X
শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২
১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

‘চাকরি সরকারি স্কুলে, করেন জমির দালালি ও প্রতারণা’

এস এম আববাস
২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪:০০আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৬:৪৬

চাকরি করেন মোহাম্মদপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে। সেই পরিচয় ব্যবহার করেই সমবায় সমিতি গড়ে জমি কেনা-বেচার নামে শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের কাছ হাতিয়েছেন লাখ লাখ টাকা। শুধু দুই অভিভাবকের কাছ থেকেই নিয়েছেন ৩০ লাখ টাকা। রাজধানীর মোহাম্মদপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক এ এস এম জসিম উদ্দিন ও আব্দুস সালাম এমন প্রতারণা করেছেন বলে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, রাজধানীর মিরপুরের ‘আল ফাতিহা’ নামের একটি সমবায় সমিতির মাধ্যমে জমি কেনা-বেচার নামে এই দুই শিক্ষক তাদের ছাত্রদের দুই অভিভাবক রাহেনা আক্তার এবং বিবি আয়েশার কাছ থেকে নিয়েছেন মোট ৩০ লাখ টাকা।

‘আল ফাতিহা’র কোষাধ্যক্ষ শিক্ষক এ এস এম জসিম উদ্দিন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেছেন, ‘জমি না পেলে তারা টাকা ফেরত পাবেন। যাদের কাছে জমিটি রেজিস্ট্রি করে বিক্রি করা হয়েছে, তারা এখনও টাকা দেননি। তারা টাকা দিলেই সবার টাকা ফিরিয়ে দেওয়া হবে।’

কবে নাগাদ টাকা ফেরত দেওয়া হবে জানতে চাইলে এ এস এম জসিম উদ্দিন বলেন, ‘কবে নাগাদ টাকা দিতে পারবো তা কাল জানাতে পারবো।’ আগামী ১৫ দিনের মধ্যে টাকা ফেরত দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা তো টাকা মেরে খাইনি।’

আল ফাতিহা সমবায় সমিতির কার্যকরী সদস্য ও আরেক শিক্ষক আব্দুস সালামের কাছে এ বিষয়ে জানতে মোবাইল ফোনে কল করেন এ প্রতিবেদক। পরিচয় শুনে তিনি প্রথমে ‘ভুল নম্বরে কল দিয়েছেন’ বলে বিষয়টি পাশ কাটানোর চেষ্টা করেন। পরক্ষণেই আবার বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, ‘আমরা কয়েকজন মিলে সমিতি করেছি। নিজেরা আত্মীদের মধ্যেই টাকা নিয়েছি। অন্য কারও কাছ থেকে টাকা নেওয়া হয়নি।’ তবে স্কুলের শিক্ষার্থীদের অভিভাবক রাহেনা আক্তার ও বিবি আয়েশার কাছে টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করেন তিনি।

অভিযোগে জানা গেছে, শিক্ষকতায় ফাঁকি দিয়ে ১০১২ সাল থেকে জমি কেনা-বেচার নামে প্রতারণা করছেন এই দুই শিক্ষক। দীর্ঘদিন জমির জন্য চেষ্টা করেও না পাওয়ায় শেষ পর্যন্ত টাকা ফেরত চান ভুক্তভোগীরা। টাকা ফেরত দেওয়ার কথা বলেও ২০২০ সাল থেকে ঘোরাতে থাকলে শেষ পর্যন্ত মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালকের কাছে গত ১১ সেপ্টেম্বর লিখিত অভিযোগ করেন রাহেনা আক্তার।

রাহেনা আক্তার বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ২০১২ সালের পর থেকে ছয় মাসের সময় নিয়ে জমি দেননি শিক্ষক সহকারী শিক্ষক ও আল ফাতিহা সমবায় সমিতির বর্তমান কোষাধ্যক্ষ জসিম উদ্দিন এবং কার্যকরী কমিটির সদস্য বিদ্যালয়ের আরেক শিক্ষক আব্দুস সালাম। আমি ১৪ লাখ এবং আমার নিকটাত্মীয় বিবি আয়েশার আরও ১৬ লাখ টাকা দিয়েছে। অথচ এখনও জমি রেজিস্ট্রি করেও দেয়নি। আবার টাকাও ফেরত দিচ্ছে না। অথচ এই জমি বিক্রি করেছে অনেক আগেই। আর তারা বলছেন, যারা জমি কিনেছে তারা টাকা দিলেই দিয়ে দেবো।

