X
শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ৬ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

ব্যক্তিগত ছবি-ভিডিও’র নিরাপত্তায় গুগল ফটোজে নতুন ফিচার

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬:১৩

ফটোজে নতুন প্রাইভেসি ফিচার যুক্ত করার ঘোষণা দিয়েছে গুগল। এই ফিচারের নাম ‘লকড ফোল্ডার’। অ্যান্ড্রয়েড ৬ এবং তার ওপরের সব ভার্সন ব্যবহারকারীরা ফিচারটি ব্যবহার করতে পারবেন।

ভারতের প্রযুক্তি বিষয়ক সংবাদমাধ্যম গেজেটস নাউ এক প্রতিবেদনে জানায়, গুগল ফটোজে থাকা সব ছবি ও ভিডিও থেকে ব্যবহারকারী তার ইচ্ছেমতো কিছু ছবি ও ভিডিওকে লকড ফোল্ডারে আলাদা করে রাখতে পারবেন। এতে ফটোজে প্রবেশ করেও কেউ কারও ব্যক্তিগত ছবি বা ভিডিও দেখতে পারবে না। এমনকি লকড ফোল্ডারে রাখা ছবি বা ভিডিওতে প্রবেশ করতে পারবে না অন্য কোনও অ্যাপও।

চলতি বছরের জুনে আইও কনফারেন্সে গুগল ফটোজে লকড ফোল্ডার ফিচার আনার ঘোষণা দেয় গুগল। এরপর শুধু পিক্সেল ফোনের জন্য সুবিধাটি চালু হয়। এবার সবার জন্য লকড ফোল্ডার চালু হচ্ছে বলে নিশ্চিত করেছে গুগল কর্তৃপক্ষ। তবে এই ফিচার ব্যবহার করতে হলে আপনাকে অবশ্যই অ্যান্ড্রয়েড ৬ বা তার ওপরের কোনও ভার্সন ব্যবহার করতে হবে।

গুগল ফটোজের বহুল প্রত্যাশিত এ ফিচার ঠিক কবে সবার জন্য চালু হচ্ছে তা জানায়নি কর্তৃপক্ষ। অবশ্য দ্রুততম সময়ের মধ্যে ফিচারটি পাওয়া যাবে বলে নিশ্চিত করেছেন প্রতিষ্ঠানটির একজন মুখপাত্র। কেউ কেউ বলছেন, এক মাসের মধ্যে লকড ফোল্ডার ফিচার পেতে যাচ্ছেন ব্যবহারকারীরা।

লকড ফোল্ডার ফিচার আসলে কী

অনেক ব্যবহারকারী তাদের কোনও কোনও ছবি কারও সঙ্গে শেয়ার করতে চান না। ফলে সেগুলোকে আরও বেশি সুরক্ষিত রাখতে চান তারা। ব্যবহারকারীদের এ চাওয়াটিই পূরণ করবে লকড ফোল্ডার ফিচার। এই ফিচারের মাধ্যমে গুগল ফটোজে ব্যক্তিগত ছবি ও ভিডিও পাসওয়ার্ড দ্বারা সুরক্ষিত থাকবে।

ফটোজের লকড ফোল্ডারে নিয়ে যাওয়া ছবি বা ভিডিও কারও সঙ্গে শেয়ার করা যাবে না। এমনকি সেখান থেকে স্ক্রিনশটও নিতে পারবেন না কেউ। লকড ফোল্ডারে শুধু দুটি কাজ করা যাবে। হয়তো সেই ফোল্ডারে থাকা ছবি বা ভিডিও স্থায়ীভাবে ডিলিট করে দিতে হবে নয়তো সংশ্লিষ্ট ছবি বা ভিডিওকে লকড ফোল্ডারের বাইরে নিয়ে আসতে হবে।

 

