X
রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
১২ ফাল্গুন ১৪৩০

লোকসভা থেকে বরখাস্ত তৃণমূল এমপি মহুয়া মৈত্র

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
০৮ ডিসেম্বর ২০২৩, ১৮:১৮আপডেট : ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩, ১৮:৫৬

ঘুষ নেওয়ার অভিযোগে ভারতীয় পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ লোকসভা থেকে তৃণমূল কংগ্রেসের এমপি মহুয়া মৈত্রকে বরখাস্ত করা হয়েছে। অভিযোগ তদন্তের পর শুক্রবার (৮ ডিসেম্বর) এথিক্স কমিটির সুপারিশ লোকসভায় পেশ করলে ভোটাভুটি শেষে তাকে বরখাস্তের ঘোষণা দেন স্পিকার ওম বিড়লা। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি ও আনন্দবাজার পত্রিকা এ খবর জানিয়েছে।

বরখাস্তের প্রতিক্রিয়ায় লোকসভা থেকে বেরিয়ে মহুয়া বলেন, লোকসভার এথিক্স কমিটিতে ‘এথিক্স’ বলে কিছু অবশিষ্ট নেই। তারা সব নিয়ম ভেঙে ফেলেছে। এমন এক কারণে আমাকে বহিষ্কার করা হলো, যা লোকসভার সব সদস্যের মধ্যে প্রচলিত একটি অভ্যাস। আমি কারও কাছ থেকে অর্থ নিয়েছি বা কোনও উপহার নিয়েছি, তার কোনও প্রমাণ নেই।

তিনি আরও বলেন, মোদি সরকার যদি ভেবে থাকে, আমাকে এভাবে চুপ করিয়ে আদানি ইস্যু থেকে তারা মুক্তি পাবে, তবে ভুল ভাবছে।

মহুয়ার বিরুদ্ধে ঘুষের বিনিময়ে প্রশ্ন তোলার যে অভিযোগ ছিল তা তদন্ত  করে অনেক আগেই এথিক্স কমিটি তাদের সুপারিশ জানিয়ে দিয়েছিল। সেই সুপারিশে মহুয়ার সংসদ সদস্য পদ খারিজের কথা বলা হয়েছিল। শুক্রবার এথিক্স কমিটির ৪৯৫ পৃষ্ঠার সেই সুপারিশ লোকসভায় পেশ করা হয়। ওই রিপোর্ট পড়ে দেখার জন্য সময় চেয়েছিল তৃণমূল। কংগ্রেস এবং অন্যান্য বিরোধী দলের তরফেও স্পিকারের কাছে সময়ের অনুরোধ করা হয়েছিল। কিন্তু স্পিকার সময় দেননি। সুপারিশের ওপর অল্প সময় বিতর্ক হয়। এরপর সংসদীয় মন্ত্রী প্রহ্লাদ জোশীর আনা প্রস্তাবের ওপর ভোটাভুটি শেষে লোকসভা থেকে মহুয়াকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত জানান স্পিকার।

লোকসভায় তৃণমূল, কংগ্রেস এবং অন্যান্য বিরোধী দলের পক্ষ থেকে মহুয়াকে নিজের বক্তব্য জানানো এবং আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দেওয়ার অনুরোধ করা হয়েছিল। সেই অনুরোধও রাখেননি স্পিকার। অতীতের উদাহরণ তুলে ধরে স্পিকার জানান, আগেও এই ধরনের ঘটনায় অভিযুক্ত সদস্য কিছু বলার সুযোগ পাননি। বিজেপির যুক্তি ছিল, মহুয়া আগে নিজের কথা বলার সুযোগ পেয়েছিলেন। কিন্তু ওই সময় তিনি সভাকক্ষ থেকে ওয়াক আউট করে বেরিয়ে যান।

মহুয়ার পাশে দাঁড়িয়েছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, মহুয়াকে আত্মপক্ষ সমর্থন করার সুযোগ দেওয়া হয়নি। একজন নারীকে বিজেপি রাজনৈতিক স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য যেভাবে হেনস্থা করলো, তাতে গণতন্ত্রকে হত্যা করা হলো। দল মহুয়ার পাশে ছিল ও আছে। বিজেপির প্রতিহিংসার রাজনীতি প্রমাণিত হলো।

/এএ/এমওএফ/
সম্পর্কিত
কলকাতায় বাংলাদেশি নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার
হাওয়াই মিঠাইয়ে ক্যানসারের ঝুঁকি, নিষিদ্ধ করলো তামিল নাড়ু
কলকাতায় পালিত হলো আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস
সর্বশেষ খবর
পোশাকশ্রমিককে চাপা দেওয়া ট্রাকচালক গ্রেফতার
পোশাকশ্রমিককে চাপা দেওয়া ট্রাকচালক গ্রেফতার
ফাগুন সন্ধ্যায় তিন ভুল ভাঙালেন অপূর্ব
ফাগুন সন্ধ্যায় তিন ভুল ভাঙালেন অপূর্ব
১৬টি রুশ ড্রোন বিধ্বস্তের দাবি ইউক্রেনের
১৬টি রুশ ড্রোন বিধ্বস্তের দাবি ইউক্রেনের
অভিযান চালিয়ে হাসপাতাল বন্ধে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ‘না’
অভিযান চালিয়ে হাসপাতাল বন্ধে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ‘না’
সর্বাধিক পঠিত
ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে গ্রামীণ ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মানববন্ধন
ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে গ্রামীণ ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মানববন্ধন
সরকারের সঙ্গে আলোচনার জন্য হোয়াইট হাউজের কর্মকর্তারা ঢাকায়
সরকারের সঙ্গে আলোচনার জন্য হোয়াইট হাউজের কর্মকর্তারা ঢাকায়
ইউক্রেন যুদ্ধ থেকে যা শিখেছে পেন্টাগন
ইউক্রেন যুদ্ধ থেকে যা শিখেছে পেন্টাগন
মার্কিন প্রতিনিধি দলের সঙ্গে মির্জা ফখরুলের বৈঠক
মার্কিন প্রতিনিধি দলের সঙ্গে মির্জা ফখরুলের বৈঠক
মার্কিন প্রতিনিধি দলের তৎপরতায় নজর রাখছে আ.লীগ
মার্কিন প্রতিনিধি দলের তৎপরতায় নজর রাখছে আ.লীগ