X
শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ৬ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

পদ্মায় কম থাকলেও বাজার ভরে গেছে ‘পদ্মার ইলিশে’

আপডেট : ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:৩৮

মুন্সীগঞ্জের বিভিন্ন বাজারে গত কয়েক দিনের তুলনায় ইলিশের আমদানি কিছুটা বাড়লেও দাম কমেনি। এ ছাড়া বাজারে আসা বেশিরভাগ ইলিশ পদ্মা নদীর নয়। সেগুলো দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন এলাকার। অনেক বাজারে এসব ইলিশ পদ্মার বলে বিক্রি করা হচ্ছে।

লৌহজং উপজেলায় পদ্মা নদীতে এখন তেমন ইলিশ পাচ্ছে না জেলেরা। মাছ ব্যবসায়ী, জেলে ও মৎস্য কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, পদ্মা নদীর পানিদূষণ, নদীর নাব্য ও স্রোত কমে যাওয়ায় ইলিশের ঝাঁক আগের মতো পদ্মা নদীতে আসে না। তারপরও যেসব ইলিশ পদ্মায় পাওয়া যাচ্ছে, সেগুলো আকারে ছোট।

মুন্সীগঞ্জ সদর বাজারের ক্রেতা মো. জয়নাল আবেদীন বলেন, মিঠা পানির ইলিশ সুস্বাদু। এখানে পাওয়া যাচ্ছে লোনা পানির ইলিশ। দক্ষিণবঙ্গের ইলিশ লোনা পানির। তবে মাছ বড় হওয়ায় আঁশ বড় হয়। খেতেও কিছুটা সুস্বাদু। এখন মোটামুটি ভালো মানের ইলিশ কিনতে প্রতি হালিতে ছয় হাজার টাকা পড়ে।

ইলিশের আমদানি কিছুটা বাড়লেও দাম কমেনি

মাছ ব্যবসায়ীরা জানান, বাজারে ছোট-বড় যেসব ইলিশ পাওয়া যায়, সেগুলো দক্ষিণাঞ্চলের দৌলতখাঁ, হাতিয়া ও রাঙাবালী এলাকার নদীর। বহু বছর ধরে এসব এলাকার মাছই পদ্মার ইলিশ বলে বিক্রি করেন তারা।

মাছ ব্যবসায়ী তপন বলেন, মুন্সীগঞ্জের রিকাবীবাজার থেকে পাইকারি দরে মাছ কিনে আনি। ১৭শ’ থেকে ১৮শ’ গ্রাম ওজনের ইলিশ বিক্রি করছেন ১৩-১৪শ’ টাকা কেজি দরে। ১২-১৩শ’ গ্রামের ইলিশ এক হাজার টাকা কেজি এবং ৭০০-৮০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ ৭০০ থেকে ৮০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করছেন তিনি।

প্রায় ৪০ বছর ধরে মুন্সীগঞ্জের মাওয়া মৎস্য আড়তে ব্যবসা করছেন গগন দাস। তিনি জানান, ১১শ’ থেকে ১২শ’ গ্রাম ওজনের বড় মাছ এখন ১১শ’ থেকে ১৩শ’ টাকা কেজি। তবে আড়তে তুলনামূলক কম ইলিশ আসছে। মাওয়া আড়তে যেসব ইলিশ আসে, তার অর্ধেক মুন্সীগঞ্জের পদ্মার। সেগুলো আকারে অপেক্ষাকৃত ছোট। বড় মাছ খুবই কম। ৪০০ থেকে ৫০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ বেশি।

ইলিশের ঝাঁক আগের মতো পদ্মা নদীতে আসে না

পদ্মা নদীতে আগের তুলনায় ইলিশ কম পাওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, আগে মুন্সীগঞ্জের পদ্মা নদীতে মুখ্য কয়েকটি পয়েন্ট ছিল। সেখানে প্রচুর ইলিশ ধরা পড়তো। কিন্তু নানা কারণে মাছ অন্যদিকে চলে গেছে। হয়তো নদীর নাব্য কমে স্রোত কমে যাওয়ায় ইলিশ অন্যদিকে চলে গেছে।

