X
রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ৭ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

সিনহা হত্যা মামলা: আরও ৬ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ সম্পন্ন

আপডেট : ১০ অক্টোবর ২০২১, ১৯:৩৫

কক্সবাজারের টেকনাফে আলোচিত মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যা মামলার নির্ধারিত পঞ্চম দফায় প্রথম দিনে আরও ছয় সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়েছে। এ নিয়ে পঞ্চম দফায় ২৬ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ করেছেন আদালত।

রবিবার (১০ অক্টোবর) সকাল সোয়া ১০টা থেকে বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. ইসমাঈলের আদালতে এ সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়।

আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) ফরিদুল আলম আদালতের কার্যক্রম শেষে সাংবাদিকদের জানান, রবিবার দিনব্যাপী ছয় জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ করেছেন আদালত। সকাল সোয়া ১০টার দিকে মামলার ২০ তম সাক্ষী বেবি বেগমের জেরার মধ্য দিয়ে বিচারিক কার্যক্রম শুরু হয়। পরে আরও ছয় জনের সাক্ষ্যগ্রহণ নেয় আদালত।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খান। তার সঙ্গে থাকা সাহেদুল ইসলাম সিফাতকে পুলিশ আটক করে। এরপর সিনহা যেখানে ছিলেন সেই নীলিমা রিসোর্টে ঢুকে তার সহকর্মী শিপ্রা দেবনাথ ও তাহসিন রিফাত নুরকে আটক করা হয়। পরে তাহসিন রিফাতকে ছেড়ে দিলেও শিপ্রা ও সিফাতকে গ্রেফতার দেখিয়ে কারাগারে পাঠায় পুলিশ। এই দুজন পরে জামিনে মুক্তি পান।

সিনহা হত্যার ঘটনায় মোট চারটি মামলা হয়েছে। ঘটনার পরপরই পুলিশ বাদী হয়ে তিনটি মামলা করে। এর মধ্যে দুটি মামলা হয় টেকনাফ থানায়, একটি রামু থানায়। ঘটনার পাঁচ দিন পর অর্থাৎ ৫ আগস্ট কক্সবাজার আদালতে টেকনাফ থানার বরখাস্ত হওয়া ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, বাহারছড়া তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক লিয়াকত আলীসহ নয় পুলিশের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন সিনহার বড় বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস। চারটি মামলারই তদন্তের দায়িত্ব পায় র‍্যাব।

২০২০ সালের ১৩ ডিসেম্বর ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ ১৫ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দেন তদন্তকারী কর্মকর্তা ও র‍্যাব-১৫ কক্সবাজারের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. খাইরুল ইসলাম।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনা সাজানো: ইনু

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনা সাজানো: ইনু

নোয়াখালীতে পূজামণ্ডপ ভাঙচুর, ২৫ মামলায় গ্রেফতার ১৭৪

নোয়াখালীতে পূজামণ্ডপ ভাঙচুর, ২৫ মামলায় গ্রেফতার ১৭৪

এখন জামায়াতের অস্তিত্ব বলতে কিছু নেই: গয়েশ্বর

এখন জামায়াতের অস্তিত্ব বলতে কিছু নেই: গয়েশ্বর

‘মুসল্লিদের সংঘবদ্ধ করে’ পূজামণ্ডপে হামলাচেষ্টার স্বীকারোক্তি

‘মুসল্লিদের সংঘবদ্ধ করে’ পূজামণ্ডপে হামলাচেষ্টার স্বীকারোক্তি

জালিয়াতি করে আড়াই কোটি টাকা তুলে নিলেন হিসাব সহকারী

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ২২:৫৭

যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড থেকে চেক জালিয়াতি করে আরও দুই কোটি ৪৩ লাখ টাকা আত্মসাতের ঘটনা ধরা পড়েছে। বৃহস্পতিবার বিষয়টি ধরা পড়লে গোপনে দুদকে আরও একটি অভিযোগ দেয় শিক্ষাবোর্ড কর্তৃপক্ষ।