/এইচএএইচ/আইএ/

সম্পর্কিত

ভিডিও মিউট করা যাবে গুগল মিটে

ভিডিও মিউট করা যাবে গুগল মিটে

পরিবেশবান্ধব রাস্তা দেখাবে গুগল ম্যাপস

পরিবেশবান্ধব রাস্তা দেখাবে গুগল ম্যাপস

গুগল ফটোজে নতুন ফিচার

গুগল ফটোজে নতুন ফিচার

২০০ কোটি ক্রোম ব্যবহারকারীকে যে কারণে সতর্ক করলো গুগল

২০০ কোটি ক্রোম ব্যবহারকারীকে যে কারণে সতর্ক করলো গুগল

ভিডিও মিউট করা যাবে গুগল মিটে

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ২১:২৩

চলতি বছরের শুরুতে গ্রুপ কলের ক্ষেত্রে হোস্টকে একসঙ্গে সবাইকে অডিও মিউট করার একটি অপশন দিয়েছিল গুগল মিট। এবার এই অ্যাপে আরও বেশি নিয়ন্ত্রণ রাখার সুযোগ করে দিলো বিখ্যাত প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানটি।

গুগল মিটে এখন থেকে অডিওর পাশাপাশি ভিডিও মিউট করে দিতে পারবেন হোস্ট। এর মাধ্যমে মাইক্রোফোন ও ক্যামেরা দুটোই অফ করে দেওয়া যাবে। নির্দিষ্ট করে দেওয়া কিছু অংশগ্রহণকারীর ক্ষেত্রেও এই সুযোগ থাকছে। ফলে অংশগ্রহণকারী চাইলেও তার ক্যামেরা অন করতে পারবেন না।

সংবাদ মাধ্যম এনগেজেট জানায়, কেউ যদি গুগল মিটের অ্যান্ড্রয়েড বা আইওএসের এমন কোনও সংস্করণ ব্যবহার করে যেখানে অডিও এবং ভিডিও লক সাপোর্ট করে না তাদের ক্ষেত্রে হোস্ট এই ফিচার চালু করা মাত্র তারা কল থেকে বাদ পড়ে যাবে। একইসঙ্গে তাদের অ্যাপ আপডেট করার জন্য জানানো হবে।

গুগল অবশ্য আজই এর রি-পেইড রিলিজ ডোমেইন চালু করতে যাচ্ছে। আর শিডিউল করা রিলিজ ডোমেইনগুলোর অ্যাকসেস শুরু হবে ১ নভেম্বর।

লকের এই সুবিধা উচ্ছৃঙ্খল অংশগ্রহণকারীদের নিয়ন্ত্রণে সহায়ক হবে বলে মন্তব্য করেছে সংবাদমাধ্যমটি। এছাড়া এর মাধ্যমে হোস্ট কোনও নির্দিষ্ট ব্যক্তিকে বারবার অংশগ্রহণ করতে উৎসাহ দিতে পারবেন।

/এইচএএইচ/জেএইচ/

সম্পর্কিত

পরিবেশবান্ধব রাস্তা দেখাবে গুগল ম্যাপস

পরিবেশবান্ধব রাস্তা দেখাবে গুগল ম্যাপস

গুগল ফটোজে নতুন ফিচার

গুগল ফটোজে নতুন ফিচার

২০০ কোটি ক্রোম ব্যবহারকারীকে যে কারণে সতর্ক করলো গুগল

২০০ কোটি ক্রোম ব্যবহারকারীকে যে কারণে সতর্ক করলো গুগল

ভুল নিয়ে গুগলের জন্ম 

ভুল নিয়ে গুগলের জন্ম 

প্লে-স্টোরের সাবস্ক্রিপশন ফি অর্ধেক করছে গুগল

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ১৯:২১

অ্যাপল ও গুগলের মতো প্রতিষ্ঠান অ্যাপ ডেভেলপারদের কাছে থেকে সাবস্ক্রিপশনের জন্য ফি নিয়ে থাকে। ফির বিনিময়ে ডেভেলপাররা প্লে-স্টোরে তাদের অ্যাপ অবমুক্ত করে থাকে। কিন্তু গত কয়েক বছর হলো ডেভেলপাররা ফি কমানোর জন্য আবেদন করে আসছিলো। সে আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গত বছর গুগল এই ফির পরিমাণ ৩০ শতাংশ কমায়। পরে প্রতিষ্ঠানটি এই ফি থেকে আরও ১৫ শতাংশ কমাবে বলে জানিয়েছে।

