সেকশনস

সবসময় শাসন নয়

আপডেট : ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৮:৪৮

দীর্ঘদিন ধরেই গৃহবন্দি শিশুরা। স্কুলে যাওয়া, বন্ধুদের সঙ্গে খেলা- এগুলো বন্ধ। বাবা-মায়ের নজরদারিতে কাটছে দিনরাত। এছাড়া অনলাইন ক্লাস ও টাস্কের চাপ তো রয়েছেই। একটু নিজের মতো করে সময় কাটানোর কোনও সুযোগ নেই। সন্তানের মানসিক দিকটার ব্যাপারেও কিন্তু ভাবতে হবে আপনাকেই।


আপনি দুশ্চিন্তায় আছেন আর সন্তান দিব্যি ফুরফুরে আছে ব্যাপারটা কিন্তু এমন নয়। সেও নানান উদ্বেগে আছে। কবে স্কুল খুলবে, কবে বন্ধুবান্ধবের সঙ্গে দেখা হবে, কবে বন্দিদশা ঘুচবে ইত্যাদি। কাজেই ঘরে যেন সে আনন্দ পায় অথচ বেশি দুষ্টুমিও না করে সে দিকে খেয়াল রাখুন। সবসময় শাসন করবেন না, খানিকটা স্পেস দিন সন্তানকেও।

  • সন্তানের সঙ্গে আলোচনা করে মোটামুটি একটা রুটিন ঠিক করে নিন। সে কতক্ষণ পড়বে, কতক্ষণ টিভি দেখবে, গেম খেলবে আর কতক্ষণই বা আপনার কাজে সাহায্য করবে। একইভাবে, ঘুমতে যাওয়া, সকালে ওঠা, হালকা ব্যায়াম ও কোনও শখের চর্চা কখন কতক্ষণ ধরে করবে, তা ঠিক করে নিন। রুটিনের একটা কপি তার কাছে থাক, একটা আপনি রাখুন। খেয়াল রাখুন, সে রুটিন কতটা মানছে। অনিয়ম করলে দিনের শেষে মনে করান। এতে অশান্তি কমবে, সে নিজের দায়িত্ব নিতে শিখবে। শিখবে নিয়মানুবর্তিতা। সব সময় শাসন করতে থাকলে যা হওয়ার সম্ভাবনা একেবারেই নেই।
  • রুটিন মানতে ঢিলেমি করলে ধৈর্য ধরুন। সব সময় বকাঝকা না করে দিনের শেষে একবার মনে করিয়ে দিন। একটা সময় নিয়মে চলে আসবে সে।
  • যে দিন নিয়ম মানবে বা অনিয়ম কম করবে, সেদিন ওর পছন্দের কোনও খাবার বানিয়ে খাওয়াতে পারেন বা পছন্দের কোনও গেমের সুযোগ দিতে পারেন। এটা যে তার নিয়ম মানার পুরস্কার, তা ভালো করে বুঝিয়ে দেবেন। অর্থাৎ সে যেন বোঝে, নিয়ম মানলে পুরস্কার ও না মানলে তিরস্কার পাওয়াটাই নিয়ম।
  • তার কোনও বিশেষ দাবি-দাওয়া থাকলে, আগেই তা নস্যাৎ করে না দিয়ে মন দিয়ে শুনুন সে কী বলতে চায়। ভেবে দেখুন, তাতে কোনও ক্ষতি হবে কি না। না হলে ১০টার মধ্যে ৫-৭টা অন্তত মেনে নিন। তাহলে যেগুলো মানলেন না, তা নিয়ে আর তার অভিযোগ থাকবে না।
  • অন্যের সঙ্গে তুলনা করবেন না। এতে লাভ তো হয়ই না, বরং সন্তানের মানসিক স্বাস্থ্যের উপর বিরূপ প্রভাব পড়ে।  
/এনএ/

সম্পর্কিত

যেসব অভ্যাস আপনাকে তরুণ রাখবে দীর্ঘদিন

যেসব অভ্যাস আপনাকে তরুণ রাখবে দীর্ঘদিন

মোটরসাইকেলে আগ্রহ বেড়েছে নগরবাসীর

মোটরসাইকেলে আগ্রহ বেড়েছে নগরবাসীর

নতুন বছরে যেসব সংকল্প করবেন না মোটেই

নতুন বছরে যেসব সংকল্প করবেন না মোটেই

নতুন বছরের পরিকল্পনায় থাকুক এগুলো

নতুন বছরের পরিকল্পনায় থাকুক এগুলো

বাড়িতে থেকেই স্বাগত জানান নতুন বছরকে

বাড়িতে থেকেই স্বাগত জানান নতুন বছরকে

দিনাজপুরে দুই দিনব্যাপী পিঠা উৎসব

দিনাজপুরে দুই দিনব্যাপী পিঠা উৎসব

স্মৃতি ফামির ভার্চুয়াল রিয়েলিটি: অন্য এক বাস্তবতার গল্প

স্মৃতি ফামির ভার্চুয়াল রিয়েলিটি: অন্য এক বাস্তবতার গল্প

মাইক্রোগ্রিন মেটাবে সবুজের চাহিদা, আয়ের হাতছানিও আছে

মাইক্রোগ্রিন মেটাবে সবুজের চাহিদা, আয়ের হাতছানিও আছে

করোনা ঠেকাতে মাস্কের চেয়েও যা বেশি কাজ করবে

করোনা ঠেকাতে মাস্কের চেয়েও যা বেশি কাজ করবে

যাপিত জীবনে সেরা বাহন বাইক!