বোর্ডের হিসাব ও অডিট শাখার উপ-পরিচালক জানিয়েছেন, এই অনিয়মের সঙ্গে বোর্ডের হিসাব সহকারী আব্দুস সালাম ও ঠিকাদার শরিফুল ইসলাম বাবু জড়িত। তাদের বিরুদ্ধে এর আগে ৭ অক্টোবর আড়াই কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ওঠে। ওই ঘটনায় ইতোমধ্যে দুদক বোর্ডের চেয়ারম্যান, সচিব, হিসাব সহকারী আব্দুস সালামসহ পাঁচ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে। সবমিলে ২৬টি চেকে ১৪ লাখ ৮৩ হাজার ৭৪২ টাকার বিপরীতে পাঁচ কোটি ৯ লাখ ৪৯ হাজার ৮৯৮ টাকা লোপাটের প্রমাণ পেয়েছে অডিট শাখা।

স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে, চলতি অর্থবছরে সরকারি কোষাগারে জমার জন্য আয়কর ও ভ্যাট বাবদ ১০ হাজার ৩৬ টাকার নয়টি চেক ইস্যু করা হলেও চেক নয়টি দিয়ে দুই কোটি ৫০ লাখ ৪৪ হাজার ১০ টাকা উত্তোলন করে ভেনাস প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিং এবং শাহীলাল স্টোর নামে দুটি প্রতিষ্ঠানের মালিকরা।

গত ৭ অক্টোবর এই ঘটনা প্রকাশ পাওয়ার পর বোর্ডের হিসাব ও অডিট বিভাগ তাদের অভ্যন্তরীণ নিরীক্ষা অব্যাহত রাখে। ফলে গত ১৮ অক্টোবর পাঁচটি চেকে চার লাখ ৫৬ হাজার ৭৬৪ টাকার স্থলে ২১ লাখ ৯৮ হাজার ৯২৯ টাকা উত্তোলনের তথ্য পাওয়া যায়।

গত ২১ অক্টোবর ১১টি চেকের বিপরীতে ১০ লাখ ১৫ হাজার ২৬৬ টাকার স্থলে দুই কোটি ২১ লাখ ৮ হাজার ৯৪৯ টাকা উত্তোলনের তথ্য পাওয়া যায়। এরপর বিষয়টি হিসাব শাখা থেকে বোর্ডের সচিবকে পত্র দিয়ে অবহিত করা হয়। ওই দিনই বোর্ডের সচিব দুদক যশোরে নতুন করে দুই কোটি ৪৩ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ দেয়।

অভিযোগে বলা হয়েছে, ২০১৭ সালের ২১ আগস্ট বিজনেস আইটি নামে একটি প্রতিষ্ঠানের নামে আয়কর বাবদ ১২ হাজার ২৭৬ টাকা তুলে নেওয়া হয়। একই সালের ৪ অক্টোবর শহরের জামে মসজিদ লেনের নূর এন্টারপ্রাইজ নামে ৫৯ হাজার ৩৫ টাকা তুলে নেওয়া হয়েছে। ২০১৯ সালের ২৯ এপ্রিল মেসার্স খাজা প্রিন্টিং প্রেসের নামে দুই লাখ ৯৮ হাজার ৫৩০ টাকা ও নিহার প্রিন্টিং প্রেসের নামে দুই লাখ ৯৮ হাজার ৫৩০ টাকা উত্তোলন করা হয়েছে। এভাবে নয়টি প্রতিষ্ঠানের নামে আরও দুই কোটি ৪৩ লাখ সাত হাজার ৮৭৮ টাকা তুলে নিয়েছেন হিসাব সহকারী আব্দুস সালাম। এর মধ্যে সেকশন অফিসার আবুল কালাম আজাদের নামে ৯৪ হাজার ৩১৬ টাকা ও আব্দুস সালামের নিজ নামে ২৫ লাখ ৮০ হাজার ১০ টাকা তুলে নেওয়া হয়েছে।

যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের হিসাব ও নীরিক্ষা বিভাগের উপ-পরিচালক এমদাদুল হক জানান, তারা আরও প্রায় আড়াই কোটি টাকার চেক জালিয়াতির প্রমাণ পেয়েছেন। যা ২১ অক্টোবর দুদকে অভিযোগ আকারে জমা দিয়েছেন। ওই সময় বর্তমানে চেয়ারম্যান মোল্লা আমির হোসেন বোর্ডের সচিব ছিলেন। হিসাব সহকারী আব্দুস সালাম তখনও হিসাব শাখার দায়িত্বে ছিলেন। এসব অনিয়মের সঙ্গে সরাসরি জড়িত আব্দুস সালামের অন্যতম সহযোগী বোর্ডের ঠিকাদার শরিফুল ইসলাম বাবু। তিনি বিভিন্ন ভুয়া প্রতিষ্ঠানের নামে দীর্ঘদিন বোর্ডে কাজ করছেন। সেসব প্রতিষ্ঠানের নামেই চেকগুলো দিয়ে অতিরিক্ত টাকা উত্তোলন করে আত্মসাৎ করেছেন। এখন দুদক বিষয়টি খতিয়ে দেখবে।

