X
মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪
৪ আষাঢ় ১৪৩১

মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তিকে নদীতে ফেলে হত্যার অভিযোগ

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি
১০ জুন ২০২৪, ১১:২৭আপডেট : ১০ জুন ২০২৪, ১১:২৭

মুন্সীগঞ্জ শহরের উপকণ্ঠ নয়াগাঁও এলাকায় ধলেশ্বরী নদী থেকে মানসিক ভারসাম্যহীন এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। অভিযোগ উঠেছে, স্থানীয় যুবক জুলহাস প্রধান ধাক্কা দিয়ে নদীতে ফেলে দিলে ডুবে গিয়ে তার মৃত্যু হয়।

রবিবার (৯ জুন) দুপুরে ফায়ার সার্ভিস ও নৌপুলিশের টিম নয়াগাঁও কাদিরা পাগলার মাজার সংলগ্ন ধলেশ্বরী নদী থেকে ওই ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করে।

জানা গেছে, নয়াগাঁও এলাকার কাদিরা পাগলার মাজারের আশেপাশে গত তিন ধরে অজ্ঞাত ভারসাম্যহীন ওই ব্যক্তির আনাগোনা দেখতে পান স্থানীয়রা। তাকে মাজারের পাশের বিভিন্ন দোকান ও নদীর ঘাটে বসে থাকতে দেখেছেন অনেকেই। আশেপাশের বাড়িঘর থেকে চেয়ে খাবারও সংগ্রহ করেছেন তিনি।

কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, রবিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মাজারের পাশে একটি দোকানে বসে নাশতা খান ওই ব্যক্তি। পরে মাজারসংলগ্ন জুলহাসের বাড়িতে যান তিনি। এক পর্যায়ে জুলহাস ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে টেনেহিঁচড়ে নদীর ঘাটে নিয়ে আসে এবং ধাক্কা দিয়ে নদীতে ফেলে দেয়।

প্রত্যক্ষদর্শী জজ মিয়া বলেন, ‘নিহত ব্যক্তি জুলহাসের বাড়িতে গেলে তাকে টেনেহিঁচড়ে নদীতে এনে তাকে ফেলে দেয়। তারপর সে কয়েকটি ডুব দিয়ে পানিতে তলিয়ে যায়। সেখানে কয়েকজন উপস্থিত ছিলেন, তারাও তাকে উদ্ধার করেনি। আমি দূর থেকে দেখছিলাম, সামনে আসতে আসতে সে নদীতে তলিয়ে যায়। তারপর ফায়ার সার্ভিসের খবর দিই। আমরা এই রকম ঘটনা যেন আর না ঘটে সেজন্য সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।’

অভিযুক্ত জুলহাসের মা রোকসানা বেগম বলেন, ‘মানসিক ভারসাম্যহীন ওই ব্যক্তি আমাদের সীমানাপ্রাচীর টপকে বাড়ির ভেতরে প্রবেশ করে। আমি ভয়ে ঘড়ের ভেতর চলে যাই। ছেলে জুলহাস ঘুম থেকে উঠে তাকে দেখে পানি দিলে সে পানি না খেয়ে উল্টো আমার ছেলেকে ইট ছুড়ে মারে। তারপর আমার ছেলে তাকে ধরে বাড়ি থেকে নিয়ে যায়। তারপর কী হয়েছে আমি সেটি দেখিনি। তবে আমার ছেলে তাকে পানিতে ফেলেনি। কারণ, তার সঙ্গে আমাদের কোনও ঝগড়া-বিবাদ নেই, তাকে কেন পানিতে ফেলবে?’

মুন্সীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের টিম লিডার মনিরুজ্জামান জানান, খবর পেয়ে তারা ঘটনাস্থলে আসেন। ঢাকা থেকে তাদের প্রশিক্ষিত ডুবুরি দুপুর ১টার দিকে তীর থেকে ৫০ ফিট দূরে নদী থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে মুন্সীগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার থান্ডার খায়রুল হাসান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘নয়াগাঁও মাজার সংলগ্ন ধলেশ্বরী নদী থেকে ভারসাম্যহীন এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ইতোমধ্যে আমরা মানসিক ভারসাম্যহীন একজনকে ধরে নিয়ে যাচ্ছে, এ রকম একটি ভিডিও ফুটেজ পেয়েছি। অন্য কোনও ঘটনা আছে কিনা সেটি উদ্ঘাটন করার চেষ্টা করছি। নৌপুলিশ আইনগত ব্যবস্থা নেবে, তাদের আমরা সার্বিকভাবে সাহায্য করছি। বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তবে নিহতের পরিচয় এখনও শনাক্ত করা যায়নি।’

ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছে জুলহাস প্রধান। সে ওই এলাকার সুলতান প্রধানের ছেলে।

/এমএএ/
সম্পর্কিত
সর্বশেষ খবর
কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণকে প্রতিযোগিতায় রূপান্তর করেছি: মেয়র তাপস
কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণকে প্রতিযোগিতায় রূপান্তর করেছি: মেয়র তাপস
ইসরায়েলের হাইফা শহরে নজরদারির দাবি হিজবুল্লাহ’র
ইসরায়েলের হাইফা শহরে নজরদারির দাবি হিজবুল্লাহ’র
উৎসবের আমেজ জাতীয় চিড়িয়াখানায়
উৎসবের আমেজ জাতীয় চিড়িয়াখানায়
বুধবার খুলছে অফিস আদালত, চলবে নতুন সময়সূচিতে
বুধবার খুলছে অফিস আদালত, চলবে নতুন সময়সূচিতে
সর্বাধিক পঠিত
তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ দ্বারপ্রান্তে, ভারতীয় জ্যোতিষের ভবিষ্যদ্বাণী
তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ দ্বারপ্রান্তে, ভারতীয় জ্যোতিষের ভবিষ্যদ্বাণী
মাংস কেনা-বেচার ঈদ মোহাম্মদপুরে
মাংস কেনা-বেচার ঈদ মোহাম্মদপুরে
বাড়ি ফিরে পেতে স্ত্রী-সন্তান নিয়ে ফুটপাতে দিদারুল
ঈদের দিনে অনশনবাড়ি ফিরে পেতে স্ত্রী-সন্তান নিয়ে ফুটপাতে দিদারুল
থমথমে ‘তুফান’, অন্তর্জালে ‘দরদ’ মুগ্ধতা
থমথমে ‘তুফান’, অন্তর্জালে ‘দরদ’ মুগ্ধতা
২৪ বছর পর রাষ্ট্রীয় সফরে উত্তর কোরিয়ায় পুতিন
২৪ বছর পর রাষ্ট্রীয় সফরে উত্তর কোরিয়ায় পুতিন