মৎস্যজীবী সমিতির মুন্সীগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি মো. আমানউল্লাহ জানান, এখন ভরা মৌসুমেও ইলিশ আহরণ কম। জাটকা নিধনের কারণে পদ্মায় ইলিশের উৎপাদন কমে গেছে।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্ব) টিপু সুলতান বলেন, জেলায় ইলিশের আহরণ কম। মূলত নদীদূষণ ও নদীর নাব্য কমে যাওয়ায় মুন্সীগঞ্জে ইলিশের আহরণ কমে গেছে।

/এসএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

এক মোটরসাইকেলে ৪ জন, ট্রেনের ধাক্কায় মা-ছেলে নিহত

এক মোটরসাইকেলে ৪ জন, ট্রেনের ধাক্কায় মা-ছেলে নিহত

বোয়ালমারীতে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেলো অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী

বোয়ালমারীতে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেলো অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী

ভ্রাম্যমাণ আদালত ছেড়ে আহতকে হাসপাতালে নিলেন ইউএনও

ভ্রাম্যমাণ আদালত ছেড়ে আহতকে হাসপাতালে নিলেন ইউএনও

মাদারীপুর অঞ্চলে ৯ মাসে সড়কে ঝরেছে ২১৩ প্রাণ

মাদারীপুর অঞ্চলে ৯ মাসে সড়কে ঝরেছে ২১৩ প্রাণ

এক মোটরসাইকেলে ৪ জন, ট্রেনের ধাক্কায় মা-ছেলে নিহত

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ২২:১৩

টাঙ্গাইলে ট্রেনের ধাক্কায় মোটরসাইকেলে থাকা মা ও ছেলে নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন ওই নিহত নারীর স্বামী ও আরেক ছেলে। শুক্রবার (২২ অক্টোবর) সন্ধ্যায় সদর উপজেলার হাতিলা রেলক্রসিং এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। টাঙ্গাইলের ঘারিন্দা রেল স্টেশন মাস্টার সোহেল খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নিহতরা হলেন- সারামণি (২৫) ও তার আড়াই বছরের ছেলে আব্দুর রহমান আইয়ান। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন সারামণির স্বামী আজগর আলী ও তার পাঁচ বছরের ছেলে আব্দুল্লাহ। তারা জেলার বাসাইল উপজেলার ময়থা উত্তরপাড়া এলাকার বাসিন্দা। সম্প্রতি তারা সদর উপজেলার করটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এলাকায় বসবাস করেছেন।

নিহত সারামণির উকিল বাবা আশরাফ আলী বলেন, ‘সারামণি ও আজগর আলী দুই সন্তানকে নিয়ে মোটরসাইকেলযোগে হাতিলা এলাকায় আত্মীয়ের বাড়িতে যায়। সেখান থেকে ফেরার পথে তারা হাতিলা রেলক্রসিং পার হচ্ছিল। এ সময় একটি ট্রেন এসে তাদের ধাক্কা দেয়। এ ঘটনায় সারামণি ও তার ছোট ছেলে আব্দুর রহমান আইয়ান ঘটনাস্থলেই মারা যায়। আর আজগর আলী ও তার বড় ছেলে আব্দুল্লাহ আহত হয়। আজগর আলীকে বর্তমানে ঢাকায় নেওয়া হচ্ছে। আব্দুল্লাহ ভালো আছে।’

টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত চিকিৎসক রাজিব পাল চৌধুরী বলেন, ‘হাসপাতালে দুই জনকে আনা হয়েছিল। এর মধ্যে আজগর আলীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। শিশুটিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।’

টাঙ্গাইলের ঘারিন্দা স্টেশনের মাস্টার সোহেল খান বলেন, ‘কুড়িগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঢাকার দিকে যাচ্ছিল। শুনেছি ওই ট্রেনে কাটা পড়ে দুই জন মারা গেছে। লাশ তাদের স্বজনরা নিয়ে গেছেন।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