দুদকের যশোর কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. নাজমুচ্ছায়াদাত বলেন, আমাদের কাছে আরও প্রায় আড়াই কোটি টাকা জালিয়াতির অভিযোগ করা হয়েছে। কারা করেছে তা খুঁজে বের করা হবে।

এর আগে ১৮ অক্টোবর আড়াই কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে পাঁচ জনকে আসামি করে মামলা করে দুদক। দুর্নীতি দমন কমিশনের সমন্বিত জেলা কার্যালয় যশোরের সহকারী পরিচালক মাহফুজ ইকবাল বাদী হয়ে এই মামলা করেন।

ওই মামলায় অভিযুক্তরা হলেন যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোল্লা আমীর হোসেন, সচিব অধ্যাপক এএম এইচ আলী আর রেজা, হিসাব সহকারী আব্দুস সালাম, প্রতারক প্রতিষ্ঠান ভেনাস প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিংয়ের মালিক রাজারহাট এলাকার বাসিন্দা আবদুল মজিদ আলীর ছেলে শরিফুল ইসলাম বাবু ও শেখহাটি জামরুলতলা এলাকার শাহীলাল স্টোরের মালিক মৃত সিদ্দিক আলী বিশ্বাসের ছেলে আশরাফুল আলম। 

মামলা হওয়ার পর ওই দিন রাতেই চেয়ারম্যান ও সচিব তাদের বাংলো থেকে বের হয়ে যান। এরপর তারা কেউ অফিসে আসেননি।

যশোর শিক্ষাবোর্ডের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান অধ্যাপক মাধব চন্দ্র রুদ্র আরও আড়াই কোটি টাকা জালিয়াতির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

/এএম/

সম্পর্কিত

ফেসবুকে একাধিক উসকানিমূলক পোস্ট, যুবক গ্রেফতার

ফেসবুকে একাধিক উসকানিমূলক পোস্ট, যুবক গ্রেফতার

ভারতে পাচার হওয়ার আড়াই বছর পর দেশে ফিরলো মেয়েটি

ভারতে পাচার হওয়ার আড়াই বছর পর দেশে ফিরলো মেয়েটি

লোকালয় থেকে উদ্ধার হলো বিশাল এক অজগর

লোকালয় থেকে উদ্ধার হলো বিশাল এক অজগর

বেপরোয়া গতির ২ বাসের সংঘর্ষে প্রাণ গেলো মা-ছেলের

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ২২:৫৬

পটুয়াখালী-কুয়াকাটা সড়কে দুই যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে মা ও ছেলে নিহত ও ৩০ জন আহত হয়েছেন। শনিবার (২৩ অক্টোবর) বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে বরগুনার আমতলী উপজেলার আমড়াগাছিয়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, আয়েশা বেগম (৪০) ও তার ১ বছর বয়সী ছেলে আয়ান। নিহতদের বাড়ি চট্টগ্রামের কাটগড় ধুমপাড়া এলাকায়। আহতদের মধ্যে গুরুতর অবস্থায় ২০ জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পটুয়াখালী, বরিশাল ও খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন আমতলী হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. সুমন খন্দকার।

প্রত্যক্ষদর্শী ও যাত্রীরা জানান, চট্টগ্রাম থেকে যাত্রী নিয়ে কুয়াকাটায় আসছিল সেবা পরিবহনের একটি বাস ও কুয়াকাটা থেকে দিনাজপুর যাচ্ছিল গোল্ডেন লাইন পরিবহনের আরেকটি বাস। দুই বাসই বেপরোয়াভাবে যাচ্ছে। পটুয়াখালী-কুয়াকাটা সড়কের আমতলী উপজেলার আমড়াগাছিয়া এলাকায় মোড় নেওয়ার সময় বেপরোয়া গতির দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে। এতে উভয় বাসের সামনের অংশ দুমড়েমুচড়ে যায় এবং রাস্তার পাশের খাদে পড়ে। ঘটনাস্থলে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস উদ্ধার অভিযান চালিয়ে দুই জনকে মৃত ও ৩০ জনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে।

