X
রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২
১০ আশ্বিন ১৪২৯

ক্ষেতে এসএসসি পরীক্ষার্থীর লাশ: গ্রেফতার ২

বগুড়া প্রতিনিধি
১০ আগস্ট ২০২২, ১৭:২৮আপডেট : ১০ আগস্ট ২০২২, ১৭:২৮

বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলায় ফাহিম ফয়সাল শিশির (১৬) নামে এক এসএসসি পরীক্ষার্থীকে ছুরিকাঘাতে হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত দুই জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৯ আগস্ট) রাতে তাদের গ্রেফতার করে পুলিশ। 

ফাহিম শাজাহানপুর উপজেলার সাজাপুর ফকিরপাড়ার শাহাদত হোসেন সাজু মিয়ার ছেলে। সে স্থানীয় সুলতানগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিল। 

পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার সকালে বাড়ির কাছে সাজাপুর পশ্চিমপাড়ায় একটি কচুক্ষেত থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়। এ সময় তার মোবাইল ফোন পেটের উপর রাখা ছিল। শরীরে জলন্ত সিগারেটের ছ্যাকা দেওয়ার দাগ ছিল। লাশ উদ্ধারের পর রাতে ফাহিমের মা শাপলা বেগম শাজাহানপুর থানায় দুই জনের নাম উল্লেখ করে সাতজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। রাতেই ফাহিমের এক ‌‘বন্ধু’ ও তার সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার (১১ জুলাই) দুপুরে তাদের পাঁচ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও নিহতের স্বজনরা জানান, আট বছর আগে ফাহিমের মা-বাবার বিচ্ছেদ হয়। এর পর থেকে একই গ্রামে মা শাপলা বেগমের কাছে থাকতো। মাঝে মাঝে বাবার বাড়িতেও যেতো। আশুরা উপলক্ষে গত সোমবার রাতে সাজাপুর ফুলতলা মাদ্রাসায় মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। বন্ধুদের সঙ্গে ওই মিলাদ মাহফিলে যায় ফাহিম। রাত সাড়ে ১১টায় মিলাদ শেষে সবাই বাড়ি ফিরলেও তাকে পাওয়া যাচ্ছিল না। সকালে বাড়ির কাছে সাজাপুর পশ্চিমপাড়ায় একটি কচুক্ষেতে রক্তাক্ত লাশ পড়ে থাকতে দেখা যায়।

শাজাহানপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল্লাহ মামুন জানান, সুরতহালে শরীরে দেখা দাগগুলো ছুরিকাঘাতের মনে হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত হওয়া যাবে। এ ঘটনায় করা মামলার এজাহারে পূর্ব বিরোধের জের ধরে হত্যার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। এরপর দুই জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আজ দুপুরে তাদের আদালতে হাজির করে পাঁচদিন করে রিমান্ড চাওয়া হয়েছে। বিকালে এ খবর পাঠানো পর্যন্ত আদালত কোনও সিদ্ধান্ত দেননি।

/এসএইচ/
সম্পর্কিত
ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে স্কুলছাত্রীকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করেছে গৃহশিক্ষক
আদালতে জবানবন্দিধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে স্কুলছাত্রীকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করেছে গৃহশিক্ষক
ডিজে দম্পতি ‘হত্যাকাণ্ডের’ ৪ বছর পর আসামিদের স্বীকারোক্তি
ডিজে দম্পতি ‘হত্যাকাণ্ডের’ ৪ বছর পর আসামিদের স্বীকারোক্তি
স্বামী-শ্বশুরের নির্যাতনের বর্ণনা দেওয়ার পর গৃহবধূর মৃত্যু
স্বামী-শ্বশুরের নির্যাতনের বর্ণনা দেওয়ার পর গৃহবধূর মৃত্যু
ভগ্নিপতিকে হত্যার অভিযোগে শ্যালক আটক
ভগ্নিপতিকে হত্যার অভিযোগে শ্যালক আটক
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
অপারেশন থিয়েটারে ২ চিকিৎসকের হাতাহাতি 
অপারেশন থিয়েটারে ২ চিকিৎসকের হাতাহাতি 
শুরুতে সাজঘরে সাব্বির-লিটন
শুরুতে সাজঘরে সাব্বির-লিটন
‘ডায়বেটিস আক্রান্তদের বছরে একবার রেটিনা পরীক্ষা দরকার'
‘ডায়বেটিস আক্রান্তদের বছরে একবার রেটিনা পরীক্ষা দরকার'
ইভিএমে রাতে ভোট দেওয়ার সুযোগ নেই: কমিশনার আলমগীর
ইভিএমে রাতে ভোট দেওয়ার সুযোগ নেই: কমিশনার আলমগীর
এ বিভাগের সর্বশেষ
ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে স্কুলছাত্রীকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করেছে গৃহশিক্ষক
আদালতে জবানবন্দিধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে স্কুলছাত্রীকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করেছে গৃহশিক্ষক
স্বামী-শ্বশুরের নির্যাতনের বর্ণনা দেওয়ার পর গৃহবধূর মৃত্যু
স্বামী-শ্বশুরের নির্যাতনের বর্ণনা দেওয়ার পর গৃহবধূর মৃত্যু
ভগ্নিপতিকে হত্যার অভিযোগে শ্যালক আটক
ভগ্নিপতিকে হত্যার অভিযোগে শ্যালক আটক
তালাবদ্ধ ঘরে বৃদ্ধ দম্পতির হাত-মুখ বাঁধা লাশ
তালাবদ্ধ ঘরে বৃদ্ধ দম্পতির হাত-মুখ বাঁধা লাশ
নানাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ, নাতি পলাতক
নানাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ, নাতি পলাতক