সিলেট থেকে জঙ্গি সন্দেহে গ্রেফতারদের ২ জন শাবি শিক্ষার্থী

Send
শাবি প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২৩:০৪, আগস্ট ১১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:১৫, আগস্ট ১১, ২০২০

 




জঙ্গি সন্দেহে সিলেট থেকে গ্রেফতার পাঁচ জনের দুই জন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবি) শিক্ষার্থী। তারা নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন নব্য জেএমবির সদস্য বলে ধারণা করছে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিট। মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) বিকালে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইমের (সিটিটিসি) উপকমিশনার সাইফুল ইসলাম এসব তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘সিলেটে আমাদের একটি টিম গেছে। তাদের গ্রেফতার করে ঢাকায় আনার ব্যবস্থা করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের পর বিস্তারিত বিষয় নিশ্চিত করে বলা হবে।’

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গ্রেফতারদের মধ্যে নাইমুজ্জামান ও সাদি নামে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্র রয়েছে। এর মধ্যে নাইমুজ্জামান বিশ্ববিদ্যালয়ের পলিটিক্যাল স্টাডিজ বিভাগের ২০১৩-১৪ সেশনের শিক্ষার্থী ও সাদি পরিসংখ্যান বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে। নাইমুজ্জামান নব্য জেএমবি সিলেটের আঞ্চলিক কমান্ডার বলে দাবি করেছে পুলিশ।

এদিকে গ্রেফতার নাইমুজ্জামানের বিষয়ে পলিটিক্যাল স্টাডিজ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, তিনি পলিটিক্যাল স্টাডিজ বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী হলেও সে ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের সঙ্গে অনার্স শেষ করে। সে আর মাস্টার্সে ভর্তি হয়নি। এছাড়া তার মধ্যে অনার্সে শেষের দিকে দাড়ি রাখাসহ হঠাৎ বেশকিছু পরিবর্তন আসে।

বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. জায়েদা শারমীন বলেন, 'সে আমাদের ছাত্র ছিল। আমাদের বিভাগ থেকেই অনার্স শেষ করেছ। তবে আর মাস্টার্সে ভর্তি হয়নি।'

এমনকি নাইমুজ্জামান ক্লাসে বেশি উপস্থিত থাকতো না এবং বেশ অনিয়মিত ছাত্র ছিল বলে জানিয়েছেন পলিটিক্যাল স্টাডিজ বিভাগের সাবেক প্রধান অধ্যাপক ড. হাসান জাকিরুল ইসলাম।

অপরদিকে 'পরিসংখ্যান বিভাগের চতুর্থ বর্ষে সাদি নামের কোনও শিক্ষার্থী নেই' উল্লেখ করে অত্র বিভাগের একাধিক শিক্ষার্থী বলেন, 'আমরাও এ বিষয়ে খোঁজ নিয়েছি। আমাদের বিভাগে চতুর্থ বর্ষে সাদি নামের কোনও শিক্ষার্থী নেই। তবে সাদি ছদ্মনামে কেউ আছে কিনা আমাদের জানা নেই।'

সাদির বিষয়ে পরিসংখ্যান বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. আহমেদ কবির চৌধুরী বলেন, 'আমি এ বিষয়ে কিছু জানি না। আমি বিভাগের শিক্ষকদের থেকে শুনেছি এ নামে একজনকে আটক করেছে। তবে আমার বিভাগের শিক্ষার্থী কিনা তারা খোঁজ চলছে।'

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মুহাম্মদ ইশফাকুল হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘আমরা এখনও এ বিষয়ে কিছু জানি না।’

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) ভোর পর্যন্ত সিলেট শহর ও শহরতলীর বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে জঙ্গি সন্দেহে পাঁচ সদস্যকে আটক করা হয়। তাদের মধ্যে নাইমুজ্জামান ও সাদি শাবি শিক্ষার্থী। আরেকজন সিলেটের মদনমোহন কলেজের সায়েম নামক এক শিক্ষার্থী। এছাড়া বাকি দুই জনের বিষয়ে কোনও তথ্য এখনও জানা যায়নি।

/টিটি/

লাইভ

টপ