গুগল জানায়, এর আগে ডেভেলপারদের জন্য সুযোগ ছিল ১৫ শতাংশ কমানোর। কিন্তু এই সুযোগটি শুধু ধারাবাহিকভাবে যারা ১২ মাসের সাবস্ক্রিপশন করবে তাদের জন্য।

কিন্তু পরে গুগল অভিযোগ পায় ফি কমানোর পরেও ব্যবসায়ীদের জন্য মুনাফা করা বেশ কঠিন হয়ে যাচ্ছে। ফলে এই ফি আরও সহজ করার সিদ্ধান্ত নেয় গুগল।

প্রতিষ্ঠানটি জানায়, নতুন এই নিয়ম আগামী ১ জানুয়ারি থেকে কার্যকর হবে। সেই দিন থেকে গুগলের সব সাবস্ক্রিপশন ফি আর ১৫ শতাংশ কমিয়ে মোট ৪৫ শতাংশ কার্যকর করা হবে।

সংবাদ মাধ্যম উবার গিজমো জানায়, সিদ্ধান্তটি ডেভেলপারদের জন্য বেশ আশাব্যঞ্জক। আবার নিয়ন্ত্রকদের দৃষ্টিকোণ থেকে এই সিদ্ধান্ত গুগলের জন্যও ভালো। এতে প্রমাণিত হয় যে, গুগল ছাড় দেওয়ার ব্যাপারে কোনও কার্পণ্য করে না। শুধু তাই নয় এটি গুগলকে ভবিষ্যৎ যাচাই-বাছাই বা মামলার মতো বিষয় থেকেও রেহাই দেবে।

/এইচএএইচ/এমএস/

সম্পর্কিত

ভিডিও মিউট করা যাবে গুগল মিটে

ভিডিও মিউট করা যাবে গুগল মিটে

ওটিটি অ্যাপস নিয়ন্ত্রণ নিয়ে কী হচ্ছে?

ওটিটি অ্যাপস নিয়ন্ত্রণ নিয়ে কী হচ্ছে?

অবৈধ মোবাইল ফোন বন্ধ হচ্ছে না

অবৈধ মোবাইল ফোন বন্ধ হচ্ছে না

শিগগিরই ডাকসেবা কাঙ্ক্ষিত মানে উন্নীত হবে: মোস্তাফা জব্বার  

শিগগিরই ডাকসেবা কাঙ্ক্ষিত মানে উন্নীত হবে: মোস্তাফা জব্বার  

ওটিটি অ্যাপস নিয়ন্ত্রণ নিয়ে কী হচ্ছে?

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ২১:২১

ওটিটি (ওভার দ্য টপ) নির্ভর বিভিন্ন ওয়েব প্ল্যাটফর্মে ‘অনৈতিক ও আপত্তিকর’ ভিডিও কনটেন্ট পরিবেশনের অভিযোগ দীর্ঘদিনের। এসব নিয়ন্ত্রণে উচ্চ আদালতের নির্দেশে একটি গাইডলাইন তৈরি করছে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি। এরই মধ্যে গাইডলাইনের খসড়া চূড়ান্ত করার কাজ চলছে। আগামী ১ নভেম্বর সেই খসড়া গাইডলাইন আদালতে উপস্থাপন করা হবে বলে জানা গেছে।

