চিকিৎসার অভাবে মারা গেলো উট পাখিটি

Send
কুমিল্লা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০৯:০৩, আগস্ট ১১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৯:১০, আগস্ট ১১, ২০২০

মারা যাওয়া উট পাখিটি



চিকিৎসার অভাবে কুমিল্লার লালমাইয়ে ১২০ কেজি ওজনের একটি উট পাখি মারা গেছে বলে অভিযোগ করেছেন এক খামার মালিক। উপজেলার বরল গ্রামের আহসান উল্লার খামারে রবিবার (৯ আগস্ট) রাতে পাখিটি মারা যায়।  পাখিটির বাজার মূল্য ছিল প্রায় চার লাখ টাকা।

জানা যায়, প্রায় আড়াই বছর আগে আহসান উল্লাহ শখের বসে সাড়ে চার লাখ টাকা দিয়ে ৩ জোড়া উট পাখি কিনে খামার শুরু করেন। এক বছরের মাঝে দুই জোড়া উট পাখি মারা যায়। বেঁচে থাকা এক জোড়া বড় হয়ে ডিম পাড়ার উপযুক্ত হয়। হঠাৎ শুক্রবার (৭ আগস্ট) থেকে একটি উট পাখির জ্বর হয় এবং একইসঙ্গে সেটি খাওয়া-দাওয়া বন্ধ করে দেয়।

খামার মালিক আহসান উল্লাহ উট পাখিটির চিকিৎসার জন্য স্থানীয় লালমাই উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা আরিফুর রহমানের সঙ্গে মোবাইলে যোগাযোগ করলে তিনি ব্যস্ততার কথা বলে পাখিটিকে দেখতে আসেননি। এক পর্যায়ে পাখিটি চরম অসুস্থতা রবিবার রাতে মারা যায়। 

সেই উট পাখিটি
আহসান উল্লাহ বলেন, ‘২০১৭ সালে ইউটিউবে উট পাখি পালনের ভিডিও দেখে আমি এ পাখি পালনে উৎসাহী হই। এরপর নি ৩ জোড়া উট পাখি দিয়ে খামার শুরু করি। এটা সফল হলে খামার বড় করার পরিকল্পনা ছিল। বর্তমানে আমি পুঁজি হারিয়ে হতাশায় ভুগছি।’ 
প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা আরিফুর রহমানের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘উট পাখির মালিক আমাকে বিষয়টি জানিয়েছিল। কিন্তু সাপ্তাহিক বন্ধ এবং সরকারি কাজে ব্যস্ত থাকায় যেতে পারিনি। তবে পাশ্ববর্তী উপজেলা থেকে ডাক্তার পাঠিয়েছিলাম।’

 

/এসটি/

লাইভ

টপ