আমতলী থানার ওসি মো. শাহালম হাওলাদার যাত্রীদের বরাত দিয়ে জানান, বেপরোয়া গতির কারণে বাস দুইটির মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে দুই জন নিহত চালকসহ ৩০ যাত্রী আহত হয়েছেন। অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক। দুর্ঘটনাকবলিত বাস দুইটি আটক করা হয়েছে। এছাড়াও গাড়ির চালক ও তার সহযোগীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা লঞ্চের কেবিনে অজ্ঞাত তরুণীর লাশ

ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা লঞ্চের কেবিনে অজ্ঞাত তরুণীর লাশ

উন্নয়নের পথে বাধা সৃষ্টি করলে মোকাবিলা করবো: পরিকল্পনামন্ত্রী

উন্নয়নের পথে বাধা সৃষ্টি করলে মোকাবিলা করবো: পরিকল্পনামন্ত্রী

পায়রা সেতু উদ্বোধন রবিবার, অনুষ্ঠানে থাকবেন ৪০০ অতিথি

পায়রা সেতু উদ্বোধন রবিবার, অনুষ্ঠানে থাকবেন ৪০০ অতিথি

দুই মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ২

দুই মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ২

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনা সাজানো: ইনু

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ২২:৩১

কুমিল্লার নানুয়াদিঘির পাড় পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন শরিফ রাখার ঘটনাটি পরিকল্পিত ও সাজানো বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) সভাপতি ও সাবেক তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।

তিনি বলেছেন, ‘একটি উসিলা তৈরি করার জন্য চক্রান্ত করা হয়েছিল। তারপর যে হামলাগুলো কুমিল্লাসহ বিভিন্ন স্থানে হয়েছে তারা পরিকল্পনা এবং প্রস্তুতি নিয়েই করেছে। সুতারাং আমরা একটি ধর্মান্ধ গোষ্ঠীর আক্রমণের শিকার হয়েছি।’

শনিবার (২৩ অক্টোবর) বিকালে কুমিল্লায় ক্ষতিগ্রস্ত পূজামণ্ডপ পরিদর্শন শেষে সার্কিট হাউজে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

প্রশাসনের গাফিলতির কথা উল্লেখ করে জাসদ সভাপতি বলেন, ‘তাদের ব্যর্থতা ও অদক্ষতা দুইটাই আছে। প্রশাসন সর্তক থাকলে এই হামলাও আটকাতে পারতো। তবে প্রশাসনের মধ্যে লুকিয়ে থাকা সাম্প্রদায়িক কর্মচারীদের উদ্দেশ্যমূলক নিষ্ক্রিয়তাও আমার কাছে মনে হচ্ছে। ফলে ঘটনা ঘটার সুযোগ করে দেওয়া হয়েছে। এটি ভালো লক্ষণ না। এই মুহূর্তে রাজনীতির মূল চ্যালেঞ্জ হচ্ছে পূজামণ্ডপে সংখ্যালঘুদের ওপর আর হামলা হবে না, এটাই অর্জন করা।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

নোয়াখালীতে পূজামণ্ডপ ভাঙচুর, ২৫ মামলায় গ্রেফতার ১৭৪

নোয়াখালীতে পূজামণ্ডপ ভাঙচুর, ২৫ মামলায় গ্রেফতার ১৭৪

এখন জামায়াতের অস্তিত্ব বলতে কিছু নেই: গয়েশ্বর

এখন জামায়াতের অস্তিত্ব বলতে কিছু নেই: গয়েশ্বর

‘মুসল্লিদের সংঘবদ্ধ করে’ পূজামণ্ডপে হামলাচেষ্টার স্বীকারোক্তি

‘মুসল্লিদের সংঘবদ্ধ করে’ পূজামণ্ডপে হামলাচেষ্টার স্বীকারোক্তি

শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে গ্রেফতার ১

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ২২:২৪

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থী এক শিশুকে (৯) অপহরণের পর ধর্ষণ করে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার সদর ইউনিয়নের ভক্তবাড়ী এলাকায় ঘটে এ ঘটনা। পুলিশ এ ঘটনায় শনিবার (২৩ অক্টোবর) দুপুরে অভিযুক্ত প্রধান আসামিকে গ্রেফতার করেছে।