বোয়ালমারীতে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেলো অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী

বোয়ালমারীতে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেলো অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী

ভ্রাম্যমাণ আদালত ছেড়ে আহতকে হাসপাতালে নিলেন ইউএনও

ভ্রাম্যমাণ আদালত ছেড়ে আহতকে হাসপাতালে নিলেন ইউএনও

সালিশে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে সিএনজিচালক নিহত

সালিশে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে সিএনজিচালক নিহত

বোয়ালমারীতে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেলো অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ২১:৫২

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রী। তার বয়স ১৪ বছর। শুক্রবার (২২ অক্টোবর) বিকালে উপজেলার পরমেশ্বরদী ইউনিয়নের জয়পাশা গ্রামে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারিয়া হক হাজির হতেই বিয়ের আয়োজন ভেস্তে যায়।

স্থানীয় বাসিন্দা রফিকুল ইসলাম জানান, বোয়ালমারী উপজেলার চতুল ইউনিয়নের বাইখীর গ্রামের আতিয়ার মোল্যার ছেলে সোহেল মোল্যার (২৫) সঙ্গে একই উপজেলার জয়পাশা গ্রামের সৈয়দ ফজলুল হক একাডেমির অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীর শুক্রবার বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। খবর পেয়ে সহকারী কমিশনার (ভূমি) মারিয়া হক বিয়ের প্রস্তুতিকালে কিশোরীর বাড়িতে হাজির হয়ে বিয়ে বন্ধ করে দেন। একইসঙ্গে বর ও কনে পক্ষকে জরিমানা করেন তিনি।

অপ্রাপ্তবয়স্ক মেয়েকে বিয়ে দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়ায় বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন ২০১৭-এর ৭ ধারায় মেয়ের বাবাকে ৭ হাজার টাকা এবং অপ্রাপ্তবয়স্ক মেয়েকে বিয়ে করতে আগ্রহী সোহেল মোল্যাকে একই আইনের ৮ ধারায় ৮ হাজার টাকাসহ মোট ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। 

বাল্যবিয়ে বন্ধের সত্যতা নিশ্চিত করে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারিয়া হক বলেন, ‘ছেলে ও মেয়ে উভয় পক্ষকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া ওই কিশোরীর বাবা এবং ছেলের (বর) কাছ থেকে যথাক্রমে প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত মেয়ের বিয়ে দেবো না এবং প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত মেয়েকে বিয়ে করবো না মর্মে মুচলেকা নেওয়া হয়েছে।’

/জেএইচ/

সম্পর্কিত

ভ্রাম্যমাণ আদালত ছেড়ে আহতকে হাসপাতালে নিলেন ইউএনও

ভ্রাম্যমাণ আদালত ছেড়ে আহতকে হাসপাতালে নিলেন ইউএনও

মাদারীপুর অঞ্চলে ৯ মাসে সড়কে ঝরেছে ২১৩ প্রাণ

মাদারীপুর অঞ্চলে ৯ মাসে সড়কে ঝরেছে ২১৩ প্রাণ

পূজামণ্ডপে হামলার চেষ্টা: যুব পরিষদের ৭ নেতাকর্মী রিমান্ডে 

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ২১:৪৬

চট্টগ্রামের জেএম সেন হলের পূজামণ্ডপে হামলা চেষ্টার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় যুব অধিকার পরিষদের সাত জনের এক দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। শুক্রবার (২২ অক্টোবর) চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শফি উদ্দিনের আদালত তাদের রিমান্ডে নেওয়ার আদেশ দেন।

কোতোয়ালি থানার ওসি নেজাম উদ্দিন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে অভিযান চালিয়ে ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়। আজ আদালতে সাত জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য প্রত্যেকের সাত দিন করে রিমান্ড আবেদন করেছিলাম। শুনানি শেষে আদালত এক দিন করে রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেছেন। বাকি তিনজনের বয়স ১৯ বছরের কমে হওয়ায় রিমান্ড চাওয়া হয়নি।’

