১৬ বছর পর নচিকেতাকে চ্যালেঞ্জ জানালেন কলকাতার ডাক্তার

Send
বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৬:৩৪, এপ্রিল ২২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:০০, এপ্রিল ২২, ২০২০

নচিকেতা ও চিকিৎসক অনির্বাণঅনির্বাণ নচিকেতার বন্ধু। তাকে নিয়ে সিরিজ গানও লিখেছেন পশ্চিমবঙ্গের জীবনমুখী গানের কিংবদন্তি এ গায়ক। এবার সামনে এলেন আরেক অনির্বাণ, ডা. অনির্বাণ দত্ত। 

নচিকেতার সুরেই গানে গানে যেন শিল্পীকেই চ্যালেঞ্জ জানিয়ে বসলেন। আর তা করোনা ক্রাইসিসের এ সময়ে ছড়িয়ে পড়েছে পশ্চিমবঙ্গের সংগীতপ্রেমীদের ফেসবুকের দেয়ালে দেয়ালে।

গানের বিষয়বস্তু ডাক্তার। ২০০৪ সালে প্রকাশিত ‘এই আগুনে হাত রাখো’ অ্যালবামের ‘ও ডাক্তার’ শিরোনামের গানে এই পেশাকে ‘কসাই’-এর সঙ্গে তুলনা করেছিলেন নচিকেতা।
আর দেড় যুগ পর করোনা যুদ্ধে ফ্রন্ট লাইনে থাকা চিকিৎসকদের একজন পশ্চিমবঙ্গের অনির্বাণ দত্ত এবার নচিকেতার সমালোচনা করলেন।  ‘কসাই’ বলার শোধ নিলেন একই সুরে। গানেই নচিকেতাকে চ্যালেঞ্জ জানিয়েছেন, রাস্তায় নামতে। ভিডিওটি পশ্চিমবঙ্গে এখন বেশ জনপ্রিয়।

চিকিৎসক অনির্বাণ দত্ত জানান, নচিকেতার গান শোনার পর দীর্ঘদিন আগুন বুকে পুষেছেন। করোনাযুদ্ধে যখন চিকিৎসকদের জাতীয় বীর বলা হচ্ছে, তখন মোক্ষম জবাবটা দিয়েছেন।

নচিকেতার গানে ছিল, ‘ও ডাক্তার/ তুমি কত শত পাস করে, এসেছো বিলেত ঘুরে/ মানুষের যন্ত্রণা ভোলাতে/ তোমার এমবিবিএস না না এফআরসিএস বোধহয় এ টু জেড ডিগ্রি ঝোলাতে/ ডাক্তার মানে সে তো, মানুষ নয়/ আমাদের চোখে সে তো ভগবান/ কসাই আর ডাক্তার একি তো নয়/ কিন্তু দুটোই আজ প্রোফেশন/ কসাই জবাই করে প্রকাশ্য দিবালোকে/ তোমার আছে ক্লিনিক আর চেম্বার’।

আর অনির্বাণের গানে ‘কসাই’ বলার সমালোচনা করে বলা হয়, ‘আমি ডাক্তার/ ডাক্তার মানে তো সে মানুষই হয়, স্বার্থ জন্ম দেয় ভগবান/ শিল্পী আর গিরগিটি একি তো নয়, কিন্তু দুটোয় বদলায় রং/ জাত তুলে গালাগাল শিল্প নয় কোনোদিনও, গিরগিটিদের বোঝা তা দরকার’।
রাস্তায় আসার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘সাহস যদি থাকে নচিকেতা, একবার নেমে এসো পথে/ তুমি তো বুকে জ্বেলে ছিলে আগুন, তুমি তো পার বদলাতে/ পথেই দেখা হবে, পথেই লেখা হবে, পথেই বিচার হবে গানটার/ আমি ডাক্তার, আমিই ডাক্তার’।

গানটি পশ্চিমবঙ্গের পত্রিকা সংবাদ প্রতিদিন তাদের ফেসবুক পেজে প্রকাশিত করেছে। তবে এটি নিয়ে কোনও মন্তব্য করেননি নচিকেতা।

গানের লিংক:

/এম/এমওএফ/

লাইভ

টপ