্বালানি সরবরাহ জরুরি: নসরুল হামিদ

টেকসই উন্নয়নে জ্বালানি সরবরাহ জরুরি: নসরুল হামিদ

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সাশ্রয়ে সমন্বিত পদক্ষেপ প্রয়োজন: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সাশ্রয়ে সমন্বিত পদক্ষেপ প্রয়োজন: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

উন্নত বিদ্যুৎ সেবা পাওয়া গ্রাহকের অধিকার: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

উন্নত বিদ্যুৎ সেবা পাওয়া গ্রাহকের অধিকার: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

সম্পর্কিত

ক্ষিপ্রগতিতে ঘুরছে অর্থনীতির চাকা

ক্ষিপ্রগতিতে ঘুরছে অর্থনীতির চাকা

বাংলাদেশ থেকে আরও সোর্সিং করুন: মার্কিন ক্রেতাদের প্রতি বিজিএমইএ সভাপতি

বাংলাদেশ থেকে আরও সোর্সিং করুন: মার্কিন ক্রেতাদের প্রতি বিজিএমইএ সভাপতি

রাজস্ব আদায়ে রেকর্ড, দুই মাসে ১৪.৫৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি

রাজস্ব আদায়ে রেকর্ড, দুই মাসে ১৪.৫৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি

ফারইস্ট লাইফ ইন্স্যুরেন্সের সাবেক চেয়ারম্যানের দুর্নীতি তদন্তে কমিটি

ফারইস্ট লাইফ ইন্স্যুরেন্সের সাবেক চেয়ারম্যানের দুর্নীতি তদন্তে কমিটি

অনিয়মের ঋণকে খেলাপি হিসেবে দেখানোর নির্দেশ

অনিয়মের ঋণকে খেলাপি হিসেবে দেখানোর নির্দেশ

যেকোনও কোম্পানির আর্থিক হিসাব যাচাই করতে পারবে এনবিআর

যেকোনও কোম্পানির আর্থিক হিসাব যাচাই করতে পারবে এনবিআর

আমানত বিমা প্রিমিয়াম হিসাবায়নে বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে

আমানত বিমা প্রিমিয়াম হিসাবায়নে বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে

ব্যাংক খাতের নেতৃত্ব দিচ্ছে এজেন্ট ব্যাংকিং

দেশজুড়ে গড়ে উঠেছে নেটওয়ার্কব্যাংক খাতের নেতৃত্ব দিচ্ছে এজেন্ট ব্যাংকিং

সর্বশেষ

ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানোর কথা স্বীকার উত্তর কোরিয়ার

ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানোর কথা স্বীকার উত্তর কোরিয়ার

যুক্তরাষ্ট্রে বিমান বিধ্বস্ত, অলৌকিকভাবে বেঁচে গেলো ২১ আরোহী

যুক্তরাষ্ট্রে বিমান বিধ্বস্ত, অলৌকিকভাবে বেঁচে গেলো ২১ আরোহী

৫ গোলে জিতলো রিয়াল মাদ্রিদ, আতলেতিকোকে হারালো লিভারপুল

৫ গোলে জিতলো রিয়াল মাদ্রিদ, আতলেতিকোকে হারালো লিভারপুল

যুক্তরাজ্যে আবারও বাড়ছে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যু

যুক্তরাজ্যে আবারও বাড়ছে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যু

মেসির জোড়ায় পিএসজির রোমাঞ্চকর জয়

মেসির জোড়ায় পিএসজির রোমাঞ্চকর জয়

ইয়েমেন যুদ্ধে ১০ হাজার শিশু হতাহত : ইউনিসেফ

ইয়েমেন যুদ্ধে ১০ হাজার শিশু হতাহত : ইউনিসেফ

ঘাম দিয়ে যেন জ্বর ছাড়লো

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপঘাম দিয়ে যেন জ্বর ছাড়লো

চার মাস ধরে ৮ হাজার মামলার বিচারকাজ বন্ধ

রংপুর ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালচার মাস ধরে ৮ হাজার মামলার বিচারকাজ বন্ধ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ক্ষিপ্রগতিতে ঘুরছে অর্থনীতির চাকা

ক্ষিপ্রগতিতে ঘুরছে অর্থনীতির চাকা

বাংলাদেশ থেকে আরও সোর্সিং করুন: মার্কিন ক্রেতাদের প্রতি বিজিএমইএ সভাপতি

বাংলাদেশ থেকে আরও সোর্সিং করুন: মার্কিন ক্রেতাদের প্রতি বিজিএমইএ সভাপতি

রাজস্ব আদায়ে রেকর্ড, দুই মাসে ১৪.৫৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি

রাজস্ব আদায়ে রেকর্ড, দুই মাসে ১৪.৫৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি

অনিয়মের ঋণকে খেলাপি হিসেবে দেখানোর নির্দেশ

অনিয়মের ঋণকে খেলাপি হিসেবে দেখানোর নির্দেশ

যেকোনও কোম্পানির আর্থিক হিসাব যাচাই করতে পারবে এনবিআর

যেকোনও কোম্পানির আর্থিক হিসাব যাচাই করতে পারবে এনবিআর

© 2021 Bangla Tribune