রাহেনা আক্তার লিখিত অভিযোগে বলেছেন, টাকা দেওয়ার পর থেকে জমির নামজারিসহ বিভিন্ন কাগজপত্র ঠিক করার কথা বলে রেজিস্ট্রি করে দিতে কালক্ষেপণ করতে থাকেন জসিম উদ্দিন ও তার সহযোগীরা। আরও শতাধিক লোক তাদের বিশ্বাস করে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত ও বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছেন। বছরের পর বছর নানাভাবে আশ্বাস দিয়েও জমি রেজিস্ট্রি করে দেয়নি।  দীর্ঘ এক যুগেরও বেশি সময় ধরে একই বিদ্যালয়ে শিক্ষকতার সুযোগে অভিভাবকদের সঙ্গে নানাভাবে প্রতারণা, অর্থ আত্মসাৎসহ বিভিন্ন অবৈধ উপায়ে অর্থ আয়ের সঙ্গে জড়িত তারা। ব্যক্তিগতভাবে বিভিন্ন প্রতিক্রিয়াশীল চক্রের সঙ্গেও জড়িত তারা। যা অনুসন্ধানে বেরিয়ে আসবে বলে মনে করি।

জানা গেছে, সাভারের হেমায়েতপুরের পাশ ঘেঁষা ধলেশ্বরী নদীর পশ্চিম পাড় সংলগ্ন মানিকগঞ্জের সিংগাইর থানার ধল্লা মৌজায় চার একরের বেশি নিষ্কণ্টক জমির জন্য এ এস এম জসিম উদ্দিন ও আব্দুস সালাম দুই অভিভাবকের কাছ থেকে ৩০ লাখ টাকা নেন। জমি দিতে না পারায় ২০২০ সালের ৩১ অক্টোবর মিরপুর-১ নম্বরে শাহিন চাইনিজ রেস্টুরেন্টের তৃতীয় তলায় একটি সাধারণ সভা করে জমি বিক্রি করে টাকা ফেরত দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন তারা। বৈঠকের পর ৬৭ শতাংশ জমি বেচে দিলেও কোনও টাকা পাননি ভুক্তভোগীরা। বাকি জমিও ‘কিং বিডি ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড’ নামের একটি অননুমোদিত প্রতিষ্ঠানকে দখল বুঝিয়ে দিয়ে সমবায়ীদের কোটি হাতিয়ে নিয়েছে এই চক্র। টাকা ফেরত চাইলে টালবাহানা করছেন এবং বিভিন্ন উপায়ে হুমকি ধামকি দিচ্ছেন ভুক্তভোগীদের।

শিক্ষকতার আড়ালে এই দুই শিক্ষক বিভিন্ন মানুষের সঙ্গে এখনও নানাভাবে প্রতারণা চালিয়ে যাচ্ছেন বলেও অভিযোগে পাওয়া গেছে। অভিযোগকারীরা বলছেন, দীর্ঘ দিন ধরে একই বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করার কারণে প্রভাব রয়েছে তাদের।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন অভিভাবক জানান, দীর্ঘদিন একই বিদ্যালয়ে শিক্ষকতার কারণে তারা শিক্ষার্থীদের ঠিকমতো পড়ান না। বেশিরভাগ সময় জমির ব্যবসা নিয়ে থাকেন তারা। তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন অভিযুক্ত শিক্ষকরা।

/এমআর/ইউএস/
দ্বিতীয় রাউন্ডে মুখোমুখি জাপান-ক্রোয়েশিয়া, স্পেন-মরক্কো
দ্বিতীয় রাউন্ডে মুখোমুখি জাপান-ক্রোয়েশিয়া, স্পেন-মরক্কো
কোস্টারিকার বিপক্ষে জিতেও গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় জার্মানির
কোস্টারিকার বিপক্ষে জিতেও গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় জার্মানির
ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ ছাত্রলীগের সম্মেলন শুক্রবার
ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ ছাত্রলীগের সম্মেলন শুক্রবার
চার মিনিটের ঝড়ে স্পেনকে হারিয়ে নক আউটে জাপান
চার মিনিটের ঝড়ে স্পেনকে হারিয়ে নক আউটে জাপান
সর্বাধিক পঠিত
ইলন মাস্ককে পরিস্থিতি দেখে যেতে বললেন ক্ষুব্ধ জেলেনস্কি
ইলন মাস্ককে পরিস্থিতি দেখে যেতে বললেন ক্ষুব্ধ জেলেনস্কি
ভৈরব নদে কুমিরের দুই ঘণ্টা ‘রৌদ্রস্নান’, সতর্ক থাকার আহ্বান
ভৈরব নদে কুমিরের দুই ঘণ্টা ‘রৌদ্রস্নান’, সতর্ক থাকার আহ্বান
চার মিনিটের ঝড়ে স্পেনকে হারিয়ে নক আউটে জাপান
চার মিনিটের ঝড়ে স্পেনকে হারিয়ে নক আউটে জাপান
১০০ এলসি বন্ধ করেছি: গভর্নর
১০০ এলসি বন্ধ করেছি: গভর্নর
কম্বল কম আসায় ফেরত দিলেন ইউপি চেয়ারম্যানরা
কম্বল কম আসায় ফেরত দিলেন ইউপি চেয়ারম্যানরা