ঢাকা মেডিক্যালে যোগ দেওয়া হলো না ডা. আদিলের

Send
লালমনিরহাট প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২৩:৫৪, জুলাই ০৯, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০০:০৫, জুলাই ১০, ২০২০

ডা. আ.ফ.ম গোলাম আম্বিয়া আদিল

আগামী ১২ জুলাই রবিবার যোগ দেওয়ার কথা ছিল ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক)। সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছিল। কর্মজীবী স্ত্রীর সঙ্গে তার কর্মস্থলে গিয়ে দেখাও করে এসেছিলেন। কিন্তু, স্বপ্নপূরণ হওয়ার আগেই নিভে গেলো ডা. আ.ফ.ম গোলাম আম্বিয়া আদিলের। মহাসড়কে ইজিবাইকের সঙ্গে মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে প্রাণ হারালেন এই তরুণ চিকিৎসক। বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৩টায় আদিতমারী বুড়িরবাজারে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

ডা. আদিল জেলার আদিতমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ছিলেন। সেখান থেকেই ঢাকা মেডিক্যাল কলেজে উচ্চতর পড়াশোনা শেষ করেন। এরপর ঢামেক হাসপাতালে যোগ দেওয়ার কথা ছিল তার। এ দুর্ঘটনার খবরে শোকের ছায়া নেমে এসেছে জেলার চিকিৎসক মহলে।

নিহত ডা. আদিল লালমনিরহাট সদর উপজেলার খাতাপাড়া এলাকার প্রয়াত এনজিও কর্মকর্তা আ.ফ.ম আমজাদ হোসেনের ছেলে।

নিহত আদিলের ভগ্নিপতি লালমনিরহাটের সাঁকোয়া মঞ্জিল স্কুল ও কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল হাকিম বলেন, ডা. আম্বিয়ার স্ত্রী মামুনা আক্তার সৈয়দপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চাকরিরত। গত মঙ্গলবার (৭ জুলাই) স্ত্রীর কাছে গিয়ে আজ বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) সকালে রংপুর হয়ে এক বন্ধুর মোটরসাইকেলে চেপে বাড়ি ফিরছিলেন তিনি। আদিতমারী উপজেলার বুড়িরবাজারে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা দুটি ইজিবাইক হুট করে প্রতিযোগিতা লাগালে একটি ইজিবাইকের সঙ্গে তাদের মোটর সাইকেলের ধাক্কা লাগে। মোটরসাইকেলচালক আদিলের বন্ধু ইউসুফ আলী অক্ষত থাকলেও মুখে ও মাথায় আঘাত পেয়ে গুরুতর আহত হন আদিল। আদিতমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

আদিতমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিক্যাল অফিসার ডা. মো. নুরুল আমিন বলেন, ডা. আদিলকে হাসপাতালে নিয়ে আসার আগেই পথে তার মৃত্যু হয়েছে। এই ঘটনায় আমরা চিকিৎসক পরিবার শোকাবহ।

আদিল দুই বোনের একমাত্র আদরের ছোট ভাই ছিলেন। তার মৃত্যুতে বৃদ্ধা মা আফরোজা বেগম বার বার মূর্ছা যাচ্ছিলেন। এসময় আশপাশে শোকের ছায়া নেমে আসে।

লালমনিরহাট জেলার সিভিল সার্জন ডা. নির্মলেন্দু রায় এ ঘটনায় শোক প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, গত ৩৩তম বিসিএসে মেডিক্যাল অফিসার হিসেবে নিয়োগ পেয়ে আ.ফ.ম গোলাম আম্বিয়া আদিল ২০১৪ সালে জেলার আদিতমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যোগদান করেন। ২০১৮ সালে তিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে মেডিসিন বিভাগে উচ্চতর ডিগ্রির জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পড়ালেখা করছিলেন। তিনি এমডি প্রথম পর্ব ফাইনাল পরীক্ষার পর থেকে ছুটিতে নিজ গ্রামের বাড়ি লালমনিরহাট সদর উপজেলার খাতাপাড়া এলাকায় ছিলেন। আগামী ১২ জুলাই রবিবার তার ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসাপাতালে যোগদান করার কথা ছিল। 

আদিতমারী থানার ওসি সাইফুল ইসলাম বলেন, লালমনিরহাট থেকে ছেড়ে আসা দুইটি ইজিবাইক বুড়িবাজারে পৌঁছালে ওই দুই ইজিবাইকের মাঝামাঝি ঢুকে পড়ে চিকিৎসক আদিলকে বহনকারী লালমনিরহাটগামী একটি মোটরসাইকেল। আদিল বাম দিকে মুখে ও মাথায় সজোরে ধাক্কা পেয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান। মোটরসাইকেল চালক ইউসুফ আলী সামান্য আঘাত পান। স্থানীয় লোকজন তাদেরকে উদ্ধার করে দ্রুত আদিতমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে আদিলকে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে।

তিনি আরও বলেন, এই ঘটনায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে। লালমনিরহাট জেলার সিভিল সার্জনের কাছে মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে।                                    

/টিএন/

লাইভ

টপ