এই খসড়া গাইডলাইনের মধ্যে যোগাযোগ নির্ভর অ্যাপস নিয়ন্ত্রণ ও রাজস্ব আদায়ের বিষয়টি থাকছে বলে জানা গেছে। দেশে অসংখ্য বিদেশি ওটিটি স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম যেমন- নেটফ্লিক্স, আইফ্লিক্স, হইচই, অ্যামাজন প্রাইম জি-ফাইভ ইত্যাদি রয়েছে। আর দেশিগুলোর মধ্যে আছে বঙ্গ, বিঞ্জ, চরকি, বাংলাফ্লেক্স, বায়োস্কোপ, সিনেম্যাটিক, আড্ডাটাইমস, টফি ইত্যাদি। দেশিগুলোতে কী ধরনের কনটেন্ট আছে তা নিয়ন্ত্রণ, নজরদারি করা এবং সেসব থেকে রাজস্ব আয়েরও পরিকল্পনাও থাকছে খসড়াতে।

নীতিমালা তৈরির জন্য বিটিআরসি গঠিত ৮ সদস্যের কমিটিতে বিটিআরসি’র কমিশনার (এলএল) আবু সৈয়দ দিলজার হোসেনকে আহবায়ক এবং উপ-পরিচালক (আইন) পদবির একজনকে সদস্য সচিব করা হয়। এছাড়া সদস্য করা হয়েছে ছয়জনকে। সদস্যরা হলেন, বিটিআরসি’র মহাপরিচালক (সিস্টেম অ্যান্ড সার্ভিসেস), পরিচালক (আইন), পরিচালক (সিস্টেম অ্যান্ড সার্ভিসেস), তথ্য মন্ত্রণালয়ের একজন প্রতিনিধি (উপ-সচিবের নিচে নয়), অর্থ, হিসাব ও রাজস্ব বিভাগের একজন প্রতিনিধি (উপ-পরিচালকের নিচে নয়) এবং বিটিআরসি’র একজন আইন পরামর্শক।

এই কমিটি ওটিটি নির্ভর বিভিন্ন ওয়েব প্ল্যাটফর্মে অনৈতিক ও আপত্তিকর ভিডিও কনটেন্ট পরিবেশন তদারকি এবং শনাক্তকরণের বিষয়ে কার্যপদ্ধতি নির্ধারণ, ওটিটি নির্ভর বিভিন্ন ওয়েব প্ল্যাটফর্মে অনৈতিক ও আপত্তিকর ভিডিও কনটেন্ট পরিবেশন রোধ বিষয়ে কার্যপদ্ধতি নির্ধারণ, ওটিটি নির্ভর বিভিন্ন ওয়েব প্ল্যাটফর্ম থেকে রাজস্ব আদায় বিষয়ে কার্যপদ্ধতি নির্ধারণে কাজ করছে। একই সঙ্গে খসড়া গাইডলাইন তৈরির কাজও করছে কমিটি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কমিটির আহ্বায়ক আবু সৈয়দ দিলজার হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, আগামী ১ নভেম্বর কমপ্লায়েন্স জানানোর জন্য কোর্টে উপস্থাপন করা হবে। এখন খসড়া তৈরির কাজ চলছে। চূড়ান্ত খসড়া কোর্টে উপস্থাপন করা হবে। তিনি জানান, খসড়া তৈরির আগে পার্শ্ববর্তীদের ভারত, সিঙ্গাপুর যে গাইডলাইন তৈরি করেছে সেগুলো পর্যালোচনা করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, খসড়া চূড়ান্ত করার আগে আমরা ব্রডকাস্ট করার নিয়মটি আমরা দেখবো। এছাড়া সংযোগ নিয়ন্ত্রণ তথা নেটওয়ার্কে কীভাবে চলে সেটাও দেখা হবে। স্টেক হোল্ডারদের সঙ্গে বৈঠক করে তাদের মতামতও শোনা হবে। বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিকদের মতামতও জানতে চাওয়া হবে বলে তিনি জানান। 

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের ১৪ জুন বাংলাদেশি ওয়েব সিরিজের বিতর্কিত অংশ বাদ দিতে সংশ্লিষ্টদের একটি আইনি নোটিশ দিয়েছিলেন আইনজীবী তানভীর আহমেদ। তবে সে নোটিসের কোনও জবাব না পেয়ে একই বছরের ১২ জুলাই হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন তিনি।