এ ঘটনায় জড়িতদের শাস্তির দাবিতে রূপগঞ্জ থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ করেন এলাকাবাসী। পরে পুলিশ এলাকাবাসীকে বুঝিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে।

নিহত শিশুটির মা জানান, শুক্রবার সকাল ৬টার দিকে তার দুঃসম্পর্কের চাচা কাঞ্চন পৌরসভার কেন্দুয়া এলাকার মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে মোশারফ হোসেন তাদের বাড়িতে আসে। তাকে সকালের নাস্তা খাওয়ানোর জন্য তিনি খাবার রান্নাঘরে যান। সে সময় মোশারফ তার মেয়েকে দোকান থেকে চিপস কিনে দেওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে নিয়ে যায়। এরপর থেকে শিশুটি নিখোঁজ। বহু খোঁজাখুঁজির পর না পেয়ে রাতে শিশুটির মা রূপগঞ্জ থানায় অপরহরণের অভিযোগ এনে মোশারফসহ অজ্ঞাত চার জনকে আসামি করে রূপগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এদিকে, শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ভক্তবাড়ী এলাকায় মোশারফকে ঘুরতে দেখে এলাকাবাসী তাকে আটক করে পুলিশের কাছে সোর্পদ করে। পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করলে শিশুটিকে অপহরণের পর ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যা করে লাশ গুম করার উদ্দেশ্যে কাশবনে ফেলে রেখেছে বলে সে স্বীকার করে। পরে বিকালে জাঙ্গীর এলাকায় আনন্দ পুলিশ হাউজিং নামক এলাকার কাশবন থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করা হয়। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এ ব্যাপারে রূপগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) হুমায়ুন কবির মোল্লা বলেন, ‘শিশুটিকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে ঘাতক প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে। তার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।’

/এমএএ/

সম্পর্কিত

নোয়াখালীতে পূজামণ্ডপ ভাঙচুর, ২৫ মামলায় গ্রেফতার ১৭৪

নোয়াখালীতে পূজামণ্ডপ ভাঙচুর, ২৫ মামলায় গ্রেফতার ১৭৪

ফরিদপুরে নির্বাচনি সহিংসতায় যুবক নিহত, ৫০ বাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ

ফরিদপুরে নির্বাচনি সহিংসতায় যুবক নিহত, ৫০ বাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ

রোহিঙ্গা নেতা মুহিবুল্লাহ হত্যায় আজিজুলের দায় স্বীকার

রোহিঙ্গা নেতা মুহিবুল্লাহ হত্যায় আজিজুলের দায় স্বীকার

হেফাজতের সহিংসতার মামলায় বিএনপি নেতা রিমান্ডে

হেফাজতের সহিংসতার মামলায় বিএনপি নেতা রিমান্ডে

নোয়াখালীতে পূজামণ্ডপ ভাঙচুর, ২৫ মামলায় গ্রেফতার ১৭৪

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ২২:২২

নোয়াখালীতে পূজামণ্ডপ, মন্দির, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা-ভাঙচুর ও মৃত্যুর ঘটনায় এ পর্যন্ত ২৫টি মামলা করা হয়েছে। এসব মামলায় ৪০৯ জনকে এজাহারনামীয় ও সাত হাজার ৫০০ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে। সেই সঙ্গে ১৭৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর মধ্যে এজাহারনামীয় আসামি ৮৯ ও সন্দেহভাজন ৮৫ জন।

শনিবার (২৩ অক্টোবর) সন্ধ্যা ৬টায় জেলা পুলিশ সুপারের কনফারেন্স হলে সাংবাদিক সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়। 

পুলিশ জানায়, বেগমগঞ্জ থানার ১০ মামলায় এজাহারনামীয় আসামি ২১৯ জন। এর মধ্যে এজাহারনামীয় ৬৩ ও সন্দেহভাজন ৫৯ জনসহ ১২২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পাশাপাশি হাতিয়া থানার ১০টি মামলায় এজাহারনামীয় আসামি ১৬০ জন। এজাহারনামীয় ১২ জন ও সন্দেহভাজন ১৪ জনসহ ২৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সোনাইমুড়ি থানার একটি মামলায় এজাহারনামীয় আসামি ছয় জন। এজাহারনামীয় এক জন ও সন্দেহভাজন আটসহ নয় জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সেনবাগ থানার এক মামলায় এজাহারনামীয় আসামি ছয় জন। এজাহারনামীয় ছয় ও সন্দেহভাজন দুইসহ আট জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। কবিরহাট থানার এক মামলায় এজাহারনামীয় আসামি না থাকলেও সন্দেহভাজন দুই জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