রিমান্ডে পাওয়া সাত আসামি হলেন- যুব অধিকার পরিষদের চট্টগ্রাম মহানগর শাখার আহ্বায়ক মো. নাছির, সদস্য সচিব মিজানুর রহমান, বায়েজিদ থানার আহ্বায়ক মো. রাসেল, কর্মী ইয়াসিন আরাফাত, হাবিবুল্লাহ মিজান, ইমন ও ইমরান হোসেন।

কুমিল্লায় সহিংসতার ঘটনার জের ধরে গত ১৬ অক্টোবর দুপুরে জুমার নামাজের পর একটি মিছিল থেকে ঐতিহাসিক জেএম সেন হলের পূজামণ্ডপে গেটে হামলা হয়। গেটের ব্যানার ও কাপড় ছেঁড়ার পাশাপাশি ওই দিন মিছিল সহকারে আসা যুবকরা মণ্ডপে ঢিল ছোড়ে। এ ঘটনায় ৮৪ জনের নাম উল্লেখ করে কোতোয়ালি থানায় মামলা দায়ের করা হয়।

এসআই আকাশ মাহমুদ ফরিদ বাদী হয়ে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলাটি দায়ের করেন। মামলা অজ্ঞাত আরও অন্তত ৫০০ জনকে আসামি করা হয়েছে। এই মামলায় ইতোমধ্যে ১০০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

‘সাম্প্রদায়িকতা উসকে দিতে’ কুমিল্লার ঘটনা লাইভে প্রচারের স্বীকারোক্তি

‘সাম্প্রদায়িকতা উসকে দিতে’ কুমিল্লার ঘটনা লাইভে প্রচারের স্বীকারোক্তি

ময়মনসিংহে আরও ৩ রাজাকার গ্রেফতার 

ময়মনসিংহে আরও ৩ রাজাকার গ্রেফতার 

পিকআপে করে গরু চুরির সময় ৪ চোর গ্রেফতার

পিকআপে করে গরু চুরির সময় ৪ চোর গ্রেফতার

ভারতে পাচার হওয়ার আড়াই বছর পর দেশে ফিরলো মেয়েটি

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ২১:৫৩

বাংলাদেশ থেকে পাচার হয়ে যাওয়া রুপা আক্তারকে (২৭) আড়াই বছর পর বেনাপোল দিয়ে ফেরত পাঠিয়েছে ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ। শুক্রবার (২২ অক্টোবর) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে তিনি ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে ঢুকেছেন। পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ তাকে বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে।

জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ারের যশোর শাখার জ্যেষ্ঠ প্রোগ্রাম অফিসার এবিএম মুহিত হোসেন জানান, রুপা ঢাকার ধামরাই এলাকার মঙ্গল ব্যাপারীর মেয়ে। ভালো কাজের প্রলোভন দেখিয়ে সীমান্তের অবৈধ পথে তাকে ভারতে পাচার করা হয়েছিল। পাচারকারীরা মেয়েটিকে জোরপূর্বক ঝুঁকিপূর্ণ কাজে ব্যবহার করে। সেখানকার পুলিশ গোপন সূত্রে খবর পেয়ে তাকে উদ্ধার করে আদালতে পাঠায়।

জানা গেছে, ভারতের উড়িষ্যার শান্তি সদন নামে একটি সরকারি এনজিও সংস্থা রুপাকে আদালত থেকে ছাড়িয়ে নিজেদের আশ্রয়ে রাখে। দুই দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আইনি প্রক্রিয়া শেষে বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে তাকে দেশে ফেরার সুযোগ দেওয়া হলো।

বেনাপোল ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাজু আহমেদ বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, ইমিগ্রেশনে কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে রুপাকে বেনাপোল পোর্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়। সেখান থেকে আইনি সহয়তা দিতে জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ার নামে একটি এনজিও সংস্থা তাকে পরিবারের কাছে নিয়ে যাবে বলে জানা গেছে।