যাপিত জীবনে সেরা বাহন বাইক!

পাখিপ্রেমী চা দোকানি (ভিডিও)

পাখিপ্রেমী চা দোকানি (ভিডিও)

চুইঝালের চাষ বাড়ছে যশোরে

চুইঝালের চাষ বাড়ছে যশোরে

সর্বশেষ

ভারত কিছু ভ্যাক্সিন উপহার দেবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ভারত কিছু ভ্যাক্সিন উপহার দেবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে নেতার মামলা

অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে নেতার মামলা

বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়োগে নিষেধাজ্ঞা বাড়লো

বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়োগে নিষেধাজ্ঞা বাড়লো

জুভেন্টাসকে হারিয়ে বার্তা দিচ্ছে ইন্টার

জুভেন্টাসকে হারিয়ে বার্তা দিচ্ছে ইন্টার

বিক্ষোভে উত্তাল ফ্রান্স

বিক্ষোভে উত্তাল ফ্রান্স

গ্রামীণফোনের বিরুদ্ধে করা মামলার প্রতিবেদন ১৮ ফেব্রুয়ারি 

গ্রামীণফোনের বিরুদ্ধে করা মামলার প্রতিবেদন ১৮ ফেব্রুয়ারি 

১০ ঘণ্টা পর পাটুরিয়া-দৌলতদিয়ায় ফেরি চলাচল শুরু

১০ ঘণ্টা পর পাটুরিয়া-দৌলতদিয়ায় ফেরি চলাচল শুরু

বার্সার হারের দিনে ‘প্রথম’ লাল কার্ড মেসির

বার্সার হারের দিনে ‘প্রথম’ লাল কার্ড মেসির

শীতের পোশাকে ক্যাটস আই দিচ্ছে ৫০ শতাংশ ছাড়

শীতের পোশাকে ক্যাটস আই দিচ্ছে ৫০ শতাংশ ছাড়

ঢাকাই মসলিন ফিরল যে পথে

ঢাকাই মসলিন ফিরল যে পথে

অভিষেকের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই অভিবাসন নীতি বদলাবেন বাইডেন

অভিষেকের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই অভিবাসন নীতি বদলাবেন বাইডেন

বিমানবন্দরে সড়কে বাসচাপায় স্বামী-স্ত্রী নিহত

বিমানবন্দরে সড়কে বাসচাপায় স্বামী-স্ত্রী নিহত

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

যেসব অভ্যাস আপনাকে তরুণ রাখবে দীর্ঘদিন

যেসব অভ্যাস আপনাকে তরুণ রাখবে দীর্ঘদিন

মোটরসাইকেলে আগ্রহ বেড়েছে নগরবাসীর

মোটরসাইকেলে আগ্রহ বেড়েছে নগরবাসীর

নতুন বছরে যেসব সংকল্প করবেন না মোটেই

নতুন বছরে যেসব সংকল্প করবেন না মোটেই

নতুন বছরের পরিকল্পনায় থাকুক এগুলো

নতুন বছরের পরিকল্পনায় থাকুক এগুলো

বাড়িতে থেকেই স্বাগত জানান নতুন বছরকে

বাড়িতে থেকেই স্বাগত জানান নতুন বছরকে

দিনাজপুরে দুই দিনব্যাপী পিঠা উৎসব

দিনাজপুরে দুই দিনব্যাপী পিঠা উৎসব

স্মৃতি ফামির ভার্চুয়াল রিয়েলিটি: অন্য এক বাস্তবতার গল্প

স্মৃতি ফামির ভার্চুয়াল রিয়েলিটি: অন্য এক বাস্তবতার গল্প

মাইক্রোগ্রিন মেটাবে সবুজের চাহিদা, আয়ের হাতছানিও আছে

মাইক্রোগ্রিন মেটাবে সবুজের চাহিদা, আয়ের হাতছানিও আছে

করোনা ঠেকাতে মাস্কের চেয়েও যা বেশি কাজ করবে

করোনা ঠেকাতে মাস্কের চেয়েও যা বেশি কাজ করবে

যাপিত জীবনে সেরা বাহন বাইক!

যাপিত জীবনে সেরা বাহন বাইক!


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.