কোম্পানীগঞ্জ থানায় এক মামলায় এজাহারনামীয় আসামি চার জন। এজাহারনামীয় একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। চাটখিল থানার এক মামলায় এজাহারনামীয় আসামি ১৪ জন। এর মধ্যে এজাহারনামীয় ছয় জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

জেলা পুলিশ সুপার মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, হামলা চলাকালীন ভিডিও ফুটেজ দেখে শনাক্ত করে আট জন ও জড়িত সন্দেহে পাঁচসহ ১৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। এ পর্যন্ত ১৭৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

/এএম/

সম্পর্কিত

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনা সাজানো: ইনু

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনা সাজানো: ইনু

শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে গ্রেফতার ১

শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে গ্রেফতার ১

এখন জামায়াতের অস্তিত্ব বলতে কিছু নেই: গয়েশ্বর

এখন জামায়াতের অস্তিত্ব বলতে কিছু নেই: গয়েশ্বর

‘মুসল্লিদের সংঘবদ্ধ করে’ পূজামণ্ডপে হামলাচেষ্টার স্বীকারোক্তি

‘মুসল্লিদের সংঘবদ্ধ করে’ পূজামণ্ডপে হামলাচেষ্টার স্বীকারোক্তি

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনা সাজানো: ইনু

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনা সাজানো: ইনু

নোয়াখালীতে পূজামণ্ডপ ভাঙচুর, ২৫ মামলায় গ্রেফতার ১৭৪

নোয়াখালীতে পূজামণ্ডপ ভাঙচুর, ২৫ মামলায় গ্রেফতার ১৭৪

এখন জামায়াতের অস্তিত্ব বলতে কিছু নেই: গয়েশ্বর

এখন জামায়াতের অস্তিত্ব বলতে কিছু নেই: গয়েশ্বর

‘মুসল্লিদের সংঘবদ্ধ করে’ পূজামণ্ডপে হামলাচেষ্টার স্বীকারোক্তি

‘মুসল্লিদের সংঘবদ্ধ করে’ পূজামণ্ডপে হামলাচেষ্টার স্বীকারোক্তি

পূজামণ্ডপে কোরআন যে রেখেছে সে ওসিকে খবর দিয়েছে: গয়েশ্বর

পূজামণ্ডপে কোরআন যে রেখেছে সে ওসিকে খবর দিয়েছে: গয়েশ্বর

মিতু হত্যা মামলায় এহতেশামুল হক ভোলার স্বীকারোক্তি

মিতু হত্যা মামলায় এহতেশামুল হক ভোলার স্বীকারোক্তি

মুহিবুল্লাহকে হত্যার নির্দেশ দিয়েছিল রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের শীর্ষ নেতারা

মুহিবুল্লাহকে হত্যার নির্দেশ দিয়েছিল রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের শীর্ষ নেতারা

জাতীয় পার্টিকে ভদ্রলোকের দলে পরিণত করতে চাই: বিদিশা

জাতীয় পার্টিকে ভদ্রলোকের দলে পরিণত করতে চাই: বিদিশা

কোরআন রেখে হনুমানের গদা নিয়ে পুকুরে ফেলে দেন ইকবাল

কোরআন রেখে হনুমানের গদা নিয়ে পুকুরে ফেলে দেন ইকবাল

সর্বশেষ

এটা প্রযোজনা সংস্থা নয়, অনন্যাকে তিরস্কার এনসিবির

এটা প্রযোজনা সংস্থা নয়, অনন্যাকে তিরস্কার এনসিবির

বাড্ডার আগুন নিয়ন্ত্রণে

বাড্ডার আগুন নিয়ন্ত্রণে

জাতিসংঘ দিবস আজ

জাতিসংঘ দিবস আজ

বিএফইউজের সভাপতি ওমর ফারুক ও মহাসচিব দীপ আজাদ

বিএফইউজের সভাপতি ওমর ফারুক ও মহাসচিব দীপ আজাদ

বাড্ডায় ফার্নিচার গোডাউনে আগুন

বাড্ডায় ফার্নিচার গোডাউনে আগুন

© 2021 Bangla Tribune