/জেএইচ/

সম্পর্কিত

লোকালয় থেকে উদ্ধার হলো বিশাল এক অজগর

লোকালয় থেকে উদ্ধার হলো বিশাল এক অজগর

ইউপি নির্বাচন: বিদ্রোহী প্রার্থীর অফিস ভাঙচুরের অভিযোগ

ইউপি নির্বাচন: বিদ্রোহী প্রার্থীর অফিস ভাঙচুরের অভিযোগ

ভারত থেকে ফিরেছেন পাচার হওয়া ১৯ তরুণী

ভারত থেকে ফিরেছেন পাচার হওয়া ১৯ তরুণী

‘সাম্প্রদায়িকতা উসকে দিতে’ কুমিল্লার ঘটনা লাইভে প্রচারের স্বীকারোক্তি

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ২১:৩৮

সাম্প্রদায়িকতা উসকে দিতে কুমিল্লা শহরের নানুয়াদিঘির পাড় পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন শরিফ রাখার ঘটনাটি  তাৎক্ষণিকভাবে ফেসবুক লাইভে প্রচার করার কথা স্বীকার করেছেন মো. ফয়েজ আহমেদ। পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) কুমিল্লার তাকে দুই দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তিনি এ অপরাধের কথা স্বীকার করেন।

শুক্রবার (২২ অক্টোবর) রাতে সিআইডি কুমিল্লার পুলিশ সুপার খান মোহাম্মদ রেজওয়ান বলেন, ‘আদালতের আদেশে তাকে দুই দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। সাম্প্রদায়িকতা উসকে দেওয়ার জন্য সে তার ফেসবুকে লাইভে গিয়ে পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন শরিফ রাখার ঘটনাটি প্রচার করে।’

পুলিশের এ কর্মকর্তা বলেন, ‘ফয়েজ জানান, সে দীর্ঘদিন ধরে প্রবাসে ছিলেন। প্রবাসে থাকাকালীন স্ত্রীর সঙ্গে প্রতিনিয়ত ভিডিও কলের মাধ্যমে কথা বলতেন। ফলে মোবাইলে ভিডিও কল ও ক্যামেরায় ভিডিও করতে পারদর্শী হয়ে ওঠেন। সে নানুয়াদিঘির পাড়ের একটি বাসায় থাকতেন। ১৩ অক্টোবর নানুয়াদিঘির পাড় পূজামণ্ডপে কোরআন পাওয়ার বিষয়টি শুনেই সেখানে ছুটে গিয়ে ফেসবুক লাইভে প্রচার করেন। কিন্তু তার জানা ছিল না, এই লাইভে সারা দেশে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা তৈরি হবে।’

এই ঘটনায় তার সঙ্গে অন্য কেউ জড়িত আছে কি-না? জবাবে পুলিশ সুপার খান মোহাম্মদ রেজওয়ান বলেন, ‘আমরা তথ্য-প্রযুক্তির মাধ্যমে তদন্ত করে দেখছি, সাম্প্রদায়িকতা উসকে দেওয়ার কর্মকাণ্ডে এখনও পর্যন্ত ফয়েজের সঙ্গে জড়িত কাউকে পাওয়া যায়নি। তবে তদন্ত অব্যাহত রয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ফয়েজকে পুনরায় কারাগারে পাঠানো হয়েছে।’

এর আগে, ১৩ অক্টোবর নানুয়াদিঘির পাড় পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনাটি তাৎক্ষণিকভাবে ফেসবুক লাইভে প্রচার করায় ওই সন্ধ্যায় পুলিশ তাকে আটক করে। পরে পুলিশ বাদী হয়ে কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানায় তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। ১৬ অক্টোবর পুলিশ থেকে মামলাটি সিআইডিতে স্থানান্তর করা হয়। সিআইডি ফয়েজকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ড আবেদন করলে মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) কুমিল্লার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক নুসরাত জাহান উর্মি দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এদিকে, পূজামণ্ডপে কোরআন শরিফ রাখা মূল অভিযুক্ত ইকবাল হোসেনকে কক্সবাজার থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। কুমিল্লা পুলিশ লাইন্সে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

