X
শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২
১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

রাজসাক্ষী বানাতে আদালতে নিলো পুলিশ, চিকিৎসক বললেন কিছুই জানি না  

লিয়াকত আলী বাদল, রংপুর
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৯:৩৩আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২০:১০

রংপুরে পুলিশের বিরুদ্ধে হত্যা মামলায় রাজসাক্ষী বানাতে থানায় আটকে এক পশু চিকিৎসককে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, থানার ওসিসহ চার পুলিশ কর্মকর্তাকে সশরীরে হাজির হয়ে জবাব দিতে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। আগামী ১০ অক্টোবর তাদের আদালতে হাজির হয়ে এ বিষয়ে বক্তব্য দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন কোর্ট জিআরও আব্দুস সালাম।

এদিকে ভুক্তভোগী শ্যামল চন্দ্রের শরীরের জখম পরীক্ষা করে আদালতে প্রতিবেদন জমা দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন রংপুরের সিভিল সার্জন শামীম আহমেদ। তবে এ বিষয়ে তিনি কোনও মন্তব্য করতে চাননি। 

রংপুরের জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট-৩-এর বিচারক আবু হেনা সিদ্দিকীর এজলাসে শুক্রবার রাতে শ্যামল চন্দ্রকে উপস্থাপন করা হয়। পরে তিনি আসামির অভিযোগ ও তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন দেখে এই আদেশ দেন। পাশাপাশি পুলিশের রিমান্ড আবেদন নামঞ্জুর করে শ্যামল চন্দ্রকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত চার পুলিশ কর্মকর্তার মধ্যে রয়েছেন রংপুর জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. হুসাইন মুহাম্মদ রায়হান, ওসি মোস্তাফিজার রহমান, পরিদর্শক (তদন্ত) ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শাহিনুর আলম এবং এসআই আসাদ।

তবে রংপুর সদর থানার ওসি মোস্তাফিজার রহমানের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি আদালতের আদেশ হাতে পাননি বলে জানান। তিনি বলেন, আদেশ হাতে এলে তা পালন করা হবে। 

রংপুরের জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-৩-এর বিচারক মো. আবু হেনা সিদ্দিকী তার আদেশনামায় উল্লেখ করেন, আসামি শ্যামল চন্দ্র দেবনাথকে কার্যবিধি আইনের ১৬৪ ধারায় দোষ স্বীকারে জবানবন্দি দিতে উপস্থাপন করা হয়। তবে আসামি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে গিয়ে জানান, তিনি হত্যার ঘটনা সম্পর্কে কিছুই জানেন না। বরং পুলিশ তাকে ধরে নিয়ে হত্যার বিষয়ে রাজসাক্ষী বানাতে হুমকি-ধমকি দিয়েছে এবং তিন দিন আটকে রেখে নির্যাতন চালিয়েছে। পাশাপাশি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি না দিলে পরিবারের সদস্যদের ক্ষতি করারও হুমকি দেয়। পরে আসামি শ্যামল চন্দ্র দেবনাথ পুলিশ তার সঙ্গে কি আচরণ করেছে সে বিষয়ে আদালতকে লিখিতভাবে জানান।  

আসামি তার লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেন, তিনি একজন পশু চিকিৎসক এবং সরকারি এআই টেকনিশিয়ান। গত ২১ সেপ্টেম্বর তারিখে প্রাণী চিকিৎসার কাজে ব্যস্ত থাকায় বাড়ি ফিরতে দেরি হয়। তখন কোতোয়ালি থানার এস আই আসাদসহ চার জন পুলিশ সদস্য মোটরসাইকেলে এসে তাকে তুলে থানায় নিয়ে যান। সেখানে ওসি এবং পরিদর্শক (তদন্ত) মিলে হত্যা মামলায় রাজসাক্ষী বানাতে তার ওপর নির্যাতন চালান। দুই হাতে হাতকড়া লাগিয়ে পুলিশের সার্কেল কর্মকর্তাও তাকে মারধর করেন। পরে তাকে সরকারি হাসপাতালে গ্যাস ও ব্যথার ওষুধের জন্য পাঠানো হয়। সেখানে ডাক্তার তাকে ওষুধ দেন। 

আদালত তার পর্যবেক্ষণে বলেন, আসামির অভিযোগ ও মৌখিক বক্তব্যের ওপর আদালত আসামির শারীরিক অবস্থা দেখেন। এ সময় আসামির কোমরের পেছনে, দুই নিতম্বসহ হাঁটুর ওপর পর্যন্ত আঘাতের চিহ্ন দেখা যায়। এখান থেকে স্পষ্টভাবে প্রতীয়মান হয় আসামিকে থানা হেফাজতে নির্যাতন করা হয়েছে। যা হেফাজতে মৃত্যু নিবারণ আইন ২০১৩-এর সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। এ ঘটনায় রংপুর জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. হুসাইন মুহাম্মদ রায়হান, ওসি মোস্তাফিজার রহমান, পরিদর্শক (তদন্ত) ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শাহিনুর আলম ও এসআই আসাদের বিরুদ্ধে কেন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে না, তা জানতে চান আদালত। 

সার্বিক বিষয়ে জানতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হোসাইন মুহাম্মদ রায়হানের মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি কল রিসিভ করেননি। বার্তা পাঠানোর পরেও কোনও উত্তর মেলেনি। 

রংপুরের পুলিশ সুপার ফেরদৌস আলী চৌধুরীর সঙ্গে মোবাইল ফোনে কল দিয়ে ও বার্তা পাঠিয়ে কথা বলা সম্ভব হয়নি। 

/টিটি/এমওএফ/
তিন তরুণের উদ্যোগ চাম ওয়েলনেস
তিন তরুণের উদ্যোগ চাম ওয়েলনেস
কম্পিউটারে বাংলা পত্রিকা প্রকাশের যাত্রাকে স্মরণীয় রাখতে স্মারক ডাকটিকিট
কম্পিউটারে বাংলা পত্রিকা প্রকাশের যাত্রাকে স্মরণীয় রাখতে স্মারক ডাকটিকিট
কিশোর গ্যাংয়ের হামলায় কলেজ শিক্ষার্থী খুন
কিশোর গ্যাংয়ের হামলায় কলেজ শিক্ষার্থী খুন
আইইবিতে ‘প্রকৌশল কোডস এবং মান ইন্ডেক্স’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন
আইইবিতে ‘প্রকৌশল কোডস এবং মান ইন্ডেক্স’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন
সর্বাধিক পঠিত
চার মিনিটের ঝড়ে স্পেনকে হারিয়ে নক আউটে জাপান
চার মিনিটের ঝড়ে স্পেনকে হারিয়ে নক আউটে জাপান
ইলন মাস্ককে পরিস্থিতি দেখে যেতে বললেন ক্ষুব্ধ জেলেনস্কি
ইলন মাস্ককে পরিস্থিতি দেখে যেতে বললেন ক্ষুব্ধ জেলেনস্কি
ভৈরব নদে কুমিরের দুই ঘণ্টা ‘রৌদ্রস্নান’, সতর্ক থাকার আহ্বান
ভৈরব নদে কুমিরের দুই ঘণ্টা ‘রৌদ্রস্নান’, সতর্ক থাকার আহ্বান
১০০ এলসি বন্ধ করেছি: গভর্নর
১০০ এলসি বন্ধ করেছি: গভর্নর
কম্বল কম আসায় ফেরত দিলেন ইউপি চেয়ারম্যানরা
কম্বল কম আসায় ফেরত দিলেন ইউপি চেয়ারম্যানরা