X
শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪
৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

রাষ্ট্রপতির এই সংলাপ অর্থহীন: মির্জা ফখরুল

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি
২৮ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯:৪৬আপডেট : ২৮ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯:৪৬

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, নির্বাচন কমিশন (ইসি) গঠনের জন্য রাষ্ট্রপতি বিভিন্ন রাজনৈতিক দলকে সংলাপের জন্য ডেকেছেন। রাষ্ট্রপতির এই সংলাপ অর্থহীন। কারণ এই সংলাপ গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে পারবে না। জনগণের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দিতে পারবে না। এই সরকার ক্ষমতায় থাকলে সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না। কাজেই এই সরকারের পদত্যাগের পর নিরপেক্ষ নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে হবে।

তিনি বলেন, জনগণকে আর বোকা ভাববেন না। ২০১৮ সালের নির্বাচনে আগের রাতে ভোট হয়ে গেছে। সকালে জনগণ কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারেনি। এর আগের নির্বাচনে ১৫৪ জন বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছিল। তখনও একটি সংলাপ করেছিল। এখন আবারও সংলাপের জন্য ডাকাডাকি করছেন রাষ্ট্রপতি। এই সংলাপ দিয়ে সমস্যার সমাধান হবে না। নির্বাচন কমিশন সমস্যা নয়, সমস্যা সরকারের ভেতরে। নির্বাচনকালীন সরকার কে হবে? নিরপেক্ষ সরকার থাকবে, নাকি শেখ হাসিনার সরকার থাকবে? যদি শেখ হাসিনার সরকার থাকে তাহলে নিরপেক্ষ নির্বাচন হবে না।

মঙ্গলবার (২৮ ডিসেম্বর) বিকাল ৩টায় মানিকগঞ্জ সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জেলা বিএনপি আয়োজিত সমাবেশে এসব কথা বলেন তিনি। দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে চিকিৎসার দাবিতে এই সমাবেশের আয়োজন করা হয়েছে।

জেলা বিএনপির সভাপতি আফরোজা খান রিতার সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের আহ্বায়ক আব্দুস সালাম, বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, যুবদলের সভাপতি সাইফুল ইসলাম নিরব, ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এসএ কবীর জিন্নাহ ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সত্যেন কান্ত পন্ডিত ভজন।

‘অবৈধ এই সরকার জনগণকে ভয় পায়’ মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, সরকারি বাহিনী দিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের তুলে নিয়ে গুম করে দিয়েছে সরকার। তাদের আজও খুঁজে পাওয়া যায়নি। এই সরকার গণতন্ত্র ধ্বংস করে দিয়েছে। মানুষের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়েছে। 

বিএনপির মহাসচিব বলেন, গণতন্ত্র রক্ষায় খালেদা জিয়া দেশের বিভিন্ন স্থানে ঘুরে বেড়িয়েছেন। গণতন্ত্র রক্ষার জন্য এখনও হাসপাতালের বেডে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে রয়েছেন। সারাদেশের মানুষের দাবি, খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য দেশের বাইরে পাঠানো হোক। কিন্তু এই দাবি সরকারের কানে যায় না। যদি খালেদা জিয়ার কিছু ঘটে, তবে এর দায় সরকারকেই নিতে হবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, এই সরকার দেশের সব সুন্দর ব্যবস্থাপনা ধ্বংস করে দিয়েছে। গণতন্ত্র, বিচার বিভাগ ও প্রশাসনিক ব্যবস্থা ধ্বংস করেছে। গুম, খুন, হত্যা ও অপহরণের মতো অনৈতিক কর্মকাণ্ডের কারণে আজ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে।

দেশের প্রথম নারী মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী হিসেবে খালেদা জিয়াকে সুচিকিৎসা দেওয়া এবং মুক্তির দাবি জানান মির্জা ফখরুল। তিনি বলেন, খালেদা জিয়াকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করুন। চিকিৎসার জন্য তাকে বিদেশে পাঠানো জরুরি। বিদেশে যেতে না দিয়ে বেগম জিয়াকে তিলে তিলে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে সরকার।

/এএম/
সম্পর্কিত
এই মুহূর্তে দেশের মানুষ সূক্ষ্ম সুশাসন-গণতন্ত্র চায় না:সাবেক পরিকল্পনামন্ত্রী
শিগগিরই আন্দোলন আরও বেগবান হবে: মির্জা ফখরুল
খালেদা জিয়ার নাইকো মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণ ২৩ জুলাই
সর্বশেষ খবর
সেই সুনেত্রা নেই
সেই সুনেত্রা নেই
ইউক্রেন ইস্যুতে বিশ্ব নেতাদের মনোযোগ আকর্ষণে সম্মেলন সফল হবে কি?
ইউক্রেন ইস্যুতে বিশ্ব নেতাদের মনোযোগ আকর্ষণে সম্মেলন সফল হবে কি?
মেট্রোরেল স্টেশনের ছাদে ড্রোন, তিন দিন পর উদ্ধার করলো ফায়ার সার্ভিস
মেট্রোরেল স্টেশনের ছাদে ড্রোন, তিন দিন পর উদ্ধার করলো ফায়ার সার্ভিস
এক হাটের পশু অন্য হাটে নিলে ব্যবস্থা, র‌্যাবের হুঁশিয়ারি
এক হাটের পশু অন্য হাটে নিলে ব্যবস্থা, র‌্যাবের হুঁশিয়ারি
সর্বাধিক পঠিত
ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণির মূল্যায়ন: যেসব নির্দেশনা দেওয়া হলো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে
ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণির মূল্যায়ন: যেসব নির্দেশনা দেওয়া হলো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে
শনিবার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ নাকি খোলা, সিদ্ধান্ত ঈদের পর
শনিবার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ নাকি খোলা, সিদ্ধান্ত ঈদের পর
কোটি টাকার গরু, ১৫ লাখের ছাগল এবং ‘ফুটানি’
কোটি টাকার গরু, ১৫ লাখের ছাগল এবং ‘ফুটানি’
এনবিআরের সাবেক কমিশনার ওয়াহিদা রহমানের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা
এনবিআরের সাবেক কমিশনার ওয়াহিদা রহমানের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা
হানিফ সংকেতের নাটক ‘ব্যবহার বিভ্রাট’
হানিফ সংকেতের নাটক ‘ব্যবহার বিভ্রাট’