তবে পথ বিনোদননির্ভর ও অন্যান্য অ্যাপসে অনৈতিক ও আপত্তিকর ভিডিও কনটেন্ট পরিবেশন তদারকি এবং শনাক্তকরণের বিষয়ে কার্যপদ্ধতি নির্ধারণ সহজ হলেও যোগাযোগ নির্ভর অ্যাপে সহজ হবে না বলে অভিমত সংশ্লিষ্টদের। ভাইবার, মেসেঞ্জার, ইমো, উইচ্যাট, লাইনের মতো যোগাযোগ নির্ভর ওটিটি সার্ভিস এ দেশ থেকে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে অর্থ আয় করলেও সরকারের প্রাপ্তি শূন্য। বিটিআরসি গঠিত কমিটি এইসব বিষয়ে দেখভাল, খসড়া নীতিমালা তৈরি ইত্যাদি কাজ করবে বলে জানা গেছে।

দেশের আইপি-টিএসপি অপারেটরগুলো পরিচালিত দেশীয় ওটিটি প্ল্যাটফর্মের (আলাপ, ব্রিলিয়ান্ট,আম্বার আইটি ইত্যাদি) জন্য একটি গাইডলাইন করছে। দেশীয় ওটিটির ট্যারিফ অনুমোদনের জন্য বর্তমানে সেটি ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগে রয়েছে। সেই গাইডলাইনের ‘জেনারেল প্রভিশন’ অংশের ৭ দশমিক ৫ নম্বর পয়েন্টে বলা হয়েছে- বিটিআরসি একই পরিপ্রেক্ষিতে (দেশি ওটিটি সেবার জন্য নীতিমালা প্রণয়ন) বিদেশি ওটিটি পরিষেবার জন্য নির্দেশনা বা নির্দেশিকাও জারি করবে।

/এমআর/ইউএস/

সম্পর্কিত

ভিডিও মিউট করা যাবে গুগল মিটে

ভিডিও মিউট করা যাবে গুগল মিটে

প্লে-স্টোরের সাবস্ক্রিপশন ফি অর্ধেক করছে গুগল

প্লে-স্টোরের সাবস্ক্রিপশন ফি অর্ধেক করছে গুগল

অবৈধ মোবাইল ফোন বন্ধ হচ্ছে না

অবৈধ মোবাইল ফোন বন্ধ হচ্ছে না

শিগগিরই ডাকসেবা কাঙ্ক্ষিত মানে উন্নীত হবে: মোস্তাফা জব্বার  

শিগগিরই ডাকসেবা কাঙ্ক্ষিত মানে উন্নীত হবে: মোস্তাফা জব্বার  

অবৈধ মোবাইল ফোন বন্ধ হচ্ছে না

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ২২:৫৬

এখন থেকে মোবাইল ফোন সেট চালু করলে স্বয়ংক্রিভাবে তার নিবন্ধন হবে, তবে ফোনটি অবৈধ হলেও (অবৈধ পথে দেশে আসা, নন চ্যানেলে মোবাইল ফোন কেনা) বন্ধ হবে না। ১ অক্টোবর থেকে কোনও মোবাইল ফোন চালু করতে গিয়ে অবৈধ চিহ্নিত হলে তা বন্ধের যে প্রক্রিয়া শুরু হয়েছিল, তা আর হচ্ছে না। সরকার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেছে।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) রাতে এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘আমরা চাই না মোবাইল ফোনের নিবন্ধন করতে গিয়ে জনগণের কোনও ভোগান্তি হোক। এজন্যই মোবাইল ফোন সেটের নিবন্ধন স্বয়ংক্রিয়ভাবে করা হবে। আমরা দেখেছি, মোবাইল ফোন সেটের নিবন্ধন করতে গিয়ে গ্রামের সাধারণ মানুষ, বিশেষ করে যিনি ফিচার ফোন ব্যবহার করেন, তিনিই বেশি ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। প্রবাসীরাও ভোগান্তি পোহাচ্ছেন।’ মন্ত্রী জানান, প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা (সজীব ওয়াজেদ জয়) আমাদের বলেছেন, জনগণের ভোগান্তির কারণ হয়, এমন কোনও কাজ আমরা করবো না। মন্ত্রী উল্লেখ করেন, এনইআইআর  (ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্ট্রার) সিস্টেম চালু করা হয় মোবাইলের আইএমইআই ডাটাবেজ তৈরি করতে। এনইআইআর সিস্টেমের মাধ্যমে তা সফলভাবে করা যাচ্ছে।