পূজামণ্ডপে হামলার চেষ্টা: যুব পরিষদের ৭ নেতাকর্মী রিমান্ডে 

পূজামণ্ডপে হামলার চেষ্টা: যুব পরিষদের ৭ নেতাকর্মী রিমান্ডে 

ময়মনসিংহে আরও ৩ রাজাকার গ্রেফতার 

ময়মনসিংহে আরও ৩ রাজাকার গ্রেফতার 

পিকআপে করে গরু চুরির সময় ৪ চোর গ্রেফতার

পিকআপে করে গরু চুরির সময় ৪ চোর গ্রেফতার

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

এক মোটরসাইকেলে ৪ জন, ট্রেনের ধাক্কায় মা-ছেলে নিহত

এক মোটরসাইকেলে ৪ জন, ট্রেনের ধাক্কায় মা-ছেলে নিহত

বোয়ালমারীতে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেলো অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী

বোয়ালমারীতে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেলো অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী

ভ্রাম্যমাণ আদালত ছেড়ে আহতকে হাসপাতালে নিলেন ইউএনও

ভ্রাম্যমাণ আদালত ছেড়ে আহতকে হাসপাতালে নিলেন ইউএনও

মাদারীপুর অঞ্চলে ৯ মাসে সড়কে ঝরেছে ২১৩ প্রাণ

নিরাপদ সড়ক দিবসমাদারীপুর অঞ্চলে ৯ মাসে সড়কে ঝরেছে ২১৩ প্রাণ

নির্বাচনে সব প্রার্থী সমান সুযোগ ভোগ করবেন: সিইসি

নির্বাচনে সব প্রার্থী সমান সুযোগ ভোগ করবেন: সিইসি

বিনা টিকিটে ট্রেনে ওঠায় ২১৫ যাত্রীকে জরিমানা

বিনা টিকিটে ট্রেনে ওঠায় ২১৫ যাত্রীকে জরিমানা

যৌথ অভিযানে ডুবিয়ে দেওয়া হলো ৩০ জেলেনৌকা

যৌথ অভিযানে ডুবিয়ে দেওয়া হলো ৩০ জেলেনৌকা

গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

বাল্যবিয়ে হওয়া শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফেরাতে কাজ করছি: শিক্ষামন্ত্রী

বাল্যবিয়ে হওয়া শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফেরাতে কাজ করছি: শিক্ষামন্ত্রী

মোবাইলে পর্নো ভিডিও সরবরাহকারী ৪ জন গ্রেফতার

মোবাইলে পর্নো ভিডিও সরবরাহকারী ৪ জন গ্রেফতার

সর্বশেষ

ডাচদের হারিয়ে বাংলাদেশের গ্রুপসঙ্গী শ্রীলঙ্কা

ডাচদের হারিয়ে বাংলাদেশের গ্রুপসঙ্গী শ্রীলঙ্কা

এক মোটরসাইকেলে ৪ জন, ট্রেনের ধাক্কায় মা-ছেলে নিহত

এক মোটরসাইকেলে ৪ জন, ট্রেনের ধাক্কায় মা-ছেলে নিহত

ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রতি আসনের বিপরীতে প্রায় ৭৪ শিক্ষার্থী

ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রতি আসনের বিপরীতে প্রায় ৭৪ শিক্ষার্থী

জামায়াতের অফিসে আগাছা, দলীয় কর্মকাণ্ড নেতাদের বাসায়

২০ দলীয় জোটজামায়াতের অফিসে আগাছা, দলীয় কর্মকাণ্ড নেতাদের বাসায়

লম্বা চুল নিষিদ্ধের প্রতিবাদে আদালতে শিক্ষার্থীরা

লম্বা চুল নিষিদ্ধের প্রতিবাদে আদালতে শিক্ষার্থীরা

© 2021 Bangla Tribune