X
শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২
১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

রহিমা বেগম অপহরণ মামলায় গ্রেফতার ৪ জনের জামিন

খুলনা প্রতিনিধি
০৪ অক্টোবর ২০২২, ১৪:৪০আপডেট : ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১৪:৪৫

খুলনার আলোচিত রহিমা বেগম অপহরণ মামলায় গ্রেফতার চার আসামির জামিন আবেদন মঞ্জুর করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) দুপুরে খুলনা মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক মাহমুদা বেগম শুনানি শেষে তদের জামিন দেন। 

জামিনপ্রাপ্তরা হলেন—মোহাম্মদ মহিউদ্দিন, গোলাম কিবরিয়া, মো. জুয়েল ও রফিকুল ইসলাম পলাশ। এ মামলার আরও দুই আসামি হেলাল শরীফ ও রহিমার বেগমের স্বামী বেলাল ঘটক বর্তমানে কারাগারে আছেন।

পিবিআই খুলনার পুলিশ সুপার (এসপি) সৈয়দ মুশফিকুর রহমান জানান, রহিমা বেগম অপহরণ মামলায় গ্রেফতা ছয় জনের মধ্যে পাঁচ জনের পক্ষে জামিন আবেদন করা হয়েছিল। কুয়েটের সহকারী প্রকৌশলী গোলাম কিবরিয়া, তার ভাই মো. মহিউদ্দিন, প্রতিবেশী রফিকুল আলম পলাশ ও জুয়েলের জামিন আদালত মঞ্জুর করেছেন। বেলাল ঘটকের পক্ষেও জামিন করা হয়েছিল। কিন্তু আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করেছেন। এই মামলায় রিমান্ড আবেদনের ওপর শুনানি হয়নি। 

তিনি আরও জানান, অপহরণ মামলায় গ্রেফতার হওয়া হেলাল শরীফ সিএমএম আদালতের আওতায় রয়েছেন। তাই তার জামিনের বিষয়ে এখনও কোনও শুনানি হয়নি।

হেলাল শরীফের স্ত্রী মনিরা আক্তার বলেন, ‘আমার স্বামীর কাগজপত্র সিএমএম আদালতে রয়েছে। তার জামিনের বিষয়ে ৬ অক্টোবর শুনানি হতে পারে।’

উল্লেখ্য, ২৭ আগস্ট রাত সাড়ে ১০টার দিকে পানি আনতে বাড়ি থেকে নিচে নামেন রাহিমা বেগম (৫২)। ঘণ্টা পার হলেও তিনি বাসায় ফিরে আসেন না। পরে মায়ের খোঁজে সন্তানরা সেখানে গিয়ে তার ব্যবহৃত স্যান্ডেল, ওড়না ও কলস রাস্তার ওপর পড়ে থাকতে দেখেন। সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজাখুঁজির পরও তাকে পান না। এরপর সাধারণ ডায়েরি ও পরে কয়েকজনের নাম উল্লেখ করে দৌলতপুর থানায় মামলা করেন তারা। 

মামলার তদন্তকালে পুলিশ ও র‌্যাব ১২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৬ জনকে গ্রেফতার করে। বাদীর আবেদনের প্রেক্ষিতে ১৪ সেপ্টেম্বর আদালত মামলাটির তদন্তভার পিবিআইতে পাঠানো আদেশ দেন। এরপর প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করে নথিপত্র ১৭ সেপ্টেম্বর বুঝে নেয় পিবিআই খুলনা। এখন এই মামলার তদন্ত করছেন পিবিআই পরিদর্শক আব্দুল মান্নান। 

ফরিদপুরের বোয়ালমারি উপজেলার সৈয়দপুর থেকে গত ২৪ সেপ্টেম্বর রাতে রহিমা বেগমকে জীবিত উদ্ধার করে পুলিশ। ২৫ সেপ্টেম্বর বিকালে আদালতে সোপর্দ করা হলে তিনি ২২ ধারার জবানবন্দিতে ‘অপহরণ’ হয়েছিলেন বলে দাবি করেন। এরপর সন্ধ্যায় আদালত বাদী আদুরীর জিম্মায় তাকে মুক্তি দেন। এরপর ওই রাতেই মেয়ে মরিয়ম ও আদুরী তাদের মাকে নিয়ে ঢাকায় চলে যান। ঢাকায় রহিমা বেগমের চিকিৎসা চলছে।

/এসএইচ/
ছেলেকে ঘরে থাকতে বলে ফিরতে পারলেন না রুবিনা
ছেলেকে ঘরে থাকতে বলে ফিরতে পারলেন না রুবিনা
বাংলাদেশের উন্নয়ন ও বিনিয়োগ সম্ভাবনা নিয়ে প্রচার চালাবে সিএনএন
এফবিসিসিআইয়ের সমঝোতা চুক্তি সইবাংলাদেশের উন্নয়ন ও বিনিয়োগ সম্ভাবনা নিয়ে প্রচার চালাবে সিএনএন
কেএসআরএম অষ্টম গলফ টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত
কেএসআরএম অষ্টম গলফ টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত
আ.লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১২ 
আ.লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১২ 
সর্বাধিক পঠিত
রিমান্ডে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছে আবিরের মা-বাবা
আয়াত হত্যারিমান্ডে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছে আবিরের মা-বাবা
শাহবাগে প্রাইভেটকারের ধাক্কায় মৃত্যু দুর্ঘটনা নয়, হত্যাকাণ্ড: রমনা ডিসি
শাহবাগে প্রাইভেটকারের ধাক্কায় মৃত্যু দুর্ঘটনা নয়, হত্যাকাণ্ড: রমনা ডিসি
আকাশছুঁই পারিশ্রমিক হাঁকছেন রাজ, দিলেন ব্যাখ্যা
আকাশছুঁই পারিশ্রমিক হাঁকছেন রাজ, দিলেন ব্যাখ্যা
চট্টগ্রামে ৩০ প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
চট্টগ্রামে ৩০ প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
ব্রাজিলকে হারিয়ে দিলো ক্যামেরুন
ব্রাজিলকে হারিয়ে দিলো ক্যামেরুন