অবৈধ ফোনের কী হবে তা জানতে চাইলে মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘অবৈধ ফোন ধরা আমাদের কাজ নয়। এটি জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) কাজ। আমরা আইএমআই ডাটাবেজ তৈরি করে দেবো। প্রয়োজনে এনবিআরকে ডাটাবেজের একসেসও দিয়ে দেওয়া হবে। এনবিআর পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখবে কোন ফোন অবৈধ। তারা কাগজপত্র চাইলে সেগুলো তাদের সরবরাহ করা হবে।’ 

যেসব মোবাইল ফোন অবৈধ চিহ্নিত হয়েছে সেগুলোর কী হবে, প্রশ্নের জবাবে মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘সব ফোনের নিবন্ধন হয়ে যাবে। যদি কোনও ফোন বন্ধ হয়ে যায় সেগুলো চালু হয়ে যাবে।’

এ বিষয়ে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান সুব্রত রায় মৈত্র জানান, বৈধ বা অবৈধ কোনও মোবাইল ফোনই বন্ধ হবে না। এ বিষয়ে মেসেজ দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, দেশের বাজারে প্রায় ৫৫ লাখ অবৈধ মোবাইল ফোন ছিল। সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানিয়েছিল, ওইসব ফোন নেটওয়ার্কে সচল হবে না। সরকারের সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের ফলে এখন এসব ফোন চালু হবে বলে সংশ্লিষ্টরা আশাবাদী।

 

/এইচএএইচ/এপিএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

এবার মোবাইল ফোনের টাওয়ার খাতে এসএমপি

এবার মোবাইল ফোনের টাওয়ার খাতে এসএমপি

৫৫ লাখ অবৈধ মোবাইল ফোনের কী হবে?

৫৫ লাখ অবৈধ মোবাইল ফোনের কী হবে?

৫ দিনে অবৈধ চিহ্নিত দুই লাখ মোবাইল ফোন

৫ দিনে অবৈধ চিহ্নিত দুই লাখ মোবাইল ফোন

বন্ধের তালিকায় ১ লাখ ২৫ হাজার মোবাইল ফোন

বন্ধের তালিকায় ১ লাখ ২৫ হাজার মোবাইল ফোন

শিগগিরই ডাকসেবা কাঙ্ক্ষিত মানে উন্নীত হবে: মোস্তাফা জব্বার  

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৪৬

ডাক ও  টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, ডিজিটাল সার্ভিস ডিজাইন ল্যাব (ডিএসডিএল) কর্মশালায় প্রণীত প্রস্তাব ডিজিটাল ডাক ঘর প্রতিষ্ঠায় একটি ঐতিহাসিক মাইলফলক। এর ফলে উৎপাদনমুখী কর্মকাণ্ডের ডিজিটালাইজেশনের ভিত তৈরি হয়েছে। ডাক বিভাগের কর্মকর্তাসহ বিশেষজ্ঞদের নিয়ে তৈরি  এই মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নের মাধ্যমে শিগগিরই ডাকসেবা কাঙ্ক্ষিত মানে উন্নীত হবে বলে মন্ত্রী আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে ডাক ভবনে ডিজিটাল ডাক ঘরের মহাপরিকল্পনা ও কর্মকৌশল প্রণয়ণের লক্ষ্যে ডাক অধিদফতর ও এটুআই প্রোগ্রামের যৌথ উদ্যোগে প্রস্তুত  চূড়ান্ত প্রতিবেদন ও উন্নয়ন প্রস্তাবনা উপস্থাপন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মো. আফজাল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার) মো. কামাল হোসেন এবং ডাক অধিদফতরের মহাপরিচালক মো. সিরাজ উদ্দিন বক্তৃতা করেন।

