X
রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪
৮ বৈশাখ ১৪৩১

এক কেন্দ্র থেকে আট মাদ্রাসার ৫৯ ভুয়া পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার, মামলার প্রস্তুতি

রাজশাহী প্রতিনিধি
২০ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৮:৫৪আপডেট : ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৮:৫৮

নওগাঁর সাপাহারের সরফতুল্লাহ ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্র থেকে মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) সকালে আরবি ২য় পত্র পরীক্ষা চলাকালে ৫৯ জন ভুয়া দাখিল পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে। প্রথমে তাদের আটক করা হলেও পরে তাদের বয়স ১৮ বছরের নিচে হওয়ায় অভিভাবকদের জিম্মায় মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়। ওই মাদ্রাসাগুলোর প্রধানদের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ভুয়া শিক্ষার্থী দিয়ে পরীক্ষা দেওয়া মাদ্রাসাগুলো হলো- সাপাহারের সিমুলডাঙা দাখিল মাদ্রাসা (সদ্য এমপিওভুক্ত), মানিকুড়া দাখিল মাদ্রাসা (সদ্য এমপিওভুক্ত), বলদিয়াঘাট দাখিল মাদ্রাসা (সদ্য এমপিওভুক্ত), পলাশডাঙা দাখিল মাদ্রাসা, দেওপাড়া দাখিল মাদ্রাসা, আলাদিপুর দাখিল মাদ্রাসা, তুলসিপাড়া দাখিল মাদ্রাসা ও আন্ধারদীঘি দাখিল মাদ্রাসা। এর মধ্যে সদ্য এমপিওভুক্ত মাদ্রাসা তিনটি এবং ননএমপিওভুক্ত মাদ্রাসা পাঁচটি।

কেন্দ্র সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার সকালে আররি ২য় পত্রের পরীক্ষা চলাকালে সেখানে ভুয়া পরীক্ষার্থী চিহ্নিতের নির্দেশ দেন কেন্দ্র সচিব। পরে কক্ষ পরিদর্শকরা খাতায় স্বাক্ষর নেওয়ার সময় বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে সচিবকে জানান। সেই তথ্যের ভিত্তিতে তাৎক্ষণিকভাবে কেন্দ্র সচিব উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানালে তিনি কেন্দ্রে অভিযান চালান। এ সময় শিক্ষার্থীদের প্রবেশপত্র, রেজিস্ট্রেশন কার্ড, ছবিসহ প্রয়োজনীয় সবকিছু যাচাই-বাছাই করেন। যাচাই-বাছাই শেষে ৫৯ জন ভুয়া পরীক্ষার্থীকে শনাক্ত করেন।

এই কেন্দ্রে ৪০টি মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা দিচ্ছে। এখানে ৮৯৮ জন পরীক্ষার্থী দাখিল পরীক্ষা দিচ্ছে। এর মধ্যে সিমুলডাঙা দাখিল মাদ্রাসা থেকে ১১, পলাশডাঙা দাখিল মাদ্রাসা থেকে ৮, দেওপাড়া সিংপাড়া দাখিল মাদ্রাসা থেকে ৩, আলাদিপুর দাখিল মাদ্রাসা থেকে ১, তুলসিপাড়া দাখিল মাদ্রাসা থেকে ১৪, বলদিয়াঘাট দাখিল মাদ্রাসা থেকে ২, আন্ধারদীঘি দাখিল মাদ্রাসা থেকে ১৭, মানিকুড়া দাখিল মাদ্রাসা থেকে ৩ জন ভুয়া পরীক্ষার্থী কেন্দ্রে পরীক্ষা দিচ্ছিলো। পরে তাদের ছেড়ে দিলেও প্রকৃত পরীক্ষার্থীদের বহিষ্কার করা হয়েছে।

কেন্দ্র সচিব মো. মোসাদ্দেক হোসেন বলেন, আমি জানতে পেরে তাৎক্ষণিকভাবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে জানাই। এরপর ইউএনও ও উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা এসে কক্ষ পরিদর্শকদের সহায়তায় এই ৫৯ জন ভুয়া পরীক্ষার্থীদের শনাক্ত করেন। তাদের বয়স ১৮ বছরের নিচে হওয়ায় মুচলেকা নিয়ে অভিভাবকদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। ওই আট মাদ্রাসার প্রধানের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলার নির্দেশ দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। মামলার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।

সাপাহার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুদ হোসেন জানান, যাচাইয়ের পর ৫৯ জন ভুয়া পরীক্ষার্থী পাওয়ায় কক্ষ পরিদর্শককে বহিষ্কার করা হয়েছে। সেইসঙ্গে আটটি প্রতিষ্ঠান প্রধানের বিরুদ্ধে কেন্দ্র সচিবকে নিয়মিত মামলা করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সাপাহার থানার ওসি পলাশ চন্দ্র দেব জানান, এ ঘটনায় মামলা হবে। তবে এখনও কেউ মামলা করতে আসেননি। হয়তো প্রক্রিয়া চলছে।

/এফআর/
সম্পর্কিত
সর্বশেষ খবর
ঢাকায় শুরু হতে যাচ্ছে প্রথম আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী শিল্পী উৎসব
ঢাকায় শুরু হতে যাচ্ছে প্রথম আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী শিল্পী উৎসব
এই গরমে কেমন পোশাকে স্বস্তি মিলবে
এই গরমে কেমন পোশাকে স্বস্তি মিলবে
তরুণদের নিয়ে বেসিস নির্বাচনে সোহেলের টিম স্মার্ট
তরুণদের নিয়ে বেসিস নির্বাচনে সোহেলের টিম স্মার্ট
তীব্র গরমেও শীতল করমজল!
তীব্র গরমেও শীতল করমজল!
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট, হিন্দু মহাজোট ‘নেতা’ পুলিশ হেফাজতে
ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট, হিন্দু মহাজোট ‘নেতা’ পুলিশ হেফাজতে
জানা গেলো বেইলি রোডে আগুনের ‘আসল কারণ’
জানা গেলো বেইলি রোডে আগুনের ‘আসল কারণ’
প্রবাসীদের ফেসবুক আইডি হ্যাক করে কোটিপতি, দুই ভাই গ্রেফতার
প্রবাসীদের ফেসবুক আইডি হ্যাক করে কোটিপতি, দুই ভাই গ্রেফতার
চট্টগ্রামে ভূমিকম্প, মাত্রা ৩ দশমিক ৭
চট্টগ্রামে ভূমিকম্প, মাত্রা ৩ দশমিক ৭
কেএনএফের গুলিতে সেনাসদস্য নিহত, কেঁদে কেঁদে স্ত্রী বললেন আমার ৩ সন্তানকে কে দেখবে?
কেএনএফের গুলিতে সেনাসদস্য নিহত, কেঁদে কেঁদে স্ত্রী বললেন আমার ৩ সন্তানকে কে দেখবে?