X
বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪
২ শ্রাবণ ১৪৩১

ইউরোপে তরুণদের মধ্যে উগ্র-ডানপন্থিদের জনপ্রিয়তা বাড়ছে কেন?

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
১৩ জুন ২০২৪, ২১:২৭আপডেট : ১৩ জুন ২০২৪, ২১:২৭

জার্মানি ও ফ্রান্স থেকে শুরু করে পোল্যান্ড ও স্পেন পর্যন্ত, এবার ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) নির্বাচনে কট্টর-ডানপন্থিরা গুরুত্বপূর্ণ রাজ্যগুলোতে তরুণদের উল্লেখযোগ্য ভোট পেয়েছে। করোনাভাইরাস মহামারি, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের মতো সংকটের মধ্যে বেড়ে ওঠা প্রজন্মটি নতুন দিশার খোঁজে থাকা ও টিকটক ও ইউটিউবের মতো প্ল্যাটফর্মে সক্রিয় রাজনীতিবিদদের নিয়মিত ফলো করে আসছে।

তরুণ ভোটারদের সাধারণত বাম ঘরানার হিসেবে ধরে নেওয়া হত। ২০১৯ সালের ইইউ নির্বাচনে তরুণরা পরিবেশবাদী দলগুলোর প্রতি সমর্থন দেখিয়েছিল। সুইডিশ জলবায়ু কর্মী গ্রেটা থুনবার্গের নামানুসারে এদের ডাকা হতো ‘জেনারেশন গ্রেটা’। কিন্তু মহামারি, ইউক্রেন যুদ্ধ এবং জীবনযাত্রার ব্যয়ের সংকটের পর এবার অনেকেই তাদের সমর্থন কট্টর-ডানপন্থি জনতোষণবাদী দলগুলোর প্রতি আকৃষ্ট হয়েছে। এই দলগুলো তাদের উদ্বেগগুলোকে কাজে লাগিয়ে ইইউ পার্লামেন্টের নির্বাচনে ভোটের হার বাড়িয়েছে।

ইউরোপের প্রতিষ্ঠান-বিরোধী আন্দোলনের নেতারা, যারা প্রায়ই উঠতি জাতিগত-জাতীয়তাবাদী চিন্তাধারার সঙ্গে জড়িত, তারা তাদের মূলধারার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষদের চেয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আরও দক্ষ হয়ে উঠছেন। ফলে, তারা কিছু কিছু তরুণের কাছে পাল্টা বিদ্রোহী সংস্কৃতির প্রতীক হিসেবে জনপ্রিয়তা পেয়েছেন।

বিশ্লেষকরা বলছেন, ইউরোপের জাতিগত-জাতীয়তাবাদী এবং বিরোধী প্রতিষ্ঠানীয় আন্দোলনের নেতারা নতুন সামাজিক মিডিয়ায় দক্ষতা অর্জন করেছেন যা তাদের মূলধারার প্রতিপক্ষদের তুলনায় বেশি কার্যকর। এভাবে তারা কিছু যুবকদের কাছে একটি বিকল্প পাল্টা সংস্কৃতির মর্যাদা অর্জন করছে। বিশেষ করে এমন তরুণদের মধ্যে এমন রাজনীতিকেরা জনপ্রিয় হয়ে ওঠেছেন, যারা নিজেদের মূলধারার ‘নজরদারি’ সংস্কৃতি দ্বারা বঞ্চিত ও বিধিনিষেধের মুখে রয়েছে বলে মনে করে।

জার্মানির কট্টর-ডানপন্থি অল্টারনেটিভ ফর জার্মানি (এএফডি)-কে ভোট দেওয়া ১৭ বছর বয়সী ক্রিস্টোফ নামের শিক্ষার্থী বলেছেন, জার্মানি সঠিক পথে এগোচ্ছে না। অভিবাসন নিয়ে একমাত্র এএফডি স্পষ্ট বার্তা দিয়েছে।

ইনফ্রাটেস্ট ডিমাপের একটি বুথ ফেরত জরিপ অনুসারে, ২৫ বছরের কম বয়সীদের মধ্যে এএফডির সমর্থন ১১ পয়েন্ট বেড়ে ১৬ শতাংশে পৌঁছেছে। বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর মধ্যে ৫ পয়েন্ট বৃদ্ধির তুলনায় যা দ্বিগুণ। এএফডি অভিবাসন কমাতে চায় এবং জার্মানিতে ইসলাম ধর্মের সম্প্রসারণের বিরোধিতা করে।

এই পরিবর্তনের ফলে এএফডি দেশজুড়ে ঐতিহাসিক দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেছে। বাম ঘরানার দলগুলোকে সুবিধা দিতে প্রথমবার জার্মানি ১৬-১৮ বছর বয়সীদের এবার ভোটের সুযোগ দিয়েছিল। কিন্তু এই সিদ্ধান্তের ফলে এএফডি লাভবান হয়েছে।