জুনাইদ আহমেদ পলক দ্রুত সময়ের মধ্যে ডাক বিভাগকে ডিজিটাল ডাক ঘরে রূপান্তরের প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন, ‘৫২টি মন্ত্রণালয় ও ৩৯৪ প্রতিষ্ঠানে তিন হাজার ডিজিটাল সেবা চিহ্নিত করা হয়েছে। ডিজিটাল ইকোসিস্টেম কাজে লাগিয়ে দ্রুত সময়ের মধ্যে তা চালু করা সম্ভব হবে।’

 

/এইচএএইচ/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

৯ মাসে কটূক্তি কমেছে অর্ধেক, দাবি ফেসবুকের

৯ মাসে কটূক্তি কমেছে অর্ধেক, দাবি ফেসবুকের

নতুন ম্যাকবুক প্রো’তে থাকতে পারে নচ ডিসপ্লে

নতুন ম্যাকবুক প্রো’তে থাকতে পারে নচ ডিসপ্লে

ভাইবার নিয়ে আসছে অনেক ফিচার

ভাইবার নিয়ে আসছে অনেক ফিচার

ওয়ালটনের ডুয়াল ব্যান্ডের রাউটার

ওয়ালটনের ডুয়াল ব্যান্ডের রাউটার

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ভিডিও মিউট করা যাবে গুগল মিটে

ভিডিও মিউট করা যাবে গুগল মিটে

পরিবেশবান্ধব রাস্তা দেখাবে গুগল ম্যাপস

পরিবেশবান্ধব রাস্তা দেখাবে গুগল ম্যাপস

গুগল ফটোজে নতুন ফিচার

গুগল ফটোজে নতুন ফিচার

২০০ কোটি ক্রোম ব্যবহারকারীকে যে কারণে সতর্ক করলো গুগল

২০০ কোটি ক্রোম ব্যবহারকারীকে যে কারণে সতর্ক করলো গুগল

ভুল নিয়ে গুগলের জন্ম 

ভুল নিয়ে গুগলের জন্ম 

গুগলও আনছে ফোল্ডেবল স্মার্টফোন

গুগলও আনছে ফোল্ডেবল স্মার্টফোন

গুগল সার্চের ডার্ক মোড সুবিধা ডেস্কটপে চালু করবেন যেভাবে

গুগল সার্চের ডার্ক মোড সুবিধা ডেস্কটপে চালু করবেন যেভাবে

যে কারণে ৮০ কর্মীকে বরখাস্ত করেছে গুগল

যে কারণে ৮০ কর্মীকে বরখাস্ত করেছে গুগল

মহামারিকালে গুগলের আয় বাড়লো ৬২ শতাংশ

মহামারিকালে গুগলের আয় বাড়লো ৬২ শতাংশ

গুগল সার্চ হিস্ট্রি গোপন রাখবেন যেভাবে

গুগল সার্চ হিস্ট্রি গোপন রাখবেন যেভাবে

সর্বশেষ

ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রতি আসনের বিপরীতে প্রায় ৭৪ জন

ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রতি আসনের বিপরীতে প্রায় ৭৪ জন

জামায়াতের অফিসে আগাছা, দলীয় কর্মকাণ্ড নেতাদের বাসায়

২০ দলীয় জোটজামায়াতের অফিসে আগাছা, দলীয় কর্মকাণ্ড নেতাদের বাসায়

লম্বা চুল নিষিদ্ধের প্রতিবাদে আদালতে শিক্ষার্থীরা

লম্বা চুল নিষিদ্ধের প্রতিবাদে আদালতে শিক্ষার্থীরা

বোয়ালমারীতে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেলো অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী

বোয়ালমারীতে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেলো অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী

উইঘুর ইস্যুতে চাপ বাড়ছে চীনের ওপর

উইঘুর ইস্যুতে চাপ বাড়ছে চীনের ওপর

© 2021 Bangla Tribune