X
শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২
২৮ শ্রাবণ ১৪২৯

জিন হাজিরের কথা বলে একাধিক নারীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম
২০ এপ্রিল ২০২২, ২১:১৪আপডেট : ২১ এপ্রিল ২০২২, ০২:৩২

চট্টগ্রামে ‘তন্ত্রমন্ত্র দিয়ে জিন হাজিরের মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের’ কথা বলে অসহায় নারীদের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক ও অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে এক তান্ত্রিককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। 

মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) নগরীর হালিশহর থানার বৌবাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। বুধবার (২০ এপ্রিল) সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব-৭-এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নুরুল আবছার। 

গ্রেফতার ইব্রাহিম হোসেন (৪২) হালিশহর থানার মধ্যম রায়পুর এলাকার মৃত মৌলভী এরশাদ হোসেনের ছেলে। এ সময় তার কাছ থেকে বোতলভর্তি কথিত জিনসহ প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব জানায়, হালিশহর এলাকার বাসিন্দা মো. ফারহাদুল ইসলাম (১৯) দুই বছর ধরে মানসিক বিকারগ্রস্ত। বিভিন্ন স্থানে চিকিৎসা করানোর পরও সুফল পাননি। এক প্রতিবেশী তার স্বজনদের জানান, ইব্রাহিমের সঙ্গে যোগাযোগ করলে উপকার পাওয়া যাবে। প্রতিবেশীর কথায় স্বজনরা ইব্রাহিমের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি জানায় এই রোগের কবিরাজি চিকিৎসা আছে। তার বাসায় যেতে হবে। স্বজনরা বাসায় গেলে কিছু তাবিজ ও পানি পড়া দেয় ইব্রাহিম। পাশাপাশি বলে, ফারহাদুলের ভাগ্যে মূল্যবান গুপ্তধন আছে। ইব্রাহিম তা উদ্ধার করে দেবে। এজন্য কিছু টাকা খরচ করতে হবে এবং কিছু সরঞ্জাম কিনতে হবে। তার কথা বিশ্বাস করে দুই লাখ টাকা দেন স্বজনরা।

এরপর গুপ্তধন উদ্ধারের কথা বলে সময়ক্ষেপণ করে। কিছুদিন পর জানায়, গুপ্তধন উদ্ধারে আরও টাকা লাগবে। পরে ফারহাদুলের মা আরও দেড় লাখ টাকা দেন। এরপর ফারহাদুলের বাড়ির পাশের একটি খোলা মাঠ থেকে মাটি খনন করে পিতলের তালা ও মূর্তি উদ্ধার করে বলে গুপ্তধন পাওয়া গেছে। সেই সঙ্গে জানায়, আরও দেড় লাখ টাকা নিয়ে আসেন। দুই দিনের মধ্যে আরও গুপ্তধন বের করে দেবো। এভাবে ওই পরিবারের কাছ থেকে পাঁচ লাখ ৯০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় ইব্রাহিম। এরপরও গুপ্তধন না দেওয়ায় মঙ্গলবার তার কাছ পাঁচ লাখ ৯০ হাজার টাকা ফেরত চায় ফারহাদুলের পরিবার। তখন ইব্রাহিম তাদের বেঁধে রাখার জন্য লোকজন ডাকে। সেই সঙ্গে আধ্যাত্মিক ক্ষমতা দিয়ে ধ্বংস করে দেওয়ার হুমকি দেয়। তখন র‌্যাবকে বিষয়টি জানান স্বজনরা। খবর পেয়ে ইব্রাহিমকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।

নুরুল আবছার বলেন, ‘ইব্রাহিম জিজ্ঞাসাবাদে জানায় ভুয়া কবিরাজ। তাবিজ ও পানি পড়াসহ বিভিন্ন কৌশলে মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিল। বিভিন্ন সময়ে তন্ত্রমন্ত্র দিয়ে সমস্যা সমাধানের কথা বলে অসহায় নারীদের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করেছে। আসলে তন্ত্রমন্ত্র ও কবিরাজির কিছুই জানে না ইব্রাহিম।’

হালিশহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘ইব্রাহিমকে থানায় হস্তান্তর করেছে র‌্যাব। তার বিরুদ্ধে প্রতারণার শিকার পরিবার মামলা করেছে। বুধবার দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।’

/এএম/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
বঙ্গবন্ধুর ঘাতকরা যে পরিকল্পনা করেছিল
বঙ্গবন্ধুর ঘাতকরা যে পরিকল্পনা করেছিল
ডুবন্ত ডাকঘরকে জাগ্রত করতে কাজ করছি: মন্ত্রী
ডুবন্ত ডাকঘরকে জাগ্রত করতে কাজ করছি: মন্ত্রী
নাটকীয় বিয়ের পর ধর্ষণের অভিযোগে মামলা
নাটকীয় বিয়ের পর ধর্ষণের অভিযোগে মামলা
স্বাচিপ নেতার পদায়ন, চিকিৎসা বন্ধ রেখে হাসপাতালে ভূরিভোজের আয়োজন
স্বাচিপ নেতার পদায়ন, চিকিৎসা বন্ধ রেখে হাসপাতালে ভূরিভোজের আয়োজন
এ বিভাগের সর্বশেষ
স্ত্রীকে হত্যার ১০ বছর পর স্বামীর মৃত্যুদণ্ড
স্ত্রীকে হত্যার ১০ বছর পর স্বামীর মৃত্যুদণ্ড
৪৬ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে নিহত ছাত্রদল নেতার স্ত্রীর মামলা
ভোলায় সংঘর্ষ৪৬ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে নিহত ছাত্রদল নেতার স্ত্রীর মামলা
বিদ্যালয়ের আবাসিক ভবনে শিক্ষার্থীকে হত্যা, ৪ শিক্ষক কারাগারে
বিদ্যালয়ের আবাসিক ভবনে শিক্ষার্থীকে হত্যা, ৪ শিক্ষক কারাগারে
বাসে ডাকাতি ও ধর্ষণ: আরও ২ জনের স্বীকারোক্তি
বাসে ডাকাতি ও ধর্ষণ: আরও ২ জনের স্বীকারোক্তি
ধর্ষণ মামলার পর উপজেলা ছাত্রলীগের সা. সম্পাদককে বহিষ্কার
ধর্ষণ মামলার পর উপজেলা ছাত্রলীগের সা. সম্পাদককে বহিষ্কার