যদিও কট্টর-ডানপন্থিরা সব জায়গায় তরুণদের মধ্যে ভালো করতে পারেনি। ইউরোপের মতো মহাদেশে বয়স্ক জনসংখ্যার তুলনায় তরুণদের সংখ্যা তুলনামূলক কম হলেও মূলধারার রাজনৈতিক দলগুলোর জন্য বিষয়টি উদ্বেগের। বিশেষ করে ফ্রান্সে যারা এই মাসের শেষের দিকে আগাম নির্বাচন এবং আগামী বছর জার্মানির কেন্দ্রীয় নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে সেই দলগুলো উদ্বিগ্ন।

বেড়েছে অর্থনৈতিক উদ্বেগ, কমেছে আগ্রহ জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে 

জার্মানির তরুণদের মধ্যে একটি সাম্প্রতিক জরিপে দেখা গেছে, তরুণরা ক্রমবর্ধমানভাবে মুদ্রাস্ফীতি, ব্যয়বহুল আবাসন এবং সামাজিক বিভাজন নিয়ে উদ্বিগ্ন এবং জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে আগ্রহ কম। রবিবার গ্রিন দল তরুণদের ভোটের মাত্র ১১ শতাংশ পেয়েছে, যা পূর্বের তুলনায় ২৩ শতাংশ পয়েন্ট কম।

জরিপে নেতৃত্ব দেওয়া লেখক সাইমন শ্নেটজার বলেছেন, শুধু কঠোর পরিশ্রম করলে ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল হবে–এমন মনোভাব আর তরুণদের মধ্যে নেই। তারা ক্ষমতাসীন দলগুলোকে নিয়ে হতাশ।

শিক্ষার্থী ক্রিস্টোফ বলেছেন, তার অভিজ্ঞতা তাকে বিশ্বাস করতে বাধ্য করেছে যে জার্মানির সাম্প্রতিক অভিবাসীরা সহিংসতার প্রতি বেশি ঝুঁকেছে এবং মূল সমাজে একীভূত হতে অনিচ্ছুক।

ইপসোসের মতে, ফ্রান্সে কট্টর-ডানপন্থি ন্যাশনাল র‍্যালি (আরএন) ১৮-২৪ বছর বয়সীদের ২৫ শতাংশ ভোট পেয়েছে, যা প্রায় ১০ শতাংশ পয়েন্ট বৃদ্ধি।

ইইউ-এর দুই পরাশক্তি দেশের বেশিরভাগ তরুণ এখনও বামপন্থি দলগুলোকে সমর্থন করে। তবে অনেকেই সাম্প্রতিক প্রবণতা নিয়ে উদ্বিগ্ন।

১৭ বছর বয়সী তুর্কি বংশোদ্ভূত জার্মান এন্সার আদানুর বলেছেন, এটি আমাকে উদ্বিগ্ন করে কারণ আমি দেখেছি যে কট্টর-ডানপন্থিরা এমন লোকদের দেশে ফিরিয়ে দিতে চায় যাদের জার্মান নাগরিকত্ব রয়েছে, যেমন আমি। কিন্তু আমার জন্য জার্মানি হলো বাড়ি।

তবে পোল্যান্ডে কট্টর-ডানপন্থি কনফেডারেশন পার্টির জন্য ১৮-২৯ বছর বয়সী ভোটারদের মধ্যে সমর্থন ১৮ দশমিক ৫ শতাংশ থেকে বেড়ে ৩০ শতাংশ হয়েছে। এর ফলে ওই বয়সীদের মধ্যে দলটি সবচেয়ে জনপ্রিয় বলে প্রমাণিত হচ্ছে।

কনফেডারেশনকে ভোট দেওয়া ৩০ বছর বয়সী পাভেল রুরকোভস্কি বলেছেন, আমার কাছে মূলধারার দলগুলোর কোনও বিশ্বাসযোগ্যতা নেই।

সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারে দক্ষতা

বিশ্লেষকরা বলছেন, তরুণ ভোটারদের যোগাযোগের জনপ্রিয় মাধ্যমগুলোতে মূলধারার রাজনৈতিক দলগুলোর চেয়ে উগ্র-ডানপন্থি দলগুলোর তুলনামূলক দক্ষতা প্রজন্মটির মধ্যে ক্রমবর্ধমান সাফল্যের নেপথ্যে বড় কারণ। এসব জনপ্রিয় মাধ্যমগুলোর মধ্যে রয়েছে টিকটক, ইউটিউব ও টেলিগ্রাম।

জার্মানিতে পরিচালিত সাম্প্রতিক জরিপের তথ্য অনুসারে, ৫৭ শতাংশ তরুণ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সংবাদ ও রাজনীতির খবর রাখে। কিন্তু জার্মান চ্যান্সেলরের মতো মূলধারার রাজনীতিকরা মাত্র কয়েক মাস আগে টিকটকে যুক্ত হয়েছেন।

লেখক সাইমন শ্নেটজার বলেছেন, তরুণদের পছন্দের অ্যাপগুলোতে না থাকলে তাদের জগতে আপনি নেই। বিষয়টি এখন এমন।

ইনস্টিটিউট ফর জেনারেশনাল রিসার্চ-এর প্রতিষ্ঠাতা রুয়েডিগার মাস বলেছেন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোর অ্যালগরিদম সেই সব বিতর্কিত কন্টেন্টকে গুরুত্ব দেয় যেগুলোতে সাধারণ রাসভারী বিষয়বস্তুর তুলনায় এনগেজমেন্ট বেশি হয়।

উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, ইইউ নির্বাচনে এএফডির শীর্ষস্থানীয় প্রার্থী ম্যাক্সিমিলিয়ান ক্রাহ টিকটকে ভাইরাল হয়েছিলেন তরুণদের ডেটিংয়ের পরামর্শ দিয়ে। তিনি বলেছিলেন, পর্ন দেখবেন না, গ্রিনদের ভোট দেবেন না, উন্মুক্ত হাওয়াতে যাও…প্রকৃত পুরুষেরা ডানপন্থি।

টিকটকে তার ফলোয়ার সংখ্যা ৫৩ হাজার ৩০০। মধ্য-বাম ঘরানার সোশ্যাল ডেমোক্র্যাট ও গ্রিন পার্টির শীর্ষ প্রার্থীর টিকটকে ফলোয়ার সংখ্যা যথাক্রমে ১১ হাজার ও ২ হাজার ৬৫২।

এএফডির ভোটার ক্রিস্টোফের মতে, আমার প্রজন্ম প্রকৃত অর্থে রাজনীতি বোঝে না। কিন্তু আমরা সবসময় এএফডির কথা শুনতে পাই।

স্পেনে সোশ্যাল মিডিয়া ইনফ্লুয়েন্সার আলভাইজ পেরেজ তরুণদের ৬ দশমিক ৭ শতাংশ ভোট পেয়েছেন। ইনস্টাগ্রাম ও টেলিগ্রামে তিনি অভিবাসনবিরোধী ও দুর্নীতিবিরোধী প্রচারণা চালিয়েছেন।

উগ্র-ডানপন্থি পার্টি ভক্স-এর টিকটকে জোরালো উপস্থিতি রয়েছে। তারা ২৫ বছরের কম বয়সী ভোটারদের ১২ দশমিক ৪ শতাংশ ভোট পেয়েছে।

ভক্স-কে ভোট দেওয়া ২২ বছর বয়সী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী জাভিয়ের বলেছেন, অভিবাসন বা লিঙ্গের মতো সংবেদনশীল ইস্যুতে এটিকেই প্রকৃত অর্থে সরকারের বিরোধিতাকারী একমাত্র দল মনে হয়েছে।

সূত্র: রয়টার্স

/এএ/
সম্পর্কিত
পশ্চিম তীরে মানবাধিকার লঙ্ঘনইসরায়েলি সেনাবাহিনীর সাবেক সার্জেন্টের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা নিষেধাজ্ঞা
ইসরায়েলি জিম্মি মুক্তির দাবিতে প্রতিবাদ, নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠক বাধাগ্রস্ত
কর্ণাটকে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের চাকরিতে কোটা চালুর সিদ্ধান্ত স্থগিত
সর্বশেষ খবর
ছাত্রলীগ করা শিক্ষার্থীদের ক্লাস করাবেন না বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষিকা
ছাত্রলীগ করা শিক্ষার্থীদের ক্লাস করাবেন না বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষিকা
দফায় দফায় সংঘর্ষে আরও একটি উত্তাল দিন
দফায় দফায় সংঘর্ষে আরও একটি উত্তাল দিন
প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে জনগণ যখন আশ্বস্ত, তখনই অরাজকতা সৃষ্টির পাঁয়তারা: কাদের
প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে জনগণ যখন আশ্বস্ত, তখনই অরাজকতা সৃষ্টির পাঁয়তারা: কাদের
বৃহস্পতিবার সাধারণদের জন্য মার্কিন দূতাবাস বন্ধ থাকবে
কোটা আন্দোলনবৃহস্পতিবার সাধারণদের জন্য মার্কিন দূতাবাস বন্ধ থাকবে
সর্বাধিক পঠিত
আমার প্রাণের বাংলাদেশ এভাবে রক্তাক্ত হতে পারে না: শাকিব খান
আমার প্রাণের বাংলাদেশ এভাবে রক্তাক্ত হতে পারে না: শাকিব খান
সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ ঘোষণা আন্দোলনকারীদের
সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ ঘোষণা আন্দোলনকারীদের
ঢাবি ছাত্রলীগের সভাপতি-সম্পাদকের রুমে ভাঙচুর
ঢাবি ছাত্রলীগের সভাপতি-সম্পাদকের রুমে ভাঙচুর
থমথমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস 
থমথমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস 
অস্তিত্বে হামলা এসেছে, ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে প্রস্তুত হয়ে যান: ওবায়দুল কাদের
অস্তিত্বে হামলা এসেছে, ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে প্রস্তুত হয়ে যান: ওবায়দুল কাদের